Wednesday 23rd of October 2019 06:50:42 AM

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ সোমবার সকাল ১০ টা থেকে দুপুর পর্যন্ত  মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার ৫ নং কালাপুর ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গণে-P4D প্রকল্পের আওতায়  ‘স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও নাগরিক সেবা নিশ্চিতকরণে জনঅংশগ্রহণ আমাদের অঙ্গীকার গণশুনানী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন মোঃ রুকনউদ্দিন উপ-পরিচালক স্থানীয় সরকার, মৌলভীবাজার। বিশেষ অতিথি ছিলেন নজরুল ইসলাম উপজেলা নির্বাহী অফিসার, শ্রীমঙ্গল।

আরও উপস্থিত ছিলেন, শমসের খান সহ-সভাপতি, শ্রীমঙ্গল উপজেলা আ’লীগ।অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন-কালাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান (মুজুল) ।

গণশুনানী অনুষ্ঠান উপস্থিত কালাপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত নাগরিক বৃন্দ।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন আলমগীর মিয়া বিভাগীয় সমন্বয়কারী, পিফরডি প্রকল্প বৃটিশ কাউন্সিল। নুরুল ইসলাম প্রধান শিক্ষক, ভৈরবগঞ্জ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়,মাহবুবুল আলম জেলা সমন্বয়কারী গ্রাম আদালত প্রকল্প ইউএনডিপি প্রতিনিধি, অনুষ্ঠানের সঞ্চালনায় ছিলেন হামিদুর রহমান নির্বাহী পরিচালক, ম্যাক বাংলাদেশ, শ্রীমঙ্গল।

আরও উপস্থিত ছিলেন, ডাঃ আমিনুল ইসলাম কাজল,কাশ্মীর আহমেদ নাহিদ সাধারন সম্পাদক, কালাপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ, হাবিবুর রহমান লোবন SAF লিডার, পিফরডি প্রকল্প, ও অত্র পরিষদের সদস্য, সংরক্ষিত মহিলা সদস্যবৃন্দগনসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ প্রমুখ।

আগের লিংকটি দেখুন।

আজ কালাপুর ইউনিয়নে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতামূলক গণশুনানী

আবু তাহেরঃ ফ্রান্সে বসবাসরত বাংলাদেশী  নারীদের সংগঠন বাংলাদেশ মহিলা সমিতি ফ্রান্সের কমিটি গঠন করা হয়েছে।গত শনিবার  প্যারিসের এক অভিজাত রেস্টুরেন্টে আয়োজিত এ সভায় সর্বসম্মতিক্রমে শিউলিকে সভাপতি ও হেপি রহমান কে সাধারণ সম্পাদক করে ১১ সদস্য বিশিষ্ঠ কার্যকরী কমিটি গঠন করা হয়।

এসময় নবগঠিত কমিটির সভাপতি শিউলি , সাধারণ সম্পাদক হেপি রহমান , শরীফা আলম , তানিয়া বেগম ও রুমানা রহমান বক্তব্য রাখেন।

গ্রামীণ  ও অসহায় নারীর কর্মসংস্থান, নারীর আত্মমর্যাদা প্রতিষ্ঠা, নারীকে  ‘বাঁচতে শেখা’ এ সংগঠনের মাধ্যমে করার চেষ্টা করবেন বলে জানান বক্তারা।  তারা বলেন প্রবাসে বিশেষ করে ইউরোপে নারীরা অনেকটাই সাবলম্বী তার কারণ হচ্ছে পরিবেশ , উন্নত নীতিমালা ও নারীদের সুরক্ষা।

বাংলাদেশে সরকারের পাশাপাশি নারীদের উন্নয়নে বিত্তশালী ও সচেতন সমাজকে এগিয়ে আসা অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। তারা বলেন  নারীদের অধিকার আদায়ের জন্য একটি প্লাটফর্ম তৈরি করতে প্রবাসে বসবাসরত সাবলম্বী নারীদের এগিয়ে আসা দরকার।

আগামী দুই মাসের মধ্যে সংগঠনের কর্মপরিকল্পনা প্রকাশ ও অভিষেক অনুষ্ঠান করা হবে বলে জানান তারা।

এম ওসমান:  দুর্গাপূজায় শুভেচ্ছা হিসেবে ৫০০ টন ইলিশের প্রথম চালান ভারতে যাচ্ছে আজ যশোরের বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে প্রথম ২৪ মেট্রিক টন চালান পাঠানো হচ্ছে।
জানা যায়, প্রতিকেজি ইলিশ ৬ ডলার মূল্যে রফতানি করা হচ্ছে। ফলে বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রতিকেজির দাম পড়বে ৫০০ টাকা করে। ভারত ও বাংলাদেশ দুই দেশের কাস্টমস থেকে শুল্কমুক্ত সুবিধায় ছাড় করা হবে ইলিশের এ চালান।
এ বিষয়ে ব্যবসায়ী সৈয়দ মহিতুল হক রুবাই জানান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে পূজা উপলক্ষে ভারতে ৫০০ মেট্রিক টন ইলিশ রপ্তানির সিদ্ধান্ত হয়েছে। আগামী ১০ অক্টোবরের মধ্যে ৫০০ মেট্রিক টন ইলিশের সব চালান সেখানে রপ্তানির নির্দেশনা রয়েছে। বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা ভারতের কলকাতায় ইলিশ নিয়ে যাবেন। পরে সেখানকার বাজারে তা বিক্রি করবেন। মূলত কলকাতার বাজারেই এ ইলিশ বিক্রি হবে।

এর আগে গত বুধবার ইলিশ পাঠানোর এ অনুমোদন দিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। ইলিশের রফতানিকারক প্রতিষ্ঠান ঢাকার গাজীপুরের একুয়াটিক রিসোর্ট লিমিটেড। আমদানিকারক ও সিঅ্যান্ডএফ হচ্ছে ভারতের কলকাতার নাজ ইমপেক্স প্রাইভেট লিমিটেড।

প্রসঙ্গত, ভারতের প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে বন্ধুত্ব ও সুসম্পর্ক বাড়াতে দুর্গাপূজা উপলক্ষে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ৫০০ টন ইলিশ রফতানির সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ সরকার। যদিও ২০১২ সালের আগ পর্যন্ত ভারতে ইলিশ রফতানি করা হতো। তবে দেশে ইলিশের উৎপাদন কমে যাওয়ায় ২০১২ সালের পরে ভারতে ইলিশ রফতানি বন্ধ করে দেয় সরকার। সাত বছর পর পূজা উপলক্ষে ফের ইলিশ রফতানি করা হলো। এছাড়া চলতি বছর পশ্চিমবঙ্গে তেমন ইলিশ ধরা পড়েনি। গত বছর যে ইলিশ ২০০ রুপি কেজিতে বিক্রি হয়েছিল, এবার সেই ইলিশ ৫০০ রুপিতে বিক্রি হচ্ছে।

বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট মহাসচিব মাওলানা এম এ মতিনকে কটুক্তি করায় মহানগর ইসলামী ফ্রন্ট কর্মী মুহাম্মদ জাহেদুল হক চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতে ও চন্দনাইশ থানার ইসলামী ফ্রন্ট কর্মী মোহাম্মদ ওসমান শাহাদাত চট্টগ্রাম জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (সিজেএম) আদালতে রাঙ্গুনিয়ার মুহাম্মদ গোলাম ইমাম হোসাইনের বিরুদ্ধে ১০ কোটি টাকার ২ টি মানহানি মামলা (মামলা নং সি.আর-২২৩৭/১৯ কোতোয়ালি ও সি.আর-২৪৫/১৯ চন্দনাইশ) দায়ের করেছেন।
চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-২ (কোতোয়ালী আমলী আদালত) এর বিজ্ঞ বিচারক আবু সালেম মোহাম্মদ নোমানের আদালতে ও চট্টগ্রাম জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-১ (চন্দনাইশ আমলী আদালত) এর বিজ্ঞ বিচারক আদালতে আজ ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ রবিবার সকালে মামলাটি রুজু করা হয়।
মামলায় অভিযোগ সূত্রে উল্লেখ করা হয়, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের মহাসচিব মাওলানা এম এ মতিন স্বনামধন্য ইসলামী চিন্তাবিদ ও জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব। তাঁর সম্মানহানি করার মানসে আসামী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ইয়াজিদ, দালাল, দুর্নীতিবাজ, পদলোভীসহ বিভিন্ন অশ্লীল ও কুরুচিপূর্ণ ভাষায় ভিত্তিহীন অসত্য তথ্য দিয়ে মিথ্যাচার করেছে। মহাসচিব দলের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী, তাঁর মানহানির মাধ্যমে মূলতঃ দলেরও মানহানি করা হয়েছে।
ফলে বাদীগণ দলের সদস্য হিসাবে মর্মাহত ও সংক্ষুদ্ধ হয়ে আদালতের দ্বারস্ত হয়েছেন। উভয় মামলার বিবরণীতে উল্লেখ করা হয়, ইসলামী ফ্রন্ট মহাসচিবের প্রায় ১০ কোটি করে ২০ কোটি টাকার মানহানি হয়েছে। ফৌজদারি অভিযোগটি আমলে নিয়ে সিএমএম আদালত ডিটেকটিভ ব্রাঞ্চ (ডিবি)কে ও সিজেএম আদালত পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) কে তদন্তের নির্দেশ প্রদান করেন।
বাদী পক্ষে বিজ্ঞ কৌশুলী ছিলেন, অ্যাডভোকেট মোঃ এরশাদ, অ্যাডভোকেট মোঃ এমরান নাঈম, অ্যাডভোকেট দিদারে আলম, অ্যাডভোকেট প্রতীত বড়ুয়া (জনি), আ্যাডভোকেট মোজাম্মেল হক ফারুকী, অ্যাডভোকেট মহিউদ্দীন চৌধুরী, অ্যাডভোকেট মিজানুর রহমান সামি, অ্যাডভোকেট ওয়াহিদুজ্জামান চৌধুরী, অ্যাডভোকেট আসাদুজ্জামান রুবেল, অ্যাডভোকেট ইমরান হোসেন ইমু, অ্যাডভোকেট ফাহিম ইবনে রহমান, অ্যাডভোকেট ইমরান হোসাইন, অ্যাডভোকেট রোকন উদ্দিন, অ্যাডভোকেট মিথিলা রহমান, অ্যাডভোকেট শাহাদত শরীফ, অ্যাডভোকেট আরিফুল কবির, অ্যাডভোকেট প্রসেনজিৎ, অ্যাডভোকেট সুজন বিশ্বাস, অ্যাডভোকেট প্রমীলা বড়ুয়া সহ শতাধিক আইনজীবী।
এ ব্যাপারে বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব (মুখপাত্র) অধ্যক্ষ স. উ. ম আবদুস সামাদ বলেন, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের বিরুদ্ধে একটি কুচক্রী মহল ধারাবাহিক ষড়যন্ত্র করে আসছে। তাদেরকে চিহ্নিত করা হয়েছে। নেতাকর্মীরা সংক্ষুদ্ধ হয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালসহ সারাদেশে অসংখ্য মামলা ফাইলিংয়ের ব্যাপারে আমাকে কল করে জানিয়েছেন।
ছাত্রসেনার কেন্দ্রীয় সভাপতি জি.এম শাহাদত হোসাইন মানিক বলেন, অসত্য ও বিভ্রান্তিকর তথ্য দিয়ে সংগঠনের জাতীয় নেতৃবৃন্দকে বিতর্কিত করতে যারা অপচেষ্টা করছে, তাদের কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। আমার নিকট তথ্য আছে, ঢাকা, সিলেট, হবিগঞ্জ, বি-বাড়ীয়া, কক্সবাজারসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট, যুবসেনা ও ছাত্রসেনার নেতাকর্মীরাও ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে মামলা প্রস্তুতি নিয়েছে ।

ইয়েমেনের জনপ্রিয় হুথি আনসারুল্লাহ আন্দোলন সমর্থিত সামরিক বাহিনী সৌদি আরবের বিরুদ্ধে যে বিশাল সামরিক অভিযান চালিয়েছে তার ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করেছে। ৭২ ঘণ্টার ওই অভিযানে সৌদি আরবের বেশ কয়েকজন সামরিক কর্মকর্তা এবং কয়েক হাজার সেনা সদস্য আটক হয়েছে।

আজ (রোববার) বিকেলে ইয়েমেনের রাজধানী সানায় এক সংবাদ সম্মেলনে দেশটির সামরিক বাহিনীর মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইয়াহিয়া সারি সৌদি আরবের বিরুদ্ধে পরিচালিত অভিযানকে ‘আল্লাহর পক্ষ থেকে বিজয়’ বলে অভিহিত করেন।

২০১৫ সালের ২৬ মার্চ দারিদ্র্যপীড়িত ইয়েমেনের বিরুদ্ধে বর্বর সামরিক আগ্রাসন শুরু করার পর সৌদি সেনাদের ওপর এটি ছিল ইয়েমেনি সেনাবাহিনী ও হুথিদের সবচেয়ে বড় অভিযান।

ইয়েমেনে সামরিক বাহিনী যে ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করেছে তাতে সৌদি আরবের কোন এলাকায় তারা অভিযান চালিয়েছে তার যেমন বর্ণনা রয়েছে তেমনি ইয়েমেনি যোদ্ধারা সৌদি অবস্থানে যে সমস্ত গোলাবর্ষণ করছে তার দৃশ্য রয়েছে।

ভিডিওতে সৌদি সেনা এবং তাদের ভাড়াটে সন্ত্রাসীদের পালিয়ে যেতে দেখা যায়। পাশাপাশি বহুসংখ্যক সামরিক যান ধ্বংস হয়ে পড়ে আছে রাস্তার আশেপাশে- তাও দেখা যাচ্ছে।

এছাড়া বহু মৃতদেহ যেখানে সেখানে পড়ে থাকতে দেখা গেছে। আটক সৌদি সমর্থিত অনেক গেরিলা জানিয়েছে, তারা লোভে পড়ে অর্থের বিনিময়ে সৌদি আরবের পক্ষে ইয়েমেনের জনগণের বিরুদ্ধে যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছে।পার্সটুডে

সৌদি আরবের জেদ্দার হারামাইন হাই-স্পিড রেল স্টেশনে আগুন লেগেছে। সৌদি আরবের বেসামরিক প্রতিরক্ষা বিভাগ রোববার এ তথ্য জানিয়েছে। একটি স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে ষ্টেশনের ভিতরে মানুষের চিৎকারের শব্দ শুনা গেছে।

 তবে এখন পর্যন্ত হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। অগ্নিকাণ্ডের কারণ জানা যায়নি।

সৌদি আরব গত বছরের সেপ্টেম্বরে হাই স্পিড রেল লাইন উদ্বোধন করে। সাড়ে চারশ’ কিলোমিটার দীর্ঘ এই রেল লাইনটি পবিত্র মক্কা ও মদিনার মধ্যে সংযোগ স্থাপন করেছে। হারামাইন রেল স্টেশন নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৬৭০ কোটি ইউরো।

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা সীমান্তে  লাউড়েরগড় এলাকা দিয়ে ভারতীয় সীমান্তে অনুপ্রবেশের দায়ে ৫ বাংলাদেশী নাগরিককে আটক করেছে সুনামগঞ্জ-২৮ বর্ডাগার্ড বিজিবি সদস্যরা।
আটককৃতরা হল, উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের সীমান্ত সংলগ্ন বড়গোফ টিলা গ্রামের আলা উদ্দিনের ছেলে লোকমান হোসেন (১৮), বারহাল গ্রামের কিতাব আলীর ছেলে মনির হোসেন (২৫), চানপুর গ্রামের কাচা মিয়ার ছেলে কুদরত আলী (২৪), গারোহাটি গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে জুয়েল মিয়া (১৯) এবং উত্তর বাদাঘাট ইউনিয়নের দশঘর গ্রামের আইয়ুব আলীর ছেলে স্বপন মিয়া (২৫)।
সুনামগঞ্জ ব্যাটালিয়ন (বিজিবি-২৮) অধিনায়ক মোঃ মাকসুদুল আলম এর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,আটককৃত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য তাহিরপুর থানায় হস্তান্তরের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
তিনি জানান,রবিবার দুপুরে লাউড়েরগড় বিওপির একটি টহল দলআন্তর্জাতিক সীমান্ত পিলার ১২০৩/৩-এস এর নিকট তাহিরপুরের যাদুকাটা নদী দিয়ে অবৈধভাবে ভারত সীমান্তে অনুপ্রবেশ করার দায়ে যাদুকাটা নদী থেক এসময় ৫ জন বাংলাদেশী নাগরিককে আটক করে।

মিনহাজ তানভির,শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধিঃ  আজ সোমবার ৩০ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টায়  শ্রীমঙ্গল উপজেলাধীন ৫ নং কালাপুর ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গনে- P4D প্রকল্পের আওতায় স্থানীয় একটি সংস্থার সহযোগিতায় “স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও নাগরিক সেবা নিশ্চিতকরণে জনঅংশগ্রহণ আমাদের অঙ্গীকার” গণশুনানী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে।

এতে মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরীন, উপজেলা চেয়ারম্যান রণধীর কুমার দেব ও শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম  উপস্থিত থাকবেন।

উক্ত গণশুনানি অনুষ্ঠানে অত্র ইউনিয়নের সকল নাগরিক, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা কর্মচারীগন, সাংবাদিক বৃন্দগন, বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দগন, এনজিও প্রতিনিধিগন ও ব্যবসায়ী, শ্রমিক সংগঠনসহ সকল শ্রেনী পেশার সুধী জনককে যথাসময়ে উপস্থিতি হয়ে অংশগ্রহণ করে “গণশুনানি” অনুষ্ঠানকে সফল ও সার্থক করার জন্যে সবাইকে বিনীতভাবে অনুরোধ জানিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান মুজুল।   

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলার বাংলাবাজার ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গণে রবিবার(২৯,০৯,১৯)দুপুরে সীমান্তবর্তী এলাকায় অপরাধ নির্মূলে মাদক,চোরাচালান,সন্ত্রাস,বাল্যবিবাহ ও ইভটিজিং প্রতিরোধে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মতবিনিময় সভায় দোয়ারাবাজার উপজেলার উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোনিয়া সুলতানার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন,জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,দোয়ারাবাজার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ডাঃ মোঃ আব্দুর রহিম প্রমুখ।

এসময় সহকারী কমিশনার(ভূমি)তাপস শীলসহ উপজেলা পর্যায়ে বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা,জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিগন উপস্থিত ছিলেন।

মতবিনিময় সভায় জেলা প্রশাসক জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ সীমান্তবর্তী এলাকায় অপরাধ নির্মূলে সরকারের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপ তুলে ধরেন।

তিনি ৯৯৯,৩৩৩,১০৬,১০৯সহ জরুরি জনগুরুত্বপূর্ণ হটলাইন সেবা সম্পর্কে উপস্থিত সকলকে অবগত করেন বলেন,আপনারা সবাই নিজ নিজ অবস্থান থেকে সজাগ দৃষ্টি রাখুন। আপনাদের সন্তান ও আগামী প্রজন্মকে একটি সুস্থ আর সুন্দর বাংলাদেশ গড়তে ও অপরাধ নির্মূলে মাদক,চোরাচালান,সন্ত্রাস,বাল্যবিবাহ ও ইভটিজিং প্রতিরোধে এগিয়ে আসুন।

এম ওসমান, বেনাপোল : বেনাপোলে দুদকের সাবেক ডিডি আহসান আলীকে আটকের দাবিতে বেনাপোল কাস্টমস সিএন্ডএফ এসোসিয়েশনের আয়োজনে স্থলবন্দর ব্যবহারকারী বিভিন্ন সংগঠন বেনাপোল কাস্টমস হাউজের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে।
রবিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১ টার সময় শুরু হয়ে সকাল ১২টা পর্যন্ত এ কর্মসুচি শেষ হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বেনাপোল কাস্টমস এক্সিকিউটিভ অফিসার্স এসোসিয়েশন, বেনাপোল সিএন্ডএফ ষ্টাফ এসোসিয়েশন, বেনাপোল স্থলবন্দর চট্টগ্রাম বিভাগীয়স্থ সমিতি, বেনাপোল ট্রান্সপোর্ট মালিক সমিতি, বেনাপোল স্থলবন্দর হ্যান্ডলিং শ্রমিক ইউনিয়ন ৮৯১/৯২৫, ঝিকরগাছা শার্শা বেনাপোল ট্রাক মালিক সমিতি, যশোর জিলা ট্রাক ও ট্যাংক লড়ি শ্রমিক ইউনিয়ন, বেনাপোল।
এসময় বক্তারা বলেন, শুল্ক ফাঁকিবাজ, রাজস্ব শত্রু, ভায়াগ্রা মাফিয়া ও চোরাকারবারীদের গডফাদার আহসান আলীর নের্তৃত্বে চোরাকারবারী  সংঘবদ্ধ চক্র কমিশনার ও বেনাপোল কাস্টম হাউসের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত মিথ্যাচার, অপপ্রচার ও প্রতিশোধমূলক কর্মকান্ডে লিপ্ত আছে। কেবল হয়রানি, শত্রুতামূলক প্রতিহিংসা চরিতার্থের জন্যে আহসান আলী দুদকের মতো জাতীয় প্রতিষ্ঠানের নাম, পদবী ও প্রশাসনকে ব্যবহার করে নিজের উদ্দেশ্য হাসিল করতে চেয়েছেন। কোন প্রকার প্রামাণ্য তথ্য উপাত্ত ছাড়া কমিশনার মহোদয়ের বিরুদ্ধে বেনামী চিঠি দুদকসহ শতাধিক দপ্তর ও মিডিয়ায় বিতরণ করে বেনাপোল কাস্টম হাউস ও উচ্চ পদস্থ একজন কর্মকর্তার সম্মানহানি হয়েছে।
যার ফলে কাস্টমসে রাজস্ব ঘাটতি হয়েছে, আমদানি-রফতানি কারকরা সঠিক সময়ে তাদের পণ্য ডেলিভারি নিতে পারেনি। অনেক প্রতিষ্ঠান ঠিক মতো কাজ করতে পারেনি। এজন্য তারা দ্রুত সময়ে তাকে আটক করে আইনের আওতায় আনার আহবান জানান। অন্যথায়, তারা কঠোর কর্মসুচি পালনের হুশিয়ারী দেন।

বিনোদন ডেস্ক :বাংলাদেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য, সভ্যতা, সংস্কৃতি, পর্যটন ও প্রত্নতাত্ত্বিক জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানসমূহে গিয়ে ইত্যাদি ধারণের ধারাবাহিকতায় এবারের পর্ব ধারণ করা হয়েছে নৈসর্গিক সৌন্দর্যের নান্দনিক দৃশ্যাবলীতে সাজানো কিশোরগঞ্জের হাওড়ের মাঝখানে দ্বীপের মত ভেসে থাকা মিঠামইনের হামিদ পল্লীতে।
প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি কিশোরগঞ্জের অসাধারণ নৈসর্গিক দৃশ্যের সাথে সংগতি রেখে সাজানো মঞ্চে ধারণ করা হয় এবারের ইত্যাদি। ইত্যাদির ধারণ উপলক্ষে ভাটির দেশ কিশোরগঞ্জে ছিল উৎসবের আমেজ। সকাল থেকেই কিশোরগঞ্জ শহর, করিমগঞ্জ, ইটনা, অষ্টগ্রাম, ভৈরব, নিকলী, কটিয়াদী, হোসেনপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়াসহ বিভিন্ন স্থান থেকে শত শত নৌকা-ট্রলারে করে হাজার হাজার মানুষ আসতে থাকেন হামিদ পল্লীতে। হাওড়ের মাঝখানে ছোট্ট এই পল্লীটির চারিদিকে হাজার হাজার নৌকা-ট্রলারের সারি এক অভূতপূর্ব দৃশ্যের সৃষ্টি করেছিল।
অত্যন্ত সুশৃঙ্খলভাবে লাইনে দাঁড়িয়ে স্থানীয় প্রশাসন ও সাধারণ মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত সহযোগিতায় দুপুর ২টা থেকেই আমন্ত্রিত অতিথিরা অনুষ্ঠানস্থলে আসতে থাকেন। বিকেলের মধ্যেই কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায় অনুষ্ঠানস্থল। আমন্ত্রিত দর্শক ছাড়াও হাজার হাজার মানুষ হাওড়ের পাড়ে দাঁড়িয়ে, নৌকা ও ট্রলারের ছাদে বসে ইত্যাদির ধারণ উপভোগ করেন। হাওড়ের মাঝখানে এ যেন জনসমুদ্র। এত দুর্গম অঞ্চলে অনুষ্ঠান হওয়া সত্ত্বেও অনুষ্ঠানস্থলে প্রায় লক্ষাধিক দর্শক সমাগম হয়েছিল।
বাংলাদেশের যখন যে স্থানে ইত্যাদি ধারণ করা হয় সেই স্থানটির বৈশিষ্ট্যকে কেন্দ্র করেই মঞ্চ নির্মাণ করা হয়। ফলে দর্শকরা যেমন ঐ স্থানটি সম্পর্কে জানতে পারেন, তেমনি নিত্য-নতুন লোকেশনের কারণে প্রতিবারই মঞ্চ নির্মাণেও আসে বৈচিত্র্য। এবারও হাওড় অঞ্চলের জীবন-জীবিকা, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য তুলে ধরে জলে ও ডাঙ্গায় শতাধিক নৌকা রেখে নির্মাণ করা হয় নান্দনিক মঞ্চ। সব সময় রাতের আলোকিত মঞ্চে ইত্যাদি ধারণ করা হলেও এই স্থানের নৈসর্গিক রূপ রাতের বেলায় দেখানো সম্ভব নয় বলে এবার দিনের আলোর পড়ন্ত আভায় ইত্যাদির ধারণ শুরু হয়।
ফাগুন অডিও ভিশনের একজন মুখপাত্র জানান, তিন দশক পেরিয়ে চার দশকে পদার্পণ করেছে ইত্যাদি। সাধারণ মানুষের সমর্থন, সহযোগিতা, ভালোবাসার কারণেই ইত্যাদি এই দীর্ঘ পথ পাড়ি দিতে পেরেছে। আমরাও সব সময় বলি ইত্যাদি সব বয়সের, সব শ্রেণী-পেশার মানুষের প্রিয় অনুষ্ঠান।
কারণ একটি শিশুও যেমন ইত্যাদি দেখে, তেমনি তার দাদুও দেখেন। ইত্যাদিতে আমরা সবার কথা বলতে চেষ্টা করি। কারণ দেশ গড়ায় সবার অবদান রয়েছে। আর তাই আমরা ইত্যাদিকে নিয়ে যাই গ্রামে-গঞ্জে, সাধারণ মানুষের কাছে। দর্শকরা সময় বের করে আমাদের অনুষ্ঠান দেখতে বসেন। আমরাও তাদের সেই সময়ের মূল্য দিতে চেষ্টা করি।
স্টুডিওর বাইরে গিয়ে অনুষ্ঠান ধারণের এই ধারণাটিকে এখন অনেকেই গ্রহণ করেছেন। ফলে টেলিভিশন অনুষ্ঠান নির্মাণেও বৈচিত্র্য এসেছে। এবারে কিশোরগঞ্জের মিঠামইনের হাওড় অঞ্চলে ধারণকৃত অনুষ্ঠানটি বিষয় বৈচিত্র্য, স্থান নির্বাচন সবদিক থেকেই হয়েছে ব্যতিক্রমী ও উপভোগ্য।
গণমানুষের প্রিয় অনুষ্ঠান ইত্যাদির এই মিঠামইনের পর্বটি একযোগে বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে প্রচারিত হবে ০৪ অক্টোবর, শুক্রবার-রাত ৮ টার বাংলা সংবাদের পর।
ইত্যাদির রচনা, পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেছেন হানিফ সংকেত। নির্মাণ করেছে ফাগুন অডিও ভিশন। ইত্যাদি স্পন্সর করেছে যথারীতি কেয়া কসমেটিকস্ লিমিটেড।

হোসাইন ইকবাল, স্পেন থেকে: দোয়া মাহফিল ও আলোচনার মধ্য দিয়ে বঙ্গবন্ধুকন্যা মাদার অফ হিউম্যানিটি, সদ্য “ভ্যাকসিন হিরো“ খ্যাত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৩ তম জন্মবার্ষিকীতে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছে স্পেন আওয়ামী লীগ।

শনিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) রাতে স্পেন আওয়ামী লীগের আহবায়ক কমিটির উদ্যোগে মাদ্রিদের স্থানীয় ফাল্গুনী রেস্টুরেন্টে এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

স্পেন আওয়ামী লীগের আহবায়ক এস আর আই রবিন-এর সভাপতিত্বে এবং সদস্য সচিব মোঃ রিজভী আলমের পরিচালনায় অন্যান্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল কাদের, মাস্টার বদরুল আলম, আব্দুর রহমান, সন্মানিত সদস্য জহিরুল ইসলাম, একরামুজ্জামান কিরন, শ্যামল তালুকদার, তামিম চৌধুরী, জাকির হোসেন, দবির তালুকদার, সায়েম সরকার, এফ এম ফারুক পাভেল, আজম কাল ও আকতারুজ্জামান।

অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলওয়াত করেন স্পেন আওয়ামী লীগের অন্যতম যুগ্ম আহবায়ক মাস্টার বদরুল আলম। এরপর নেতা-কর্মীদের নানান স্লোগাণে মুখরিত হয়ে উঠে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এ জন্মদিনের অনুষ্ঠান।

দেশরত্ন শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা করে এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ভয়াল কালো রাতে খুনীচক্রের হাতে নিহত জাতির পিতার পরিবারের সকল সদস্যদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে এক বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়।

মোনাজাত পরিচালনা করেন স্পেন আওয়ামী লীগের সদস্য সচিব মোঃ রিজভী আলম। দুর্নীতির বিরুদ্ধে জননেত্রী শেখ হাসিনার কঠোর অবস্থান যেন সফলতা পায় এবং নেত্রীর সকল বিপদগুলো যেন আল্লাহ পাক নির্মূল করে দেন সেই দোয়াও করা হয়।

শেখ হাসিনার সাহসী নেতৃত্বে বাংলাদেশ যেভাবে বিশ্বদরবারে মাথা উচুঁ করে দাঁড়িয়েছে সেই ধারাবাহিকতা যেন অব্যাহত থাকে, সেই দোয়াও করেন।

মোনাজাত শেষে স্পেন আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা জন্মদিনের কেক কেঁটে আনন্দঘন পরিবেশের সৃষ্টি করেন। নেতা-কর্মীরা পরম মমতায় একে অন্যের মুখে কেক তুলে দিয়ে পরস্পরের মধ্যে রাজনৈতিক বন্ধন আরও জোরদার করেন।

এ সময় অন্যান্যদের মাঝে আরও উপস্থিত ছিলেন, স্পেন আওয়ামী লীগের অন্যতম নেতা ফয়জুর রহমান, রুবেল খান, রফিক খান, দিদারুল আলম, কামরুল ইসলাম, এ্যাডঃ তারিক হোসেন, আমিনুল ইসলাম, বেলাল হোসেন, আব্দুল আজিজ, জালাল উদ্দিন, আব্দুল মালেক, টিপু মিয়া, মাহবুবুল আলম বকুল, ইব্রাহিম খলিল সহ আরও অনেকে।দোয়া অনুষ্ঠান শেষে উপস্থিত সকলে স্পেন আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন কিভাবে সফল করা সেই বিষয়ের প্রতি গুরত্বারোপ করেন।

দুর্নীতি ও অনিয়মের সঙ্গে জড়িত থাকলে রাজনৈতিক সম্পর্ক নির্বিশেষে সকলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা অব্যাহত থাকবে বলে সতর্ক করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার বিকেলে নিউইয়র্কের ম্যারিয়ট মারকুইজ হোটেলে ইউএসএ চ্যাপ্টার অব আওয়ামী আয়োজিত এক নাগরিক সংবর্ধনায় তিনি বলেন, ‘আমি একটা কথা স্পষ্ট বলতে চাই, কেউ অসৎ পথে উপার্জন করলে, অনিয়ম, উচ্ছৃঙ্খলতা বা অসৎ কাজে জড়িত থাকলে, যদি ধরা পড়ে, তবে সে যেই হোক না কেন, আমার দলের হলেও ছাড় হবে না, তাদের বিরুদ্ধে আমাদের ব্যবস্থা অব্যাহত থাকবে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তার সরকার বিশাল আর্থিক বাজেট দিয়েছে এবং ব্যাপক উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ করেছে। কিন্তু এসব উন্নয়ন প্রকল্পের প্রতিটি টাকা যদি সঠিকভাবে ব্যয় করা হতো তবে আজকে বাংলাদেশ আরও অনেক বেশি উন্নত হতো পারত।

দুর্নীতির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা অব্যাহত থাকবে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আরেকটা জিনিস আমি দেখতে বলে দিয়েছি- সেটা হলো কার আয়-উপার্জন কত? কীভাবে জীবনযাপন করে? সেগুলো আমাদের বের করতে হবে। তাহলে আমরা সমাজ থেকে এই ব্যাধিটা, একটা অসম প্রতিযোগিতার হাত থেকে আমাদের সমাজকে রক্ষা করতে পারবো, আগামী প্রজন্মকে রক্ষা করতে পারব।’

 দুর্নীতির বিরুদ্ধে চলমান বিভিন্ন অভিযানের দিকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, ‘এখন আমাকে খুঁজে বের করতে হবে এখানে কোথায় ফাঁকফোকর, কোথায় ঘাটতিটা, কারা কোথায় কীভাবে এই জায়গাটা ক্ষতিগ্রস্ত করছে। সমাজের এই যে বৈষম্য এটা দূর করার জন্য এরইমধ্যে আমরা দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা পদক্ষেপ নিয়েছি।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান সেটাও অব্যাহত থাকবে। এই মাদক একটা পরিবার ধ্বংস করে, একটা দেশ ধ্বংস করে। এর সঙ্গে কারা আছে সেটাও আমরা খুঁজে বের করবো।’

বঙ্গবন্ধু কন্যা বলেন, বাংলাদেশ থেকে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদক দূর করে বাংলাদেশের মানুষকে আমরা উন্নত জীবন দিতে চাই।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের দেশে শুধু না আন্তর্জাতিক পর্যায়েও জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস এটা একটা সমস্যা। আমরা কঠোর ব্যবস্থা নিয়েছি জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস, মাদক এবং দুর্নীতির বিরুদ্ধে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘যারা সৎভাবে জীবনযাপন করতে চায়, তাদের জন্য বা তাদের ছেলে-মেয়েদের জন্য এ জীবনযাপনটা কঠিন হয়ে যায়, যখন অসৎ উপায়ে উপার্জিত পয়সায় সমাজকে বিকলাঙ্গ করে দেয়।’

তিনি বলেন, ‘একজন সৎভাবে চলতে গেলে তাকে বেশ কিছু সীমাবদ্ধতা নিয়ে চলতে হয়, আর অসৎ উপায়ে উপার্জিত অর্থ দিয়ে এই ব্র্যান্ড, ওই ব্র্যান্ড, এটা সেটা হৈ চৈ,… খুব দেখাতে পারে। ফলাফলটা এই দাঁড়ায় একজন অসৎ মানুষের দৌরাত্বে যারা সৎ জীবনযাপন করতে চায় তাদের জীবনযাত্রাটাই কঠিন হয়ে পড়ে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ছেলে-মেয়েরা ছোট শিশু, তারাতো আর এতটা বোঝে না, ভাবে যে ওরা এই ভাবে পারে তো আমাদের নাই কেন। এটা স্বাভাবিক তাদের মনে এই প্রশ্নটা জাগবে। ওত ছোট ছোট বাচ্চারা, তারা সৎ-অসৎতের কী বুঝবে?’

তিনি বলেন, ‘তারা (শিশুরা) ভাবে আমার বন্ধুদের এত আছে, আমাদের নাই কেন? স্বাভাবিক ভাবে মানুষকে অসৎ উপায়ের পথে ঠেলে দেবে।’

প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আব্দুল মোমেন। অনুষ্ঠানে অংশ নেয়া প্রবাসীরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ৭৩তম জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে স্লোগান দেয়।পার্সটুডে

সৌদি রাজা সালমানের খ্যাতনামা দেহরক্ষী মেজর জেনারেল আবদুল আজিজ আল-ফাহগাম ঝগড়া করে গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়েছেন ধারনা করা হচ্ছে।

লোহিত সাগরের তীরবর্তী জেদ্দা নগরীতে তিনি নিহত হয়েছেন। সৌদি রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে প্রচারিত খবরে বলা হয়েছে- আবদুল আজিজ আল-ফাহগাম তার এক বন্ধুর বাসায় অপর এক বন্ধুর সঙ্গে কথা কাটাকাটিতে লিপ্ত হয়। সেই বন্ধুর গুলিতে তিনি আহত হয়েছিলেন। সেসময় আরো পাঁচজন নিরাপত্তা কর্মীও আহত হন বলেও জানানো হয়।

একবাক্যের টুইট বার্তায় এ কথা জানিয়েছে সৌদি রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন। এ বিষয় বিস্তারিত আর কিছু বলা হয় নি। এ ছাড়া দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও এখন পর্যন্ত এ বিষয় মুখ খুলেনি।

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার বিদ্যুৎ এর লাইন থেকে অগ্নিকান্ডে ৪টি বসতঘরের প্রায় ১৫লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি। রোববার সকালে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়,জেলার মধ্যনগর থানার মধ্যনগর ইউনিয়নের বৈঠাখালী গ্রামের মৃত জিতেন্দ্র তালুকদারের তিন ছেলে গোপী রঞ্জন তালুকদারের দোতলা ঘরে বিদ্যুৎ এর লাইন থেকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত ঘটে। নিমিষেই তার সহোদর দ্বিজেন তালুকদার,জ্যোতিষ তালুকদার ও সুষেন তালুকদারের বসত ঘরে আগুনের লেলিহান শিখা ছড়িয়ে পড়ে।

তাৎক্ষণিক এই চারটি বসত ঘর,শতাধিক মন ধান ও শতাধিক মন চাল আসবাবপত্রসহ পুরো ঘরবাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। খবর পেয়ে গ্রামের লোকজন ঘন্টা ব্যাপী চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনার চেষ্টা করলেও ঘর ও ঘরের ভিতরে সব মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

এ ব্যাপারে ধর্মপাশা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ওবায়দুর রহমান অগ্নিকান্ডের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,আমি ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেছি একটি তালিকা প্রনয়ন করে জেলা প্রশাসনের নিকট পাঠানো হবে যাতে করে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলো সরকার থেকে আর্থিক সহায়তা পান।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc