Wednesday 23rd of October 2019 06:16:22 AM

চুনারুঘাট প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জর চুনারুঘাট উপজেলার সীমান্ত এলাকা দুধপাতিল গ্রামের মুহুরী ছড়ার অদুরে সাল বাগান থেকে তামান্না আক্তার  প্রিয়া  (১৪) নামের এক কিশোরীর  লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সে গাজীপুর ইউনিয়নের দুধপাতিল গ্রামের আঃ হান্নানের মেয়ে।

তামান্নার পিতা মুদি ব্যবসায়ী হান্নান মিয়া জানান আমি প্রতিদিনের ন্যায় দোকানে চলে আসি সোমবার রাত অনুমান ৮টার সময় হটাৎ তার ভাবী জুবেদা খাতুন ফোন দিয়ে জানায় তামান্নাকে খুজে পাওয়া যাচ্ছেনা এরপর তিনি তড়িগড়ি করে দোকান বন্ধ করে তামান্নাকে খুজতে বের হন।

পিতা হান্নান তার আত্মীয় স্বজনসহ সম্ভাব্য স্থানে খোঁজাখুঁজি করে তাকে কোথাও পাওয়া যায়নি। (৮অক্টোবর) মঙ্গলবার ১১টায়  দুধপাতিল মহুরী ছড়ার পাশে বন্দের বাজার পশ্চিমে সালবাগানে একটি মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় লোকজন পুলিশকে খবর দেয়।

খবর পেয়ে চুনারুঘাট থানার এস আই মোস্তফা কামালের নেতৃত্বে একদল পুলিশ স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় মৃত দেহটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। সংবাদ পেয়ে মাধবপুর সার্কেল সহকারী সিনিয়র পুলিশ সুপার মোঃ নাজিম উদ্দিন ও চুনারুঘাট থানার ওসি শেখ নাজমুল হক  ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, আঃ হান্নানের দুটি সন্তান সাত বছরের ছোট ছেলে ও তামান্নাকে  বাড়িতে একা ফেলে মাতা সেলিনা বেগম দালাল চক্রের মাধ্যমে দেড় বছর পুর্বে  জীবিকা নির্বাহের জন্য সৌদি আরব চলে যান। এর পর থেকে একা হয়ে পড়ে তার দুটি সন্তান বাবা আব্দুল হান্নান সবসময় থাকেন বাহিরে তাদের দেখার মত কেহ নেই ।

একদিকে পিতার ব্যস্ততা আর মাতা প্রবাসে থাকায় তারা দুজন অসহায় হয়ে পড়ে।

অপর একটি সুত্রে জানায়, তামান্নাকে বিদেশ পাঠাতে ছেয়েছিল তার পরিবারের লোকজন, এ নিয়ে তার পরিবারে দেন দরবার চলে আসছিল । বিষয়টি নিয়ে  স্থানীয়দের মাঝে চলছে নানা প্রশ্ন,  কেউ বলছেন বিদেশ পাঠানোর নামে তাকে কোন  দালাল চক্র  ধর্ষনের পর হত্যা করতে পারে,  আবার  কেউ বলছেন কোন প্রেম গঠিত বিষয় নিয়ে এ ঘটনা হতে পারে । এনিয়ে উপজেলায় চলছে নানা গুঞ্জন।

চুনারুঘাট থানার ওসি শেখ নাজমুল হক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে মেয়েটিকে ধর্ষনের পর শ্বাসরোদ্ধ করে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় আমরা তিন জনকে আটক করেছি ,  জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। মামলার তদন্তকারী  কর্মকর্তা এস আই শেখ আলী আজহার জানান, তামান্নার সুরতহাল রিপোর্টে প্রাথমিক অবস্থায় ধর্ষনের আলামত ও তার বাম গালে কামড়ের দাগ রয়েছে। লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে ।ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে ঘটনার মুল রহস্য উদঘাটন করা সম্ভব হবে এবং আমাদের তদন্ত অব্যাহত থাকবে।

কলেজ দ্রুত বাস্তবায়নের দাবী জানান বৃষ্টলে বসবাসরত মৌলভীবাজার জেলাবাসীরা। 

খায়রুল আলম লিংকন: বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা ও আনন্দঘন পরিবেশে চদের নিয়ে নবগঠিত মৌলভীবাজার জেলা সমিতি এর আয়োজনে প্রথম বারের মত অতিসম্প্রতি বৃষ্টলের কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়েছে ঈদপুনর্মিলনী ও মৌলভীবাজার জেলাবাসীর মিলন মেলা।
বিশিষ্ট সাংবাদিক খায়রুল আলম লিংকন ও যুবসংগঠক সৈয়দ আখলাকুল আম্বিয়া রাবেল এর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতেই পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন হাফেজ মৌলানা লুৎফুর রহমান মিয়া ও পরে বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত পরিবেশন করেন লন্ডন থেকে আগত শিল্পীবৃন্দ সহ উপস্থিত মৌলভীবাজারবাসী।আয়োজকদের পক্ষ থেকে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করে অনুষ্ঠানের সুচনা করেন কমিউনিটি লিডার সৈয়দ আবু সাঈদ আহমদ। কেক কাটার মাধ্যমে মৌলভীবাজার জেলা সমিতি এর অনুষ্ঠানিক শুভ উদ্বোধন করেন সমিতির সংগঠক, আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ সহ স্থানীয় মুরব্বী বৃন্দ।অনুষ্ঠানে আগত অতিথিদের মধ্যে অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ থেকে আগত সাপ্তাহিক জনপ্রত্যাশার সম্পাদক বিশিষ্ট সাংবাদিক ডাঃ ছাদিক আহমদ, গ্রেটার সিলেট ডেভলাপমেন্ট এন্ড ওয়েলফেয়ার কাউন্সিল ইউকে এর সাবেক সভাপতি বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী নুরুল ইসলাম মাহবুব,ও মৌলভীবাজারে সরকারি মেডিকেল কলেজ চাই ওয়ার্লড ওয়াইড ক্যাম্পেইন হোয়াটস আ্যপ গ্রুপের এডমিন বিশিষ্ট সাংবাদিক মোহাম্মদ মকিস মনসুর সহ প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।
মৌলণীবাজার জেলা সমিতি এর উদ্দ্যোগে আয়োজিত এ মিলন মেলায় যুক্তরাজ্যের সাউথ ওয়েষ্টের বিভিন্ন শহরে বসবাসকারী মৌলভীবাজারবাসী সহ বৃটেনের অন্যান্য শহর এর বাসিন্দারা স্ব-পরিবারে উপস্থিত হন। অনুষ্টানস্থলে ছিল মিলনের আমেজ, অনেকদিন পর একে ওপরকে দেখে জড়িয়ে ধরে আবেগ আপ্লুত হয়ে পরেন রুমন্থন করেন ফেলে আসা অতীত।

মৌলভীজার জেলা সমিতি গঠনের উদ্দেশ্য তুলে ধরে এক প্রশ্নের জবাবে সংগঠনের সংগঠক ও আয়োজকবৃন্দ বলেন,জেলার আর্থ সামাজিক উন্নয়ন, যুক্তরাজ্যের সাউথ ওয়েষ্টে এর বিভিন্ন শহরে বসবাস কারী মৌলভীবাজারবাসীর মধ্য সম্পর্কবৃদ্ধি ও নতুন প্রজন্মের কাছে মৌলভীবাজার জেলা তথা বাংলাদেশকে তুলে ধরার জন্য এ সংগঠন কাজ করবে।ঈদ পুনর্মিলনীতে অংশ নেয়ায় মৌলভীবাজার জেলা সমিতির সংগঠকদের পক্ষ থেকে আগত সবাইকে ধন্যবাদ জানানো সহ এরকম অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য মৌলভীবাজার জেলা সমিতির সংগঠকদের আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, সংগঠনটি জেলার আর্থ সামাজিক উন্নয়নে , ও যুক্তরাজ্যের সাউথ ওয়েষ্টের বিভিন্ন শহরে বসবাসরত মৌলভীবাজারবাসীর তথা মৌলভীবাজার জেলাবাসীর সাহায্যার্থে কাজ করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন ।মৌলভীবাজারে সরকারি মেডিকেল কলেজ চাই ওয়ার্লড ওয়াইড ক্যাম্পেইন হোয়াটস আ্যপ গ্রুপের এডমিন সাবেক ছাত্রনেতা মোহাম্মদ মকিস মনসুর তার বক্তব্যে মৌলভীবাজার সরকারী মেডিকেল কলেজদ্রুত বাস্তবায়নের জন্য চুড়ান্ত অনুমোদন প্রদানের জন্য অনুষ্ঠান থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নিকট জোড়ালো দাবী জানান।

অনুষ্ঠানে আগত বিলেতে বেড়ে ওঠা নতুন প্রজন্মের মধ্যে মৌলভীবাজার জেলা ও জেলার দর্শনীয় স্থান সমুহের সাথে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার জন্য প্রামান্য চিত্রের মাধ্যমে মৌলভীবাজার জেলাকে তুলে ধরা হয়। অনুষ্ঠানে ছিল শিশুদের জন্য চিত্রাংকন, কিশোরদের জন্য ক্যুইজ প্রতিযোগিতা ও বাউন্সিক্যাসলের ব্যবস্থা করা হয়েছে। যুবসংগঠক সালা উদ্দিন সবুজ ও যুব সংগঠক এমদাদুর রহমান রাসেল এর পরিচালনায় ক্যুইজ ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় সার্বিক সহযোগীতা করেন শাহনাজ চৌধুরী, মাহমুদা আলম দীনা ও নিলীমা মিয়া। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহনকারীদের মধ্য থেকে প্রথম স্থান বিজয়ি সাবিনা রহমান, দ্বিতীয় স্থান বিজয়ি আতিফ রহমান ও তৃতীয় স্থান বিজয়ি জাইন আমিন ও ক্যুইজ প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান বিজয়ি জেরিন জয়ি জাইন আমিন, তৃতীয় স্থান বিজয়ি রোজিনা আমীনকে মৌলভীবাজার জেলা সমিতির পক্ষথেকে ট্রফি পুরস্কার প্রদান করা হয়।অনুষ্টানের সার্বিক সহযোগীতায় ছিলেন দিলদার মিয়া, সাইদ বকস, মুহিবুর রহমান, সৈয়দ শাহিন আহমদ, মোহিদুর রহমান, আব্দুল কাইয়ুম, সানোয়ার হোসেইন, জুনেদ আহমদ, নুর মোহাম্মদ শোয়েব, জাবেদ আহমদ, জাহাঙ্গীর আহমদ, আব্দুররব মাসুক প্রমুখ। মধ্যাহ্ন ভোজন শেষে শেষ পর্বে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠনে সংগীত পরিবেশন করেন বিলেতের স্বনামধন্য সংগীত শিল্পী শতাব্দী কর,অমিত দে ও পাপ্পু রাজ।

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে কমিউনিটির বিশিষ্ট ব্যাক্তিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নজরুল ইসলাম মুকুল, আজাদুর রহমান,আনফরুল ইসলাম,খলিল মিয়া, মোহাম্মদ মনির, শেখ শাহজাহান তরফদার, জয়নাল হোসেন, মৌলানা সৈয়দ মুয়াইদুল ইসলাম, মখলিছ আলী,মোসলেহ আহমদ, হাবিব মিয়া, মশাহিদ আহমদ, মতিউর রহমান লিটন, আলী রাজা, কাইয়ুম খান, হারুন আল রশীদ প্রমুখ অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফয়ছল আহমদ, সামসুল হক, এ এইছ এম মুকতাদির, সানাউল হক, দেওয়ান জয়নাল হোসেন , মো: জয়নাল আহমদ, জসিম আহমদ, কায়েস উর রহমান, আবু আক্কাস আনসারী (মোস্তাক), ইলিয়াছুর রহমান (আশিক),সৈয়দ সামি আহমদ, সৈয়দ আজরফ আলী (ফুয়াদ), কে জি এম আসাদুর রহমান, মোয়াজ্জিম হোসেন মঈনুল, শাহেদ আহমদ, আব্দুল আজিজ, আজিজ মিয়া, করিম মিয়া শামিম, খালেদ মিয়া (রুমান),আনিছ মিয়া, রুহুল আমীন, রিপন আহমদ, মারুফ চৌধুরী, জুনেদ আহমেদ, শাহজাহান আহমদ, মোহাম্মদ হোসাইন, নেছার আলম মনির, আব্দুল কাইয়ুম, শাকিল আহমেদ, পাপলু বকস প্রমুখ।।

প্রতি বছর চারটি সার্ভিস দেওয়ার সীদ্ধান্ত

লিমন ইসলাম: বৃটেনের ওয়েলসের রাজধানী কার্ডিফ শহরের দি হ্যাভ কমিউনিটি সেন্টারে গত শনিবার সকাল ১১ টা থেকে বিকাল ৪ টা অবধি বিপুল সংখ্যক জনসাধারণের অংশগ্রহণে ও ওয়েলস বাংলাদেশ কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের সহযোগিতায় বামিংহামস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনের মাধ্যমে কনসূলার সার্ভিস সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে.। এতে বামিংহামস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনের সহকারী হাইকমিশনার হিজ এক্সেলেন্সি মোহাম্মদ নাজমুল হক. হাইকমিশনের ফাস্ট সেক্রেটারি মোহাম্মদ রেজাউল করিম. হাসান মোহাম্মদ হুমায়ুন কবির. সাইফুল ইসলাম. মাহবুব আলম পাটোয়ারী. হূমায়ূন কবীর ও মুসলিমা আক্তার উপস্থিত থেকে সার্ভিস প্রদান করেছেন । এবারকার সার্ভিসে প্রায় ৩ শতাধিক লোক তাদের পাসপোর্ট রিনিও নো ভিসা প্রসেসিং.পাওয়ার অব এট্রোনি সহ নানা কনসূলার সেবা গ্রহণ করেছেন বলে ওয়েলস বাংলা নিউজের এডিটর ও কমিউনিটি লিডার মোহাম্মদ মকিস মনসুর জানিয়েছেন।
এবারকার সাভিস চলাকালে কার্ডিফ ইন্টারন্যাশনাল মাদার ল্যাংগুয়েজ মনুমেন্ট তথা শহীদ মিনার ফাউন্ডার ট্রাষ্ট কমিটির চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আনোয়ার আলী.কার্ডিফ কাউন্টি কাউন্সিলার আলহাজ্ব আলী আহমদ. ওয়েলস আওয়ামীলীগের সেক্রেটারি আলহাজ্ব এম এ মালিক. গ্রেটার সিলেট ডেভোলাপমেন্ট এন্ড ওয়েলফেয়ার কাউন্সিল সাউথ ওয়েলসের সহ সভাপতি আলহাজ্ব আসাদ মিয়া. ওয়েলস যুবলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি আবুল কালাম মুমিন. ওয়েলস তাতী লীগের সভাপতি জামাল আহমদ বকুল ও সেক্রেটারি জহির আক্তার আলী. ওয়েলস ছাত্রলীগের সভাপতি বদরুল হক মনসুর ও সেক্রেটারি শাজাহান তালুকদার শাওন. যুব সংগঠক বাদল আহমদ ও নাসির উদ্দিন চৌধুরী সহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।।
বামিংহামস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনের সহকারী হাইকমিশনার মোহাম্মদ নাজমুল হক আজকের সার্ভিসে সাংবাদিক মকিস মনসুর সহ কমিউনিটির যারা সহযোগিতা করেছেন সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন কার্ডিফ তথা ওয়েলসে বসবাসরত আমাদের কমিউনিটির লোকজন খুউব আন্তরিক ও সুন্দর পরিবেশ এবং সুশৃঙ্খলভাবে কনসূলার সার্ভিস গ্রহণ করেছেন এতে আমাদের দায়িত্তশীলরা ও উৎফুল্ল আনন্দিত ছিলেন বলে উল্লেখ করে তিনি আগামী দু’মাস পর কার্ডিফের
পরবর্তী কনসূলার সার্ভিস প্রদানের প্রতিস্রতি ব্যাক্ত করেছেন। এদিকে ওয়েলস বাংলাদেশ কমিউনিটির পক্ষ থেকে কার্ডিফ শাহজালাল বাংলা স্কুল কমিটির জেনারেল সেক্রেটারি সাংবাদিক মোহাম্মদ মকিস মনসুর আগামীতে কার্ডিফে চারটি সার্ভিস প্রদানের জন্য অনুরোধ জানালে বামিংহামস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনের সহকারী হাইকমিশনার মোহাম্মদ নাজমুল হক সাহেব সম্মতি প্রদান করায় কমিউনিটি নেতৃবৃন্দ ওয়েলসবাসীর পক্ষ থেকে সহকারী হাইকমিশনারকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

নড়াইল প্রতিনিধিঃ সনাতন ধর্মবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় অনুষ্ঠান শারদীয় দুর্গোৎসবের সোমবার মহানবমি পূজাঁ বিপুল উৎসাহ উদ্দিপনার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। শহরের মিতালী সংঘ, টাউন কালীবাড়ি, রুপগঞ্জ বাজার কালীবাড়ি, বাধাঁঘাট পূজাঁ মন্ডপ, মহিষখোলা,চরের ঘাট, সূর্য্যসেন ক্লাবসহ জেলার বিভিন্ন পূজাঁ মন্ডপে নবমী পূজাঁ অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিটি পূজাঁ মন্ডপে বিভিন্ন বয়সী নারী-পুরুষের ভিড় ছিল লক্ষনীয়।

পূজাঁ উপলক্ষ্যে শহরের রুপগঞ্জ বাজার কালীবাড়ী দূর্গা পূঁজা মন্দির চত্বরে দুস্থদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ করা হয়। ২ শতাধিক দুঃস্থ মানুষের মাঝে শাড়ি ,লুঙ্গি ও ধুতি বিতরণ করা হয়।জেলা প্রশাসক আনজুমান প্রধান অতিথি হিসাবে দুঃস্থদের মাঝে বস্ত্র বিতরণ করেন ।

মন্দির কমিটির সভাপতি নির্মল কুমার দাশের সভাপতিত্বে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিমউদ্দিন পিপিএম (বার),মন্দির কমিটির সাধারন সম্পাদক অলোক কুমার কুন্ডু , যুগ্ম সম্পাদক তুষার সাহা, দিলীপ কুমার রায়,মন্দির কমিটির কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

গতকাল বিকেলে প্যারিসের একটি অভিজাত হলে ইউনাইটেড কুলাউড়া অ্যাসোসিয়েশন ফ্রান্স এর অভিষেক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সাংবাদিক আবুল কালাম মামুনকে  অল ইউরোপিয়ান বাংলা প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ নির্বাচিত হওয়ায় ফুলের শুভেচ্ছা ও সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলা‌দেশ অ্যাসোসিয়েশন ফ্রান্সের আহবায়ক সালেহ আহমেদ চৌধুরী, বি‌শেষ অ‌থি‌তি বঙ্গবন্ধু পরিষদ ফ্রান্সের সাধারন সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম ও ইউরো‌ভিশন ডট কমের  নির্বাহী সম্পাদক ফ্রান্সের সি‌নিয়র সাংবা‌দিক আব্দুল মান্নান আজাদ, ফ্রান্স বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপ‌তি এনায়েত  হোসেন সোহেল, ইউনাইটেড কুলাউড়া অ্যাসোসিয়েশন ফ্রান্সে এর সভাপতি সাইফুল ইসলাম, সেক্রেটারি শাকিল চৌধুরী এবং সাংগঠনিক সম্পাদক জুয়েল মাহমুদ ও স্থায়ী কমিটির সদস্য মামুনুর রশিদ , জাকির আহমদ,  এ ম এ জুয়েল, হোসেন কামাল, লিমন চৌধুরি, আব্দুস সামাদ ,জাকির হোসেন ,জুসেফ,ফুয়াদ আব্দুল্ আউয়াল আজাদ প্রমূখ।

এসময় তারা বলেন, আমাদের দেশের তরুণ এবং যুবক সাংবাদিকরা সুযোগ পেলে অসাধ্য সাধন করতে পারে। তরুণদের মেধাকে শক্তিতে পরিণত করতে হবে। আমাদের মেধাবীদের বের করে আনতে হবে। তরুণদেরও অধ্যাবসায়ের মাধ্যমে নিজেদের সৃষ্টিশীল ও উদ্ভাবনী চিন্তার প্রসার ঘটিয়ে যেতে হবে বস্তুনিষ্ঠ এবং তথ্য ভিত্তিক সংবাদ পরিবেশনের মাধ্যমে দেশ এবং জাতির কল্যাণে নিজেকে নিয়োজিত করতে হবে তাহলেই  আমরা কুলাউড়াবাসী আপনাদের নিয়ে গর্ব করতে পারব এবং বিদেশের মাটিতে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবো।

আমা‌দের ফ্রান্স প্রবাসী মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়ারই সন্তান মোঃ আবুল কালাম মামুন   ইউরো‌পে বাংলা‌দেশী সাংবা‌দিক‌দের সমন্ব‌য়ে বৃহৎ সংগঠন অল ইউরো‌পিয়ান বাংলা প্রেসক্লা‌বের কোষাধ্যক্ষ্য  নির্বা‌চিত হওয়ায় তাহাকে ও তাহার সংগঠ‌নের সবার প্র‌তি শুভ কামনা করেন আগত অ‌তি‌থি বৃন্দ।

বুয়েট’র মেধাবী ছাত্র আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় ১৯ জনকে আসামি করে থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। আবরার ফাহাদ বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) এর শিক্ষার্থী।সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর চকবাজার থানায় ফাহাদের বাবা বরকত উল্লাহ বাদী হয়ে এ মামলা করেন।এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখা ছাত্রলীগ থেকে ১১ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করেছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

চক বাজার থানার পুলিশ বলছে, ফাহাদ হত্যা মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে বুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেলকে। আর দুই নম্বর আসামি হলেন- বুয়েট ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মুহতাসিম ফুয়াদকে। মামলার অন্য আসামিদের মধ্যে বুয়েট ছাত্রলীগের ক্রীড়া সম্পাদক মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অনিক সরকার ও ছাত্রলীগকর্মী বুয়েটের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র তানভীরুল আবেদীন ইথান, জিসান ও মুন্নার নাম পাওয়া গেছে।

এদিকে, আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় বুয়েট প্রশাসনের পক্ষ থেকে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) দায়ের আর তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. মো. সাইদুর রহমানের সই করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ৬ অক্টোবর দিবাগত রাতে শেরে বাংলা হলের ১০১১ নম্বর রুমের আবাসিক শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের ‘অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যু’র ঘটনায় চকবাজার থানায় জিডি করা হয়েছে। জিডি’র ধারাবাহিকতায় পুলিশ এরই মধ্যে তদন্ত শুরু করেছে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, সংঘটিত অনাকাঙ্ক্ষিত ও দুঃখজনক ঘটনার বিষয়ে ৭ অক্টোবর সকাল ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভিন্ন বিভাগের প্রধান, পরিচালক, প্রাধ্যক্ষ, রেজিস্ট্রার ও সিনিয়র শিক্ষকদের নিয়ে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের সিনিয়র শিক্ষকদের সমন্বয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

আবরার হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীকে তদন্ত কার্যক্রমে সহযোগিতা করার অনুরোধ জানানো হয় এই বিজ্ঞপ্তিতে।

বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি খন্দকার জামিউশ সানি স্বীকার করেছেন, বুয়েট ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা এতে জড়িত রয়েছেন। তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়ও জানিয়েছেন, এ ঘটনা ‘তদন্ত’ করতে কমিটি গঠন করেছে ছাত্রলীগ। তিনি বলেন, আবরার হত্যায় ছাত্রলীগের কেউ বিন্দুমাত্র জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আবরারকে হত্যার ঘটনায় এ পর্যন্ত বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের ৯ নেতাকে আটক করেছে পুলিশ। তারা হলেন, বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফুয়াদ, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এবং মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী অনিক সরকার, ক্রীড়া সম্পাদক ও নেভাল আর্কিটেকচার অ্যান্ড মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের একই বর্ষের মেফতাহুল ইসলাম জিয়ন এবং ছাত্রলীগ নেতা রবিন, মুন্না, তানভীরুল আরেফিন ইথান, অমিত সাহা ও আল জামি।

ভোর ৪টার দিকে বুয়েটের শেরে বাংলা হলের সিঁড়ির নিচ থেকে আবরারের নিথর দেহ উদ্ধার করেন শিক্ষার্থীরা। বুয়েটের তড়িৎকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার থাকতেন শেরে বাংলা হলের ১০১১ নম্বর রুমে। হলের শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, রোববার (৬ অক্টোবর) রাতে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আবরারকে ২০১১ নম্বর রুমে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছেন।

এ ঘটনায় সারাদিন বিক্ষুব্ধ ছিল বুয়েট ক্যাম্পাস। সহপাঠীকে হত্যার বিচারের দাবিতে দিনভর বিক্ষোভ করেছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। সন্ধ্যায় ঢাকা মহানগর পুলিশের দুই অতিরিক্ত কমিশনার ক্যাম্পাসে গেলে আবরার হত্যার ঘটনার সংশ্লিষ্ট সিসিটিভি ফুটেজের দাবিতে শিক্ষার্থীরা তাদের দুই ঘণ্টারও বেশি সময় অবরুদ্ধ করে রাখেন। পরে শিক্ষার্থীদের কাছে ফুটেজ হস্তান্তর করে তবেই ছাড়া পান পুলিশের দুই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীরা হলেন- বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদি হাসান রাসেল, যুগ্ম-সম্পাদক মুহতাসিম ফুয়াদ, সাংগাঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান রবিন, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক অনিক সরকার, ক্রীড়া সম্পাদক সেফায়েতুল ইসলাম জিওন, সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনির, উপ-সমাজসেবা সম্পাদক ইফতি মোশাররফ সকাল, উপদফতর সম্পাদক মুজতবা রাফিদ, ছাত্রলীগ সদস্য মুনতাসির আল জেমি, মুজাহিদুর রহমান ও এহতেমামুল রহমান রাব্বি।

এ বিষয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি (ভারপ্রাপ্ত) আল-নাহিয়ান খান  বলেন, ‘আমরা যে তদন্ত কমিটি গঠন করেছি, সেই তদন্ত কমিটি প্রাথমিকভাবে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে ১১ জনের জড়িত থাকার প্রমাণ পেয়েছে। তাদের সাংগঠনিকভাবে ছাত্রলীগ থেকে তাদের স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। পরবর্তীতে তদন্তে এ ঘটনার সাথে কারো সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়, তাদের বিরুদ্ধেও সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কেউ যদি ব্যক্তিগতভাবে কোনো অপরাধ করে থাকে তার দায়ভার সংগঠন তথা বাংলাদেশ ছাত্রলীগ নেবে না।’

একইসঙ্গে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনতে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন ছাত্রলীগ সভাপতি।

রোববার দিবাগত রাত ৪টার দিকে বুয়েটের শেরে বাংলা হলের দ্বিতীয় তলা থেকে আবরারের মরদেহ উদ্ধার করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। পরে সোমবার ১৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc