Wednesday 23rd of October 2019 06:30:53 AM

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চার দিনের সরকারি সফরে নয়াদিল্লি পৌঁছেছেন। এ সফরে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক ও কয়েকটি চুক্তি সম্পাদনের পাশাপাশি বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) বিভিন্ন কমর্সূচিতেও অংশ নেবেন শেখ হাসিনা।ইরনা

আজ (বৃহস্পতিবার) সকাল সোয়া আটটায় প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ভিভিআইপি ফ্লাইট বিজি-২০৩০ নয়াদিল্লির উদ্দেশে ঢাকা ছেড়ে যায়। স্থানীয় সময় পৌনে ১০টার পর নয়াদিল্লির পালাম বিমান বাহিনী স্টেশনে পৌঁছায় ফ্লাইটটি। সেখানে তাকে স্বাগত জানান ভারতের নারী ও শিশুকল্যাণ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী। এসময় উপস্থিত ছিলেন ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী ও বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ। আনুষ্ঠানিকতা শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার সফরকালীন আবাসস্থল তাজমহল হোটেলে যান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন গতকাল জানান, শনিবার দিল্লিতে প্রতিবেশি দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে পানি বণ্টন, অসমের নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) এবং সীমান্তে নিরস্ত্র বাংলাদেশিদের হত্যা শূন্যে নামিয়ে আনাসহ বিভিন্ন বিষয় গুরুত্ব পাবে।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা ১৫ মিনিটে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইট প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীদের নিয়ে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে রওনা দেয়। 

সফরসূচি

আজ দুপুরেই তাজমহল হোটেলের দরবার হলে বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরাম (ডব্লিউইএফ) আয়োজিত ‘ইন্ডিয়া ইকোনমিক সামিট’ শীর্ষক ‘কান্ট্রি স্ট্যাটিজি ডায়ালগ অন বাংলাদেশ’-এ অংশ নেবেন প্রধানমন্ত্রী। সন্ধ্যায় নয়াদিল্লির বাংলাদেশ দূতাবাসে তার সম্মানে আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন এবং রাতে বাংলাদেশ ভবনে নৈশভোজে যোগ দেবেন তিনি।

সফরের দ্বিতীয় দিন শুক্রবার সকালে সেখানকার ব্যবসায়ী নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করবেন শেখ হাসিনা। এরপর বাংলাদেশ-ভারত ব্যবসায়িক ফোরামের (আইবিবিএফ) উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন তিনি।

দুপুরে বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরাম (ডব্লিউএএফ) আয়োজিত ‘ইন্ডিয়া ইকোনমিক সামিট’র সমাপনী পর্বে অংশ নেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বাংলাদেশ-ভারত দ্বিপাক্ষিক ইস্যু সামনে আসবে মূলত সফরের তৃতীয় দিন শনিবার (৫ অক্টোবর)। এদিন সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শংকর। এরপর বেলা সাড়ে ১১টার দিকে হায়দ্রাবাদ হাউজে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মিলিত হবেন। ওই বৈঠকে দুই দেশের গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুগুলোতে আলোচনার পাশাপাশি বেশ কয়েকটি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হওয়ার কথা রয়েছে।

সেখান থেকে দুই প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বেশ কয়েকটি যৌথ প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন। দুপুরে প্রধানমন্ত্রী হায়দ্রাবাদ হাউজে মধ্যাহ্নভোজ করবেন। বিকেলে ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে দেশটির রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিকেলে শেখ হাসিনাকে ‘টেগর পিস অ্যাওয়ার্ড’ দেওয়া হবে। সে অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন তিনি।

সফরের শেষ দিন রোববার (৬ অক্টোবর) সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন ভারতের খ্যাতিমান চলচ্চিত্র পরিচালক শ্যাম বেনেগাল। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও কর্মের ওপর চলচ্চিত্র নির্মাণের কাজ করছেন ভারতীয় এই নির্মাতা। এরপর দুপুরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন ভারতের প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসের সভাপতি সোনিয়া গান্ধী।

চার দিনের সফর শেষে রোববার রাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঢাকায় ফেরার কথা রয়েছে।

সিলেট প্রতিনিধিঃ  সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) এক শিক্ষার্থী ‘সুইসাইড নোট’ লিখে আত্মহত্যা করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নিহত শিক্ষার্থীর নাম বকুল দাস (২০)। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের পলিটিক্যাল স্ট্যাডিস (পিএসএস) বিভাগের ২য় বর্ষের ছাত্র। শাহ পরান আবাসিক হলের বি ব্লকের ১২০ নম্বর রুমে থাকতেন বকুল দাস।

শাবি প্রক্টর অধ্যাপক জহীর উদ্দীন আহমদ সাংবাদিকদের বলেন,থানা থেকে বলা হয়েছে বকুল বিষ পানে আত্মহত্যা করেছে। ময়নাতদন্ত শেষে আরও বিস্তারিত জানা যাবে।

জালালাবাদ থানার ওসি শাহ হারুন উর রশীদ বলেন, আত্মহত্যার ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। তদন্ত চলছে, তদন্তের আগে আমরা কোন মন্তব্য করতে পারছি না।

নিহত বকুলের রুমমেট জানান, বুধবার রাত দেড়টার দিকে বকুল রুমের মধ্যে বমি করতে থাকে। তখন তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাম্বুলেন্সে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরে বকুল তাদেরকে জানিয়েছিল সে বিষ পান করেছে। এরপরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে মারা যায় বকুল।

নিহত বকুলের বাড়ি হবিগঞ্জের লাখাই উপজেলার সোয়াগাঁও গ্রামে। তবে ওই শিক্ষার্থীর ‘সুইসাইড নোট’ কি লিখা আছে বা কেন আত্মহত্যা করেছেন  এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানা যায়নি।

সৌদি আরবের প্রখ্যাত সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যার এক বছর পূর্ণ হলো আজ। গত বছরের ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহরের সৌদি কনস্যুলেট ভবনে তাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়।

ওই হত্যাকাণ্ডের পর এক বছর পেরিয়ে গেলেও এবং সৌদি সরকারের বিশেষ করে সৌদি যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমানের সম্পৃক্ততার বিষয়টি পরিষ্কার হওয়ার পরও তারা শাস্তি এড়িয়ে চলতে সক্ষম হয়েছেন।

ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেট ভবনে জামাল খাশোগি তার বিয়ের জন্য জরুরি কাগজপত্র আনার জন্য গিয়েছিলেন কিন্তু সেখান থেকে আর কখনো বের হননি। প্রথমদিকে সৌদি সরকার এ হত্যাকাণ্ডের কথা সরাসরি নাকচ করলেও পরবর্তীতে নানা তদন্তের ভেতর দিয়ে তা পরিষ্কার হচ্ছে।

এছাড়া, সম্প্রতি সৌদি যুবরাজ বিন সালমান নিজেই বলেছেন, যেহেতু তার নজরদারিতে সমস্ত সবকিছু হয়েছে অতএব তিনি এই হত্যাকাণ্ডের দায় এড়াতে পারেন না।

তুরস্ক সরকার এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের অনেকেই খাশোগি হত্যার প্রথম থেকেই সৌদি যুবরাজ বিন সালমানের দিকে আঙ্গুল তুলে ছিলেন। খাশোগি হত্যাকাণ্ডে জড়িত ১১ সদস্যের ভেতরে পাঁচজনের বিরুদ্ধে সৌদি সরকার মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়ে আন্তর্জাতিক সমালোচনা এবং নিন্দাবাদ থেকে বাঁচার চেষ্টা করেছেন কিন্তু বিষয়টি প্রকৃতপক্ষে কেউই ভুলে যান নি। irna

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার লাউড় রাজ্যের রাজধানী’র দূর্গকে সংরক্ষিত পুরাকীর্তি হিসাবে গত ২৫সেপ্টেম্বর এই প্রাচীন ঐতিহাসিক স্থাপনাকে সরকারের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় সংরক্ষিত ঘোষণা করে। একই সঙ্গে এই প্রত্নতত্ত্বস্থলটি সরকারি তালিকাভুক্তও হয়েছে।

এরপূর্বে গত বছরের ১৪নভেম্বর থেকে তাহিরপুর উপজেলার লাউড় রাজ্যের রাজধানী’র দূর্গ খননের প্রাথমিক কাজ শুরু করে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর। তাহিরপুরের লাউড়ে অনেক প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন পাওয়া যাবে বলে আর সেটি কয়েক যুগকে যুক্ত করবে। সেই সাথে এই উপজেলার পর্যটন খাতে একটি উল্লেখ যোগ্য স্থান হিসাবে মাথা উচু করে দাড়াঁবে বলে আশা প্রকাশ করেন সমাজসেবক মাসুক মিয়াসহ স্থানীয় এলাকাবাসী।

লাউড় রাজ্যের রাজধানী’র প্রতœতত্ত্বস্থলটি সরকারি তালিকাভুক্তও হওয়ায় স্থানীয় এলাকাবাসী উপজেলাবাসী সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। সেই সাথে এই প্রতœতত্ত্বস্থলটিকে নিয়ে যুগপোযুগি পদক্ষেপ নিয়ে দ্রুত কাজ করার দাবী জানান।

সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ বলেন,হাওরা লের প্রাচীন নিদর্শন লাউর রাজ্য ঐতিহাসিক স্থাপনার স্বীকৃতি এবং সরকারের প্রতœ সম্পদের তালিকাভুক্ত করায় এখানকার জেলা প্রশাসক হিসাবে আমি অনেক খুশি হয়েছি। আমার পক্ষ থেকে খনন ও গবেষণায় সর্বোচ্ছ সহযোগিতা করবো। আমি মনে করি এখানকার পুরাকীর্তি পর্যটন বিকাশের সহায়ক হবে।

একাধিক সূত্রে জানা যায়,রাঢ় শব্দ হতেই লাউড় শব্দটির উৎপত্তি হয়েছে বলে মনে করা হয়। লাউড় রাজ্যের রাজধানী লাউড় ছাড়াও জগন্নাথপুর ও বানিয়াচংয়ে আরও দুটি উপ -রাজধানী ছিল। প্রাচীনকাল হতে শ্রীহট্ট (সিলেট) কয়েকটি রাজ্যে বিভক্ত ছিল। শ্রীহট্টের তিন ভাগ (গৌড়,লাউড় ও জয়ন্তিয়া )তিন জন পৃথক নৃপতি দ্বারা শাসিত হত। তাদের অধীনস্ত ছিল আরও অনেক ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ভূমি মালিক। লাউড় ছিল একটি স্বাধীন রাজ্য। জেলার তাহিরপুরের সীমান্ত এলাকায় লাউড়ের রাজধানী ছিল। লাউড় রাজ্য ছিল সুনামগঞ্জ,হবিগঞ্জ এবং ময়মনসিংহ জেলার কিয়দংশ পর্যন্ত বিস্তৃত। এই রাজ্যের ধ্বংসাবশেষ হলহলিয়া গ্রামে এখনো বিদ্যমান। এই রাজ্যের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন কেশব মিশ্র। এরা ছিলেন কাত্যান গোত্রীয় মিশ্র। তাদের উপাধি ছিল সিংহ। খ্রিস্টীয় দশম অথবা একাদশ শতকে তিনি কনৌজ থেকে এখানে আসেন। দ্বাদশ শতকে এখানে বিজয় মাণিক্য নামের নৃপতি রাজত্ব করতেন। কারো কারো মতে বঙ্গ বিজয়ের পর রাঢ় অঞ্চল মুসলমানদের হাতে চলে যাওয়ায় সেখানকার বিতাড়িত ও পরাজিত সম্ভ্রান্তজনেরা প্রাণ ও মান বাঁচানোর জন্য চারদিকে ছড়িয়ে পড়িয়েছিলেন। এদেরই একজন এখানে এসে রাজত্ব গড়ে তোলেন। বর্তমানে এই দূর্গের ভগ্নাবশেষ দেখা যায়। প্রতিটি প্রকোষ্ঠের কারুকার্য দেখলে যেকেউ মনে করবেন এখানে সভ্রান্ত কোন রাজা বা নৃপতি বাস করতেন। প্রাচীন এই স্থাপনা ক্রমেই ধ্বংসের পথে ছিল।

ঐতিহাসিক ডব্লিউ হান্টারের মতে সম্ভবত ১৫৫৬ খিঃ লাউড় রাজ্য স্বাধীনতা হারায় এবং মোগলরা এর নিয়ন্ত্রক হন। লেখক সৈয়দ মূর্তজা আলী তাঁর রচিত ‘হযরত শাহ্জালাল ও সিলেটের ইতিহাস’ গ্রন্থে উল্লেখ করেছেন মোগল সম্রাট আকবরের শাসনামলে (১৫৫৬-১৬০৫ খ্রিঃ) লাউড়ের রাজা গোবিন্দ সিংহ তাঁর জ্ঞাতি ভ্রাতা জগন্নাথপুরের রাজা বিজয় সিংহের সাথে আধিপত্য প্রতিষ্ঠা নিয়ে বিরোধে লিপ্ত হয়েছিলেন এর জের ধরেই বিজয় সিংহ গুপ্তঘাতকের হাতে নিহত হন। বিজয় সিংহের বংশধরগণ এ হত্যার জন্য গোবিন্দ সিংহকে দায়ী করে তার বিরুদ্ধে মোগল সম্রাট আকবরের রাজদরবারে বিচার প্রার্থনা করেন। এ ঘটনার বিচারের জন্য সম্রাট আকবর দিল্লী থেকে সৈন্য পাঠিয়ে গোবিন্দ সিংহকে দিল্লীতে ডেকে নেন। বিচারে গোবিন্দ সিংহের ফাঁসির হুকুম হয়। গোবিন্দ সিংহের অপর নাম ছিল জয় সিংহ। একই সময়ে জয়সিংহ নামের অপর এক ব্যক্তি রাজা গোবিন্দ সিংহের সঙ্গে সম্রাট আকবরের কারাগারে আটক ছিলো। ভুলবশত প্রহরীরা গোবিন্দ সিংহের পরিবর্তে ঐ জয়সিংহকে ফাঁসিতে ঝুলান। গোবিন্দ সিংহের প্রাণ এভাবে রক্ষা পাওয়ায় তিনি কৌশলে সম্রাট আকবরের কাছ থেকে নানা সুযোগ গ্রহণ করেন। তিনি সম্রাট আকবরের নিকট প্রাণভিক্ষা চান ও ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। গোবিন্দ সিংহের নাম হয় হাবিব খাঁ।  সম্রাট আকবর গোবিন্দ সিংহকে তাঁর হৃতরাজ্য পুনরায় দান করেন। অবশ্য শর্ত দেওয়া হয় হাবিব খাঁ সম্রাট আকবরের বশ্যতা স্বীকার করবেন এবং সম্রাটের খাজনার পরিবর্তে ৬৮খানা কোষা নৌকা নির্মাণ করে সম্রাটকে সরবরাহ করবেন। এই নৌকাগুলো খাসিয়াদের আগ্রাসন হতে আত্মরক্ষার জন্য মোগল ও স্থানীয় বাহিনী কর্তৃক রণতরী হিসাবে ব্যবহার করা হবে।
প্রাচীন নানা গ্রন্থে উল্লেখ রয়েছে হাবিব খাঁ’র পৌত্র ছিলেন মজলিস আলম খাঁ। মজলিস আলম খাঁ’র পুত্র ছিলেন আনোয়ার খাঁ। তিনি খাসিয়াদের উৎপাতের কারণে স্বপরিবারে সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের লাউড় ছেড়ে হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে চলে যান এবং সেখানে স্থায়ীভাবে বসবাস করতে শুরু করেন। এই বংশেরই উমেদ রাজা লাউড়ে একটি দুর্গ নির্মাণ করেছিলেন। এই দূর্গের ধ্বংসাবশেষই লাউড়ের হাউলী,হলহলিয়া বা হাবেলী নামে পরিচিত।

“আওয়ামী লীগ উপকমিটির সদস্য এডভোকেট সামছুল হক চৌধুরীকে আগামিতে সংসদ সদস্য হিসেবে দেখতে চান বক্তারা”

আওয়ামী লীগ উপকমিটির সদস্য এডভোকেট সামছুল হক চৌধুরী সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেছেন, এডভোকেট সামছুল চৌধুরী কে আগামিতে সংসদ সদস্য হিসেবে দেখতে চাই। আমাদের দিরাই-শাল্লাবাসী আর্থ সামাজিক উন্নয়নে সামছুল হক চৌধুরীর মত একজন দক্ষ রাজনৈতিক এবং সামাজিক ত্যাগী কর্মী ব্যক্তির বিশেষ প্রয়োজন। তিনি একজন সৎ, ত্যাগী ও পরীক্ষিত সমাজ কর্মী, সাবেক ছাত্রনেতা যার গতিশীল ও দক্ষ নেতৃত্বের বিশেষ প্রয়োজন আছে বলে দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় যুক্তরাজ্যে বসবাসরত দিরাই-শাল্লবাসী ব্যাপক সংবর্ধনা প্রদান করে মাননীয় প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে অশেষ ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞা জ্ঞাপন করেন।
গত ১লা অক্টোবর ২০১৯ ইং রোজ মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৭ ঘটিকার সময় পুর্বলন্ডনের একটি কমিউনিটি হলে ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনায় যুক্তরাজ্যে বসবাসরত দিরাই-শাল্লবাসী কর্তৃক দল মত নির্বিশেষে অনুষ্টিত হয় এক নাগরিক সংবর্ধনা অনুষ্টান। দিরাই-শাল্লার গনমানুষের নেতা, তারুন্যের অহংকার, শিক্ষাবীদ, সংঘটক ও সমাজ সেবক যুক্তরাজ্য জাতীয় শ্রমিকলীগের কার্যকরী সভাপতি জননেতা এডভোকেট মো: সামছুল হক চৌধুরী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় যুক্তরাজ্যে বসবাসরত দিরাই-শাল্লা বাসী তাকে ব্যাপক সংবর্ধনা প্রদান করে। বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ প্রফেসর ওমর ফারুক এর সভাপতিত্বে এবং সাবেক ছাত্রনেতা মাশুক সর্দারের প্রাণবন্ত পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন হাজী ইলিয়াস মিয়া।

সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে গুরুত্ব পূর্ণ বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের ভাইস প্রেসিডেন্ট জনাব হরমুজ আলী, প্রধান বক্তা হিসাবে বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক জনাব আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী, বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন লন্ডন মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি জনাব নুরুল হক লালা মিয়া, লন্ডনে সফররত দিরাই পৌরসভার মেয়র মুশারফ মিয়া, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আহাদ চৌধুরী, লন্ডন মহানগর আওয়ামী লীগ সহ সভাপতি হাজি ইলিয়াস মিয়া, দিরাই ডেভেলপমেন্ট এর সাবেক সভাপতি আব্দুল মনাফ, দিরাই যুবলীগ এর সাবেক সভাপতি নাজমুল হোসাইন চৌধুরী চান মিয়া, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ উপ প্রচার সম্পাদক লুৎফুর রহমান সায়েদ, যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ কার্য নির্বাহী কমিটির সদস্য সাবেক ছাএনেতা আশরাফুল ইসলাম, সুনামগঞ্জ এসোসিয়েশন এর সাধারণ সম্পাদক সাবেক অবসর প্রাপ্ত ওসি আহবাব মিয়া, কাউন্সিলর আব্দুল আলী, আব্দুল কাহার, কাজী শুকুর মিয়া, যুক্তরাজ্য আওয়ামী যুবলীগের সহ সভাপতি সাবেক ছাএনেতা আনোয়ারুল ইসলাম, যুক্তরাজ্য আওয়ামী যুবলীগের জয়েন্ট সেক্রেটারি জামাল খাঁন, যুক্তরাজ্য আওয়ামী যুবলীগের জয়েন্ট সেক্রেটারি জুবায়ের আহমেদ, দিরাই শাল্লা এসোসিয়েশনের উপদেষ্টা হাজী সিরাজ মিয়া, দিরাই শাল্লা এসোসিয়েশনের উপদেষ্টা নজরুল ইসলাম, কমিউনিটি নেতা এখলাস মিয়া, নিজাম উদ্দীন চৌধুরী, যুক্তরাজ্য শ্রমিকলীগের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আব্দুল বাসির, ভাইস প্রেসিডেন্ট আবু বকর খাঁন, ভাইস প্রেসিডেন্ট সাফিক মিয়া, ভাইস প্রেসিডেন্ট কবি শামসুল ইসলাম, ভাইস প্রেসিডেন্ট পীর আব্দুল কায়ুম, লন্ডন মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা আঙ্গুর আলী, লন্ডন মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা নাসির উদ্দিন, লন্ডন মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা ইসলাম উদ্দীন, যুক্তরাজ্য শ্রমিকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আসুক আহমেদ, বার্মিং হ্যাম এন্ড মিডলেনড যুবলীগ সভাপতি জুবের আলম, লন্ডন মহানগর শ্রমিকলীগের সভাপতি শাহাব উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন, যুব শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ গিয়াস, কমিউনিটি নেতা ফজলুল করিম, আরশ আলী, হাজী আব্দুস সামাদ, শাহীন মিয়া, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন নেতা সৈয়দ শাহীন , সুহেল আহমেদ, গিলমান হোসাইন, আকিকুর রহমান, ব্যারিষ্টার নাফিজ মজুমদার, দিরাই ডেভেলপমেন্ট এর সাবেক সাধারণ সম্পাদক নিয়াজুল ইসলাম চৌধুরী, দিরাই ডেভেলপমেন্ট এর সাবেক ট্রেজাররার সেলিম সর্দার, দিরাই ডেভেলপমেন্টের ট্রেজাররার বুলন মিয়া, দিরাই-শাল্লা এসোসিয়েশনের সহ সভাপতি শানুর চৌধুরী, সহ সভাপতি রুহুল আমীন, বিশিষ্ট কমিউনিটি নেতা বদরুল চৌধুরী, দিরাই-শাল্লা এসোসিয়েশনের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম নজরুল, দিরাই-শাল্লা এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান রুবেল, দিরাই-শাল্লা এসোসিয়েশনের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক সুশান্ত দাস প্রশান্ত, কমিউনিটি নেতা মতিউর রহমান, সাদিকুর রহমান, আব্দুল হাই আলী, সিনিয়র সাংবাদিক মাহমুদ ইকবাল, আব্দুস সাত্তার, কমিউনিটি নেতা মহিউদ্দিন জগনু, সাংবাদিক ফখর মিয়া, ফিরুজুল হক, মুক্তিযোদ্ধা মজুমদার আলী, এনামুল হক চৌধুরী, জাহাঙ্গীর হোসেন, আবুল কালাম, হারুন মিয়া, সজ্জাদ মিয়া, আব্দুল জাহির, শফিকুল ইসলাম, মিরজা হোসেন, সমির উদ্দিন শাহীন, আনা মিয়া, জিয়াউল হক চৌধুরী, কবির হোসেন, আব্দুল আজিজ, আব্দুল আহাদ, আবুল কালাম, সাজ্জাদ মিয়া, কাজী সুজন, সাফিউল হক চৌধুরী, ফাহিম আহমদ, সামিউল হক চৌধুরী, যুক্তরাজ্য দিরাই-শাল্লাবাসী এবং যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সহ প্রমুখ। নাগরিক সমাবেশে সাবেক এই ছাত্রনেতা বলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য নির্বাচিত হওয়ায় যুক্তরাজ্যে বসবাসরত দিরাই-শাল্লা বাসীর এই আয়োজনের জন্য অশেষ ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞা জানান।
যুক্তরাজ্য জাতীয় শ্রীমক লীগের কার্যকরী সভাপতি এডভোকেট মো: শামছুল হক চৌধুরী তাহাকে সব ধরনের সমর্থন ও সহযোগিতা প্রদানের জন্য সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, সুদুর ছাত্র জীবন থেকে প্রায় ৩৪ বছর যাবৎ আওয়ামী লীগের রাজনীতি ও বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক সংগঠনের সাথে থেকে জনগণের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। বঙ্গবন্ধুর একজন আদর্শের সৈনিক হিসেবে ভৌগলিক অবস্হানের বাহিরে অবস্হান করলে ও দলীয় আদর্শের ভিত্তিতে অদ্যাবধি দেশে ও প্রবাসে নিঃস্বার্থভাবে আপনাদের সহযোগিতায় আর্থ-সামাজিক কাজ করে যাচ্ছি। ১৯৯০ সালে স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন সহ ১/১১ দুঃসময়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার মুক্তি আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছি। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

হোসাইন ইকবাল,স্পেন থেকেঃ বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেন এর উদ্যোগে বার্ষিক ক্রিকেট টুর্নামেন্ট ২০১৯ আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছে। দেশটির রাজধানী মাদ্রিদের অদূরে খেতাফে মাঠে গতকাল (০১ অক্টোবর )  বিকেলে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্ভোধন করা হয়েছে। এতে বিপুল সংখ্যক ক্রিকেট প্রেমী প্রবাসি সহ বিভিন্ন দলের খেলোয়াড়দের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহনের মধ্য দিয়ে প্রধান অতিথি হিসেবে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনের সাবেক সভাপতি এ এস আই আর রবিন প্রবাসের কর্মজীবনের খেলাধুলা চর্চা কে উন্নত মন মানসিকতা এবং আধুনিক জীবন গঠনে সহায়ক হিসেবে কাজ করবে বলে মন্তব্য করেন।

সংগঠনের সভাপতি কাজী এনায়েত করিম তারেকের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান সুন্দরের সঞ্চালনায় আরো অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন,বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেন সিনিয়র সহ সভাপতি আলামীন মিয়া, অর্থ সম্পাদক আবুল হাসেম, সহ সাংগঠনিক মনিরুজ্জামান, প্রচার সম্পাদক আবু বক্কর, সাবেক ক্রীড়া সম্পাদক আবু বক্কর তামীম, ক্রীড়া সম্পাদক মোঃ শায়েক মিয়া, সুমন হাওলাদার, সহ সংস্কিতিক সম্পাদক হানিফ মিয়াজী, সদস্য আব্দুল মজীদ সুজন,সহ প্রচার সম্পাদক আমির হুসেন, সদস্য সুজন মুন্সী।

এছাড়া  আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন-বিক্রমপুর মুন্সিগঞ্জ সমিতির সভাপতি মুমিনুল ইসলাম স্বাধীন, কমিউনিটি নেতা একরামুজ্জামান কিরণ,  বাংলাদেশ প্রেসক্লাব ইন স্পেনের সভাপতি একেএম জহিরুল ইসলাম, সাংবাদিক ইব্রাহিম খলিল, সাংবাদিক কবির আল মাহমুদ, ঢাকা জেলা এসোসিয়েশন সাধারণ সম্পাদক মাসুদূর রহমান, খুলনা বিভাগীয় কল্যাণ সমিতির সভাপতি  সৈয়দ মাসুদুর রহমান নাসিম,গ্রেটার ঢাকা অ্যাসোসিয়েশনের সাংগঠনিক সম্পাদক রুবেল সামাদ সামাদ ও আরজু মিয়া আবিদুর রাহমান জসীম প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন প্রবাসের তরুণ যুব সমাজের খেলাধুলায় মনোনিবেশ করতে হবে ,কেননা যে সময়ে স্কুল-কলেজে থাকার কথা ,সেই সময় মাঠে  ক্রিকেট-ফুটবলে মত্ত থাকার কথা , তাঁরা প্রবাসে এসে কঠিন বাস্তবতার মুখোমুখি। এই দামাল ছেলেরা প্রবাসের জীবন জীবিকার ফাঁকে শরীরচর্চা মাধ্যমে নিজেদের চর্চা করছে। তরুণ যুব সমাজের পাশে থেকে আগামী দিনের  পাশে থাকার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন |

উদ্বোধনী খেলায় গত তিন বারের চ্যাম্পিয়ন  ঢাকা ফ্রুতাস স্পোর্টিং ক্লাবকে ৩২ রানে হারিয়ে  জয়লাভ ব্রাক্ষণবাড়িয়া স্পোটিং ক্লাব।

টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারী বাকি দলগুলো হচ্ছে টাইগার মাদ্রিদ, ভিল্লাভের্দে আলতো স্পোটিং ক্লাব, মাদ্রিদ ইউনাইটেড, শাহজালাল স্পোটিং ক্লাব সিলেট, হবিগঞ্জ ইয়ং ষ্টার স্পোটিং ক্লাব ও ব্রাক্ষণবাড়িয়া স্পোটিং ক্লাব বি।

উল্লেখ্য, টুর্নামেন্টে মোট আটটি টিম অংশগ্রহণ করেছে। পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ চার টিম সেমিফাইনাল খেলার যোগ্যতা অর্জন করবে।

ভাবনা” বিষেয়ক আলোচনা সভা নড়াইলে অনুষ্ঠিত

 

নড়াইল প্রতিনিধিঃ নড়াইলে “জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শিক্ষা নিয়ে ভাবনা” বিষেয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার নড়াইল সরকারি মহিলা কলেজের সম্মেলন কক্ষে কলেজের আয়োজনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা।

কলেজ অধ্যক্ষের প্রফেসর ড. মোঃ মহাবুবুর রহমানের সভাপতিত্বে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ ইমরান শেখ, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নিজামউদ্দিন খান নিলু,কলেজের শিক্ষক-কর্মচারি ও শিক্ষার্থীরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

স্বাধীন বাংলাদেশে শিক্ষা বিস্তারে প্রাথমিক শিক্ষা থেকে শুরু করে কারিগরী শিক্ষা, মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যাবস্থাসহ সকল শিক্ষা ব্যাবস্থায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুদুর প্রসারি পরিকল্পনার ভাবনা বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

এম ওসমান, বেনাপোল : যশোরের শার্শায় সড়ক দূর্ঘটনায়  জসিমন নেছা (৬৫) নামে এক বৃদ্ধ মহিলার নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে নাভারন-সাতক্ষীরা মহাসড়কের উলাশী নামক স্থানে সাতক্ষীরা গামী প্রাইভেট কারের ধাক্কায় তার মৃত্যু হয়। নিহত জসিমন নেছা সাতক্ষীরা জেলার ছঘরিয়া গ্রামের মহাসিন বিশ্বাসের স্ত্রী। এ ঘটনায় ঘাতক প্রাইভেটকার ও চালককে আটক করেছে পুলিশ।
পুলিশ ও নিহতের পরিবার সুত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে  জসিমন নেছা শার্শার উলাশী বাজারে রাস্তা পারাপারের সময় সাতক্ষীরা গামী প্রাইভেটকার ঢাকা মেট্রো খ-১১-৬৬৫৭ ধাক্কা দেয়। এতে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে শার্শা উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত ঘোষণা করে। প্রত্যক্ষদর্শি স্থানীয় জনতা প্রাইভেট কার সহ চালককে আটক করে পুলিশে খবর দেয়।
নাভারণ হাইওয়ে পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই টিটু মিয়া জানান, খবর পেয়ে হাসপাতাল থেকে মহিলার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে এবং ঘাতক প্রাইভেটকার ও চালককে আটক করা হয়েছে।

এম ওসমান, বেনাপোল : ভারতে মহাত্মাগান্ধীর ১৫০তম জন্মদিন উপলক্ষে বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বানিজ্য বন্ধ রয়েছে। তবে পাসপোর্ট যাত্রী যাতায়াত সাভাবিক রয়েছে।
বুধবার (২ অক্টোবর) সকাল থেকে এ পথে আমদানি-রফতানি বানিজ্য বন্ধ রয়েছে।
ভারতের পেট্রাপোল স্টাফ ওয়েল ফেয়ার এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক কার্তিক চক্রবর্তী  জানান, মহাত্মাগান্ধীর ১৫০তম জন্মদিন উপলক্ষে ভারতে সরকারি ছুটি থাকায় আজ বুধবার সকাল থেকে বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বানিজ্য  বন্ধ রয়েছে।
বেনাপোল চেকপোস্ট কাস্টমস কার্গো শাখার সুপার নাসিদুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ভারতে সরকারি ছুটি থাকায় বেনাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বন্ধ রয়েছে।
বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন (ওসি) মহসিন খান পাঠান জানান, আমদানি-রফতানি বানিজ্য বন্ধ থাকলেও দু’দপশের মধ্যে পাসপোর্ট যাত্রী যাতায়াত স্বাভাবিক রয়েছে।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc