Tuesday 23rd of July 2019 07:58:06 PM

নড়াইল প্রতিনিধিঃ “সহায়ক প্রযুক্তির ব্যবহার,অটিজম বৈশিষ্ট্য ব্যক্তির অধিকার” ” এ প্রতিপাদ্যকে সামনে নিয়ে নড়াইলে পালিত হল বিশ্ব অটিজম সচেনতা দিবস -২০১৯। মঙ্গলবার দিবসটি পালন উপলক্ষে জেলা প্রশাসন ও জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের আয়োজনে র‌্যালী ,আলোচনা সভা ও ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠির শিক্ষার্থীদের মাঝে অনুদানের চেক বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়।

সকাল সাড়ে ৯ টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে একটি র‌্যালী শুরু হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে একই স্থানে এসে শেষ হয়। পরে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা অনুিষ্ঠত হয়। জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক রতন কুমার হালদারের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা।

এ সময় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ-পরিচালক মোঃ মনিরুজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক ) মোঃ ইয়ারুল ইসলাম, নড়াইল পৌরসভার মেয়র মোঃ জাহাঙ্গীর বিশ্বাস, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ,নড়াইলের উপ-পরিচালক চিন্ময় রায়, পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ,নড়াইলের উপ-পরিচালক মোঃ শামছুল আলম,নড়াইল প্রেসক্লাবের সভাপতি অ্যাডঃ আলমগীর সিদ্দিকী,সরকারি কর্মকর্তা, কর্মচারি বিভিন্ন এনজিও প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

সভাশেষে ১টি ট্রাই সাইকেল, ২টি হুইল চেয়ার,ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি ও ক্ষুদ্র সম্প্রদায়ের ৪০ জন শিক্ষার্থীকে ৪ হাজার টাকা করে মোট ১ লক্ষ ৬০ হাজার টাকার অনুদান , ২টি সেলাই মেশিন,৪৫ জন অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধী এবং বেদে ও অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর ৫জনকে ভাতা প্রদান করা হয়।

নাজমুল হক নাহিদ,আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাইয়ে ছিনতাই হওয়া স্বর্ণালংকার, টাকা ও এলসিডি মনিটরসহ ৫ ছিনকাইকারীকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার (১ এপ্রিল) রাতে উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে কাশিয়াবাড়ি ও ভোঁপাড়া এলাকা থেকে তাদের আটক করে।

আটককৃত ছিনতাইকারীরা হলো, উপজেলার কাশিয়াবাড়ি গ্রামের আব্দুল গাফারের ছেলে মনিরুল ইসলাম (৩৪), একই গ্রামের আজিজুল ইসলামের ছেলে শাহিনুর রহমান (৪৭), ভোঁপাড়া গ্রামের শুকুর আলীর ছেলে হাসান আলী (৪৬), একই গ্রামের আবুল প্রামানিকের ছেলে লুৎফর রহমান (৩৪) ও আহম্মদ আলীর ছেলে রেজাউল করিম তুফান (৩০)।

জানা গেছে, গত সোমবার রাতে ১২টার দিকে উপজেলার হেঙ্গলকান্দি গ্রামের মোতাহার হোসেনের ছেলে জেমস্ রাইহান ও একই গ্রামের রুস্তম আলীর মেয়ে নুপুর আক্তার মালা বিয়ের উদ্দেশ্যে ঢাকা যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে পালিয়ে সিএনজি যোগে আত্রাই রেলওয়ে স্টেশনের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। সিএনজি উপজেলার কাশিয়াবাড়ি ঈদগাহ সংলগ্নে পৌচ্ছালে ৫জন ছিনতাইকারী এসে তাদের গতিরোধ অস্ত্রেও ভয় দেখিয়ে করে তাদের কাছে থাকা স্বর্ণের চেইন, টাকা, এলসিডি মনিটর ছিনতাই করে পালিয়ে যায়। পরে তারা আত্রাই স্টেশনে পৌচ্ছালে রাত্রিকালীন ডিউটিরত আত্রাই থানা এসআই মোস্তাফিজুর রহমান, এসআই সুতসোম ও এসআই ছাইফুল তাদের সন্দেহভাজন চলাফেরা দেখে তাদের জিজ্ঞাসা করে এবং তারা বিস্তারিত ঘটনা খুলে বলেন। পরে ওই রাতেই এসআই মোস্তাফিজুর রহমান, এসআই সুতসোম সরকার ও এসআই ছাইফুল সিএনজি ডাইভারকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ছিনতাইকারীদের সনাক্ত করে। পরে তারা সঙ্গীয় ফোর্সসহ রাতেই পৃথক পৃথক অভিযান চালিয়ে লুন্ঠিত স্বর্ণের চেইন, টাকা ও এলইডি মনিটরসহ তাদের ৫জনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে জেমস্ রাইহান বাদী হয়ে ৫ ছিনতাইকারীদের বিরুদ্ধে আত্রাই থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ছিনতাইকারীদের আটকের সত্যত্যা নিশ্চিত করে আত্রাই থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: মোবারক হোসেন জানান, ঘটনা শোনার পর ওই রাতেই পৃথক পৃথক অভিযান চালিয়ে ৫জন ছিনতাইকারীকে আটক করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এবং মঙ্গলবার তাদের নওগাঁ জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

সানিউর রহমান তালুকদার,নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) থেকেঃ দূর্গম পাহাড়ী অ ল হিসেবে খ্যাত দিনারপুর পরগণা ঘেঁষে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশ্ববর্তী নবীগঞ্জ উপজেলার দেবপাড়া ইউনিয়নের আইনগাঁও-নাড়ান্দি গ্রামের সাথে সংযুক্ত মহাসড়কের পুরনো এই প্রধান সড়কের নির্মিত ব্রীজটির বেহাল দশায় পরিণত হয়েছে।

যেন দেখার কেউ নেই! ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক নির্মাণ হওয়ার পর এখন যান-চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে পুরনো এই সড়কটি। কিন্তু থেমে থাকেনি পল্লী গ্রামের পথচারী মানুষ।

জানা যায়, ওই ব্রীজের উপর দিয়ে আইনগাঁও ও নাড়ান্দি গ্রামের শতাধিক মানুষের চলাচলের একমাত্র প্রধান সড়ক। কিন্তু মহাসড়ক নির্মাণ হওয়ার পর এই সড়কে তেমন যান-চলাচল না করলেও নির্মিত ওই ব্রীজটির উপরে বড় গর্ত সৃষ্টি হওয়ার ফলে দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন সাধারন পথচারী সহ পল্লী গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দারা।

এছাড়াও প্রতিনিয়ত এ সড়ক দিয়ে যাতায়াত করেন স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসাগামী সহ দুই গ্রামের শতাধিক ছাত্র-ছাত্রীরা। কিন্তু ব্রীজটির এই অবস্থায় দেখা দিলে যানও মালের নিয়েই চলাচল করতে হয় গ্রামবাসীদের। তাই পুনঃরায় এই ব্রীজটি সংস্কার না হলে ধীরে ধীরে ভেঙ্গে গিয়ে একেবারে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়বে।

বিক্রমজিত বর্ধন,মৌলভীবাজার প্রতিনিধি: মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার সাতগাঁও ছনখলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ২০০৯ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকেই বেহাল দশা নিয়েই খুটিয়ে খুটিয়ে চলছে এই বিদ্যালয়টি। জানাযায় এ বিদ্যালয়ের বেশিরভাগ শিক্ষার্থী চা শ্রমিকদের সন্তান। চরম দারিদ্রতার কারণে এমনিতেই চা শ্রমিকের সন্তানরা শিক্ষা ক্ষেত্রে পিছিয়ে পড়ছে তার মধ্যে এমন জরাজীর্ণ বিদ্যালয় এবং আসন সংকট,এমনকি মাটিতে বসে পড়াশুনা করতে হচ্ছে কোমলমতি এসব শিক্ষার্থীদের।
প্রাথমিক পর্যায় থেকেই কোমলমতি এসব শিশুদের জন্য সুন্দর ও নিরাপদ পরিবেশ তৈরী হওয়াটা একান্তই জরুরি। আর কর্তৃপক্ষ সেটা করতে পারছেনা বলেই অনেক শিক্ষার্থী অকালে ঝরে পড়ছে। বিশেষ করে চা বাগান এলাকাগুলোতে যে সমস্ত বিদ্যালয়গুলো রয়েছে এসবের বেশিরভাগ বিদ্যালয়ের অবস্থাই চরম খারাপ। ঝরে পড়া শিক্ষার্থীদের মধ্যে চা শ্রমিকের সন্তানদের সংখ্যাই বেশি। এসব সুবিধাবি ত শিক্ষার্থীদের ঝরে পরা রোধ করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের উচিত দ্রুতই চা বাগান এলাকায় অবস্থিত সবকটি বিদ্যালয়ের ভবন সংকট সহ সকল সমস্যা নিরসন করে একটি সুন্দর পরিবেশ তৈরী করা।
তবেই অবহেলিত কোমলমতি চা-শ্রমিকদের সন্তান শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়মুখী করা সম্ভব। তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র সাব্বির সে জানায়,ঝড়ের দিন আসলে ঘর নড়াচড়া করে এবং বৃষ্টির পানিতে বই পত্র ভিজে নষ্ট হয়ে যায়! চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র বিজয় জানায় টয়লেট আর পানির জন্য আমাদের খুব সমস্যা হয়! স্কুলের প্রধান শিক্ষক অনিতা দেব জানান,বিশেষ করে ঝড় তুফানে শিক্ষার্থীদের নিয়ে তারা বেশ বিপাকে পড়েন! তীব্র ঝড় শুরু হলে ছাত্রছাত্রীদের নিয়ে সমস্ত শিক্ষক পার্শবর্তী বাড়িতে আশ্রয় নেন! তাই যতদ্রুত সম্ভব এই বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি কামনা করেছেন।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ সাইফুল ইসলাম এই প্রতিনিধিকে বলেন, উপজেলা পর্যায়ে যে সকল বিদ্যালয়ে ভবন নেই সেইসব বিদ্যালয়গুলোর ভবন নির্মাণ কাজ দ্রুতই শুরু হবে। ইতোমধ্যে টেন্ডারও হয়ে গেছে এখন শুধু ভবন নির্মাণের অপেক্ষা।
দেশ যখন উন্নয়নের মহাসড়কে দ্রুত গতিতে সর্ব ক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে আর ঠিক এই মুহূর্তে এসে বাঁশ,ছন আর পুরাতন জং ধরা ঢেউটিন দিয়ে বেড়া দিয়ে নির্মিত ছোট ছোট তিনটি কক্ষে ব্রেে র অভাবে মাটিতে বসে পাঠদান করছেন কোমলমতি শিশুরা। এটা একেবারেই অমানবিক মনে হয়ে তাই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ দ্রুতই বিদ্যালয়টিকে ভবনে রূপান্তরিত করবেন এমনটাই প্রত্যাশা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট বলেন এলাকাবাসি।

আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াত সমন্বয় কমিটির অন্যতম অভিভাবক, উপমহাদেশের শীর্ষস্থানীয় আলেমেদ্বীন হাটহাজারী ছিপাতলী বহুমূখী আলিয়া প্রতিষ্ঠাতা আল্লামা আজিজুল হক আলকাদেরী আজ ৩১ মার্চ সকাল ৯.১৫ মিনিটের দিকে চট্টগ্রাম পাচঁলাইশস্থ পার্ক ভিউ হসপিটালে চিকিতসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহী রা’জিউন।

তার ইন্তেকালে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াতের চেয়ারম্যান ইমামে আহলে সুন্নাত আল্লামা কাযী মুহাম্মদ নুরুল ইসলাম হাশেমী এবং মহাসচিব আল্লামা ছৈয়দ মুহাম্মদ মছিহুদ্দোলা, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় পরিষদের চেয়ারম্যান আল্লামা এম এ মান্নান, মহাসচিব আল্লামা এম এ মতিন, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামআত সমন্বয় কমিটির সদস্য সচিব এড. মোছাহেব উদ্দিন বখতেয়ার, শেরে মিল্লাত আল্লামা মুফতি ওবাইদুল হক নঈমী, অধ্যক্ষ আল্লামা নুরুল মনোয়ার, অধ্যক্ষ আল্লামা সৈয়দ অছিউর রহমান আলকাদেরী, পীরে তরিকত আল্লামা কাজী আব্দুস শকুর নক্শবন্দি, পীরে তরিকত আল্লামা মুফতি ইদ্রিচ রেজভী, পীরে তরিকত আল্লামা আবুল কাশেম নুরী, পীরে তরিকত সৈয়দ মাওলানা সাইফুদ্দীন আহমদ আলহাসানী, পীরে তক্বিত সৈয়দ বদরুদ্দোজা বারী, শায়খ আল্লামা আবু সুফিয়ান খাঁন আলকাদেরী, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব স উ ম আব্দুচ সামাদ, আল্লামা ড. সৈয়দ এরশাদ আহমদ আল বোখারী, আনজুমানে খোদ্দামুল মোসলেমীন ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মুহাম্মদ সাহাবুদ্দীন চৌধুরী, অধ্যক্ষ মাওলানা মুহাম্মদ তৈয়্যব আলী, পীরজাদা গোলামুর রহমান আশরফ শাহ্, পীরে তরিক্বত আল্লামা ছাদেকুর রহমান হাশেমী, অধ্যক্ষ বদিউল আলম রেজভী, অধ্যক্ষ আবু তালেব বেলাল, বাংলাদেশ ইসলামী যুবসেনা কেন্দ্রীয় সভাপতি মুহাম্মদ ফিরোজ আলম খোকন, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মুহাম্মদ আবু আজম, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনার কেন্দ্রীয় সভাপতি জি এম শাহাদত হোসাইন মানিক, সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ ইমরান হোসাইন তুষার, ইসলামী ফ্রন্ট মহানগর উত্তর সভাপতি আলহাজ্ব মুহাম্মদ নঈমুল ইসলাম, সম্পাদক নাছির উদ্দিন মাহমুদ, দক্ষিণ জেলার সভাপতি অধ্যক্ষ আল্লামা আহমদ হোসাইন আলকাদেরী, সম্পাদক মাস্টার আবুল হোসাইন, উত্তর জেলার সভাপতি মাওলানা কদম রসুলী, সম্পাদক এস এম ইয়াসিন হোসাইন হায়দারী, চট্টগ্রাম মহানগর দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা এম এন ইসলাম জিহাদী, সম্পাদক মাওলানা মুহাম্মদ আশরাফ হোসাইন আলকাদেরী, কাজী মুহাম্মদ আবুল ফোরকান হাশেমী, আহলে সুন্নাত সম্মেলন সংস্থার সভাপতি অধ্যক্ষ আল্লামা সোলায়মান আনসারী, সম্পাদক শায়খুল হাদিস কাজী মুহাম্মদ মঈনুদ্দীন আশরাফী, গাউসিয়া কমিটি বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মুহাম্মদ পেয়ার মোহাম্মদ (কমিশনার), মহাসচিব আলহাজ্ব শাহজাদ ইবনে দিদার, এড. মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, আঞ্জুমানে রজভীয়া নুরীয়া বাংলাদেশের ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ¦ নুরুল হক, কাতার শাখার সভাপতি আলহাজ কাজী মুহাম্মদ ফোরকান রেযা, সুন্নী নাগরিক ঐক্য পরিষদের সচিব অধ্যাপক মুহাম্মদ কাওসার হামিদ, অধ্যক্ষ আল্লামা ইসমাইল নোমানী, হিজরী নববর্ষ উদ্যাপন পরিষদের মহাসচিব মুহাম্মদ এনামুল হক ছিদ্দিকী, রজভীয়া নুরীয়া ইসলামী সাংস্কৃতিক ফোরামের সভাপতি শায়ের মুহাম্মদ মাছুমুর রশিদ কাদেরী, মহাসচিব শায়ের নাজিম উদ্দিন, রাবেত্বায়ে উলামায়ে আহলে সুন্নাতের চেয়ারম্যান আল্লামা আবুল হাসান মুহাম্মদ ওমাইর রজভী, মহাসচিব আল্লামা ইকবাল হোসাইন আলকাদেরী প্রমূখ ৩১ মার্চ সোমবার বিকালে এক যুক্ত বিবৃতিতে বলেন, আল্লামা আজিজুল হক আলকাদেরী দেশব্যাপী ইসলামের শ্বাশত মূলধারা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াতের প্রচার প্রসারে ও দ্বীনি শিক্ষা বিস্তারে অনন্য ভূমিকা রেখেছেন। সুন্নি জনতা একজন যোগ্য অভিভাবককে হারিয়েছেন।

তাঁর ইন্তেকালে সুন্নি অঙ্গনে যে শূন্যতার সৃষ্টি হয়েছে তা অপূরণীয়। সুন্নি জনতা তাঁর অবদানকে চিরদিন কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করবে। নেতৃবৃন্দ হুজুরের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং শোকাহত পরিবার পরিজনের প্রতি সমবেদনা জানান। উল্লেখ্য ১ এপ্রিল সোমবার বাদে আছর হাটহাজারী ছিপাতলী বহুমূখী আলিয়া মাদ্রাসা ময়দানে মরহুমের নামাযে জানাযা অনুষ্ঠিত হবে।

চুনারুঘাট প্রতিনিধিঃ  চুনারুঘাট উপজেলার রানীগাঁও ইউনিয়নের হরিশংকরপুর (শাহাপুর) গ্রামের নিরীহ অসহায় আবুল কালামের কন্যা চুনারুঘাট হাজী আলিম উল্লা মাদ্রাসার আলিম পড়–য়া শামছুন্নাহারকে ও তার পরিবারের লোকজনকে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে এলাকার প্রভাবশালী ইছাক আলী জিন মোল্লার পুত্র বখাটে আনোয়ার আলী গং। এ ঘটনায় শামছুন্নাহারে মাতা আছকিরা খাতুন বাদী হয়ে চুনারুঘাট থানা ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে বখাটে আনোয়ার আলী গংদের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের বিবরণে জানা যায়, আবুল কালামের মেয়ে শামছুন্নাহার সহ তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা বখাটে আনোয়ার আলীর ভয়ে তাদের বসতবাড়ি হতে বাহিরে যেতে পারছেন না।

এ বিষয়ে নিরাপত্তা চেয়ে শামছুন্নাহারের মাতা আছকিরা খাতুন চুনারুঘাট থানায় হাজির হয়ে সোমবার বিকেলে আনোয়ার আলী সহ ২/৩ জনকে আসামী করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। উল্লেখ্য যে, হরিশংকরপুর (শাহপুর) এলাকার নিরীহ পরিবারের আবুল কালামের কন্যা শামছুন্নাহার একজন মাদ্রাসার আলিম পড়–য়া মেধাবী ছাত্রী ছিল।

মাসখানেক পূর্বে শামছুন্নাহারের সাথে হুরপাড়া গ্রামের আমির হোসেনের পুত্র ফয়সল মিয়ার সাথে আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই এলাকার বখাটে আনোয়ার আলী শামছুন্নাহার ও তার স্বামী ফয়সল মিয়া সহ তার শ্বশুরবাড়ির লোকজনদেরকে প্রাণনাশের হুমকি-ধামকি দিয়ে আসছে এবং বিয়ে ভাঙ্গার পায়তারা চালাচ্ছে। এ ঘটনায় মাদ্রাসা ছাত্রীর মাতা আছকিরা খাতুন তার মেয়ের ও পরিবারের নিরাপত্তা চেয়ে ১লা এপ্রিল সোমবার বিকেলের দিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মঈন উদ্দিন ইকবালের নিকট ওই বখাটের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মঈন উদ্দিন ইকবাল জানান, বখাটে আনোয়ার মিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ পেয়েছি। দ্রুত বখাটের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে এবং চুনারুঘাট থানার এস.আই শেখ আলী আজহারের নিকট অভিযোগের তদন্তভার দেয়া হয়েছে। তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। বখাটেকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। উক্ত বিষয়টি নিয়ে উভয়ের মাঝে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করা হচ্ছে বলে এলাকাবাসীর ধারণা।

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ  মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার সাতগাও এলাকার লচনা নামক গ্রামে ফকির শাহ আব্দুর রহমান মাইজ ভান্ডারী কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত দায়রা শরীফে, প্রতি বছরের ন্যায় এবারও হযরত ছৈয়দ গোলামুর রহমান বাবা ভান্ডারী (রহ)’র ওরস শরীফ ও মহান ১৮ চৈত্র ওরস শরীফ উদযাপন উপলক্ষে আজিমুশশান মাহফিলে জিকরে মোস্তফা (দ) অনুষ্ঠিত হয়।

এতে নাতে রাসুল (দ) পরিবেশন করেন, এশিয়া খ্যাত দ্বীনি শিক্ষা নিকেতন,চট্টগ্রাম জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়ার শিক্ষার্থী শায়ের মাওলানা মুহাম্মদ হোসাইন কাদেরী, শায়ের আবু বক্কর কাদেরী, ক্বরী মাওলানা মোসাদ্দেক মোরশেদ কাদেরী। মুহাম্মদ কায়সার হামিদ রুবেল।

এতে সভাপতিত্ব করেন–ফকির শাহ আব্দুর রহমান মাইজ ভান্ডারী, প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্হিত ছিলেন–চট্টগ্রাম জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়ার শিক্ষার্থী শাহজাদা মাওলানা মো: মুজিবুল বশর মাইজ ভান্ডারী, বিশেষ অতিথি  মো: সিরাজুল ইসলাম মাইজভান্ডারী (কুমিল্লা) প্রমুখসহ দেশের বিভিন্ন এলাকার ভক্ত বৃন্দ।

নড়াইল প্রতিনিধি: নড়াইলে শিলা বৃষ্টি ও ঝড়ে উঠতি বোরো ধান, সবজি, আম ও পানের ক্ষতি হয়েছে। রোববার (৩১মার্চ) রাত ৩টার দিকে নড়াইল সদর, লোহাগড়া ও কালিয়া উপজেলার বিভিন্ন এলাকার ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া বৈশাখী ঝড় ও শিলা বৃষ্টিতে এ ক্ষতি হয়।

তবে নড়াইল জেলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ বলছে ক্ষয়-ক্ষতির পরিমান তেমন বেশী নয়। জেলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ জানিয়েছে, রোববার রাতে ঝড় ও শিলা বৃষ্টিতে ৫৫ হেক্টর বোরো ধান, ৩০ হেক্টর সবজি এবং ৫ হেক্টর পানের ক্ষতি হয়েছে।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc