Tuesday 23rd of July 2019 08:43:03 PM

এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার পাঁচ দিনের সূচির বদল হয়েছে। দেশের আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটি এ তথ্য জানায়। মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে জানানো হয়েছে, ২০১৯ সালের এইচএসসি পরীক্ষার প্রকাশিত সময়সূচির আংশিক পরিবর্তন করা হয়েছে।

উল্লেখ করা হয়েছে, ১৭ এপ্রিলের পরীক্ষাগুলো ৯ মে বিকালে, ১৮ এপ্রিলের পরীক্ষা ১১ মে বিকালে এবং ২২ এপ্রিলের পরীক্ষা ১২ মে বিকালে নেওয়া হবে। এছাড়া ৪ মে এবং ৬ মের পরীক্ষা একই দিন সকালের পরিবর্তে বিকালে নেওয়া হবে।

শবে বরাতের কারণে এক দিনের এবং পরীক্ষাগুলো পাশাপাশি পড়ে যাওয়ায় শিক্ষার্থীদের সুবিধার দিক হিসেব করে অন্য চারদিনের পরীক্ষা সূচি বদলে দেওয়া হয়েছে।

গত ১ এপ্রিল থেকে শুরু এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় এবার ১৩ লাখ ৫১ হাজার ৫০৫ জন শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে।

নড়াইল প্রতিনিধি: নড়াইলে মন্দির ভিত্তিক স্কুল শিক্ষকদের তিন দিনব্যাপী বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ ও বার্ষিক পুরস্কার বিতরন শুরু হয়েছে । সোমবার নড়াইল শহর কেন্দ্রীয় কালী মন্দির চত্বরে মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম প্রকল্পের সহযোগিতায় হিন্দু কল্যাণ ট্রাষ্ট এ প্রশিক্ষণের আয়োজন করে ।
প্রশিক্ষণের উদ্বোধন ও পুরস্কার বিতরণ করেন প্রধান অতিথি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ ইয়ারুল ইসলাম।
এ প্রশিক্ষনে নড়াইল জেলার ৮২ এবং যশোর জেলা থেকে ২০ জন শিক্ষকসহ মোট ১০২ অংশ নিচ্ছেন ।
হিন্দু কল্যাণ ট্রাষ্ট নড়াইলের সহকারি পরিচালক জয়ন্ত কুমার সাহার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শৈলেন্দ্রনাথ সাহা,নড়াইল জেলা পূজা উদযাপর পরিষদের সভাপতি অশোক কুমার কুন্ডু , হিন্দু কল্যাণ ট্রাষ্ট নড়াইলের কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান, হিন্দু কল্যাণ ট্রাষ্ট নড়াইলের কর্মকর্তাগন ও প্রশিক্ষার্থী শিক্ষকগন এ সময় উপস্থিত ছিলেলন।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে পাঁচ জন শ্রেষ্ঠ শিক্ষক এবং ১০ জন শ্রেষ্ঠ শিক্ষার্থীকে পুরস্কৃত করা হয় ।

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলা সদরে ৭বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষনের চেষ্ঠাকালে জনতার হাতে আটক হয়েছে মুহিত মিয়া (৩৫)। সে হবিগঞ্জ জেলার লাখাই থানার বেগুনাই গ্রামের মৃত গেদু মিয়ার পুত্র।
দিরাই থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তফা কামাল জানান,গেদু মিয়া দীর্ঘদিন ধরে দিরাই সদরের মজলিশপুর এলাকায় ভাড়া বাসা থেকে বাজারে ফেরি করে ভেষজ সরবত বিক্রি করে। রবিবার  ১২টার সময় ঐ শিশু কন্যাটি (ভিকটিম) মুহিত মিয়ার ভাড়া বাসার পাশে সড়কে ঝালমুড়ি বিক্রেতার কাছ থেকে মুড়ি ক্রয় করে আসার পথে শিশুটিকে ফুসলিয়ে মুহিত তার ঘরে নিয়ে গিয়ে ধর্ষনের চেষ্ঠা করে।
এ সময় শিশুটির চিৎকার শুনে স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর পঙ্কজ পুরকায়স্থ অমরসহ এলাকাবাসী এসে শিশুটিকে উদ্ধার করে লম্পট মুহিতকে আটক করে রাখে। খবর পেয়ে দিরাই থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে এলাকাবাসী ও ভিকটিম শিশু কন্যাটিসহ লম্পট মুহিতকে থানায় নিয়ে আসে।
এ ব্যাপারে শিশু কন্যার ফুফু হুসনেআরা বেগম বাদী হয়ে মুহত মিয়াকে আসামী করে দিরাই থানায় মামলা দায়ের করে। মামলা নং-৪, তারিখ- ০৭-০৪-১৯ইং।

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা: চুনারুঘাটে প্রধান দুর্নীতির বিরুদ্ধে তদন্ত করতে গিয়ে উপজেলা সহকারী  শিক্ষা অফিসার রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের মাধ্যমে রফাদফার অভিযোগে উপজেলা শিক্ষা অফিসার বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেছেন স্কুল কমিটির সহ-সভাপতি মোঃ জমসিদ আলী। এ নিয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসসহ সর্বত্র আলোচনা সমালোচনার ঝড় উঠেছে। অনেকেই বলছেন রক নাকি বক।
অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার রাণীগাঁও ইউনিয়নস্থ গরমছড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক শিবলু মিয়া দীর্ঘদিন যাবত অনুপস্থিত ও সরকার প্রদত্ত (ঝখওচ) এর স্কুল উন্নয়নের জন্য বরাদ্দকৃত অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে বিগত ২৬/০৪/১৮ইং, ০৪/০৬/১৮ইং তারিখে সিলেট বিভাগীয় উপ-পরিচালক তাহমিনা খাতুন, জেলা প্রশাসক হবিগঞ্জ, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, হবিগঞ্জ বরাবরে স্কুল কমিটির সহ-সভাপতি মোঃ জমসিদ আলী স্বাক্ষরিত স্কুল প্রধান শিক শিবলু মিয়ার দুর্নীতি ও আত্মসাতের তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য পৃথক পৃথক অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযোগের প্রেক্ষিতে উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার মোঃ রফিকুল ইসলামের নিকট উক্ত প্রধান শিকের দুর্নীতি তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়।
গত ০৩/০৯/২০১৮ইং তারিখে সহকারী শিক্ষা অফিসার রফিকুল ইসলাম প্রধান শিক্ষক শিবলুর বিরুদ্ধে আনীত দুর্নীতি ও আত্মসাতের অভিযোগ তদন্ত করে তদন্ত প্রতিবেদন দেন। রফিকুল ইসলামের তদন্তে নাকুশ হয়ে বিদ্যালয় কমিটির সহ-সভাপতি জমসিদ আলী পুনরায় সহকারী শিক্ষা অফিসার রফিকুল ইসলামের বিরুদ্ধে তদন্তে ঘুষ গ্রহণ করে রফাদফার অভিযোগ এনে গত ৩১/০৩/২০১৯ইং তারিখে উপজেলা শিক্ষা অফিসার বরাবরে অপর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
তিনি অভিযোগে উল্লেখ করেন প্রধান শিক্ষক শিবলুর দুর্নীতি তদন্তকে ধামাচাপা দিতে রফিকুল ইসলাম ঘুষ গ্রহণের মাধ্যমে তিনিও দুর্নীর আশ্রয় নিয়েছেন। তাই পুনরায় তদন্ত পূর্বক ওই সমস্ত দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তা ও শিক্ষক এর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য আহ্বান জানান।
এ ব্যাপারে রফিকুল ইসলামের ফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন তার তদন্তে  সত্য যা পেয়েছেন তার উপর তিনি প্রতিবেদন দিয়েছেন।

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর ও তাহিরপুর উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে সিলেট অ লে শস্যের নিবিড়তা বৃদ্ধিকরণ প্রকল্পের আওতায় স্থাপিত ভুট্টা প্রদর্শনী এবং ভুট্টা চাষীদের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত হয়েছে। বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা শিলডোবার হাওরে রবিবার সাড়ে ১১টায়(৭এপ্রিল)কৃষকদের নিয়ে মত বিনীময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
মতবিনিময় সভায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সুনামগঞ্জের উপ-পরিচালক বশির আহম্মদ সরকার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন,কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব(সম্প্রসারণ)সনৎ কুমার সাহা। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন,সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আব্দুল আহাদ। এসময় বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সমীর বিশ্বাস,তাহিরপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুস ছালামসহ ভুট্টা চাষীগণ।
মতবিনিময় সভার পূর্বে অতিরিক্ত সচিব বিশ্বম্ভরপুর ও তাহিরপুর উপজেলার বিভিন্ন হাওরে ভুট্টা প্রদর্শনী প্লট পরিদর্শন করেন।

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সমতা ও সংহতি নির্ভর সর্বজনীন প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা এই-শ্লোগানকে সামনে রেখে সুনামগঞ্জে বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রবিবার সকাল ১১টায় সুনামগঞ্জ সিভিল সার্জন কার্যালয়ের আয়োজনে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের সামনে থেকে একটি র‌্যালি বের হয় র‌্যালীটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে ইপিআই ভবনের এসে সামনে শেষ করে। পরে ইপিআই ভবনের সম্মেলন কক্ষে গিয়ে আলোচনা সভায় মিলিত হয়। সুনামগঞ্জ সিভিল সার্জন আশুতোষ দাশের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন,স্থানীয় সরকার শাখার উপ-পরিচালক মোঃ এমরান হোসেন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান,পরিবার পরিকল্পনার সহকারী পরিচালক ডাঃ ননী ভোষণ তালুকদার,সচেতন নাগরিক সনাকের আহবায়ক যোগেশ্বর দাশ প্রমুখ।
তাহিরপুরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আয়োজনে সকাল ১১টায় র‍্যালী শেষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আলোচনা সভায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকতা ডাঃ ইকবাল হোসেনের সভাপতিত্বে ও প্রধান সহকারী তৈয়াবুর রহমানের পরিচালনায় ভক্ত রাখেন,পরিবার পরিকল্পনা কর্মকতা মোঃ সিরাজুল ইসলাম,ডাঃ মির্জা রিয়াদ হাসান,বেলায়েত হোসেন,সিনিয়র ষ্টাফ নার্স স্বপ্না রাংসা,সুমনী আক্তার,সুমী নখরেখ,কেয়ার প্রতিনিধি শেখর রায়,আজরফ হোসেন,সৌহার্দ ৩প্রজেক্ট টেকনিক্যাল অফিসর কবিতা রানী ঘোষ প্রমুখ।

“পরীক্ষার কেন্দ্রে যাওয়ার পর একজন পরীক্ষার্থী নুসরাতকে বলে, তার এক বান্ধবীকে ছাদে নিয়ে মারধর করা হচ্ছে। এটা শুনে সে দ্রুত ছাদে যায়। এরপরই এই ঘটনা ঘটে।ওই সময় চার দুর্বৃত্ত বোরকা পরা এসে নুসরাত জাহানের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। ফলে চারজনের কাউকেই চিনতে পারেনি নুসরাত”

 

সনদ জালিয়াতির মাধ্যমে ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ হন ছাত্রীর গায়ে আগুন দেয়ার ঘটনায় আলোচিত শিক্ষক সিরাজ উদদৌলা। অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ ওই মাদ্রাসার বিপুল পরিমাণ অর্থ-আত্মসাতের অভিযোগ ওঠে তার বিরুদ্ধে। জড়ান বহু ছাত্রীকে যৌন হয়রানির কেলেঙ্কারিতেও। চেক জালিয়াতি, প্রতারণা ও নাশকতার অভিযোগে ৪টি মামলা হলেও স্বপদে বহাল ছিলেন সাবেক এই জামায়াত নেতা।তবে এ ঘটনার পর নুসরাতকে হত্যাচেষ্টায় জড়িতদের গ্রেফতারের নির্দেশ  দিলেন প্রধানমন্ত্রী।

গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ করায় মাদ্রাসাটির ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়। ৮০ ভাগ অগ্নিদগ্ধ হওয়া রাফি বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজে বার্ন ইউনিটে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে।

এ ঘটনার ৬ মাস আগে ওই অধ্যক্ষ’র বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ করেন মাদ্রাসার আরেক ছাত্রী।

নুসরাত জাহান রাফীর সহপাঠি ও মাদ্রাসার আলিম পরীক্ষার্থী নাসরিন সুলতানা ফুর্তি সাংবাদিকদের বলেন, ‘অধ্যক্ষ মাওলানা সিরাজ উদ্দৌলা ছিলেন, একজন লম্পট প্রকৃতির লোক। রাফির গায়ে হাত দেওয়ার ঘটনায় আমি নিজেও অধ্যক্ষের কাছে প্রতিবাদ করেছি।’

জড়িতদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়ার দাবি জানায়, রাফির আরেক সহপাঠী নিশাত। তাকে মারা হচ্ছে বলেই রাফিকে পরীক্ষার হল থেকে বের করে এনেছিলো দুর্বৃত্তরা।

স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর বলেন, ‘অধ্যক্ষ মাওলানা সিরাজদ্দৌলা মাদ্রাসার এক ছাত্রীকে অন্তসত্তা করে ফেলেন। পরে তিনি স্থানীয় এক প্রভাবশালী নেতার হাত-পা ধরে বেঁচে যান। ২০১৬ সালে একবার চেক জালিয়াতি মামলায় জেল খেটেছেন, এরপরও উক্ত মাদ্রাসায় অধ্যক্ষ পদে বহাল ছিলেন।’

তার বিরুদ্ধে চেক জালিয়াতি, প্রতারণা, নাশকতা ও যৌনহয়রানিসহ বিভিন্ন অভিযোগে ফেনী ও সোনাগাজী থানায় চারটি মামলা রয়েছে। চেক জালিয়াতির মামলায় ২০১৭ সালেও জেল খেটেছিলেন তিনি।

ফেনী জেলা জামায়াতের আমির এ কে এম শামসুদ্দিন জানান, অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলা একসময় জামায়াতের রোকন ছিলেন। বিভিন্ন অভিযোগে ২০১৬ সালে তাঁকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সোনাগাজী থানার এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, রাফীর গায়ে অগ্নিদদ্ধের ঘটনায় প্রভাবশালী একটি মহল ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করছে। তিনি বলেন, মাদ্রাসার একটি মাত্র প্রবেশ পথ। গেইটের দারোয়ান ছিল, পুলিশ ছিল, পরীক্ষা কেন্দ্রে বহিরাগত কোন লোকই ছিল না। নুসরাত জাহানের গায়ে কে বা কাহারা আগুন লাগিয়েছে, তার চাইতে বড় কথা হলো, অগ্নি সংযোগকারী সেই দূর্বৃত্তরা পুলিশ, দারোয়ান কে এড়িয়ে কিভাবে প্রবেশ পথ দিয়ে বের হয়ে গেলো, তা অবাক হওয়ার বিষয়।

রবিবার চট্টগ্রাম রেঞ্জের এডিশনাল ডিআইজি মোহাম্মদ আবুল ফয়েজ অপারেশন এন্ড ক্রাইম, ফেনীর পুলিশ সুপার এবং উক্ত মাদ্রাসার গর্ভনিং বডির সভাপতি, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট পি.কে এনামুল করিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরে এডিশনাল ডিআইজি মোহাম্মদ আবুল ফয়েজ সোনাগাজী থানায় বেলা ১১ টা থেকে নুসরাত জাহান রাফীর সহপাঠী আলীম পরীক্ষার্থীদেরকে তার কক্ষে এক এক করে ডেকে রাফীর অগ্নিদগ্ধ’র ঘটনা সম্পর্কে জানতে চান এবং প্রত্যেকের বক্তব্য রেকর্ড করেন।

তিনি বেলা ৪ টার দিকে নুসরাত জাহান রাফীর সহপাঠী নিশাতের বক্তব্য নেন। পরে তার আরেক সহপাঠী নাসরিন সুলতানা ফুর্তিরও বক্তব্য রেকর্ড করেন। বেলা ৫ টার দিকে এডিশনাল ডিআইজি সাংবাদিকদের এক ব্রিফিং এ বলেন, তিনি ছাত্রী ও শিক্ষকদের বক্তব্যের পর বেশ কিছু তথ্য উপাত্ত পেয়েছেন এবং কিছু ঘটনা আঁচ করতে পেরেছেন, যা তদন্তের স্বার্থে তিনি প্রকাশ করতে রাজী নন। তদন্ত শেষে এ নারকীয় ঘটনায় জড়িত কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

ক্ষতিগ্রস্থদের পক্ষ থেকে থানায় এখনও কোন মামলা হয়নি, তবে যদি ক্ষতিগ্রস্থদের পক্ষ থেকে কোন মামলা করতে রাজী না হলে, পরবর্তীতে পুলিশ তা ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

এদিকে সোনাগাজীর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সার্কেল সাইকুল আহমেদ ভূঁইয়া সাংবাদিকদের বলেন, এ ঘটনার সবকিছু সময় মতো বের হয়ে আসবে, তবে একটু ধৈয্যের ব্যাপার।

অপরদিকে রবিবার বিকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন  সাংবাদিকদেরকে বলেন, দুপুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তার কার্যালয়ে দেখা করতে যান তিনি। এসময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নুসরাতের বিষয়ে খোঁজ নেন। তার চিকিৎসাসহ সার্বিক বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে বলেছেন। একই সঙ্গে এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে নুসরাত জাহানের চিকিৎসায় নয় সদস্যের মেডিকেল বোর্ড গঠন করেছে ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিট। বোর্ডে রয়েছেন বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন, অধ্যাপক আবুল কালাম, অধ্যাপক রাইহানা আউয়াল, অধ্যাপক লুৎফর কাদের, অধ্যাপক মহিউদ্দিন, অধ্যাপক বিধান সরকার, অধ্যাপক নওয়াজেশ খান, চিকিৎসক জাহাঙ্গীর আলম ও জহিরুল ইসলাম।

ডা. সামন্ত লাল সেন আরও বলেন, নুসরাতের অবস্থা খুবই আশঙ্কাজনক। এই মুহূর্তে নিশ্চিত করে কিছুই বলা যাচ্ছে না। তার শরীরের ৭৫ শতাংশ পুড়ে গেছে।

ঘটনার বিবরণ থেকে জানা যায়,ফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রাসা অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ করায় নুসরাতকে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়। শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

নুসরাতের ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান বলেন, পরীক্ষার কেন্দ্রে যাওয়ার পর একজন পরীক্ষার্থী নুসরাতকে বলে, তার এক বান্ধবীকে ছাদে নিয়ে মারধর করা হচ্ছে। এটা শুনে সে দ্রুত ছাদে যায়। এরপরই এই ঘটনা ঘটে।ওই সময় চার দুর্বৃত্ত বোরকা পরা এসে নুসরাত জাহানের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। ফলে চারজনের কাউকেই চিনতে পারেনি নুসরাত। শনিবার রাতে নুসরাতের ভাই মাহমুদুল হাসান নোমান এমন তথ্যই দেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে নুসরাত জাহান আরবি প্রথমপত্র পরীক্ষা দিতে মাদ্রাসায় যায়। পরে সে প্রকৃতির ডাকে বাথরুমে যায়। সেখানে থেকে বের হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাকে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা সিরাজউদ্দৌলার অনুগত কয়েক দুর্বৃত্ত তাকে ছাদে নিয়ে যায়। সেখানে তার গায়ে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। তার আত্মচিৎকারে শিক্ষকরা এসে তাকে উদ্ধার করে।

সোনাগাজী থানার ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, ইতিপূর্বে ওই ছাত্রীর মা শিরিনা আক্তার বাদী হয়ে সোনাগাজী থানায় অভিযোগ করেন। মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা সিরাজউদ্দৌলা সবসময় তার মেয়ে নুসরাত জাহানকে যৌন হয়রানির চেষ্টা করতেন। এ অভিযোগে গত ২৭ মার্চ অধ্যক্ষকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc