Saturday 21st of September 2019 11:39:54 AM

নড়াইল প্রতিনিধিঃ নড়াইলের লোহাগড়ায় নাজমুল শেখ হত্যা মামলার আসামীদের দ্রুত গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার নড়াইল-লক্ষিপাশা সড়কের বসুপটি বাসস্টান্ড এলাকায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এলাকাবাসীর আয়োজনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন নিহতের মা আতিরন বেগম, নিহতের স্ত্রী আন্না বেগম, স্থানীয় কোবাদ হোসেন খান প্রমূখ।
এসময় বক্তরা বলেন, নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার গিলাতলা গ্রামের নাজমুল হোসেনকে হত্যার ঘটনায় প্রায় তিনমাস হলেও পুলিশ কাউকেই গ্রেফতার করতে পারেনি। অবিলম্বে হত্যাকান্ডের সাথে জড়িতদের গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি জানান বক্তরা। পরে বিক্ষোভ করে স্থানীয়রা। মানববন্ধনে শিশু-নারীসহ বিভিন্ন শ্রেনীপেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার গিলাতলা গ্রামের নাজমুল হোসেনকে গত ১৬ জুন রাতে হত্যা করে লাশ ফেলে দেয়। পরদিন সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। এঘটনায় নিহতের স্ত্রী আন্না বেগম বাদী হয়ে ৩জনকে আসামী করে হত্যা মামলা দায়ের করলেও পুলিশ কাউকেই আটক করতে পারেনি।
লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোকাররম হোসেন বলেন, মামলাটির তদন্ত চলছে আসামীদের গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

বেনাপোল প্রতিনিধিঃ  যশোরের শার্শায় পুলিশ ও তার সোর্স কতৃক আসামির স্ত্রীকে গণধর্ষণের মামলায় গ্রেপ্তার তিন আসামিকে ৩ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।
রোববার (৮ সেপ্টেম্বর) সাড়ে ১১টার দিকে যশোরের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সাইফুদ্দিন হুসাইন শুনানি শেষে এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
এ ঘটনায় গঠিত পুলিশের তদন্ত কমিটির আজ প্রতিবেদন দাখিলের কথা থাকলেও তাঁরা তা জমা দিতে পারেনি।এ জন্য তাঁরা নতুন করে সময় বৃদ্ধির আবেদন করেছেন।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা (পিবিআই) ইন্সপেক্টর শেখ মোনায়েম হোসেন জানিয়েছেন, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে আসামিদের প্রত্যেককে পাঁচ দিন করে রিমান্ড চাওয়া হয়। আদালত শুনানি শেষে তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। আজই তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নেওয়া হবে বলে জানান পিবিআই কর্মকর্তা।
এদিকে, পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ ওঠায় গত ৩ সেপ্টেম্বর তদন্তের জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে একটি কমিটি করা হয়েছিল। কিন্তু নির্ধারিত তিন দিন শেষে আজ তাঁদের প্রতিবেদন দেওয়ার কথা থাকলেও তাঁরা তা দেননি।
তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সালাহউদ্দিন শিকদার জানান, ঘটনার গুরুত্ব অনুধাবন এবং সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে পুলিশ সুপারের কাছে আরো সাত দিন সময় বৃদ্ধির আবেদন করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, গত (০৩ই সেপ্টেম্বর) শার্শা উপজেলার লক্ষণপুর গ্রামের এক গৃহবধূ স্থানীয় গোড়পাড়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ ও তাঁর সোর্সের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেন।পরে এ ঘটনায় অভিযুক্ত এসআই খায়রুল আলমের নাম বাদ দিয়ে শার্শা থানায় মামলা হয়।পুলিশ এ মামলায় তিনজনকে আটক করে।

রেজওয়ান করিম সাব্বির,জৈন্তাপুর (সিলেট) প্রতিনিধিঃ জৈন্তাপুর মডেল থানায় দায়েরকৃত ডাকাতি মামলার ভিত্তিত্বে কানাইঘাট উপজেলার গাছবাড়ী এলাকা থেকে গোপন সংবাদের মাধ্যমে ২ ডাকাত আটক করে থানা পুলিশ।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ০৮ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাত ৮টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে কানাইঘাট থানা পুলিশের সহায়তায় জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ শ্যামল বণিক‘র নেতৃত্বে এবং এসআই মোঃ আজিজুর রহমান ও সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে কানাইঘাট থানার গাছবাড়ী এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করে জৈন্তাপুর থানায় নিয়ে আসে। জৈন্তাপুর মডেল থানায় মামলা নং-০৩, তারিখ ০৫-০৮-১৯ইং। যা পেনাল কোড এর ঘটনায় জড়িত তথ্যের ভিত্তিত্বে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত থাকার প্রমান রয়েছে।

আটককৃতরা হলো- কানাইঘাট উপজেলার ছলিতাবাড়ী গ্রামের রহিম উদ্দিনের ছেলে আব্দুর রহমান (২৫), একই উপজেলার বাউরভাগ লামাপাড়া গ্রামের মন্তাজ আলীর ছেলে মনসুর আহমদ (২৩)।
এ ব্যাপারে অফিসার ইনচার্জ শ্যামল বণিক প্রতিদেককে জানান, এদের বিরোদ্ধে জৈন্তাপুর উপজেলার দরবস্ত শাপলা ফিলিং ষ্টেশনে ডাকাতির ঘটনায় আটককৃতদের তথ্যের ভিত্তিত্বে গোপন সংবাদের মাধ্যমে তাদেরকে আটক করা হয়।

আটককৃতদের ডাকাতি মালায় আটক দেখিয়ে আদালতে সোপর্দ করা হবে।

হবিগঞ্জের মাধবপুর সীমান্ত থেকে ঢোলের ভিতরে করে গাঁজা পাচারকালে জয়পুরহাটের বাদ্যবাদক ইউনুস মিয়া (৩০)কে পুলিশ আটক করেছে।
শুক্রবার সকালে তেলিয়াপাড়া ফাঁড়ির ইনচার্জ রকিবুল হাসান তেলিয়াপাড়া স্টেশন বাজার এলাকায় ইউনুসকে আটক করে তার ঢোলের ভিতরে লুকিয়ে রাখা তিন কেজি গাঁজা জব্দ করে।
ধৃত ইউনুস জয়পুরহাট জেলার আক্কেল পুর উপজেলার নুরনগর গ্রামের মৃত হেলাল মিয়ার ছেলে। পেশায় তিনি ঢোলী। কয়েক দিন আগে সীমান্তবর্তী সুরমা চাবাগানের ২০ নং এলাকা আসেন।
শুক্রবার সকাল সাতটার দিকে তেলিয়া পাড়া থেকে ঢোলে লুকিয়ে রাখা গাঁজাসহ আটক করে তাকে মাধবপুর থানায় সোপর্দ করে পুলিশ। মাধবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ কে এম আজমিরুজ্জামান বলেন, এব্যাপারে মাদক নিয়ন্ত্রন আইনে মামলা হয় এবং মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান চলবেই।   

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি ভেঙে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আ’লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) দলের স্থানীয় সরকার ও সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভায় তিনি এ নির্দেশ দেন। ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের বিভিন্ন বিতর্কিত কর্মকাণ্ড এবং অযোগ্যতার কারণে এ কমিটি ভেঙে দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়। যৌথসভায় উপস্থিত আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সূত্র জানায়, রংপুর-৩ এর উপনির্বাচন এবং কয়েকটি উপজেলার প্রার্থী মনোনয়ন চূড়ান্ত করতে আয়োজিত এ বৈঠকে ছাত্রলীগের প্রসঙ্গ তোলেন স্বয়ং আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

গোয়েন্দা সংস্থা ও অন্যান্য সূত্রে পাওয়া খবরের ভিত্তিতে তিনি বলেন, ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ। বিশেষ করে তারা দুপুরের আগে ঘুম থেকে ওঠে না। এ সময় মনোনয়ন বোর্ডের অন্যান্য সদস্যও আলোচনায় অংশ নেন। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মেলনে গিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের বেলা ১১টা থেকে ৩টা পর্যন্ত অপেক্ষা করা, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির ছাত্রলীগের অনুষ্ঠানে পৌঁছানোর পর সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের অনুষ্ঠানে যাওয়া এবং সিনিয়র নেতা তোফায়েল আহমেদকে প্রধান অতিথি করে আয়োজন করা ছাত্রলীগের অনুষ্ঠানে একই ধরনের অপর একটি ঘটনার কথা এ সময় উঠে আসে।

এছাড়া জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ও ইডেন কলেজের সম্মেলনের দুই মাস পেরিয়ে যাওয়ার পরও কমিটি দিতে না পারা, কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের কমিটি করার বিষয়ে অনৈতিক অর্থনৈতিক লেনদেনের অভিযোগ আসা, কেন্দ্রীয় কমিটিতে অনেক বিতর্কিত, বিবাহিত ও জামায়াত-বিএনপি সংশ্লিষ্টদের পদায়ন করার বিষয়ে এ সভায় ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়।

একইসঙ্গে বাদ পড়াদের সংখ্যা উল্লেখ করে প্রেস বিজ্ঞপ্তি দেওয়ার পরও তারা কারা সেটা স্পষ্ট না করা ও পরে বাদ দেওয়ার ঘোষণা কার্যকর না করা, পাশাপাশি অনেক ত্যাগীকে বাদ দেওয়ার বিষয়টিও আলোচনায় উঠে আসে।

এ সময় কমিটির বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরে বাদ পড়াদের অনশনের কথাও তোলেন দু’জন নেতা।

এছাড়া সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের মধুর ক্যান্টিনে মাঝে-মধ্যেই অনুপস্থিত থাকা, ছাত্রলীগের সভাপতির বিরুদ্ধে বিবাহিত হওয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার বিষয়গুলো নিয়েও কথা বলেন নেতারা। এছাড়া সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক দু’জনের বিরুদ্ধেই অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ নিয়েও আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের বিভিন্ন পর্যায়ে কানাঘুষা রয়েছে।

সূত্রমতে, অন্তত দশ মিনিট ধরে ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে এ সভায় আলোচনা হয়। এরপর আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা কমিটি ভেঙে দেওয়ার নির্দেশ দেন।

প্রসঙ্গত, ছাত্রলীগ আওয়ামী লীগের ভাতৃপ্রতিম সংগঠন। আওয়ামী লীগের পরামর্শ ও নির্দেশনায় সংগঠনটি চলে।সভার সূত্র আরও জানায়, সভা চলাকালে ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক গণভবনে উপস্থিত ছিলেন। সভা শেষে তারা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার জন্য অপেক্ষা করছিলেন। সেটা দেখতে পেয়ে আওয়ামী লীগের দুই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ ও আব্দুর রহমান তাদের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা না করার পরামর্শ দেন। এরপরও তারা গণভবন ত্যাগ না করলে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের তাদের গণভবন থেকে চলে যেতে বলেন। এরপর তারা গণভবন ত্যাগ করেন।

উল্লেখ্য, গত ১৩ মে সম্মেলনের এক বছরের মাথায় ৩০১ সদস্য পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণার পর সংগঠনটির ভেতর থেকেই নানা সমালোচনা চলছিল। এর আগে ২০১৮ সালের ১২ ও ১৩ মে সম্মেলনে কমিটি করতে ব্যর্থ হয় ছাত্রলীগ। পরে একই বছরের ৩১ জুলাই সম্মেলনের দুই মাস পর কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ ও ঢাকা বিশ্বিদ্যালয়ের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের নাম আওয়ামী লীগ সভাপতি চূড়ান্ত করার পর তার ঘোষণা দেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। সুত্রঃবাংলা ট্রিবিউন

সিলেট প্রতিনিধিঃ সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত দু’ই কয়েদিসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার (৫ সেপ্টেম্বর) রাতে ও শুক্রবার (৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা গেছেন বলে জানিয়েছেন সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের “জেলার” আবু সায়েম।

কারাগার সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার বুকের ব্যাথা অনুভব করায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার লোহারগাঁও গ্রামের আফিজ আলী ইউনুছকে (৪৯)। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে তিনি মারা যান। তিনি নিজ চাচা রুস্তুম আলীকে হত্যার দায়ে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ছিলেন। ২০১৭ সালের ২৬ জুলাই থেকে তিনি সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে ছিলেন।

অপরদিকে, দক্ষিণ সুরমার একটি নারী ও শিশু নির্যাতন মামলার ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ছিলেন ৬৩ বছরের মছব্বির আলী। বুকে ব্যথা অনুভব করায় গত মঙ্গলবার ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় মছব্বির আলীকে। বৃহস্পতিবার রাত ২টা ৫০ মিনিটে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। মছব্বির আলী দক্ষিণ সুরমা উপজেলার শস্যউরা গ্রামের জুবেদ আলীর ছেলে।

অপর ঘটনায় চেক ডিজওনার মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামি ছিলেন সিলেট নগরের শাহজালাল উপশহর এলাকার ৪৮ নম্বর বাসার বাসিন্দা হাজি মোহাম্মদ মনোয়ারুল হক। বৃহস্পতিবার রাতে বুকে ব্যথা অনুভব হলে তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায় কারাগার কর্তৃপক্ষ। চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার দুপুর দেড়টার দিকে তিনি হাসপাতালে মারা যান। তিনি ওই এলাকার মন্তাজ আলীর ছেলে। এক কোটি ৫৭ লাখ টাকার চেক ডিজওনার মামলায় তার এক বছরের সাজা ছিল বলে কারাগার সূত্র জানিয়েছে।

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলতনা আবু সায়েম জানান, তারা তিনজনই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন বলে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। গত শুক্রবার প্রত্যেকের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

কমলগঞ্জ প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় ছাত্রলীগের এক নেতা মারা গেছেন। শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় আদমপুর সড়কের উপজেলা সংলগ্ন রাস্তায় এ দূর্ঘটনা ঘটে।নিহত ছাত্রলীগ নেতার নাম তুষার আহমেদ (২০)। তিনি উপজেলার রহিমপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক।

জানা যায়, শনিবার উপজেলা সংলগ্ন আদমপুর সড়কের ডা. গৌরমনির বাসার সম্মুখে একটি দ্রুতগামী সিএনজি অটোরিকশা মোটরসাইকেল আরোহী তুষারকে চাপা দিলে সে গুরুতর আহত হয়। পরে স্হানীয়রা আহত তুষারকে উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

নিহত তুষার আহমেদ রহিমপুর ইউনিয়ন এর সিদ্ধেশ্বরপুর গ্রামের ইলিয়াস আলীর পুত্র।কমলগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) সুদীন চন্দ্র দাশ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সিএনজি অটোরিকশা আটক করে থানায় আনা হয়েছে। তদন্তসাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্হা নেয়া হবে।

নিহত তুষার চলতি বছরের এইচএসসি পরীক্ষায় কমলগঞ্জ সরকারি গণমহাবিদ্যালয় থেকে অংশ গ্রহণ করে উর্ত্তীণ হয়ে এখন স্নাতক ক্লাসে ভর্তির কথা ছিল ।

ডাকাতের গুলিতে এক বাংলাদেশি শিক্ষার্থী যুক্তরাষ্ট্রে নিহত হয়েছেন। স্থানীয় সময় গত শনিবার সকালে লুইজিয়ানার ব্যাটন রাউজ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত মো. ফিরোজ-উল-আমিন (২৯) লুইজিয়ানা স্টেস্ট ইউনিভার্সিটিতে কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে পিএইচডি করছিলেন। তার বিশেষায়িত সাবজেক্ট ছিল সাইবার সিকিউরিটি।এ বিষয়ের খ্যাতনামা বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক তৃতীয় গোল্ডেন জি রিচার্ডের অধীনে পিএইচডি করছিলেন তিনি। বাংলাদেশে থাকাকালে তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সিএসই-তে স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন।

পুলিশ জানিয়েছে, স্থানীয় একটি গ্যাস স্টেশনে ক্লার্ক হিসেবে কাজ করতেন মো. ফিরোজ-উল-আমিন। শনিবার সকালে সেখানে ডাকাতি হয়। এ সময় গ্যাস স্টেশনটিতে কর্মরত ফিরোজকে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। তার পিএইচডি অধ্যাপক তৃতীয় গোল্ডেন জি রিচার্ড বলেন, সে খুবই ভালো ছাত্র ছিল। খুব বন্ধুত্বপূর্ণ এবং দুর্দান্ত মানুষ ছিল।

পুলিশ জানিয়েছে, সকালে ডাকাতির উদ্দেশ্যে এক ব্যক্তি যখন গ্যাস স্টেশনটিতে প্রবেশ করে তখন সেখানে একমাত্র কর্মরত ব্যক্তি ছিলেন ফিরোজ-উল-আমিন। ডাকাতির আগে সে ফিরোজকে গুলি করে হত্যা করে। অধ্যাপক তৃতীয় গোল্ডেন জি রিচার্ড বলেন, এটি খুবই বিপজ্জনক ঘটনা। সে এখানে কাজ করতো এটি আমার জানা ছিল না।

তিনি জানান, বিয়ের জন্য আসন্ন শীতে বাংলাদেশে যাওয়ার পরিকল্পনা ছিল ফিরোজের। বিয়ের পর স্ত্রীকে যুক্তরাষ্ট্রে নিয়ে যাওয়ারও পরিকল্পনা ছিল তার।

ফিারোজের বন্ধুদের একজন মধুপর্ণা মান্না বলেন, গত বছরই বাবাকে হারিয়েছে ফিরোজ। একমাত্র পুত্রসন্তান হিসেবে পরিবারের দেখাশোনার দায়িত্ব ছিল তার ওপর। বুঝতেই পারছেন, তারা বিধ্বস্ত অবস্থায় রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে তার শিক্ষক ও বন্ধুরা ফিরোজকে প্রচণ্ড মেধাবী ও চমৎকার একজন মানুষ হিসেবে উল্লেখ করেছেন। অধ্যাপক তৃতীয় গোল্ডেন জি রিচার্ড বলেন, সে ছিল আমার সবচেয়ে ভালো ছাত্র। এমনকি অন্যান্য অনুষদের যেসব শিক্ষক তার সাথে কথা বলেছে, তারাও তার দ্বারা অত্যন্ত প্রভাবিত হয়েছিল।

ফিরোজের মর্মান্তিক মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন লুইজিয়ানা স্টেস্ট ইউনিভার্সিটির প্রেসিডেন্ট এফ. কিং আলেক্সান্ডার। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, পিএইচডি শিক্ষার্থী মো. ফিরোজ-উল-আমিন-এর মর্মান্তিক মৃত্যুতে পুরো লুইজিয়ানা স্টেস্ট ইউনিভার্সিটি শোকাহত। সে ছিল অবিশ্বাস্য রকমের একজন মেধাবী ছাত্র ও গবেষক; যার একটি সম্ভাবনাময় ভবিষ্যৎ ছিল।

মো. ফিরোজকে সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের টিচিং অ্যাসিট্যান্টশিপের জন্যও প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। শিগগিরই তিনি এ দায়িত্ব নেবেন বলে অনুমান করা হচ্ছিল।

রেজওয়ান করিম সাব্বির, জৈন্তাপুর সিলেট প্রতিনিধিঃ সিলেটের জৈন্তাপুর হতে ১ ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ, ভিকটিম উদ্ধার, ধর্ষককে আদালতের মাধ্যমে হাজতে প্রেরণ।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, জৈন্তাপুর উপজেলা ৪নং দরবস্ত ইউনিয়নের শুকইনপুর গ্রামের আব্দুল হামিদের ছেলে সেজুল আহমদ সিলেট শহরের পীর মহল্লার বাসিন্ধা আনোয়ার হোসেনের বউ এর সাথে ভাই বোনের মধুর সম্পর্ক গড়ে উঠে। এই সুবাধে আনোয়ার হোসেনের পরিবারের লোকজনের সাথে সেজুল আহমদ ভাল সম্পর্ক গড়ে উঠার কারনে দাওয়াত করে।

নারীলোভী সেজুল আহমদের বিশ্বস্ততার সুযোগে দাওয়াত করে শুকইনপুর গ্রামে নিয়ে আসে ফারহানা বেগম (২৫) কে। শুকইনপুরে ফাহানাকে নিয়ে এসে নিজ বাড়ীতে না রেখে বাড়ীর পাশ্ববর্তী নির্মাণাধীন বাড়ীতে নিয়ে যায়। সেখানে ফারহানাকে আটকে রেখে নারী লোভী প্রতারক সেজুল আহমদ বেশ কয়েক বার ধর্ষন করে।

এদিকে ভিকটিম প্রতারনার শিকার হয়ে কৌশলে পুলিশকে ফোন করে। গত ৬ সেপ্টেম্বর শুক্রবার দিবাগত রাত ২টায় সংবাদ পেয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশের এস আই প্রদীপ রায় সঙ্গীয় ফৌর্স নিয়ে নির্মানাধীন বাড়ীতে অভিযান পরিচালনা করে নারী লোভী সেবুল আহমদকে আটক করে এবং ধর্ষীতাকে উদ্ধার করে জৈন্তাপুর মডেল থানায় নিয়ে আসে।

এঘটনায় ফারহানা বাদী হয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানায় লিখিত এজাহার দিলে পুলিশ এজাহারটি মামলা হিসাবে রের্কড করে, যাহার নং-৪ তারিখ: ০৭-০৯-২০১৯ ইং। ভিকটিম ফারহানাকে পুলিশ হেফাজতে সিলেটে এম.এ.জি ওসমানি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসি সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে এবং ধর্ষক সেজুলকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।
এবিষয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ শ্যামল বনিক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন- সংবাদ পেয়ে তাৎক্ষনিক ভাবে পুলিশ অভিযান পরিচালনা করে নির্মানাধীন বাড়ী হতে আটক করি। মামলা দায়ের পূর্বক তাদেরকে আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।

ভিকটিমের সাক্ষ্য গ্রহণ ও বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ শুরু

বেনাপোল প্রতিনিধিঃ  যশোরের শার্শার লক্ষণপুরে গৃহবধূ গণধর্ষণ মামলা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনে (পিবিআই) নিকট হস্তান্তরের পর কার্যক্রম শুরু করেছেন দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা। ইতিমধ্যে পিবিআই’র একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শনসহ ভিকটিমের সাক্ষ্য গ্রহণ ও বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করেছেন।
পিবিআই যশোরের পরিদর্শক মোনায়েম খান জানান, মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে তারা আধুনিক বিভিন্ন প্রযুক্তিও ব্যবহার করছেন। তারা আশা করছেন তদন্ত শেষে খুব দ্রুত তারা এ ব্যাপারে রিপোর্ট প্রদান করতে পারবেন।
শার্শা উপজেলার লক্ষণপুর গ্রামের এক নারী গত ৩ সেপ্টেম্বর অভিযোগ করেন ২ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে স্থানীয় গোড়পাড়া ফাঁড়ি পুলিশের ইনচার্জ এসআই খায়রুল আলম ও তার সোর্স কামারুল তাকে ধর্ষণ করে। এসময় লতিফ ও কাদের নামে দুইজন তার ঘরের বাইরে দাঁড়িয়ে ছিল।  ৩ সেপ্টেম্বর রাতেই এ ঘটনায় মামলা ও অভিযুক্তদের মধ্যে তিনজনকে আটক করে পুলিশ। তবে মামলায় প্রধান অভিযুক্ত এসআই খায়রুল আলমকে আসামি না করে বাকি তিনজনকে করা হয়।

রেজওয়ান করিম সাব্বির, জৈন্তাপুর সিলেট প্রতিনিধিঃ  শাহজালাল-শাহপরানের পূণ্যভূমি সিলেটে এসে নিজ শিশু কন্যার ব্যতিক্রমধর্মী ১ম জন্মবার্ষিকী পালন করলেন জৈন্তাপুর মডেল থানার সদ্য বিদায়ী অফিসার ইনচার্জ খান মোঃ মাইনূল জাকির। জাকিরের ব্যতিক্রমী আয়োজনকে সাধুবাদ জানিয়েছে সুশিল সমাজ।
আজ ছিল মাইনূল জাকিরের অন্য রকম একটি সূর্য উদয়। নিজের মত করে সাজিয়ে নেওয়া অন্য রকম দিন। কারন এই দিনে জন্ম গ্রহন করে তার কন্যা সন্তান “আমায়রা তাবাসসুম খান রায়া”। রায়া’র ১ম জন্মদিন অন্যন্যাদের চাইতে আলাদা ভাবে উদযাপন করতে সিদ্ধান্ত নেন  তিনি।

এতিম শিশুদের নিয়ে কেক কাটা ও তাদের সাথে আনন্দভোগ এবং দিন যাপন করা। যেমন পরিকল্পনা তেমন কাজ করেলেন ময়নূল। গতকাল দুপুরে শাহজালাল-শাহপরানের পূণ্যভূমি সিলেটে এসে জেলা সমাজসেবা অফিসের বাগবাড়ী সিলেটের ছোটমণি নিবাসের সোনা-মনিদের নিয়ে পালন করেলেন তার শিশুকন্যা “আমায়রা তাবাসসুম খান রায়া” প্রথম জন্মবার্ষিকী। শিশু নিবাসের ছোট ছোট সোনামনিদের নিয়ে কাটলেন কেক। পরে শিশুদের নিয়ে কিছু আনন্দ সময় আনন্দ উপভোগ করলেন এবং দুপুরে ছোট ছোট সোনা-মনিদের খানা খাওয়ালেন।

ওসি মাইনূল জাকিরের সাথে আলাপকালে তিনি বলেন- আমি সিলেটের মাটিতে চাকুরীরত অবস্থায় আমার ঘর আলোকিত করে “আমায়রা তাবাসসুম খান রায়া” জন্মগ্রহন করে। তাই চিন্তা করলাম মানুষ নিজের জন্য অনেক কিছু করে। আমার নিজের ইচ্ছা ছিল কোন একটি ভাল দিনে এতিম শিশুদের নিয়ে একবেলা আহার করব। আল্লাহর অশেষ মেহেরবানীতে আমার মেয়ে “আমায়রা তাবাসসুম খান রায়া” জন্মদিনটি শিশু নিবাসের ছোট সোনামনিদের নিয়ে পালন করলাম। আমি এতিম এই ছোট ছোট সোনামনিদের নিয়ে আমার মেয়ের ১ম জন্মবার্ষিকী পালন করতে পেরে সত্যিই আল্লাহর দরবারে হাজারো শুকরিয়া আদায় করছি। কারন তিনিই আমাকে জান্নাতের বাগানের অবুঝ শিশুদের মধ্যে স্বপরিবারে সুষ্ট ভাবে এসে দিবসটি উদযাপন করতে পেরেছি। আমি মনে করি যে কেউ যদি এভাবে এগিয়ে আসে কিংবা তাদের সাথে কিছু সময় কাটায় তাহলে অন্য রকম উপলব্দী উপভোগ করবে, মনে শান্তি পাবে।

তিনি আরও বলেন চাকুরি জীবনে ইচ্ছা করলেও অনেক সময় সুযোগ হয় না, আমি আল্লাহর রহমতে এই সুযোগ পাওয়ায় মহান রাব্বুল আল-আমিনের শোকরিয়া আদায় করছি। আমি সামাজের বৃত্তবানদের বলব আমরা আমাদের সোনা-মনিদের জন্মবার্ষিকী পালন করতে নানা আয়োজন করি, লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করি। একবার অন্তত আপনারা এতিম শিশুদের নিয়ে আপনার জীবনের গুরুত্বপূর্ণ দিনটি পালন করুন সত্যিই অন্য রকম আনন্দ উপভোগ করবেন এবং জীবনকে সার্থক মনে করবেন। সেই সাথে শিশু নিবাসের পরিচালক সহ সকল কর্মকর্তা কর্মচারিকে সুযোগ করে দেওয়ার জন্য তিনিই কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
এদিকে সুশিল সমাজকর্মীরা বলেন, ওসি ময়নূল জাকিরের এরকম ব্যতিক্রমধর্মী আয়োজনের মধ্যে দিয়ে তার মহানুবতার পরিচয় দিয়েছেন। আমরা মনে করি সমাজের বৃত্তশালীরা যদি নিজ নিজ উদ্যোগে এমন ব্যতিক্রমীধর্মী উদ্যোগ গ্রহন করে তাহলে সমাজের চিত্র পাল্টে যাবে। আমরা বৃত্তবানদের এরকম আয়োজনকে স্বাগত জানাই।

চুনারুঘাট প্রতিনিধিঃ চুনারুঘাটে দশম শ্রেনীর এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে অপহরন করেছে বলে চুনারুঘাট থানায় ছাত্রীর পিতা সফিক মিয়া অভিযোগ করেছেন।
অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার পাইকপাড়া ইউনিয়নের দৌলত খা আবাদ গ্রামের মোঃ সফিক মিয়ার মেয়ে ও পাইকপাড়া আজগর আহমদ দাখিল মাদ্রাসার দশম শ্রেনীর ছাত্রী (১৪) কে গত ৫ সেপ্টেম্বর সকাল ৯ টার দিকে মাদ্রাসায় যাওয়ার সময় মাদ্রাসার পুর্বের রাস্তা হইতে নয়ানী গ্রামের তৈয়ব আলীর ছেলে মোঃ সুমন মিয়া (৩৫)সহ তার লোকজন  ছাত্রীকে অপহরন করে নিয়ে যায়।
অনেক খোজাখুজির পর, শনিবার ৭ সেপ্টেম্বর অপহৃতা  ছাত্রীর পিতা সফিক মিয়া বাদী হয়ে সুমনসহ ৪ জনের  বিরুদ্ধে চুনারুঘাট থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগটি থানার এস আই হাবিবুর রহমান এর কাছে রয়েছে। থানার ওসি শেখ নাজমুল হক  বলেন ছাত্রীকে উদ্ধার করতে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ ইন্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এমপি,মিথ্যা সংবাদ প্রকাশিত হওয়ায় যাদুকাটা নদীতে শ্রমিকরা কাজ করতে পারছে না। কাজ না করলে শ্রমিকরা কি করে খাবার যোগাবে। শ্রমিকরা কাজ না পেয়ে আমাকে বার বার তাগিদ দেয় তাদের কাজের ব্যবস্থা করে দেবার জন্য। আজ প্রশাসনের উধর্বতন কর্মকর্তা এসেছেন তিনি নিজ চোখে দেখবেন শ্রমিকদের বিরুদ্ধে চক্রান্রতের কারনে তারা কত অসহায়।
সাংবাদিকদের উদ্দেশে বলেন,আপনারা মুখের খাবার কেড়ে নিবেন না। শ্রমিকরা দিনে আনে দিনে খায়। নদীতে কাজ না করলে না খেয়ে থাকতে হয়। মিথ্যা সংবাদ পরিহার করুন। মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করে শ্রমিকদের পেঠে লাথি দিবেন না। একটি মিথ্যা সংবাদ একটি পরিবার,সমাজ ও প্রশাসনকে ক্ষতির মুখে আর হয়রানীর মধ্যে ঠেলে দেয়।
শ্রমিকদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন,সরকার নিদের্শিত নিয়ম অনুযায়ী নদীতে পতাকা টেনে দিয়েছে তার মধ্যে কাজ করতে হবে। পুশিশের নামে চাদাঁবাজি হয় তা মিথ্যা বানোয়াট চাঁদাবাজরা চাঁদাবাজি করতে না পারায় মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করে।
প্রশাসন সব জানেন তারপরও প্রশাসন চাপের মধ্যে থাকায় কাজ বন্ধ করতে হয়। আপনারা (শ্রমিকরা) সঠিক ভাবে নিয়ম মেনে কাজ করুন আমিসহ প্রশাসন আপনাদের পাশে আছে আর থাকব।
তাহিরপুর উপজেলার  যাদুকাটা নদীতে শ্রমিকদের কাজের দাবীতে শনিবার (০৭,০৯,১৯)দুপুরে  বিশাল শ্রমিক সমাবেশ প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
শ্রমিক সমাবেশ শাহ আরফিন সমিতির সভাপতি আব্দুল শহিদের সভাপতিত্বে ও ছাত্রলীগ নেতা রাহাদ হায়দারের পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন,তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান করুনা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল,সুনামগঞ্জ পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান,উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রিয়াজ উদ্দিন খন্দকার লিটনখালেদা বেগম,তাহিরপুর উপজেলা ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা মুনতাসীর আহমদ,উপজেলা আ’লীগের সহ সভাপতি ও বাদাঘাট ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন,আলখাছ উদ্দিন খন্দকার,মোশারফ হোসেন,জেলা আ,লীগের সদস্য ও বাদাঘাট ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন,তাহিরপুর উপজেলা আ,লীগের সাধারণ সম্পাদক অমল কান্তি কর,উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক হাফিজ উদ্দিন,পলাশ,সিনিয়র যুগ্ম আহবাক রায়হান উদ্দিন রিপন,উত্তর বড়দল ইউনিয়নের যুবলীগ সভাপতি মাসুক মিয়া,ছাত্রলীগ সভাপতি আবুল বাসার প্রমুখ।
ইন্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এমপি মানিগাও গ্রামে মানিগাও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪তলা ভবনের উদ্বোধন করেন। বিকালে উপজেলায় ৩৫টি গ্রামে নতুন বিদ্যুৎ লাইনেরও  উদ্বোধন করেন তিনি।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc