Monday 9th of December 2019 12:05:07 AM

১ লক্ষ ১০ হাজার টাকা উদ্ধার, মোটর সাইকেল জব্দ

রেজওয়ান করিম সাব্বির, জৈন্তাপুর সিলেট প্রতিনিধিঃ সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার সিলেট-তামাবিল মহাসড়কের জৈন্তিয়া ডিগ্রী কলেজ গেইট এলাকায় মেসার্স শাপলা ফিলিং ষ্টেশনের ম্যানোজারের নিকট থেকে ২০লক্ষ টাকা ছিনতাই ঘটনা ঘটে। এঘাটনায় পুলিশ ও জনতা ৩জনকে আটক করে, ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত মটর সাইকেল জব্দ, ১লক্ষ ১০ হাজার টাকা উদ্ধার করে পুলিশ।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানাযায়, ৪আগস্ট রবিবার সকাল ১১টার দিকে মেসার্স শাপলা ফিলিং ষ্টেশনের ম্যানেজার ব্যাটারী চালিত টমটম যোগে দরবস্ত বাজারস্থ পূর্বালী ব্যাংকে যাওয়ার প্রক্কালে পূর্ব থেকে উৎপেতে থাকা ছিনতাইকারীরা টমটমের গতিরোধ করে ২০লক্ষ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়। ম্যানাজারের চিৎকারে স্থানীয় জনতা ছিনতাইকারীদের ধাওয়া করে ২ জন কে আটক করে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জকে সংবাদ দেয়। সংবাদ পেয়ে অফিসার ইনচাজের নির্দেশে এস.আই ইন্দ্রনীল ভট্টাচার্য রাজন একাধিক ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌছলে স্থানীয় জনতা ২ছিনতাইকারীকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। জনতার হাতে আটককৃত ছিনতাইকারীরা হল কানাইঘাট উপজেলার গড়াইগ্রামের মুজিবুর রহমান চৌধুরী উরফে লাল মেম্বারের ছেলে আতিকুর রহমান চৌধুরী লাভলু(৩০) ও জকিগঞ্জ উপজেলার পরচক গ্রামের মৃত একরামুল চৌধুরীর ছেলে বদরুল হক চৌধুরী ফাহিম(৩২)। পরে আটককৃতদের দেওয়া তথ্য মতে কানাইঘাট উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে লক্ষীপ্রসাদ ইউনিয়নের বড়বন্দ গ্রামের আব্দুস সালামের ছেলে মঞ্জুর উদ্দিন(৩২) কে আটক করে পুলিশ। আটককৃত মঞ্জুর উদ্দিনের নিকট হতে পুলিশ নগদ ১লক্ষ ১০হাজার টাকা উদ্ধার ও ছিনতাই কালে ব্যবহৃত মটর সাইকেল জব্দ করে। বর্তমানে তাদের দেওয়া তথ্য মতে ছিনতাই হওয়া টাকা ও ছিনতাইর ঘটনায় জড়ীত অন্যান্য আসামী গ্রেফতার করতে জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশের তিনটি টিম জৈন্তাপুর, কানাইঘাট ও সিলেটের বিভিন্ন স্থানে অভিযান অব্যহত রয়েছে।

এবিষয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ শ্যামল বনিক- জানান জনতা কর্তৃক আটককৃত ২জনের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিত্বে আমার নেতৃত্বে দুই উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ১ জন ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হই। তার কাছ থেকে ১লক্ষ ১০হাজার টাকা ও ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত মটর সাইকেল জব্দ করি। ছিনতাইকৃত বাকী টাকা ও ছিনতাই কাজে জড়ীত অন্যান্যদের আটকের লক্ষ্যে আমার তিনটি টিম যৌথ ভাবে জৈন্তাপুর ও কানাইঘাট উপজেলা এবং সিলেট শহরে অভিযান পরিচালনা করছে। আশা রাখি টাকা উদ্ধার করতে সক্ষম হব। মামলা রেকর্ড পূর্বক আটককৃতদের আদালতে প্রেরণ করা হবে।

রেজওয়ান করিম সাব্বির,জৈন্তাপুর সিলেট প্রতিনিধিঃ সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার ১৯ বিজিবির লালাখাল ক্যাম্প কমান্ডারের নেতৃত্ব আর্ন্তজাতিক সীমান্ত পিলার ১৩০১ পিলারের জঙ্গীবিল এলাকায় ৪আগষ্ট রবিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১টায় অভিযান চালিয়ে ১১টি ভারতীয় গরু আটক করে। আটককৃত গরু বর্তমানে লালাখাল বিজিবি ক্যাম্পে আটক রয়েছে। এলাকাবাসী জানান- জৈন্তাপুর সীমান্তের বিভিন্ন পথ দিয়ে প্রতিদিন শত শত ভারতীয় গরু মহিষ অবৈধ পথে বাংলাদেশে প্রবেশ করছে।

অপরদিকে অবৈধ পথে গরু প্রবেশকে কেন্দ্র করে নানা সময় ভারতীয় ও বাংলাদেশী চোরাকারবারীদের মধ্যে নানা  ঘটনার সূত্রপাত ঘটেছে। সবকিছুর পরও সীমান্ত পথে অবৈধ ভাবে বাংলাদেশে ভারতীয় রোগাক্রান্ত গরু মহিষ বাজারে ছয়লাভ রয়েছে। যার ফলে দেশিয় ভাবে উৎপাদিত ও গৃহ পালিত গরু মহিষ গুলো কোরবানীর ঈদে সঠিক মূল্য থেকে বঞ্চিত হবে বলে জানান বিভিন্ন গ্রামের কৃষক পরিবার গুলো। ভারতীয় গরু মহিষ বাজারে প্রবেশ করায় ইতো মধ্যে দেশীয় গরুর প্রতি ক্রেতারা আগ্রহ হারাচ্ছে এবং প্রকৃত দাম হতে বঞ্চিত হচ্ছে।

এবিষয়ে জানতে লালখাল বিজিবি’র সাথে যোগাযোগ করা হলে- ক্যাম্প কমান্ডার জানান আমরা কাষ্টমকে গরু আটকের বিষয় জানিয়েছি এবং নিলামের জন্য তাদেরকে ইনফরমেশন করা হয়েছে। কাষ্টম কর্মকর্তা এলে আমরা আটককৃত গরু নিলামে দিব। সীমান্ত এলাকায় টহল জোরদার করা হয়েছে।

রেজওয়ান করিম সাব্বির,জৈন্তাপুর সিলেট প্রতিনিধিঃ সিলেটের জৈন্তাপুরে কৃষকদের মধ্যে “আলু ও মিষ্টি আলুর জাত ও উৎপাদন কলাকৌশল” শীর্ষক কৃষক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত।

উদ্ভাবিত আলু ও ভিটামিন সমৃদ্ধ মিষ্টি আলুর জাতসমুহের প্রজনন বীজ উপাদনে প্রদর্শনীর মাধ্যমে সমস্য চিহ্নিত করণ ও গবেষণা ভিত্তিক কর্মসূচীর অর্থায়নে এবং সাইট্রাস গবেষণা কেন্দ্রে ও কান্দাল ফসল গবেষণা কেন্দ্রের যৌথ আয়োজনে কৃষক প্রশিক্ষণে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন কৃষি পরিসংখ্যান ও আইসিটি বিভাগ, বিএআরআই গাজীপুরের সিএসও ড. মোঃ কামরুল হাসান। টিসিআরসি, বিএআরআই গাজীপুরের পিএসও ও কর্মসূচী পরিচালক ড. হরিদাস চন্দ্র মোহন্ত, সাইট্রাস গবেষণা কেন্দ্রের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মাহমুদুল ইসলাম নজরুল, উর্দ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. সামসুল আলম, ড.ফজলুল কবীর, সাইট্রাস গবেষণা কেন্দ্রের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ঝুটন চন্দ্র সরকার।

প্রধান অতিথির বক্তব্য কৃষি পরিসংখ্যান ও আইসিটি বিভাগ, বিএআরআই গাজীপুরের সিএসও ড. মোঃ কামরুল হাসান বলেন- সবার আগে আমাদের পুষ্টি নিরাপত্তা প্রয়োজন, বর্তমান বাজারের সাদা মিষ্টি আলুর পাশাপাশি আমরা নিয়ে এসেছি বারী-৪, বারী-৮ ও বারী ১৬-সহ বিভিন্ন প্রজাতের ভিটামিন সমৃদ্ধ ১৬ প্রজাতের মিষ্টি আলু চাষাবাদ হচ্ছে। ১২৫গ্রাম মিষ্টি আলু প্রতিটি মানুষ দৈনিক খেলে তার অন্য কোন ভিটামিনের প্রয়োজন পড়বে না। তিনি আরও বলেন- বর্তমান বাজারে মিনিকেট চালের কারনে ডাইভেটিক্স রোগ মহামারি আকারে দেখা দিয়েছে। রঙ্গীন মিষ্টি আলু ডাইভেটিক্স রোগ নিরাময়ে কর্যকরি ভূমিকা পালন করে। মিষ্টি আলু বেশিদিন সংরক্ষণ করা যায় না, তার জন্য বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে পক্রিয়াজাত করে রাখার জন্য কৃষদের কলা কৌশল শিখিয়েদেন।

এম এস জিলানী আখনজী: হবিগঞ্জ চুনারুঘাটে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২’শ জন সুবিধা-বঞ্চিত মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে উপজেলা পরিষদের অর্থায়নে শিক্ষাবৃত্তি বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল (৫ আগষ্ট) সোমবার বিকালে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল কাদির লস্কর প্রধান অতিথি হিসেবে সুবিধাবঞ্চিত মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে বৃত্তি নগদ অর্থ বিতরণ করেন। এ উপলক্ষে উপজেলা বীর মুক্তিযোদ্ধা এনামুল হক মোস্তফা শহীদ অডিটরিয়ামে এক আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়। উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের ইনস্ট্রাক্টর মোঃ খায়ের উদ্দিন মোল্লাহর পরিচালনায় অনুষ্ঠানের সভাপতি ছিলেন উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ মাসুদ রানা।

আলোচনা সভার অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পৌর মেয়র নাজিম উদ্দিন সামছু, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এড. এম আকবর হেসেন জিতু, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি লুৎফুর রহমান চৌধুরী, চুনারুঘাট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোঃ জামাল হোসেন লিটন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান রিপন, যুবলীগ নেতা রুমন ফরাজি, যুবলীগ নেতা মোঃ আব্দুল্লাহ, সিএ মোঃ ওয়াহিদুল ইসলাম সুমন, চুনারুঘাট সরকারী কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মোঃ সায়েম তালুকদার, সাজিদ রহমান, ফাহিমা আক্তার ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানগন, বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের অভিভাবকগনসহ ছাত্র/ছাত্রীবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে উপজেলার বিভিন্ন মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২শ জন সুবিধা-বঞ্চিত মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীকে শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করা হয়। প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বলেন, শিক্ষাবৃত্তি প্রদানের মাধ্যমে সরকার সুবিধা-বঞ্চিত মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদেরকে সমাজ ও দেশের কল্যাণে কাজ করার জন্য সুযোগ করে দিয়েছে, সম্পদের সুষম বণ্টন ও ধনী-গরিবের বৈষম্য কমিয়ে একটি মানবিক ধারার সমাজের বঞ্চিতদের প্রতি দায়বোধ থেকেই সরকার মেধাবী শিক্ষাথীদের বৃত্তিসহ শিক্ষাবৃত্তি প্রদান করে আসছে।

বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের উৎসাহ দিয়ে তিনি সমাজ ও দেশ গড়ার কাজে তাদের অবদান রাখার আহ্বান জানান।

নড়াইল প্রতিনিধিঃ নড়াইলের মানুষের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করনের জন্য কাজ করছেন জাতীয় ক্রিকেট ওয়ানডে দলের অধিনায়ক নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মর্তুজা। সম্প্রতি সৎসদ সদস্য মাশরাফি স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়ের সচিবের সাথে দেখা করে চিকিৎসক সমস্যা সমাধানের জন্য অনুরোধ জানালে তিনি দ্রুত সমস্যা সমাধানের আশ্বাস দেন। তারই ধারাবাহিকতায় নড়াইল সদর হাসপাতালের চিকিৎসক সমস্যা সমাধানের ৪ জন চিকিৎসককে সদর হাসপাতালে বদলি করা হয়েছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব বরাবর মাশরাফি বিন মর্ত্তুজার আবেদনের প্রেক্ষিতে রবিবার (৪ আগস্ট) নড়াইল আধুনিক সদর হাসপাতালে ৪টি শূন্যপদে ৪ জন কনসালটেন্ট(বিষেশজ্ঞ) পদায়ন করা হয়েছে। তারা হলেন জুনিয়র চক্ষু কনসালটেন্ট ডাঃ কাজী আনিসুর রহমান, জুনিয়র ই.এন.টি কনসালটেন্ট ডাঃ মোঃ নুর কুতুবুল আলম, জুনিয়র কনসালটেন্ট (গাইনী এন্ড অবস) ডাঃ মৃদুলা কর এবং জুনিয়র কনসালটেন্ট (অ্যানেস্থিশিয়া) ডাঃ এএইচ এম শাহিনুর রহমান।

সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা ডাঃ মশিউর রহমান বাবু ৪জন চিকিৎসক হাসপাতালে পদায়নের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, নতুন চিকিৎসকগন কর্মস্থলে যোগদান করলে চিকিৎসক সংকট অনেকটা কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হবে বলেও জানান তিনি।

নরেন্দ্র মোদি নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকার কাশ্মিরের বাসিন্দাদের জন্য বিশেষ সুবিধা সম্বলিত সংবিধানের ৩৭০ ধারা বা ৩৫-এ ধারা বাতিল করেছে। একইসঙ্গে জম্মু-কাশ্মির থেকে ভেঙে আলাদা করে দিয়েছে লাদাখকে।

আজ (সোমবার) রাজ্যসভায় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করতে সংসদে প্রস্তাব পেশ করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তিনি বলেন, “ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা রদ করা হবে। জম্মু ও কাশ্মির আর রাজ্য নয়।”

অমিত শাহ আরও বলেন, “জম্মু ও কাশ্মির পুনর্গঠিত হবে। রাজ্যটি দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত হবে- একটি জম্মু ও কাশ্মীর, অন্যটি লাদাখ।”

সংসদের অনুমোদনের পরই প্রেসিডেন্ট রামনাথ কোবিন্দ এই প্রস্তাবে সই করেছেন। প্রেসিডেন্টের সইয়ের সঙ্গে সঙ্গেই কাশ্মিরকে বিশেষ রাজ্যের মর্যাদা দেয়া ৩৭০ ধারা বিলুপ্ত হয়ে যায়। সেই সঙ্গে রাজ্যের মর্যাদাও হারায় রাজ্যটি।

৩৭০ ধারা বাতিল হওয়ার পরপরই সংসদের ভেতরে ও বাইরে প্রতিবাদের ঝড় তোলে বিরোধীরা। কয়েক মিনিটের জন্য মুলতুবি হয়ে যায় অধিবেশন। পরে ফের অধিবেশন শুরু হলে, বিরোধীদের হইহট্টগোলের মধ্যেই প্রেসিডেন্টের নির্দেশনামা পড়ে শোনান কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ঘোষণার পরেই সংবিধানের প্রতিলিপি ছিঁড়ে ফেলেন দুই পিডিপি সাংসদ মীর ফৈয়াজ ও নাজির আহমেদ। সঙ্গে সঙ্গে তাঁদের আটক করা হয়। সেই সঙ্গে মেহবুবা মুফতির দলের ওই সাংসদদের রাজ্যসভা ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়ারও নির্দেশ দেন উপরাষ্ট্রপতি এবং রাজ্যসভার চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নাইডু। তাঁরা সঙ্গে সঙ্গে রাজ্যসভার বাইরে বেরিয়ে এসেও বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন।

এদিকে, রাজ্যসভায় বর্ষীয়ান কংগ্রেস সাংসদ গুলাম নবি আজাদ বলেন, “আজ গণতন্ত্রের কালো দিন। স্বাধীনতার পর থেকে যে আত্মত্যাগ ও বলিদান সেনা ও রাজনৈতিক নেতারা দিয়েছেন তার চরম অবমাননা করা হল। তবে পিডিপি সাংসদ মীর ফৈয়াজ ও নাজির আহমেদ সংবিধান ছেঁড়ার যে চেষ্টা করেছেন তার তীব্র নিন্দা করছি। আমরা সবসময়ই সংবিধানের সঙ্গেই আছি। সংবিধান রক্ষা করতে গিয়ে নিজেদের প্রাণও বিসর্জন দিতে পারি আমরা। তবে আজ সংবিধানকে হত্যা করেছে বিজেপি।”

কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে কাশ্মিরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি বলেন, “আজ ভারতীয় গণতন্ত্রের সবচেয়ে কালো দিন। কাশ্মিরের মানুষ কোনোদিনই এই সিদ্ধান্ত মেনে নেবে না।”

৩৭০ ধারাবলে জম্মু-কাশ্মিরকে ভারতীয় সংবিধানের আওতামুক্ত রাখা হয় এবং ওই রাজ্যকে নিজস্ব সংবিধানের খসড়া তৈরির অনুমতি দেওয়া হয়। এই ধারা বলে ওই রাজ্যে সংসদের ক্ষমতা সীমিত। ভারতভুক্তি সহ কোনও কেন্দ্রীয় আইন বলবৎ রাখার জন্য রাজ্যের মত নিলেই চলে। কিন্তু অন্যান্য বিষয়ে রাজ্য সরকারের একমত হওয়া আবশ্যক। ১৯৪৭ সালে, ব্রিটিশ ভারতকে ভারত ও পাকিস্তানে বিভাজন করে ভারতীয় সাংবিধানিক আইন কার্যকর হওয়ার সময়কাল থেকেই ভারতভুক্তির বিষয়টি কার্যকরী হয়।ভারতভুক্তির শর্ত হিসেবে জম্মু কাশ্মীরে ভারতীয় সংসদ প্রতিরক্ষা, পররাষ্ট্র ও যোগাযোগ- এই তিনটি বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার ব্যাপারে ক্ষমতাধর।

অন্যদিকে, ৩৫-এ ধারা অনুযায়ী, রাজ্যের স্থায়ী বাসিন্দা ছাড়া কেউ সেখানকার সম্পত্তি বেচাকেনা করতে পারবে না। স্থায়ী বাসিন্দাদের জন্য সরকারি চাকরি এবং স্কলারশিপ সংরক্ষিত। কোনো কাশ্মিরি নারী অন্য রাজ্যের কাউকে বিয়ে করলে তিনি রাজ্যে বিষয়-সম্পত্তির মালিকানার অধিকার থেকে বঞ্চিত হবেন।পার্সটুডে

রাজধানী ঢাকার দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে ব্যবহারের জন্য মশার ওষুধের নমুনা বিদেশ থেকে ঢাকায় এসে পৌঁছেছে।

আজ সোমবার  দুপুরে এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে নমুনাগুলো আনা হয় বলে সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন ডিএসসিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা উত্তম কুমার রায়।

জানা যায় , মশার ওষুধের নতুন একটি নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে। ওষুধের নমুনাটি ভারত থেকে আনা হয়েছে। আগামী কাল মঙ্গলবার ডিএসসিসিতে এই ওষুধের পরীক্ষা শেষে আইইডিসিআর এবং কীট তত্ত্ব বিভাগে পাঠানো হবে।

ই-পাসপোর্টের (ইলেকট্রনিক পাসপোর্ট) ফি সর্বনিম্ন ৩ হাজার ৫০০ (ভ্যাট ছাড়া) এবং সর্বোচ্চ ১২ হাজার টাকা নির্ধারণ চূড়ান্ত করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১ আগস্ট) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগ এ সংক্রান্ত একটি পরিপত্র জারি করেছে। রবিবার (৪ আগস্ট) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে পরিপত্রটি প্রকাশ করা হয়। তবে ই-পাসপোর্ট কবে নাগাদ আসবে সে তারিখ এখনো ঘোষণা করা হয়নি।

মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো. মুনিম হাসান স্বাক্ষরিত পরিপত্রে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে আবেদনকারীদের জন্য ৪৮ পৃষ্ঠার ৫ বছর মেয়াদি সাধারণ ফি ৩৫০০ টাকা, জরুরি ফি ৫৫০০ টাকা ও অতীব জরুরি ফি ৭৫০০ টাকা এবং ১০ বছর মেয়াদি সাধারণ ফি ৫০০০ টাকা, জরুরি ফি ৭০০০ টাকা ও অতীব জরুরি ফি ৯০০০ টাকা। এছাড়া বাংলাদেশে আবেদনকারীদের জন্য ৬৪ পৃষ্ঠার ৫ বছর মেয়াদি সাধারণ ফি ৫৫০০ টাকা, জরুরি ফি ৭৫০০ টাকা ও অতীব জরুরি ফি ১০ হাজার ৫০০ টাকা এবং ১০ বছর মেয়াদি সাধারণ ফি ৭০০০ টাকা, জরুরি ফি ৯০০০ টাকা ও অতীব জরুরি ফি ১২০০০ টাকা।

নতুন পাসপোর্টের ক্ষেত্রে অতীব জরুরিতে ৩ দিনে, জরুরিতে ৭ দিনে ও সাধারণ পাসপোর্ট আবেদনের ক্ষেত্রে ২১ দিনের পাসপোর্ট পাওয়া যাবে। তবে পুরনো অথবা মেয়দোত্তীর্ণ পাসপোর্ট রি-ইস্যু করার ক্ষেত্রে অতীব জরুরি পাসপোর্ট ২ দিনে, জরুরি পাসপোর্ট ৩ দিনে ও সাধারণ পাসপোর্ট ৭ দিনের মধ্যে দেয়া হবে।

বিদেশে বাংলাদেশ দূতাবাসে সাধারণ আবেদনকারী, শ্রমিক ও শিক্ষার্থীদের জন্য আলাদা আলাদা ই-পাসপোর্ট ফি নির্ধারণ করা হয়েছে। বিদেশে বাংলাদেশ দূতাবাসে সাধারণ আবেদনকারীদের জন্য ৪৮ পৃষ্ঠার ৫ বছর মেয়াদি সাধারণ ফি ১০০ মার্কিন ডলার ও জরুরি ফি ১৫০ মার্কিন ডলার এবং ১০ বছর মেয়াদি সাধারণ ফি ১২৫ মার্কিন ডলার ও জরুরি ফি ১৭৫ মার্কিন ডলার নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া বিদেশে বাংলাদেশ দূতাবাসে সাধারণ আবেদনকারীদের জন্য ৬৪ পৃষ্ঠার ৫ বছর মেয়াদি সাধারণ ফি ১৫০ মার্কিন ডলার ও জরুরি ফি ২০০ মার্কিন ডলার এবং ১০ বছর মেয়াদি সাধারণ ফি ১৭৫ মার্কিন ডলার ও জরুরি ফি ২২৫ মার্কিন ডলার ধার্য করা হয়েছে।

ই-পাসপোর্ট করতে যা লাগবে:  ঘোষিত পরিপত্র অনুযায়ী, ই-পাসপোর্টের আবেদনপত্র জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) বা জন্ম নিবন্ধন সনদ (বিআরসি) অনুযায়ী পূরণ করতে হবে। অপ্রাপ্ত বয়স্ক (১৮ বছরের কম) আবেদনকারী, যার জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) নেই, তার পিতা-মাতার জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) নম্বর অবশ্যই উল্লেখ করতে হবে।

শংকর শীল,হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের চুনারুঘাটে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে কুখ্যাত এক ডাকাত নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন তিন পুলিশ সদস্য। ৫ আগষ্ট সোমবার ভোররাতে উপজেলার ডেউয়াতলির কালিনগর এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে। নিহত ডাকাত সুলাইমান মিয়া মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া উপজেলার বাসিন্দা। এদিকে আহত ৩ পুলিশ সদস্য হলেন- এএসআই সাদেকুর রহমান, ক. কবির মাহি ও ক.শাহিনুর ইসলাম। তাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

চুনারুঘাট থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নাজমুল হক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে আমার সিলেটকে জানিয়েছেন, ডাকাতির প্রস্তুতির খবর পেয়ে পুলিশ কালিনগর এলাকায় অভিযান চালায়। এ সময় অভিযানের টের পেয়ে ডাকাতদল পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। তাৎক্ষণিক আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়লে ডাকাত দলের সদস্যরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় ডাকাতদলের একজন গুলিবিদ্ধ ও তিন পুলিশ সদস্য আহত হন।

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আপ্তাব উদ্দিনের বিরুদ্ধে নানা প্রকল্পের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ এনে জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেছে। রবিবার (৪,আগষ্ট) বিকালে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন বঞ্চিত ৯টি ইউপি সদস্য।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়,ইউপি চেয়ারম্যান ও সচিব পরিষদের বিভিন্ন উন্নয়নমুলক প্রকল্পের কাজ না করেই অনিয়ম দূর্নীতির মাধ্যমে লুটপাটে ব্যস্ত রয়েছে। পরিষদের নিয়মিত মাসিক মিটিং না করে ৩-৪ মাস পর পর সদস্যদের ডেকে স্বাক্ষর নিয়ে যায়। প্রকল্পের বিষয়ে জানতে চাইলে নানান টালবাহানা শুরু করে।

ইউপি সদস্য মোস্তফা জানান,ইউনিয়নের দরিদ্র ভিজিডি ধারীর কাছ থেকে প্রতি মাসে ৫০টাকা হারে আদায় করে ইউপি সচিব ও চেয়ারম্যান আত্মসাৎ করছেন। এলজিএসপি’র টাকা ওয়ার্ড কমিটি ও তদারকি কমিটির সুপারিশ ছাড়াই ভুয়া কাগজাত সৃজন করে ভুয়া স্বাক্ষরের মাধ্যমে টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেছেন।

দুই জন ঠিকাদারের লাইসেন্স ব্যবহার করে ভুয়া কাগজপত্র দাখিলের মাধ্যমে চেয়ারম্যান নিজেই টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেছেন।

এছাড়াও চেয়ারম্যানের স্বেচ্ছাচারিতার কারণে সরকারের দেয়া নানান উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ না করে আত্মসাৎ করেই চলছেন। তার বিরুদ্ধে ইতিপূর্বে রাস্তার সরকারী গাছ কাটার মামলা রয়েছে। চেয়ারম্যান রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব সনদ দিয়ে দেশ ব্যাপী তোলপাড় সৃষ্টি করেছিলেন। আমরা জনগনের ভোটে নির্বাচিত হয়ে আসছি। কোন প্রকল্প না পেলে ভোটারদের কাছে কি জবাব দেব ? আমরা ন্যায় বিচারের স্বার্থেই জেলা প্রশাসক বরাবরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।

এ বিষয়ে ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আলী আহমদ জানান,স্থানীয় সরকার নীতিমালা অমান্য করে চেয়ারম্যান আপ্তাব উদ্দিন নিজের ইচ্ছেমত সচিবকে দিয়ে প্রকল্প প্রণয়ন ও অর্থ আত্মসাৎ করে আসছেন। ২০১৬-১৭অর্থ বছরের এলজিএসপি’র ১ম কিস্তির অর্থ ভুয়া টেন্ডার ও কাগজপত্রাদি দাখিল করে আত্মসাৎ করেছেন। প্রতি বছর রিং পাইপ ও স্যানিটেশন বন্টন না করে হতদরিদ্রদের স্বাস্থ্য সম্মত স্যানেটারীর বরাদ্দকৃত ২লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

৬নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মনির উদ্দিন জানান,এলজিএসপি প্রকল্পের তৃতীয় কিস্তির সোহালা গ্রামের পাকা কৃষি সেচ নালা স্থাপন না করে বরাদ্দকৃত ১লাখ ২৭হাজার টাকা,স্বাস্থ্য সম্মত স্যানেটারীর বরাদ্দ ৩লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন। ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে পানি নিস্কাশনের জন্য রিং পাইপ স্থাপন না করে ১লাখ ২৫হাজার টাকাসহ প্রায় সাড়ে ৯লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন। বিষয়টি স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ ইউনিয়ন পরিষদের সকল সদস্য অবগত আছেন। এসব অপরাধের প্রতিবাদ করলে আমাদের উপর নেমে আসে নানান নির্যাতন।

২নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য রেনু মিয়া জানান,২০১৬-১৭অর্থ বছরের বরাদ্দকৃত বাদাঘাট বাজারের দুটি ড্রেইন,লাউরগড় বাজারের ড্রেইন,বাদাঘাট হাসপাতালের চিকিৎসা যন্ত্রপাতি,ননাই গ্রামের আরসিসি রাস্তা,বিভিন্ন স্কুলের বেঞ্চ,২টি রাস্তার মাটি ভরাটসহ প্রায় ৯লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন ভুয়া বিল ভাউচার দাখিলের মাধ্যমে।

সংরক্ষিত আসনের ইউপি সদস্য মনোয়ারা খাতুন জানান,চেয়ারম্যান ও সচিব মিলে আমাদের বিভিন্ন প্রকল্পের অর্থ ভুয়া বিল ভাউচারের মাধ্যমে আমাদের অজান্তে আত্মসাৎ করেছেন। ইউনিয়ন পরিষদের ট্রেড লাইসেন্স ফি,আদায়কৃত ট্যাক্স ও জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন ফি’র কোন কিছুই ব্যাংকে জমা না দিয়ে আত্মসাৎ করেছেন। পরিষদের কোন হিসাব আমাদেরকে অবগত করান নি।

এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান আপ্তাব উদ্দিনের মোবাইল ফোনে (০১৭১৩৬৭৮৬৯৮) বার বার কল দিলে রিসিভ না করায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc