Wednesday 23rd of October 2019 06:51:18 AM

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ যাদুকাটা নদীর বুক থেকে বেলছা,টুকড়ি ও দেশীয় যন্ত্রপাতি দিয়ে বালু ও পাথর উত্তোলন করে যুগযুগ ধরে জীবিকা নির্বাহ করছে সীমান্তবর্তী গ্রাম ও আশ পাশের অর্ধশাতাধিক গ্রামে ৫০হাজারের বেশি নারী ও পুরুষ শ্রমিক। কিন্তু দু-সাপ্তাহ ধরে বিশাল এখন জনশূন্য এ নদীতে নেই শ্রমিকদের হইহুল্লু আর র্কমযজ্ঞ ব্যস্থতার ছাপ,শুনসান নিরাবতা বিরাজ করছে চারদিকে। একমাত্র উপার্জনের প্রধান অবলম্বন জাদুকাটা নদীতে কাজ করতে না পারায় শ্রমিকরা বেকার হয়ে মানবেত জীবন যাপন করছে। শ্রমিকদের মাঝে হাহাকার বিরাজ করছে। নদীতে চারদিকে বারকি নৌকাসহ বিভিন্ন নৌকা ঘাটে লাগানো আছে।
সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর উপজেলার সীমানন্তবর্তী যাদুকাটানদীতে সরজমিনে গিয়ে এমনই দৃশ্য দেখা যায়। স্থানীয় কিছু সংঘবদ্ধ লোক নানান ভাবে সরকার ও স্থানীয় প্রশাসনকে ভুল তথ্য দিয়ে বিভ্রান্ত করছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এদিকে বালু ও পাথর উত্তোলণ বন্ধ থাকায় শ্রমিকরা যেমন দূবিসহ জীবন যাপন করছে,তেমনি সরকারও হারাচ্ছে কোটি কোটি টাকার রাজস্ব। কারন এখানকার বালু ও পাথরে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে যায়। নদীর বুক থেকে বালু ও পাথর উত্তোলনের কাজ আবার চালু হবে এমনটাই আশা করছেন সবাই।
নদীতে বালু ও পাথর বন্ধ থাকার কারন হিসাবে বাদাঘাট ইউনিয়নের গড়কাটি গ্রামের বালু ও পাথর উত্তোলনের কাজে দিন মুজুর শ্রমিক মুজিবুর রহমান জানান,গত এক মাস পূর্বে নদীর পাড়কাটা,চাঁদাবাজিসহ মিথ্যা ও নানান কল্পকাহিনী উল্লেখ্য করে সংবাদ প্রকাশের পর স্থানীয় প্রশাসন নদীতে কাজ বন্ধ করে দিয়েছে। এরপর স্থানীয় এমপি,পুলিশ সুপারসহ সবাই এসে এর কোন সত্যতা পায় নি এরপরও বন্ধ রয়েছে। ফলে ৬সদস্যের পরিবার নিয়ে না খেয়ে বসবাস করছি। বার বার নদীতে শকুনের চোখ যে না পরে নদীতে কাজ করে যেন খেতে পারি তার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদৃষ্টি কামনা করছি। না হলে না খেয়ে বৌ,ছেলে মেয়ে নিয়ে পথে বসতে হবে।

গড়কাটি গ্রামের আরেক নারী শ্রমিক হাছিনি বেগম(৩৬)। পরিবারের একমাত্র উপার্যনশীল ব্যক্তি। স্বামী থেকেও নেই। ৬জনের মুখ তার দিকেই তাকিয়ে থাকে খাবারের আশায়। কিন্তু একমাস ধরে নদীতে কাজ করতে না পারায় ঘরে থাকা টাকা ও খাবার সব শেষ হয়েছে। খেয়ে না খেয়ে দিন পার করছেন তিনি। তার দাবী দ্রুত যাদুকাটা নদীতে কাজ চালু করার জন্য স্থানীয় সংসদ সদস্য,জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের সুদৃষ্টি কামনা করেন।

জামবাগ(জয়পুর)গ্রামের মাকসুদা বেগম(৪০)নারী শ্রমিক জানান,কাজ নাই তাই ৫জনের সংসারে বোঝা মাথায় নিয়ে বাড়িতে বসে আছি। নদীতে কাজ নেই ঘরে জমানো টাকাও শেষ কি ভাবে চলব বোঝতে পারছি না। আমরা নদীতে কাজ করে সারাদিন ৫-৬শতটাকা উপার্জন হয় তা দিয়ে জীবন বাচেঁ সংসার চলে। কাজ না করলে না খেয়ে থাকতে হয়। এখন কাজ নাই কোথায় কাজ পাব। নদীতে কাজ করার সুযোগ দেওয়া দাবী জানাই।

বালু ব্যবসায়ী ও শ্রমিক সমিতির সভাপতি আব্দুস শাহিদ জানান,প্রাকৃতিকভাবে জেগে ওঠা এনদীর বুক থেকে যুগযুগ ধরে শ্রমিকরা বালি ও পাথর উত্তোলন করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছে। পাথর উত্তোলনের কাজে ড্রেজার বা বোমা মেশিন ব্যবহার হচ্ছে না,যাতে পরিবেশের ওপর প্রভাব পড়তে পারে। শুধু ছোট সেইভ মেশিন(নদীর বুক থেকে মাটি সরিয়ে বালি ও পাথর উত্তোলন কাজে সহায়ক যন্ত্র)ব্যবহার হচ্ছে। তা বন্ধ করায় এখন বালু ও পাথর উত্তোলন করা যাচ্ছে না। ফলে কাজ বন্ধ রয়েছে। ব্যবসায়ীরাও মারাতœক ক্ষতির শিকার হচ্ছে। এলাকায় হাজার হাজার শ্রমিক কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। জেলা প্রশাসক,পুলিশ সুপারসহ সবার সুদৃষ্টি কামনা করছি।

তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আতিকুর রহমান জানান,নদীতে কোন প্রকার চাঁদাবাজি ও নদীর পাড় কাটা হয় না। সব কিছুই পূর্বেও বন্ধ ছির এখনও আছে। নির্দিষ্ট নিয়মের মধ্যে যাদুকাটা নদীতে শ্রমিকদের সবাইকে কাজ করতে হবে। আর কোন প্রকার অন্যায় আর অনিয়ম ছাড় দেওয়া হবে না। কঠোর হাতে দমন করা হবে।

তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান করুনা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল বলেন,হাজার শ্রমিক নদীতে কাজ করতে না পারলে মানবেতর জীবন যাপন করবে। কাজ কবে তবে সরকারী নীতিমালা মধ্যে থেকে এতে কোন বাধা নেই। সবাইকে নদীর পাড় কাটা ও ড্রেজার বন্ধে নজরদারী রাখতে হবে।

”আমার বিরুদ্ধে প্রকাশিত অভিযোগের প্রমান খুঁজে পাবেন না দাবী চুনুর”

 

জুড়ী (মৌলভীবাজার) সংবাদদাতাঃ মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলা শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মতিউর রহমান চুনু জুড়ী উপজেলা প্রেস ক্লাবে শনিবার (৫/১০) এক সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করে বলেন, গত ৯ সেপ্টেম্বর জুড়ী থানা পুলিশের উদ্যোগে মাদক, জঙ্গিবাদ, ইভটিজিং জনসচেতনতাসহ আইন শৃঙ্খলা বিষয়ক এক মতবিনিময় সভা উপজেলা জনমিলন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় মৌলভীবাজার জেলার নবাগত পুলিশ সুপার ফারুক আহমদ পিপিএম (বার) কে ফুলের তোড়া উপহার দিয়ে বক্তব্য রাখেন তিনি। তার এই ফুলেল তোড়া দেয়ার ছবি দিয়ে সিলেটের একটি দৈনিক পত্রিকায় একটি সংবাদ প্রকাশ করা হয়।

সংবাদে অসত্য ও মিথ্যা তথ্য দিয়ে মনগড়া কাহিনী প্রকাশ করা হয়েছে। একজনকে ভূয়া আবেদনকারী সাজিয়ে একটি আবেদনপত্র মৌলভীবাজার পুলিশ সুপারের কার্য্যালয়ে প্রেরন করে একটি মহল। তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ এহেন ন্যাক্কার জনক কাজটি করিয়েছেন বলে দাবী করেছেন তিনি। মূলত বিএনপির রাজনীতি ছেড়ে সদ্য আওয়ামীলীগে যোগদানকারী জুড়ীর কতিপয় নেতা আওয়ামীলীগের প্রিয় পাত্র হওয়ার মানসে তার চরিত্র হননের মিশন নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।

জুড়ী উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও শ্রমিক ইউনিয়ন নেতা চুনু বলেন, আমার বিরুদ্ধে প্রকাশিত অভিযোগের প্রমান খুঁজে পাবেন না। রাজনীতি করতে গিয়ে আজ নানামুখী চক্রান্তের শিকার আমি। এজন্য ভূয়া তথ্য দিয়ে সাংবাদিকদের বিভ্রান্ত করেছে এই মহলটি। তিনি তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের বিষয়ে বিচার বিভাগীয় ও পুলিশি তদন্ত দাবী করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শ্রমিক ইউনিয়নের সিনিয়র সহ-সভাপতি ফয়জুল ইসলাম কালা, সাধারন সম্পাদক মাসুক আহমদ, সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম, লাইন সুপারভাইজার মবশ্বির আলী ও ক্যাম্প চত্ত¦র সভাপতি নানু মিয়া প্রমুখ।

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ  গতকাল শনিবার  রাত ৯ টার সময় শ্রীমঙ্গল মৌলভীবাজার সড়কের ইছবপুর দুর্গাবাড়ির প্রবেশদারে শুভ্র দেব এর বাড়ির সামনে থেকে চুরি হওয়া মোটরসাইকেলটি চুরির অভিযোগে চোর সন্দেহে একজনকে আজ সকাল ৯ টার সময়  স্থানিয় থানার পুলিশ আটক করে, এ সময় পুলিশের নিকট স্বীকারোক্তি প্রদান করেছে বলে জানা গেছে।

সাইকেলের মালিক বিনয় দেব, পিতা কিরেশ দেব ,গ্রাম ইছবপুর ,থানা  শ্রীমঙ্গল এর অভিযোগ থেকে জানা যায়-তিনি তার নিম্ন বর্ণিত মোটরসাইকেলটি  শ্রীমঙ্গল মৌলভীবাজার সড়কের ইছবপুর দুর্গাবাড়ির প্রবেশদারে শুভ্র দেব এর বাড়ির সামনে রাখা ছিলো। হিরো কোম্পানীর ১২৫ সিসি গ্লামার মোটরসাইকেলটি রঙ-নেভি ব্লো, নং-(মৌলভীবাজার -হ ১২-৪৮২০)  ইঞ্জিন নম্বার- jao6ejeglo9428, চেসিস নং-MBLJA06AHEGL00395. লক খুলে  চুরি করে নিয়ে যায়।

এ সম্পর্কে আরো বিস্তারিত সংবাদ আসছে……

পূর্বের লিংক দেখুন

শ্রীমঙ্গল থেকে ১২৫ সিসি গ্লামার হিরো মোটরসাইকেল চুরি

কমলগঞ্জ প্রতিনিধিঃ  শারদীয় দূর্গাপূজা উপলক্ষ্যে শনিবার মৌলভী বাজারের কমলগঞ্জে  খাদ্য সামগ্রী  ও  বস্ত্র  বিতরণ করা হয়েছে। এদিন  বিকাল  চারটায় উপজেলার  আদমপুর  সনাতন  ধর্ম  সার্বজনীন  সেবা  সংঘের   উদ্যোগে তিনশো  দুঃস্থ  মানুষের  মাঝে  খাদ্য ও বস্ত্র সামগ্রী  বিতরণ অনুষ্ঠানে  প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  জাতীয় সংসদের সাবেক  চীফ হুইপ  ডঃ আব্দুস শহীদ  এম. পি ।

অমিয় অধিকারীর  সভাপতিত্বে ও  রঞ্জিত অধিকারীর  সঞ্চালনায় এ অনুষ্ঠানে  বিশেষ  অতিথি ছিলেন কমলগঞ্জ  উপজেলা আওয়মী লীগের সভাপতি এম.মোসাদ্দেক আহমেদ মানিক, বি আর ডি বি চেয়ারম্যান ইমতিয়াজ আহমেদ বুলবুল, কমলগঞ্জ পৌর মেয়র  জুয়েল  আহমেদ, রহিমপুর  ইউপি চেয়ারম্যান  ইফতেখার আহমেদ  বদরুল,বদরুন নাহার ভ্ইঁয়া বালিকা বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সাব্বির আহমেদ ভ্ইঁয়া, কমলগঞ্জ  প্রেস ক্লাবের  সহ সভাপতি সাংবাদিক শাব্বির এলাহী প্রমুখ ।

সানিউর রহমান তালুকদার, নবীগঞ্জ থেকে: গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক ড. রেজা কিবরিয়া বলেছেন, ‘সারাদেশে শুদ্ধি অভিযানের নামে চুনো পুটিদের ধরা হচ্ছে, কিন্তু রাঘব-বোয়ালরা ধরা ছোয়ার বাহিরে রয়ে যাচ্ছে। ৪র্থ ও ৫ম শ্রেণীর দুর্নীতিবাজদের না ধরে ১ম, ২য় ও ৩য় শ্রেণীর দুর্নীতিবাজ ও তাদের গডফাদারদের ধরতে হবে। যখন হাজার হাজার কোটি টাকার ঋন খেলাপী, বড় বড় প্রকল্পে হাজার হাজার কোটি টাকার কমিশন নিয়েছে, শেয়ার বাজারে কেলেঙ্কারি করেছে তাদেরকে ধরলে তখন মনে হবে শুদ্ধি অভিযান। এখন যা হচ্ছে তা লোক দেখানো অভিযান।’

তিনি বলেন, ক্যাসিনো ব্যবসা, ইয়াবা ব্যবসা, চাঁদাবাজী, টেন্ডারবাজী, এগুলো শুধু আওয়ামীলীগেই সম্ভব। অন্য দলে এসব অবৈধ কর্মকান্ড করা সম্ভব নয়। শুক্রবার বিকেলে হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি বাজারস্থ স্বাদ এন্ড কোং নামক ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানে বসে স্থানীয় সাংবাদিকদের সাথে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বর্তমান সময়ের রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে একথা বলেন তিনি।

এসময় তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘বর্তমানে শুদ্ধি অভিযানে দুইশ, চারশ, পাচঁশ কোটি টাকা উদ্ধার করা হয়েছে এটা দেশের বাজেটের তুলনায় সামান্য ব্যাপার। তারা বিগত ১১ বছরে হাজার হাজার কোটি টাকা দেশের বাহিরে পাচার করে নিয়ে গেছে, এই টাকা কে উদ্ধার করবে ? এই টাকাগুলো উদ্ধার করা সম্ভব হলে দেশের উন্নয়নে ভালো কিছু কাজ করা যেত।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে রেজা কিবরিয়া আরও বলেন, ‘বর্তমান সরকার ইচ্ছে করেই খালেদা জিয়াকে কারাগারে বন্দি করে রেখেছে। তারা বলেছে বিএনপি আন্দোলন করলে খালেদা জিয়াকে ছেড়ে দেবে, এতে বুঝা যায় ইচ্ছে করেই এই বৃদ্ধা মানুষটাকে আটকে রেখেছে। চিকিৎসার স্বার্থে খালেদা জিয়াকে অচিরেই মুক্তি দেওয়া প্রয়োজন।

তিনি বলেন, বর্তমানে সময়ে যাই ঘটে সব কিছুতেই বিরুধীদলকে দায়ী করা হয়। সাম্প্রতিক সময়ে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত যখন সারাদেশ তখন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বলেছিলেন এটা বিরুধীদলের কাজ। এখন বাজারে পেয়াঁজের মূল্য বৃদ্ধিতেও তারা বিএনপিকে দায়ী করতে পারে এটা অস্বাভাবিক কিছু নয়।

এক প্রশ্নের জবাবে রেজা কিবরিয়া বলেন, “দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা খুবই খারাপ অবস্থায় রয়েছে বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, এ সরকার পাঁচ বছর ক্ষমতায় থাকতে পারবে বলে মনে হচ্ছে না। কিছু দিনের ভিতরেই মধ্যবর্তী নির্বাচন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।”

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ  মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল থেকে মোটর সাইকেল চুরি হয়েছে। আজ শনিবার  রাত ৯ টার সময় এ চুরির ঘটনা ঘটে। সাইকেলের মালিক বিনয় দেব, পিতা কিরেশ দেব ,গ্রাম ইছবপুর ,থানা  শ্রীমঙ্গল এর অভিযোগ থেকে জানা যায়-তিনি তার নিম্ন বর্ণিত মোটরসাইকেলটি শ্রীমঙ্গল মৌলভীবাজার সড়কের ইছবপুর দুর্গাবাড়ির প্রবেশদারে শুভ্র দেব এর বাড়ির সামনে রাখা ছিলো। হিরো কোম্পানীর ১২৫ সিসি গ্লামার মোটরসাইকেলটি রঙ-নেভি ব্লো, নং-(মৌলভীবাজার -হ ১২-৪৮২০)  ইঞ্জিন নম্বার- jao6ejeglo9428, চেসিস নং-MBLJA06AHEGL00395. লক খুলে কে বা কারা চুরি করে নিয়ে যায়।

উক্ত বিষয়ে শ্রীমঙ্গল থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। সাইকেলটির সন্ধান পেলে শ্রীমঙ্গল থানায় জানানোর জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc