Tuesday 19th of March 2019 03:22:39 AM

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার পতনঊষার পাইওনিয়ার এডুকেশন ট্রাস্টের মেধাবৃত্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।শুক্রবার সকাল ১১টায় ৪র্থ বারের মতো পতনঊষার উচ্চ বিদ্যালয়ে এই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

পাইওনিয়ার এডুকেশন ট্রাস্ট এর আয়োজনে ৬ষ্ট থেকে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে মেধাবৃত্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলার ৬টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১৮০ জন শিক্ষার্থী এ পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে পতনঊষার ইউপি চেয়ারম্যান প্রকৌশলী তওফিক আহমদ বাবু, কমলগঞ্জ সাংবাদিক সমিতির সভাপতি আব্দুল হান্নান চিনু, সমাজসেবক অলি আহমদ খান, বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্য আনোয়ার খান প্রমুখ পরিদর্শন করেন।

পাইওনিয়ার এডুকেশন ট্রাস্টের সভাপতি আবু রাজা আলী সুন্নাহ ও সম্পাদক মো. মিসবাহ উদ্দীন জানান, চতুর্থ বছরের ন্যায় মেধাবৃত্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। তাদের মধ্য থেকে উত্তীর্ণ প্রতি শ্রেণিতে ৩ জন করে ১৫ শিক্ষার্থীকে আনুষ্ঠানিকভাবে বৃত্তি প্রদান করা হবে।

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর এর ফাঁড়ি দেওছড়া চা বাগানে ক্ষুদ্র বিষয়কে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে মুনিবজিত রবিদাস (৬০) নামে এক চা শ্রমিক নিহত হয়েছে। আহত হয়েছেন দু’পক্ষের ১০ জন। শুক্রবার সকাল ১০টায় দেওছড়া চা বাগানে মাঠের পাশে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ ৩ জনকে আটক করেছে।

দেওছড়া চা বাগানের শ্রমিক ও পুলিশ জানায়, রাজমিস্ত্রির কাজ ও টাকা নিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে দু’পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এ ঘটনার জের ধরে শুক্রবার সকালে মুনিবজিত রবিদাস, তার ভাই চন্দন রবিদাসের নেতৃত্বে একপক্ষ এবং গরিবা রবিদাস, তুলসি রবিদাস সহ অন্যানরা অপরপক্ষে অবস্থান নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষ বাঁধে। দেশীয় অস্ত্রসস্ত্রে এসময়ে সংঘর্ষে উভয়পক্ষের ১০ জন আহত হন। গুরুতর আহত মুনিবজিত রবিদাসকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুরে মারা যান। আহত অন্যান্যদের মৌলভীবাজার সদর, কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও শমশেরনগর ক্যামেলিয়া ডানকান ফাউন্ডেশন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শমশেরনগর ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করে হামলায় জড়িত অভিযোগে সত্য নারায়ন (৩৫), সাগর রবিদাস (২৮) ও নিহতের পক্ষের রঞ্জিত রবিদাস (২৮) কে আটক করা হয়েছে। এঘটনায় দেওছড়া চা বাগানে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠলে এএসপি সার্কেল আশফাকুজ্জামান, কমলগঞ্জ থানার ওসি আরিফুর রহমান ও শমশেরনগর ফাঁড়ির ইনচার্জ অরুপ কুমার চৌধুরী ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

দেওছড়া ও শমশেরনগর চা বাগানের শ্রমিকনেতারা বলেন, আসলে এসব ঘটনার নেপথ্যে মাদকাশক্তির বিষয়টিও সম্পৃক্ত রয়েছে। শমশেরনগর ফাঁড়ির ইনচার্জ অরুপ কুমার চৌধুরী সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় উভয়পক্ষের তিনজনকে আ্টক করা হয়েছে। নিহতের লাশ মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়না তদন্তের পর নিহতের পক্ষে মামলা করা হবে। পরে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নির্বাচন পরবর্তি সময়ে দেশে জেলার সুবর্ণচর উপজেলায় স্বামী ও সন্তানদের বেঁধে রেখে এক নারীকে গণধর্ষণের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে জামাল ওরফে হেনজু মাঝি (২১) নামে আরো একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।এ নিয়ে এ মামলার এজাহারভুক্ত ৯ আসামির মধ্যে ৬ আসামিসহ ১১ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শুক্রবার সকালে তাকে কুমিল্লার দাউদকান্দি এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।জেলা ডিবির ওসি আবুল খায়ের এ বিষয়টি নিশ্চত করে জানান, হেনজু মাঝি ঘটনার সঙ্গে জড়িত ছিল বলে ভুক্তভোগী ওই নারী ও অন্য আসামিরা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। 

ঘটনার পর হেনজু মাঝি এলাকা ছেড়ে পালিয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে যাত্রীবাহী বাসে চালকের সহকারী হিসেবে কাজ নেয়। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতে হাজির করে রিমান্ড আবেদন করা হবে।

 

২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে রাজধানীর নয়া পল্টনে বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের গাড়িতে ম্যাচের কাঠি জ্বালিয়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার ঘটনার অভিযোগে যুবক ওয়াসিমকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার বিকেলে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার মো. আব্দুল বাতেন সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার ভোরের দিকে পল্লবী থানা পুলিশ ওয়াসীমকে গ্রেপ্তার করে। তার বাসা মিরপুরের মুসলিম ক্যাম্পে। গত বছরের ১৪ নভেম্বর পুলিশের ওই গাড়িতে ওয়াসীম আগুন ধরিয়ে দেয়। যার ছবি বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ পায়। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হলে ওয়াসীম আত্মগোপনে চলে যায়।

গত ১৪ নভেম্বরে নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিএনপির একটি বড় মিছিল থেকে পুলিশের ওপর হামলা চালানো হয়। এ সময় হামলাকারীরা পুলিশের গাড়ির ওপর উঠে নৃত্য করে উন্মত্ততা প্রদর্শন করে এবং দুটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়।

পুলিশ ঘটনাস্থলের কাছ থেকে সেই ঘটনার ভিডিও ফুটেজ দেখে ৯০ জনকে সনাক্ত করে এবং তাদের বিরুদ্ধে মামলা করে। সেই ঘটনায় এর আগে ১৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়।ওয়াসিমকে নিয়ে ১৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হলো। বাসস

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা  আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী তার দেশের সঙ্গে মার্কিন ও সাম্রাজ্যবাদী মহলের শত্রুতার নানা কারণ ব্যাখ্যা করে বলেছেন, ইরানের বিপ্লবী জাতির হাতে মার্কিন সাম্রাজ্যবাদের ঐতিহাসিক পরাজয় ঘটবে।

গত বুধবার তিনি স্বৈরাচারী ও মার্কিন সরকারের সেবাদাস শাহ সরকারের বিরুদ্ধে ইরানের ধর্মীয় নগরী কোমের জনগণের ১৯৭৮ সনের ৯ জানুয়ারির ঐতিহাসিক অভ্যুত্থানের বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক জনসমাবেশে ওই মন্তব্য করেন।খবর পার্সটুডের

আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী বলেন, ইরানের ইসলামী বিপ্লবের উন্নত চরিত্র ও প্রকৃতি, এ বিপ্লবের বাস্তবতা এবং এর মহান লক্ষ্যগুলো ও মৌলিক ভিত্তিগুলোর প্রতি ইরানি জাতির আনুগত্য আর বীরত্বের কারণেই  মার্কিন সরকার ইসলামী এই দেশটির সঙ্গে গভীর শত্রুতা বজায় রেখেছে।

তিনি ইরানের ব্যাপারে হিসাব-নিকাশের ক্ষেত্রে মার্কিন সরকারের নানা বিভাগের দুর্বলতার কয়েকটি দৃষ্টান্ত তুলে ধরেন। যেমন, ১৯৭৮ সালে মার্কিন সরকারের নেতারা তাদের ক্রীড়নক ইরানের শাহের শাসন-ব্যবস্থার প্রশংসা করে বলতেন, ইরান প্রশান্তি বা স্থিতিশীলতার এক দ্বীপ। কিন্তু এ সময়ই ইরানের কোমে ও পরে তাব্রিজ শহরে শুরু হয় শাহ-বিরোধী ব্যাপক গণ-বিক্ষোভ।

স্মরণ করা যেতে পারে ১৯৭৯ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে বিপ্লব সফল হওয়ার পর মার্কিন সরকারের নেতারা বলেছিলেন, কয়েক সপ্তাহ বা কয়েক মাসের মধ্যেই এই বিপ্লবের অবসান ঘটবে।

অথচ ইসলামী বিপ্লব আজ চল্লিশ বছরে উপনীত হয়েছে এবং বিগত এই বছরগুলোতে ইরানি জাতি যুদ্ধ ছাড়াও ব্যাপক রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক চাপসহ নানা ধরনের ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করেছে। আর এখন মার্কিন সরকারের মনস্তাত্ত্বিক যুদ্ধের ষড়যন্ত্রও ব্যর্থ হয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পও বলেছিলেন, গত গ্রীষ্মকালেই ইরানের ইসলামী সরকারের বিরুদ্ধে গণ-বিক্ষোভ শুরু হবে এবং ইসলামী বিপ্লব তার চল্লিশতম বছরে উপনীত হতে পারবে না! মার্কিন সরকারের আরেক বড় কর্তা একটি সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর লোকদের সমাবেশে বলেছিলেন যে তিনি তাদেরকে নিয়ে ২০১৯ সালের নববর্ষের উৎসব তেহরানে করবেন।

এ প্রসঙ্গে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা  বলেন, ভবিষ্যদ্বাণী করা বা পরিস্থিতি সম্পর্কে ধারণা দেয়ার ক্ষেত্রে ইরানের শত্রুদের ক্ষমতার এই হচ্ছে অবস্থা ঠিক যেমনটি সাদ্দাম এক সময় আশা করেছিল যে ইরাকি সেনা-বাহিনী নিয়ে এক সপ্তা’র মধ্যে তেহরানে পৌঁছবে ও মুনাফিক-বাহিনীও ভেবেছিল যে মেরসাদ নামক অভিযানে তারা তিন দিনেই কেরমানশাহ থেকে তেহরানে পৌঁছে যাবে!

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা এইসব বাস্তবতা তুলে ধরে বলেছেন, মার্কিন কর্মকর্তাদের অনেকেই দেখাতে চান যে তারা পাগল। কিন্তু আমি তাদেরকে পাগল মনে না করলেও বাস্তবে তাদের অনেকেই হচ্ছে ‘প্রথম সারির আহাম্মক’। তিনি আরও বলেছেন, পাশ্চাত্যেরই এক সংস্থা সম্প্রতি বলেছে, অসাধারণ সম্পদ ও সক্ষমতার দিক থেকে ইরান বিশ্বের পঞ্চম বৃহত্তম সম্পদশালী দেশ। আর এরকম এক সম্পদশালী দেশের ওপর কর্তৃত্ব হারানোর কারণেই পশ্চিমা দাম্ভিক শক্তিগুলো অত্যন্ত ক্ষুব্ধ বলে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা মন্তব্য করেন।

আয়াতুল্লাহিল উজমা খামেনেয়ী আরও বলন, ইরানের বিপুল শক্তিমত্তা ও ব্যাপকতাসহ দেশটির ইসলামী রাষ্ট্র ব্যবস্থার অতি উচ্চ ক্ষমতা এবং ইরানি জাতির অপরাজেয়তার বিষয় হচ্ছে এমন তিন বাস্তবতা যে এইসব বিষয়ে ইরানিদের অসচেতন করতে চায় শত্রুরা যাতে তারা নিজ দেশের অবস্থা ও শক্তি সম্পর্কে ভুল ধারণা করে।

এক সময় বিশ্বের বড় বড় শক্তিগুলো সাদ্দামকে ইরানের বিরুদ্ধে লেলিয়ে দিয়ে ও তাকে সব ধরনের সহায়তা দিয়ে ইরানের ইসলামী সরকারের পতন ঘটানোসহ নানা অবৈধ স্বার্থ হাসিল করতে চেয়েছিল। কিন্তু তারা এসব কোনো লক্ষ্যই অর্জন করতে পারেনি। শত্রুরা ইরানি জাতির প্রতিরোধকামী ও জুলুম-বিরোধী চরিত্রের কারণে ক্ষুব্ধ। তাই তারা ইরান, ইসলাম ও শিয়া মুসলমানদের ব্যাপারে আতঙ্ক ছড়িয়ে দিয়ে জাতিগুলোকে বিভ্রান্ত করতে চায়। কিন্তু জাতিগুলো এতে বিভ্রান্ত হয়নি। ইসলামী ইরানের বাস্তব অবস্থা বোঝা মাত্রই তারা ইরানকে সমর্থন করছে।

মাইকেল ফিশারের মত চিন্তাবিদও মনে করেন, বিপ্লবী ইসলাম ধর্মের সাংস্কৃতিক বৈশিষ্ট্যের সুবাদেই ইরানে বিপ্লবের গোড়া-পত্তন ও বিজয় ঘটেছে।

এসব বাস্তবতার আলোকেই ইরানের সর্বোচ্চ নেতা গতকাল বলেছেন, মহান আল্লাহর সহায়তায় ইরানের জাতি ও সরকারের প্রতিরোধ, সচেতনতা এবং বিরামহীন প্রচেষ্টা সব নিষেধাজ্ঞা ও সংকটকে নস্যাৎ করবে। ইসলামী ইরান দিনকে দিন আরও বেশি সফল ও শক্তিমান হবে এবং ইরানের শত্রুরা পাশ্চাত্য ও আমেরিকায় সাদ্দামের পরিণতিই ভোগ করবে।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc