Sunday 8th of December 2019 11:08:57 AM

সাদিক আহমেদ,স্টাফ রিপোর্টারঃএকাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ২৩৮ মৌলভীবাজার-৪ (শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ) অাসনে বাংলাদেশ অাওয়ামীলীগ ও মহাজোট মনোনীত প্রার্থী ড. মোঃ অাব্দুস শহীদ এমপির সমর্থনে শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাচন পরিচালনা কমিটি এক গণমিছিল ও সমাবেশের অায়োজন করে।শ্রীমঙ্গল শহরের স্টেশন রোডস্থ পেট্রোল পাম্প চত্বরে বিকাল ৫ টায় শুরু হয় অনুষ্ঠানটি।
উক্ত গণমিছিল ও সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন মৌলভীবাজার-৪ অাসনের বর্তমান সংসদ সদস্য,মৌলভীবাজার জেলা অাওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি,বর্তমান সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি,৫ বারের নির্বাচিত সাংসদ বীর মুক্তিযুদ্ধা উপাধ্যক্ষ ড.মোঃঅাব্দুস শহীদ।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কমলগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ অাওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য অধ্যাপক রফিকুর রহমান।
উক্ত গণমিছিল ও সমাবেশে অারও উপস্থিত ছিলেন মৌলভীবাজার জেলা অাওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও দ্বারীকাপাল মহিলা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ সৈয়দ মনসুরুল হক,জেলা অাওয়ামীলীগের অাইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট অাজাদুর রহমান অাজাদ,শ্রীমঙ্গল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও হিন্দু,বৌদ্ধ,খ্রিস্টান ঐক্যজোটের সভাপতি রণদীর কুমার দেব,মৌলভীবাজার জেলা অাওয়ামীলীগের সদস্য,শ্রীমঙ্গল পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান,শ্রীমঙ্গল উপজেলা ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এম এ রহিম,শ্রীমঙ্গল উপজেলা অাওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অাছকির মিয়া,উপজেলা অাওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ মান্নান,উপজেলা অাওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক সেহজাহান সেজু,পৌর অাওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অর্ধেন্দু কুমার বেবুল,পৌর অাওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বদরুল হক,উপজেলা অাওয়ামীলীগের ক্রীড়া সম্পাদক এনাম হোসেন সোহেল,শ্রীমঙ্গল উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান প্রেম সাগর হাজরা,জেলা শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক জাকের অাহমেদ জাকারিয়া,উপজেলা যুবলীগের সভাপতি বেলায়েত হোসেন,উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ছালিক অাহমেদ,উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অাবু তালেব বাদশা,শ্রীমঙ্গল উপজেলা কৃষকলীগের সাবেক সভাপতি ইউসুফ অালী,উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি ও ৩ নং শ্রীমঙ্গল ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান অাফজল হক,৫ নং কালাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান মুজুল,৩ নং শ্রীমঙ্গল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ভানু লাল রায়,২ নং ভূনবীর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান চেরাগ অালী,৬ নং অাশিদ্রোণ ইউনিয়নে পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেন্দ্র প্রাসাদ বর্ধন জহর,মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের সদস্য বদরুজ্জামান সেলিম,শ্রীমঙ্গল উপজেলা সেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ন অাহ্বায়ক ও মৌলভীবাজার-০৪ অাসনের প্রয়াত সাংসদ মরহুম ইলিয়াস অালীর ছেলে সারোয়ার জাহাম চঞ্চল,শ্রমিক লীগ নেতা ও অাশিদ্রোণ ইউনিয়নের সদস্য অারজু মিয়া,শ্রীমঙ্গল উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মশুদুর রহমান মশুদ ও সাধারণ সম্পাদক রাজু দেব রিটন,পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মঞ্জুরুল হোসেন সজিব ও সাধারণ সম্পাদক অাবেদ হোসেন,কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি সাইদুর রহমান সুজাত ও সাধারণ সম্পাদক উজ্জল কান্তি দাশ,উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মোমিনুল হোসেন সোহেল,সাবেক ছাত্রনেতা সুজিত দাশ,পরিবহন শ্রমিক নেতা ময়না মিয়া,পরিবহন শ্রমিক নেতা শাজাহান মিয়া সহ শ্রীমঙ্গল উপজেলা অাওয়ামীলীগ,যুবলীগ,ছাত্রলীগ,কৃষকলীগ,শ্রমিকলীগ ও সহযোগী অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
নির্বাচনী প্রচারণার শেষ দিনে অাসনটির নৌকার প্রার্থী অাব্দুস শহীদ শ্রীমঙ্গল বাসিকে ৩০ তারিখ নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে অাওয়ামীলীগকে পূণরায় নির্বাচিত করে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য অাহ্বান জানান।তাকে পূণরায় ষষ্ঠ বারের মতো নির্বাচিত করে সমৃদ্ধশালী শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ গড়তে সহযোগিতা করার জন্য তিনি শ্রীমঙ্গলবাসীর সহযোগিতা কামনা করেন।

গণমিছিল ও সমাবেশের  সভাপতিত্ব করেন শ্রীমঙ্গল উপজেলা অাওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অাছকির মিয়া।সঞ্চালনা ও উপস্থাপনা করেন শ্রীমঙ্গল উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন রাহিদ।

অনুষ্ঠানের শেষে পেট্রোল পাম্প চত্বর থেকে বিশাল গণমিছিল বের হয়।মিছিলটি শহরের প্রধান সরকগুলি প্রদক্ষিণ করে চৌমুহনা চত্বরে এসে শেষ হয়।

সাইফুর রহমান চৌধুরী: নির্বাচন কমিশনে দুর্ব্যবহার এবং পুলিশকে গালাগালি করায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতাদের কঠোর সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ বড় দুঃখের সাথে বলতে হয় তাদের দুর্ব্যবহার থেকে কেউ রেহাই পাচ্ছে না। তারা নির্বাচন কমিশনে গিয়ে ঝগড়া করছে এবং পুলিশের বিরুদ্ধে এমন বাজে ভাষা ব্যবহার করছে যা ভাষায় প্রকাশ করা যায় না।

শেখ হাসিনা গতকাল বিকেলে তাঁর ব্যক্তিগত বাসভবন ধানমণ্ডির সুধা সদন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে কুষ্টিয়া, নওগাঁ ও চাঁদপুরের নির্বাচনী জনসভায় প্রদত্ত ভাষণে এ কথা বলেন।

তিনটি জেলার আওয়ামী লীগ এবং মহাজোটের নির্বাচনী প্রার্থীদের ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে পরিচয় করিয়ে দিয়ে তাঁদের জন্য জনগণের ভোট চান আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

ড. কামাল হোসেনের নাম উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘যিনি একজন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন আইনজীবী হিসেবে পরিচিত, তাঁর কাছ থেকে কেউ এ ধরনের ব্যবহার আশা করে না। তিনি এর আগে আদালতে অ্যাটর্নি জেনারেলকে আশোভন মন্তব্য করেছেন এবং সাংবাদিককে খামোশ বলেও ধমক দিয়েছেন।’

শেখ হাসিনা ভাষণে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার মাধ্যমে জনগণকে পুনরায় সেবা করার সুযোগ দানের জন্য আগামী ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট প্রদানের জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা ইতিমধ্যেই অনেক উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণ করে সেগুলি বাস্তবায়ন করেছি এবং অনেকগুলো বাস্তবায়নাধীন রয়েছে। কাজেই আমি দেশবাসীকে বলব উন্নয়নের ধারাকে অব্যাহত রাখার জন্য নৌর্কায় ভোট দিয়ে আরেকটি বার দেশসেবার সুযোগ করে দিতে।

রেজওয়ান করিম সাব্বির,জৈন্তাপুর (সিলেট) প্রতিনিধিঃ ৩০ ডিসেম্বর রবিবার জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আপনাদের ৫বারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য ইমরান আহমদকে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে নির্বাচিত করুন। আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে আপনাদের নেতার জন্য মন্ত্রীত্বের দাবী করার কথা বলেন- মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক সিলেট সিটি মেয়ার বদর উদ্দিন আহমদ কামরান।
২৬ ডিসেম্বর বুধবার জৈন্তাপুর উপজেলার জৈন্তেশ্বরী বাড়ী মাঠে সিলেট-৪ (জৈন্তাপুর গোয়াইনঘাট কোম্পানীগঞ্জ) নির্বাচনী আসনের নৌকা মার্কার নির্বাচনি জনসভায় বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক শফিকুর রহমান, সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি সিলেট-৪ আসনের নৌকার মাঝি ইমরান আহমদ এম.পি, সিলেট জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি প্রকৌশলী এজাজুল হক এজাজ, যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আহমদ, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন, জেলা আওয়ামীলীগের যুব ক্রীড়া সম্পাদক এ্যাড. রনজিত সরকার, জেলা আওয়ামীলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাহফুজুর রহমান, জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কামাল আহমদ, জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ফয়েজ আহমদ বাবর, গোয়াইনঘাট উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ ইব্রাহিম আলী, সাধারন সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া হেলাল, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আফতাব উদ্দিন কালা মিয়া, সিলেট জেলা মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার লুৎফুর রহমান লেবু, জৈন্তাপুর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার সিরাজুল হক, জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জয় মতি রানী, জৈন্তাপুর উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি ও নিজপাট ইউপি চেয়ারম্যান মঞ্জুর এলাহী স¤্রাট, জৈন্তাপুর ইউপি চেয়ারম্যান এখলাছুর রহমান, সাবেক চারিকাটা ইউপি চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী, জৈন্তাপুর উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি ফারুক আহমদ, সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী, কৃষকলীগের সভাপতি আব্দুল মন্নান, সাবেক জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া মাহমুদ, জৈন্তাপুর উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আনোয়ার হোসেন, সাবেক জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. আলতাফুর রহমান, সাবেক জৈন্তাপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হানিফ মোহাম্মদ, সাবেক উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, নিজপাট ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আতাউর রহমান বাবুল, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল জলিল, জৈন্তাপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি শাহেদ আহমদ, আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল মতিন শাহিন। এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দরা।
অপরদিকে বিভিন্ন বক্তরা তাদের বক্তব্যে বলেন- আওয়ামীলীগ সরকার তলা বিহীন ঝুড়ি হতে দেশকে আজ মধ্যম আয়ের দেশ হিসাবে রুপান্তর করেছে। দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে প্রতিবারের ন্যায় এবারও আপনারা উন্নয়নের প্রতিক নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আপনাদের ৫বারের নির্বচিত সংসদ সদস্য ইমরান আহমদ কে বিজয়ী করবেন। ইমরান আহমদ এম.পি বিজয়ী হলে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা খনিজ সম্পদে ভরপুর সীমান্ত জনপথের এমপিকে মন্ত্রী হিসাবে ঘোষনা করার দাবী জানান।

স্বা/-
মোঃ রেজও

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মৌলভীবাজার রাজনগর ৩ আসনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত সংসদ সদস্য প্রার্থী নেছার আহমদ এর সমর্থনে প্যারিসে নির্বাচনী সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মৌলভীবাজার ৩ আসনের ফ্রান্সে বসবাসরত আওয়ামী লীগ পরিবারের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এ নির্বাচনী সভায় বিপুল সংখ্যক প্রবাসী উপস্থিত হয়ে নৌকার পক্ষে ভোট চান।
প্যারিসের গার্দ নর্দে সুরমা রেস্টুরেন্টে আবদুর রাজজাক ফরাজী এর সভাপতিত্বে ও সুকেল আহমেদ এর পরিচালনায়   বক্তব্য রাখেন কাইয়ুম রাহমান (সাবেক মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক ফ্রান্স),নুরল হক ভুইয়া ( ফ্রান্স উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য) যুবলীগ নেতা আলী আহমদ খান, চান রাহমান,সেজু আহমেদ,ওয়াহিদ উদ্দিন, আব্দুল্লাহ আল তায়েফ (যুব ও মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক ফ্রান্স)আশরাফুল ইসলাম (সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি ফ্রান্স ),সজিব খান আওয়ামী নেতৃবৃন্দ শফি আহমেদ,হাবিল মিয়া,রুবেল তালুকদার,ফরহাদ আহমেদ,রজব আলী,জুয়েল আহমেদ,জসিম আহমেদ প্রমুখ
এসময় তারা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অত্যন্ত আস্থাভাজন নেছার আহমদ নির্বাচিত হলে এলাকার উন্নয়ন যাত্রা অব্যাহত থাকবে। এসময় তারা প্রবাসীদের আত্মীয় স্বজনকে নৌকা মার্কায় ভোট দেয়ার আহ্বান জানান। তারা বলেন একমাত্র নৌকাতে ভোট দিলেই দেশের যে উন্নয়ন অগ্রযাত্রা তা আরো এগিয়ে যাবে। সকল বাধা ও ষড়যন্ত্র পেছনে ফেলে সাধারণ জনগণ আগামী ৩০ শে ডিসেম্বর প্রমান করবে শেখ হাসিনার সরকার বার বার দরকার।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট ২৪৮টি আসনে জয়ী হতে পারে বলে অনুমান করছে রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টার (আরডিসি)। আর ঐক্যফ্রন্ট পাবে ৪৯টি আসন এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী বা অন্যান্যরা পাবে তিনটি আসন।
বুধবার দুপুর আরডিসি এক ছায়া ভোটের ফলাফল প্রকাশ করে। যা রাজধানীর গুলশানের একটি হোটেলে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়। ফলাফল তুলে ধরেন আরডিসির অর্থনীতিবিদ ফরেস্ট ই কুকসন। তিনি বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর একজন পরামর্শক।
ফলাফলে দেখা যায়, দেশের ভোটারদের ৬০ শতাংশ আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়েছে। আর বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টকে দিয়েছে ২২ শতাংশ ভোটার। এই ভোটে ১০ শতাংশ মানুষ কাকে ভোট দেবেন, সে ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানাতে পারেননি।
আরডিসি বলছে, ৯ থেকে ১৬ ডিসেম্বর দেশের ৫১টি সংসদীয় আসনে সোয়া দুই হাজার ভোটারের ওপর জরিপ চালিয়ে তারা এ পূর্বাভাস পেয়েছে। ভোট জরিপে অংশ নেয় ২ হাজার ২৪৯ জন ভোটার।
ফলাফলে আওয়ামী লীগকে ভালো বলেছে, ৬৪ দশমিক ৬ শতাংশ মানুষ। আর খারাপ বলেছে ৩ দশমিক ৫ শতাংশ মানুষ। অপরদিকে বিএনপিকে ২৭ দশমিক ৬ শতাংশ মানুষ ভালো বলেছে। আর খারাপ বলেছে ১৮ দশমিক ২ শতাংশ মানুষ।
জরিপ সম্পর্কে ফরেস্ট ই কুকসন বলেন, রাজনৈতিকভাবে নিরপেক্ষ হয়ে নির্বাচনের সম্ভাব্য ফলাফল জানতে এই জরিপ করা হয়। দেশের প্রত্যেক অঞ্চলের ভোটারদের থেকে মতামত নেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। তবে কত জেলা বা উপজেলায় এই জরিপ করা হয়েছে তা তাৎক্ষণিকভাবে জানাতে পারেননি তিনি।
২০১১ সালের আদমশুমারির তথ্যগুলোকে নমুনা হিসেবে নিয়ে দৈবচয়নের ভিত্তিতে দেশের জেলা-উপজেলাগুলো থেকে ভোটারদের এই জরিপ করা হয়। ছায়া জরিপে ভোট দিতে নারীদের জন্য লাল ব্যালট পেপার ছিল। পুরুষদের জন্য ছিল নীল ব্যালট পেপার।ইত্তেফাক

বাংলাদেশের আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অসাম্প্রদায়িক-গণতান্ত্রিক রাজনীতির ধারা অব্যাহত রাখতে এবং বেকারত্ব, দুর্নীতি, জঙ্গিবাদ, মাদক ও বৈষম্যের বিরুদ্ধে দেশের “তরুন-যুবদের ভোট, নৌকায় হোক”। এই আহ্বানে ও ঢাকা-০৮ আসনে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি জননেতা রাশেদ খান মেনন এর সমর্থনে জানিয়ে আজ ২৬ ডিসেম্বর বিকেল ৩.৩০ মিনিটে বাংলাদেশ যুব মৈত্রীর একটি শুসজ্জিত মিছিল নৌকার পক্ষে ভোট প্রার্থনার জন্য সংগঠনের দলীয় কার্যালয় থেকে (৩১/এফ, তোপখানা রোড, ঢাকা) শুরু করে পল্টন মোড়, দৈনিক বাংলা মোড়, নয়াপল্টন, বিজয় নগর, কাকরাইল হয়ে জাতীয় প্রেসক্লাবে এসে শেষ হয়।
প্রেসক্লাবের সমাবেশে যুব মৈত্রীর সহসভাপতি মোঃ তৌহিদুর রহমানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন। ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরো সদস্য কমরেড ড. সুশান্ত দাস, কেন্দ্রীয় নেতা কমরেড মোস্তফা আলমগীর রতন, মহানগর সাধারণ সম্পাদক কমরেড কিশোর রায়, যুব মৈত্রীর সহসভাপতি আব্দুল আহাদ মিনার, ছাত্র মৈত্রীর সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি বাপ্পাদিত্য বসু। উপস্থিত ছিলেন যুব মৈত্রীর সহসভাপতি মাহবুব আলম জনি, মাহমুদুল হক সেনা, তাপস দাস, মিজানুর রহমান, আল-আমিন মাহাদী, মামুন মোল্লা, নাজমুল হাসান, জসিম উদ্দিন, দেওয়ান জাহাঙ্গীর প্রমুখ।প্রেস বার্তা

এম ওসমান, বেনাপোল:  শেখ হাসিনার সালাম নিন আগামী ৩০ডিসেম্বর সারাদিন নৌকায় ভোট দিন, উন্নয়ন বুঝে নিন” শ্লোগানে যশোর-১ শার্শা আসনের ৫নং পুটখালী মহিলা আওয়ামীলীগ আয়োজিত গণসংযোগ ও পথসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত গণসংযোগ ও পথসভা অনুষ্ঠানে মা-বোনদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন মহাজোট প্রার্থী আলহাজ্ব শেখ আফিল উদ্দিনের সহধর্মিনী তাহেরা সোবাহ্। তাহেরা সোবাহ্ বলেন, নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আবারও আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করুন। শেখ হাসিনার নৌকায় ভোট দিলে এলাকার এবং দেশের উন্নয়ন ও সমৃদ্ধি অর্জিত হবে। আজকের বাংলাদেশ আর্থিক দিক থেকে যেমন শক্তিশালী, তেমনি মানসিকতার দিক থেকে অনেক বলীয়ান।
কোনো প্রতিঘাত বা বাধা বাংলাদেশের অগ্রযাত্রাকে আর থামিয়ে রাখতে পারবে না। উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে হলে নৌকার বিকল্প নেই। আপনারা যদি ঐক্যবদ্ধ থাকেন তবে ৩০ ডিসেম্বর শার্শায় নৌকার বিজয় কেউ ঠেকাতে পারবে না। বর্তমান সরকার কথায় নয় উন্নয়নের রাজনীতিতে বিশ্বাসী। সেই উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখতে আওয়ামীলীগ সরকারের কোন বিকল্প নেই। তাই দলমত নির্বিশেষে সকল ভেদাভেদ ভুলে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে নিরলসভাবে নির্বাচনী কার্যক্রম চালিয়ে যেতে হবে। আওয়ামীলীগ সরকারকে ক্ষমতায় আনতে হলে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী আলহাজ্ব শেখ আফিল উদ্দিনকে আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে আপনারা ভোট দিন।
গণসংযোগকালে তিনি গ্রামবাসীর সুবিধা-অসুবিধার কথাগুলো মনোযোগ দিয়ে শোনেন। তিনি নানা সমস্যার সমাধান করার আশ্বাসও দেন। গণসংযোগ ও পথসভায় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন শার্শা উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আলেয়া ফেরদৌস, সালমা তুহিন, পুটখালী ইউপি চেয়ারম্যান সহ মহিলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ সহযোগী সংগঠনের বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী ও সাধারণ ভোটার।

বেনাপোল প্রতিনিধি: যশোরের মশিউর রহমান বাবলু (৫৫) নামে এক ব্যবসায়ীকে নির্যাতনের ঘটনায় শার্শা থানার পুলিশ উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহাবুল আলমকে ক্লোজড করা হয়েছে। আহত ওই ব্যবসায়ীকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে যশোর বেনাপোল মহাসড়কের শ্যামলাগাজি এলাকায় নির্যাতনের ঘটনা ঘটে।
যশোরের নাভারণ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামাল আল নাসের জানান, প্রাথমিক তদন্তে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহাবুল আলমকে পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে।
হাসপাতালে ভর্তি আহত মশিউর রহমান জানান, মঙ্গলবার বেলা আনুমানিক একটার দিকে সহকর্মী দুলালকে নিয়ে ব্যবসায়ীক কাজ শেষে ভ্যাসপা মোটর সাইকেল যোগে শার্শা থেকে যশোরে ফিরছিলেন। পথিমধ্যে যশোর-বেনাপোল সড়কের শ্যামলাগাছিতে পৌছুলে উপ-পরিদর্শক (এসআই) শাহাবুরের নেতৃত্বে একদল পুলিশ তাদেরকে দাঁড় করায়। এরপর তাদের শরীর তল্লাসী করে কোন কিছু পায় না। এতে এসআই সাহাবুর ক্ষিপ্ত হয়ে মশিউরের পকেটে থাকা ব্যবসায়ীক কাজের ২০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেবার চেষ্টা করে। কিন্তু এতে বাধ সাধলে মশিউরকে বেধড়ক মারপিট করে। এতে মশিউর গুরুত্বর অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাকে সেখান থেকে তার সহকর্মী দুলাল দ্রুত এনে আড়াইশ শয্যার যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।
নির্যাতনের বিষয়টি আহতের ছেলে সাংবাদিক আল মামুন শাওন ও তার সহকর্মীরা যশোরের পুলিশ সুপার মইনুল হককে জানান। এরপর ঘটনা তদন্তের জন্য অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামাল আল নাসেরকে হাসপাতালে পাঠান। তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মশিউর রহমানের সাথে কথা বলেন। এরপর এসআই শাহাবুরকে ক্লোজ করা হয়েছে।

শাব্বির এলাহীঃ সত্যের পথে অবিচল থেকে সারাটি জীবন যিনি পার করেছেন এক অন্যরকম অহংকার বুকে নিয়ে ।মিথ্যা,শঠতা আর ভন্ডামীর সাথে আপোষহীন যে অহংকারী মানুষটি কোনদিন মাথা নত করেননি লোভ আর মোহের কাছে । অর্থ-বিত্ত আর প্রভাব-প্রতিপত্তির হাতছানি উপেক্ষা করে যিনি নীতি আর আদর্শে অটল থেকে কঠোর বাস্তবতার সাথ যুদ্ধ করে সকল সংকীর্ণতার উর্দ্ধে উঠতে পেরেছিলেন তিনি একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠকএম,এ,সবুর ।মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলা শ্রমিকলীগের প্রয়াত সভাপতি কমলগঞ্জের কিংবদন্তীতুল্য জননেতা বরেণ্য শিক্ষাবিদ সাবেক আদমপুর ইউপি চেয়ারম্যান এম,এ,সবুরের ১৬তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ ২৭ ডিসেম্বর ।মৃত্যুর পূর্বে তিনি সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি এবং আব্দুল গফুর চৌধুরী মহিলা কলেজ,উসমান আলী ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসা,তেতইগাঁও রশিদউদ্দিন উচ্চবিদ্যালয়সহ বিভিন্নশিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সামাজিক সংগঠনে দায়িত্বশীল কর্মকান্ডে জড়িত ছিলেন।

১৯৭১ সালে তিনি মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয় অংশগ্রহন করেন ।যদিও তালিকাভুক্ত মুক্তিযোদ্ধা নন তিনি ।কিন্তু একাত্তরের পুরো নয়মাস আড়াই বছরের মেয়ে ও আট মাসের দুধের শিশুপুত্রকে নিয়ে স্ত্রীকে ভারতের কমলপুরে আশ্রিত রেখে হালাহালি ট্রেনিং সেন্টাওে অবস্থান করে ভাষা সৈনিক মোহাম্মদ ইলিয়াছের সাথে ভারতের বিভিন্ন শরানার্থী শিবিরে রেশন সরবরাহ ও মুক্তিযুদ্ধেও তথ্য সংগ্রহে নিয়োজিত ছিলেন ।সে সময় মর্টার বিষ্ফোরণের প্রচন্ড শব্দে তার শিশুপূত্রের কান ফেটে যায় ।যে কারণে সে শিশুপূত্রটি আজ ৪৪ বছরের যুবক শোয়েব এলাহী এখনো বধির রয়ে গেছেন ।স্বাধীনতার পর বাংলাদেশে নিজ ইউনিয়ন আদমপুরের প্রথম মনোনীত চেয়ারম্যান ছিলেন তিনি । পরবর্তীতেও বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন তিনি ।তিনিই গোটা মৌলভীবাজার জেলায় প্রথম কোন চেয়ারম্যান যিনি দায়িত্ব হস্তান্তরের সময় ইউনিয়ন পরিষদ তহবিলে মোটা অংকের উদ্ধৃত অর্থ জমা রেখে যান । সিলেট পল্লী বিদ্যূৎ বোর্ডেও অনারারী ডিরেক্টর  থাকা অবস্থায় তার উদ্যোগে ১৯৮৫ সালে কমলগঞ্জের দক্ষিণা লে প্রথম বিদ্যূতায়িত হয় ।১৯৩৮ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর কমলগঞ্জের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণকারী এম,এ,সবুর বর্ণ্যাঢ্য কর্মময় জীবনের অধিকারী ।

১৯৬১সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়ন শেষে বিশ্ববিখ্যাত লিফটনে যোগ দিয়ে উর্দ্ধতন কর্মকর্তা হিসেবে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে দায়িত্বরত ছিলেন ।এছাড়া ইউএসআইডিসহ নানা আর্ন্তজাতিক সংস্থায় কাজ করে চষে বেড়িয়েছেন গোটা বাংলাদেশ ।তবু নিজ এলাকার মানুষের ডাকে মানুষের পাশে কর্মক্ষেত্রে সম্মানজনক অবস্থান ছেড়ে বারবার ছুটে এসেছেন মানুষের পাশে ।মোহাম্মদ ইলিয়াছের ঘণিষ্ঠ সান্নিধ্যে থেকে বিভিন্ন গণ-আন্দোলন,সংগ্রাম,সমাবেশে সক্রিয় সম্পৃক্ত থাকতেন ।
“জন্ম হোক যথা তথা
কর্ম হোক ভালো”
এ মহাজন বাক্য স্মরণে সংগতই বলা যায়,এম,এ,সবুরের জন্ম ও কর্ম কোনটাই যথাতথা ছিলো না । পিতা,পিতামহসহ শিক্ষিত পূর্বসূরীদের শিক্ষিত উত্তরসূরী এম,এ,সবুর একজন অসাম্প্রদায়িক চেতনার মানুষ হিসেবে সবিশেষ পরিচিত ছিলেন।বিভিন্ন ভাষায় দক্ষতার কারণে কমলগঞ্জে বসবাসরত খাসিয়া,মণিপুরী,চা-জনগোষ্ঠীসহ সকল সম্প্রদায়ের মধ্যে প্রচন্ড জনপ্রিয় এক অসাধারণ ব্যক্তিত্ব ছিলেন তিনি । জাতি ধর্ম নির্বিশেষে সকলের ভালোবাসা পেয়েছেন যেমন,দিয়েছেনও বুক ভরা ভালোবাসা ।আর সে ভালোবাসায় আজও তিনি বেচে আছেন হৃদয়ে-হৃদয়ে ।

“সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশনকে সব দলের প্রতি সমান আচরণ করার আহবান”

চট্টগ্রাম-৮ সংসদীয় আসনের পাচঁলাইশ আংশিক ৭ নং ওয়ার্ডে আজ ২৬ ডিসেম্বর সকালে সহ¯্রাধিক নেতাকর্মী নিয়ে পায়ে হেটে মোমবাতি প্রতীকের গণসংযোগ ও প্রচারপত্র বিতরণ করেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট মনোনীত সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী আলহাজ্ব স উ ম আব্দুস সামাদ। এসময় তিনি বলেন, শান্তিপূর্ণ নির্বাচনী পরিবেশের জনপ্রত্যাশা ক্রমেই ম্লান হচ্ছে। দেশের বিভিন্ন এলাকায় ক্ষমতাসীনদের দাপটে প্রতিদন্ধী প্রার্থীর নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় বিঘœ ঘটছে। প্রার্থীর কর্মি সমর্থকদের মামলা-হামলার হুমকি দেয়া হচ্ছে। বিপরীতে অনেক মন্ত্রী, এমপি সরকারি প্রটোকল নিয়ে ভোট চাচ্ছে। এধরণের পরিবেশ কোনভাবেই কাম্য নয়। নির্বাচনে লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড এখনো প্রতিষ্ঠা হয়নি। একটি সুন্দর ও সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য তিনি নির্বাচন কমিশনকে আরো দৃঢ়তা ও প্রত্যয় নিয়ে সব দলের প্রতি সমান আচরণ করার আহবান জানান।

তিনি আরো বলেন, চট্টগ্রাম-৮ আসন এলাকায় জনবিচ্ছিন্ন এলিট শ্রেণির নেতা ও বার বার ওয়াদা ভঙ্গকারীর বিরুদ্ধে সাধারণ মানুষ একাট্টা হয়ে পরিবর্তনের লক্ষ্যে মোমবাতিতে ভোট দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে। কেন্দ্র দখল, ভোট ডাকাতি ও ইলেকশন ইঞ্জিনিয়ারিং এর মত ঘটনা না ঘটলে চট্টগ্রাম-৮ আসনে মোমবাতির বিজয় সুনিশ্চিত বলে তিনি মন্তব্য করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সচিব অধ্যাপক ড. জালাল উদ্দিন আল-আযহারী, চট্টগ্রাম মহানগর উত্তর সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ নাছির উদ্দিন মাহমুদ, মুহাম্মদ শফিউল আলম, মাওলানা সোহাইল উদ্দিন আনসারী, মুহাম্মদ শাহজাহান, মুহাম্মদ ইসমাইল, মাওলানা আরিফুর রহমান, ছাত্রসেনা কেন্দ্রীয় সভাপতি এইচ এম শহীদ উল্লাহ, যুবনেতা মুহাম্মদ দিদার, মুহাম্মদ শরীফুল ইসলাম চৌধুরী, চট্টগ্রাম মহানগর উত্তর সভাপতি ছাত্রনেতা মুহম্মদ মাছুমুর রশিদ কাদেরী, যুল ইয়ামিন ছাত্রকল্যাণ পরিষদের সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুল কাদের, মাওলানা হামেদ রজভী, মুহাম্মদ আব্দুর রহিম রকি, মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, শায়ের মুহাম্মদ ছালামত রেযা, হাফেজ মুহাম্মদ আতিক, মুহাম্মদ আদনান তাহসীন, মুহাম্মদ বাবর আলী, মুহাম্মদ আসাদুজ্জামান, মুহাম্মদ বশির উদ্দিন, মুহাম্মদ জিয়া উদ্দিন রায়হান, পাচঁলাইশ থানা ছাত্রসেনার সভাপতি মুহাম্মদ কাউছার খান, সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ ওসমান গণি, মুহাম্মদ আ.ল.ম কায়সান, মুহাম্মদ আসাদ, মুহাম্মদ মঈন উদ্দিন, মুহাম্মদ মারুফ রেযা, মুহাম্মদ লোকমান, মুহাম্মদ ইসমাইল, মুহাম্মদ আবরার সমরকন্দী, মুহাম্মদ মুশফিক এলাহীসহ ইসলামী ফ্রন্ট, যুবসেনা ও ছাত্রসেনার অসংখ্য নেতৃবৃন্দ।

শংকর শীল,চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ): হবিগঞ্জ-৪ আসনে নৌকা প্রতিকে মনোনীত প্রার্থী এডভোকেট মোঃ মাহবুব আলী বলেছেন,আপনারা সাধারণ জনগণ হলেন আওয়ামীলীগ সরকারের মূল শক্তি। আপনারা হলেন আমাদের ভালো কাজে উৎসাহের উৎস।
আওয়ামীলীগ সরকার সারাদেশে ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড সমাপ্ত করেছেন এবং উন্নয়নের কাজ অব্যাহত রয়েছে। সরকারের এসব উন্নয়নে অংশ নিতে হবে আপনাদের। তাহলেই বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা ও জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করা সহজ হবে। এজন্য সকল ভেদাভেদ ভুলে দেশের
উন্নয়নের জন্য ৩০তারিখ আওয়ামীলীগকে নৌকা মার্কায় ভোট দেয়ার জনগণের প্রতি আহ্বান জানালেন মাহবুব আলী এমপি।হবিগঞ্জ-৪ আসনে আওয়ামীলীগের প্রার্থী এড. মাহবুব আলী চুনারুঘাট পৌর আওয়ামীলীগের উদ্যোগে উঠান বৈঠক ও নৌকার প্রচারণা করার সময় এসব কথা বলেন।
মঙ্গলবার রাতে পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ আবু তাহের মিয়া মহালদারের সভাপতিত্বে তাঁর
বাড়িতে উঠান বৈঠকে হাজার মানুষের ঢল নামে। সেক্রেটারি আবুল খয়েরের পরিচালনায় এতে প্রধান অতিথি ছিলেন, এডভোকেট মোঃ মাহবুব আলী এমপি।
এর আগে দুপুরে চুনারুঘাট উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের উদ্যোগে জনসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। পরে বিকেলে উপজেলার পাইকপাড়া ইউনিয়নের কাপাই চা-বাগান, গেলানি চা-বাগান, দেউন্দি চা-বাগান, লস্করপুর, কাজির বাজার, সুতাং, পাইকপাড়া, গণেশপুর সহ বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ করা হয়।
গণসংযোগে উপস্থিত ছিলেন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কেন্দ্রীয় কমান্ডের ভাইস প্রেসিডেন্ট ড. এসএম জাহাঙ্গীর, ক্যাপ্টের কাজী কবীর উদ্দিন, উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের, জেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা আলহাজ্ব মোঃ কাদির লস্কর, উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি সাবেক এড. আকবর হোসেন জিতু, চুনারুঘাট উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আব্দুর রশিদ, দপ্তর সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ আবু তাহের মিয়া মহালদার, সাংবাদিক জামাল হোসেন লিটন, ইউপি চেয়ারম্যান আবেদ হাসনাত চৌধুরী সনজু, রমিজ উদ্দিন, শামসুজ্জামান শামীম, উপজেলা  যুবলীগসভাপতি লুৎফুর রহমান চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক আলহাজ্ব জিল্লুল কাদির লস্কর রিমন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি মানিক সরকার,উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান রিপন, সেক্রেটারি সাইফুল আলম রুবেল, পৌর কাউন্সিলর আসকির ভান্ডারী, পৌর যুবলীগের আহ্বায়ক নাজমুল ইসলাম বকুল,যুগ্ন আহ্বায়ক মাজেদুল ইসলাম লুবন, পৌর সেচ্ছাসেবক লীগের সিনিঃ সহ সভাপতি আবুল হোসেন, বিশিষ্ট মুরুব্বী সমুজ আলী, আমির হোসের চৌধুরী, উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক সোহেল আরমান, যুগ্ন আহ্বায়ক ইফতেখার রিপন, সাইদুর আলমগীর, যুবলীগ নেতা আনোয়ার হোসেন,
ছাত্রলীগ নেতা সায়েম তালুকদার, জাহাঙ্গীর তরফদার, রাকিব তালুকদার প্রমুখ।

কমলগঞ্জ প্রতিনিধিঃ বুধবার(২৬ ডিসেম্বর) কমলগঞ্জের আদমপুরে অত্যাধুনিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জিনিয়াস ক্যাডেট স্কুল এন্ড কলেজ প্রাঙ্গণে প্রতিষ্ঠানের নবীণ বরণ ও বার্ষিক ফলাফল প্রকাশ অনুষ্টিত হয়েছে। এদিন দুপুর সাড়ে এগারোটায় জিনিয়াস এডুকেশন গ্রুপের চেয়ারম্যান প্রকৌশলী সাইফুর রহমানের সভাপতিত্বে ও শিক্ষক শারমিন আক্তারের স ালনায় এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জগৎসী-সাইফুর রহমান স্কুল এন্ড কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ নুরুল ইসলাম।

বিশেষ অতিথি ছিলেন শিক্ষানুরাগী সমাজসেবক হাজির বক্স ,সাংবাদিক মুজিবুর রহমান রঞ্জু,কমলগঞ্জ প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি শাব্বির এলাহী,সৌদি প্রবাসী সমাজসেবক খোরশেদ আলম, সমাজসেবক ও সংস্কৃতিকর্মী রঞ্জিত অধিকারী, শিক্ষক আব্দুল গণি দুলাল প্রমূখ।

অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন শিক্ষক শিরিন আক্তার,বিদায়ী শিক্ষক মুফতি আবুল কালাম, অভিবাবক জাহানার আক্তার রুনি ,শিক্ষার্থী ফারহানা জাহান ও রিসাদ মিয়া।

কমলগঞ্জ প্রতিনিধিঃ একাদশ জাতীয় সংসদকে নির্বাচনে ২৩৮ মৌলভীবাজার-৪ (শ্রীমঙ্গল-কমলগঞ্জ) আসনের কমলগঞ্জ উপজেলার ৭২টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ৪৫টি কেন্দ্র ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে পুলিশ। এর মধ্যে ১৬টি ঝুঁকিপূর্ণ ও ২৯টি অধিক ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র। সহকারি রিটার্ণিং অফিসার ও কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশেকুল হক মঙ্গলবার এ তথ্য জানান। তবে নির্বাচন সুষ্ঠু ও অবাধ করতে পুলিশের পাশাপাশি সেনাবাহিনী, বিজিবি, র‌্যাব ও আনসার বাহিনী মোতায়েন থাকবে বলে জানানো হয়।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, মৌলভীবাজার-৪ আসনের কমলগঞ্জ উপজেলায় ৭২টি ভোটকেন্দ্রের মধ্যে ৩৩২টি ভোট কক্ষ রয়েছে। এ উপজেলায় মোট ১ লাখ ৭৯ হাজার ৪০০ জন ভোটার রয়েছেন। তন্মধ্যে ৮৯ হাজার ৫৬৪ জন পুরুষ ও ৮৯ হাজার ৮৩৬ জন মহিলা ভোটার রয়েছেন।
বাবুল প্রমুখ।

সাইফুর রহমান চৌধুরী : এনলাইট ইয়ুথ ফাউন্ডেশন এর আয়োজনে মৌলভীবাজার জেলার রাজনগর উপজেলার বিমলাচরন উচ্চ বিদ্যালয়ের মেধাবী শিক্ষার্থীর মধ্যে ২৫ ডিসেম্বর মঙ্গলবারে  শিক্ষা উপকরণ বিতরণ ও কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে।
সংগঠনের সভাপতি মোঃ আয়নুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে  এবং সহ-সভাপতি ফারজানা আক্তার ত্বন্নি এর সঞ্চালনায় প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দু ওদুদ, বিশেষ অথিতি হিসেবে উপস্তিত ছিলেন সহ-প্রধান  শিক্ষক  আব্দুস সালাম।এছাড়া সহকারি শিক্ষকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাশু দেব,ইউনুসুর রহমান,শাহ ইজ্জাত আলী,শাহ ইরতাদুল ইসলাম,ওবায়দুল হক,কাশেম আলী চৌধুরী।
এছাড়া উপস্থিত ছিলেন অত্র বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সদস্য বাতির মিয়া,২নং উত্তরভাগ ইউনিয়ন এর ইউ.পি সদস্য জুয়েল আহমদ,সংগঠনের  উপদেষ্টা পরিষদ এর সদস্য আফছার আহমেদ।উপস্থিত সকল অথিতি বৃন্দ সংগঠনকে অভিনন্দন জ্ঞাপন করেন এই ধরনের কার্যক্রম বাস্তবায়ন করার জন্য। এছাড়াও সংগঠনের সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি ইছতার জাহান সোনিয়া,নিলয় তুষায়, দীপ্ত দেব, সমাজকল্যাণ সম্পাদক শাহ নাইম আলী,মৌলভীবাজার টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ শাখার সভাপতি রাফি সুলতান,সহ- প্রচার সম্পাদক  মোসতাক আহমদ,স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক নাহিদ,নির্বাহী সদস্যদের মধ্যে ।
এছাড়াও সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আফজাল, আমির, তারেক, মাহফুজ, সুইটি,নোমান প্রমুখ।

প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীতে মোট ৭৮০০ জন শিক্ষার্থী পাশ ৯৮.৭,ইবতেদায়ী শিক্ষা সমাপনীতে মোট ২৩৪,পাশ ৯৮.৮, জিপিএ ৫ এ ইবতেদায়ী মাদ্রাসা পিছিয়ে থাকলেও পাশের হারে এগিয়ে।

সাদিক আহমেদ,স্টাফ রিপোর্টারঃ আজ সোমবার প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী ও ইবতেদায়ী পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে।
শ্রীমঙ্গলে পাশের হারে ইবতেদায়ী এগিয়ে থাকলেও জিপিএ-৫ নগণ্য। শ্রীমঙ্গল উপজেলা শিক্ষা অফিসার সাইফুল ইসলাম তালুকদার থেকে প্রাপ্ত সুত্রমতে,এ বছর শ্রীমঙ্গল উপজেলায় প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিলো ৭৮০০ জন শিক্ষার্থী।শ্রীমঙ্গলে সমাপনীতে এবার পাসের হার ৯৮.৭%।এদের মধ্যে জিপিএ-৫, পেয়েছে ৫৩১ জন।শতকরা হিসেবে যার সংখ্যা ৬.৮০%।অকৃতকার্য হয়েছে ৯০ জন শিক্ষার্থী।
অপরদিকে শ্রীমঙ্গলে ইবতেদায়ীতে এবার অংশ নিয়েছিলো ২৩৪ জন।যার মধ্যে ২৩১ জন শিক্ষার্থী পাস করেছে এবং অকৃতকার্য হয়েছে ৫ জন।শ্রীমঙ্গলে ইবতেদায়ীতে পাসের হার এবার ৯৮.৮%।এদের মধ্যে জিপিএ-৫, পেয়েছে মাত্র ৭ জন।যা শতকরা হিসেবে ২.৯৯%,যা স্কুল শিক্ষার্থীদের থেকে প্রায় ৪℅ কম।সমাপনী ও ইবতেদায়ীতে ফেলের হার যথাক্রমে ১.১৫% ও ২.১৩%।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc