Thursday 23rd of May 2019 04:48:20 PM

এম ওসমান,বেনাপোল: বেনাপোল বাজার কমিটির অফিসের (যেটি আগে ছিল বেনাপোল পৌর ছাত্রলীগের কার্যালয়) মেঝের ভিতর দুটি লাশের কঙ্কাল পোতা আছে সন্দেহে চলছে খুড়া-খুড়ির কাজ। মঙ্গলবার দুপুর তিনটার সময় সিআইডি ও ম্যাজিষ্ট্রেটসহ স্থানীয় বেনাপোল থানা পুলিশের সহযোগিতায় মেঝে খুড়ার কাজ চলছে।
স্থানীয়রা জানায় ২০১৩-১৪ সালের দুটি লাশের কঙ্কাল বেনাপোল বাজার কমিটির অফিসের মেঝের ভিতর পোতা রয়েছে এ সন্দেহে সেখানে লাশ পাওয়ার সন্ধানে খুড়াখুড়ি চলছে। তবে এখানে বাজার কমিটির আগে বেনাপোল পৌর মেয়র পন্থী ছাত্রলীগের অফিস ছিল।
স্থানীয় আর একটি সুত্র জানায়, শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও বেনাপোল পৌর কাউন্সিলার তারিকুল আলম (তুহিন) ২০১৩ সালের ৭ মার্চ দুপুরে সে রাজধানীর শেরেবাংলা নগর ন্যাম ভবনের একটি ফ্লাট থেকে বের হওয়ার পর নিখোঁজ হয়। সেই থেকে তার সন্ধান এখনো মেলেনি। তারই লাশের কঙ্কাল থাকতে পারে এ সন্দেহে তা উদ্ধারের জন্য সেখানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা অভিযান চালাচ্ছে।
সিআইডির মাহফুজ নামে এক সদস্যর কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখন আমরা কিছু বলতে পারব না। ম্যাজিষ্ট্রেট উপস্থিত আছে তিনার কাছে আপনারা সব জানতে পারেন। এসময় উপস্থিত দায়িত্বরত ম্যাজিষ্ট্রেটের সাথে এ রিপোর্ট লেখা পর্যান্ত যোগাযোগ করা যায়নি। এ সময় বেনাপোল বাজার কমিটির অফিসের সামনে হাজার হাজার উৎসুক জনতা ভিড় জমাতে দেখা যায়।

সাদিক আহমেদ,স্টাফ রিপোর্টারঃ আসন্ন পঞ্চম শ্রীমঙ্গল উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে শ্রীমঙ্গল থানার আ য়োজনে প্রার্থী,ভোটার এবং উপজেলাবাসীর সাথে আইন-শৃঙ্খলা বিষয়ক এক মতবিনিময় সভা আজ (মঙ্গলবার) সকাল ১০ ঘটিকায় শ্রীমঙ্গল শহরের মহসিন অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও শ্রীমঙ্গল সার্কেলের সিনিয়র পুলিশ সুপার আশরাফুজ্জামান আশিকের সঞ্চালনায় উক্ত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজালাল,বিপিএম,পিপিএম-সেবা।

বিশেষ অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কে এম নজরুল ইসলাম।এসময় শ্রীমঙ্গল থানার অন্যান্য পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।  

এদিকে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী  ৩ চেয়ারম্যান প্রার্থী বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান রণধীর কুমার দেব,সাবেক ও নির্বাচনে আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী আফজল হক ও জাকের পার্টির  আব্দুল কাইয়ুম।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন ৬ ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান প্রেম সাগর হাজরা,এম এ রহিম নোমানী,লিটন আহমেদ,পরিমশ দাশ,এনাম হোসেন চৌধুরী মামুন হাসানুর রহমান দুলাল এবং ৪ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বতমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হেলেনা চৌধুরী,শিরিন আ ক্তার,হাজেরা খাতুন,মিতালী দত্ত।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও দ্বারিকাপাল মহিলা ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ মনসুরুল হক,কৃষকলীগ শ্রীমঙ্গল উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক আমিনুর রশিদ তালুকদার, শ্রীমঙ্গল সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ভানু লাল রায়,ভূনবীর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান চেরাগ আলী,শ্রীমঙ্গল ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ইয়াহিয়া খান,শ্রীমঙ্গল ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও মৌলভীবাজার জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক হাজী কামাল হোসেন,পরিবহন শ্রমিক নেতা শাহজাহান মিয়া প্রমুখ।

এসময় ভোটাররা,প্রার্থী,শিক্ষক সমাজের প্রতিনিধিবৃন্দ ও বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ বিভিন্ন ধরণের প্রশ্ন ও মতবিনিময় করেন এবং প্রশাসনিক কর্মকর্তারা সেসব প্রশ্ন ও মতের উত্তর দেন এবং অবাদ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলে আশ্বাস দেন।প্রশাসন সর্বদা সজাগ থাকবে বলেন উপস্থিত প্রশাসনিক কর্মকর্তারা।

মতবিনিময় সভার প্রধান অতিথি মৌলভীবাজার জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজালাল বলেন, “অতিতের মতো এবারের পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হবে।কেউ যদি কোনো ধরনের অপপ্রচার ও ভয় ভীতি দেখায় তবে সে যত বড় নেতা হোক,যতই প্রভাবশালী হোক না কেনো প্রশাসন তাদের ছাড় দিবে না বলে সবাইকে সতর্ক করেন তিনি”।

প্রার্থীদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন,”কেউ যেনো কোনো ভয় ভীতি দেখাতে না পারে সেজন্য আ পনারা সজাগ থাকবেন।নির্বাচনী আ চরণবিধি ও নীতিমালা মেনে প্রচার প্রচারণা চালানোর আ হ্বান করেন তিনি”।

নির্বাচন উপলক্ষে এবং নির্বাচনকে সুষ্ঠু করতে উপজেলার প্রতিটি এলাকায় পুলিশ টহল দিবে বলে জানান তিনি।

নড়াইল প্রতিনিধিঃ সংস্কৃতি দিয়েই অপ সংস্কৃতি রুখতে হবে, এই জঙ্গীবাদ কালচার দিয়েই রুখতে হবে, এই জঙ্গীবাদতে নির্মূল করতে হলে এই কালচার নিয়েই নির্মল করতে হবে। এখন কলের গান নেই, যাত্রা নেই, নাটক নেই,সব উধাও হয়ে গেছে, সব জায়গায় আবাসিক /বানিজ্যিক ভবন তৈরী হয়ে যাচ্ছে, সেই জন্য সরকার থেকে প্রতিটি জেলা শহরে একটি সিনে কমপ্লেক্স করা যায় কিনা সে ব্যাপারে প্রকল্প গ্রহনের কথা আমরা ভাবছি— নড়াইলে সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ এমপি।
নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজের সুলতান মে বিশ^ বরেণ্য চিত্রশিল্পী এস এম সুলতানের ৯৪তম জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে ১০দিনব্যাপী ( ৩-১২ মার্র্চ) ‘সুলতান মেলা’র সমাপণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী একথা বলেন ।
এর আগে পাপেট শিল্পের জনক, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী এবং বাংলাদেশ টেলিভিশনের সাবেক মহাপরিচালক মুক্তিযোদ্ধা প্রবীন চিত্রশিল্পী মুস্তাফা মনোয়ারকে স্বর্ণ পদক ও সম্মাননা প্রদান করেন মন্ত্রী । জেলা প্রশাসক আনজুমান আরার সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডঃ সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডঃ সুবাস চন্দ্র বোস, জেলা পুলিশ সুপার জসিম উদ্দিন পিপিএম, সুলতান ফাউন্ডেশনের সদস্য সচিব মোঃ আশিকুর রহমান মিকু এবং পপুলার লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানি লিঃ-এর প্রতিনিধি আবিদুর রহমান বাবু।
প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে আরো বলেন, চিত্রশিল্পী এস.এম সুলতান একটি দরিদ্র পরিবার থেকে উঠে এসে বিশ্ব কাঁপিয়েছেন। তার শিল্পকর্মের জন্য আজ তিনি সারা বিশ্বে পরিচিত। তিনি এ দেশকে সমৃদ্ধ করেছেন। তিনি নড়াইলের এস.এম সুলতান আর্ট কলেজের এমপিওভূক্তি, একটি পূর্ণাঙ্গ ষ্টেডিয়াম, ৬০ শতাংশ জায়গার ওপর একটি সাংস্কৃতিক বলয় ও একটি সিনে কমপ্লেক্স তৈরির আশ্বাস দেন।
গত ৩ মার্চ থেকে সুলতান ম চত্বরে সুলতান মেলা শুরু হয়। জেলা প্রশাসন ও সুলতান ফাউন্ডেশনের আয়োজনে ১০ দিনব্যাপি সুলতান মেলায় বিভিন্ন আয়োজনের মধ্যে ছিল শিশুদের চিত্রাংকন ও রচনা প্রতিযোগিতা, চিত্র প্রদর্শনী, গ্রামীন খেলাধুলা, সেমিনার এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। মেলার সমাপনি দিন সুলতান পদক বিতরণ শেষে সুলতান মে সঙ্গীত পরিবেশন করেন জনপ্রিয় ব্যান্ড ‘জলের গান’। মেলাকে কেন্দ্র দু’শতাধিক ষ্টল বিভিন্ন পন্য সাজিয়ে বসে।। মেলা উপলক্ষে গ্রামীন খেলাধুলা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ছাড়াও শিশুদের বিনোদনের জন্য বিভিন্ন ধরনের নাগোরদোলা এবং ট্রেন এসেছে। প্রতিদিন হাজার হাজার শিশু-কিশোর এবং নারী-পুরুষ মেলা উপভোগ করতে সুলতান মে ছুটে আসেন।
বরেণ্য চিত্রকর এস.এম সুলতান ১৯২৪ সালের ১০ আগষ্ট এই গুণী শিল্পী শহরতলি মাছিমদিয়া গ্রামে জন্মগ্রহন করেন। তিনি তার জীবদ্দশায় স্বাধীনতা, একুশেসহ দেশী-বিদেশী অসংখ্য সম্মাননা এবং পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৯৪ সালের ১০ অক্টোবর বরেণ্য এই শিল্পী মৃত্যুবরণ করেন।

জৈন্তাপুর (সিলেট) প্রতিনিধি: জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশের অভিযান ১৯বোতল ফেন্সিড্রিল উদ্ধার। আস্থানা হতে আরও ৫০টি ফেন্সিড্রিলের খালি বোতল উদ্ধার, আস্থানার গডফাদার পলাতক।
গতকাল ১২ মার্চ মঙ্গলবার দুপুর ২ টায় জৈন্তাপুর নিজপাট বাজারস্থ বীর মুক্তিযোদ্ধা ফরিদ আহমদ মার্কেটে অফিসার ইনচার্জের নির্দেশে মডেল থানার এস.আই প্রদীপ কুমার, এ.এস.আই মাহবুব, এস.আই তাজুল ইসলামের নেতৃত্বে একদল পুলিশ অভিযান পরিচালনা করে। অভিযান পরিচালনার সময় উপস্থিত ছিলেন নিজপাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মঞ্জুর এলাহী স¤্রাট, ইউপি সদস্য হমায়ুন কবির খান। অভিযান চলাবস্থায় মার্কেটের একটি কক্ষ থেকে ১৯ বোতল ভারতীয় ফেন্সিড্রিল উদ্ধার করা হয়। এছাড়া মাদক আস্থানা হতে আরও ৫০টি খালি বোতল উদ্ধার করা হয়েছে। এলাকাবাসী জানান দীর্ঘ দিন হতে বীরমুক্তিযোদ্ধা মরহুম ফরিদ আহমদের ছেলে মাদক স¤্রাট শাহিন (৩৫) মার্কেটের একটি গোপন কক্ষে আস্থানা স্থাপন করে মাদক ব্যবসা পরিচালনা করে আসছে।

পুলিশ বিভিন্ন সময় আস্থানাটি নজরদারীতে রাখলেও গতকাল আস্তানায় অভিযান পরিচালনা করে। এসময় ১৯ বোতল ফেন্সিড্রিল এবং ৫০টি খালি বোতল উদ্ধার করে। অপরদিকে অভিযানের বিষয়টি আচঁ করেত পেরে চতুর মাদ্রক ব্যবসায়ী দ্রুত মার্কেট থেকে পালিয়ে যায়।
এবিষয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) আনোয়ার জাহিদ জানান- অভিযান পরিচালনা করে ১৯ বোতল ফেন্সিড্রিল সহ আরও ৫০টি খালি বোতল উদ্ধার করা হয়। তবে মাদ্রক স¤্রাট শাহিন পালিয়ে যায়। তার বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা গ্রহন করা হবে এবং থাকে গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।

বাংলাদেশের সব টেলিভিশন চ্যানেল আগামী ১২ মে’র মধ্যে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর মাধ্যমে সম্প্রচার কার্যক্রম শুরু করবে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

সোমবার সচিবালয়ে বেসরকারি টেলিভিশন মালিকদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অভ টেলিভিশন চ্যানেল ওনার্সের (অ্যাটকো) কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের এই তথ্য জানান।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘১২ মে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের এক বছর পূর্তি হবে। ১২ মে নাগাদ বাংলাদেশের সমস্ত টেলিভিশন চ্যানেলগুলো বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের মাধ্যমে সম্প্রচারের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট কর্তৃপক্ষ টেলিভিশনগুলোকে তিন মাস বিনামূল্যে সেবা দেবে জানিয়ে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘১২ মে নাগাদ বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি সকল টিভি’র ডাটা অপটিক্যাল ফাইবারের মাধ্যমে গাজীপুরে সজীব ওয়াজেদ ভূ-উপগ্রহ কেন্দ্রে নিয়ে যাবে, সেখান থেকে আপলিঙ্ক এবং ডাউনলিঙ্ক করবে, সেজন্য বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।’

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট কর্তৃপক্ষ সবার সঙ্গে আলোচনা করে টেলিভিশনগুলো কী দরে স্যাটেলাইট ব্যবহার করবে তা নির্ধারণ করবে এবং বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি বিটিভির মাধ্যমে ক্যাবল অপারেটরদের প্রয়োজনীয় সংখ্যক ‘এল এন বি (লো নয়েজ ব্লক)’ যন্ত্র সরবরাহ করবে বলেও জানান তথ্যমন্ত্রী।

তথ্যমন্ত্রী জানান, ‘সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী কেবল অপারেটরদের বাংলাদেশের টেলিভিশন চ্যানেলগুলো ক্রমানুসারে প্রথম দিকে রাখার কথা। আজকেও পুনরায় আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নিয়েছি, আমরা সব ক্যাবল অপারেটরদের স্মরণ করিয়ে দেবো যে, বাংলাদেশের টেলিভিশন চ্যানেলগুলোকে তারা প্রথমে রাখবে। প্রথমে সরকারি চ্যানেল, এরপর সম্প্রচারের তারিখ অনুযায়ী বেসরকারি চ্যানেলগুলো থাকবে, পরে বিদেশি চ্যানেলগুলো থাকবে।’

বিদেশি টিভিতে বিজ্ঞাপন প্রচারের বিষয়ে বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী বিদেশি চ্যানেলের মাধ্যমে বাংলাদেশে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ইতোমধ্যে ক্যাবল অপারেটরদের স্মরণ করিয়েছি। আবার নোটিশ জারি করবো। ১ এপ্রিলের পর থেকে কেউ যদি এই আইন ভঙ্গ করে, সরকারের এই নির্দেশনা পালন না করে, তাহলে আমরা আইন অনুযায়ী ব্যবস্থায় যাব।’

অ্যাটকোর জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ও একাত্তর টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোজাম্মেল বাবু তথ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের সাথে একত্বটা প্রকাশ করে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে চলে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আমরা সম্মিলিতভাবে একটি বা দুটি বান্ডিলে অথবা একই বান্ডিলে পে-চ্যানেল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে চাই। কেবল অপারেটররা যে সাবস্ক্রিপশন দর্শকদের কাছ থেকে নেয় অত্যন্ত যৌক্তিক একটা অংশ আমরা আমাদের দেওয়ার জন্য আবেদন করবো।’

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, তথ্য সচিব আবদুল মালেক, বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেডের (বিসিএসসিএল) চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদহসহ অ্যাটকোর সদস্যবৃন্দ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী- আইআরজিসি’র কুদস ব্রিগেডের কমান্ডার মেজর জেনারেল কাসেম সোলায়মানিকে সর্বোচ্চ সামরিক পদকে ভূষিত করার অনুষ্ঠানে সর্বোচ্চ নেতা বলেছেন, এ ধরনের পদক প্রদান করে আল্লাহর রাস্তায় জিহাদের প্রতিদান দেয়া সম্ভব নয়।

ইরাক ও সিরিয়ায় উগ্র জঙ্গি গোষ্ঠীগুলোর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সাফল্যের নিদর্শনস্বরূপ সোমবার জেনারেল সোলায়মানি এ পদক লাভ করেন। ওই দুই দেশের সেনাবাহিনীকে সন্ত্রাস বিরোধী যুদ্ধে সামরিক পরামর্শ দিয়ে সাহায্য করছে ইরান এবং জেনারেল সোলায়মানির নেতৃত্বাধীন আইআরজিসি’র কুদস ব্রিগেড মূলত এই দায়িত্বে নিয়োজিত রয়েছে।

জেনারেল সোলায়মানিকে সর্বোচ্চ সামরিক পদক  ‘দি অর্ডার অব জুলফিকার’ প্রদানের অনুষ্ঠানে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী আরো বলেন, আল্লাহ তায়ালা তাঁর রাস্তায় জান ও মাল দিয়ে জিহাদ করার বিনিময় হিসেবে যে প্রতিদান রেখেছেন তা হচ্ছে তাঁর সন্তুষ্টি ও জান্নাত।

জেনারেল সোলায়মানিকে সর্বোচ্চ সামরিক পদক পরিয়ে দিচ্ছেন আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী

ইরানের সশস্ত্র বাহিনীর সর্বাধিনায়ক আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী আরো বলেন, জেনারেল সোলায়মানিকে তিনি যে পদক দিয়েছেন বা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন তা পার্থিব জীবনের হিসাবনিকাশের দৃষ্টিভঙ্গিতে বিবেচনা করতে হবে। কিন্তু এই জিহাদে যারাই অংশ নিয়েছেন তাদের সবার জন্য ঐশী পুরস্কার অপেক্ষা করছে এবং তারা যেন আল্লাহর কাছ থেকে সে পুরস্কার গ্রহণের জন্য প্রস্তুতি নেন।

জেনারেল সোলায়মানিকে জিহাদের তৌফিক প্রদান করার জন্য সর্বোচ্চ নেতা মহান আল্লাহর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং জীবন সায়াহ্নে কাসেম সোলায়মানি যেন শাহাদাতের মর্যাদা লাভ করতে পারেন সেজন্য আল্লাহর কাছে দোয়া করেন।ইরনা

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc