Thursday 15th of November 2018 02:15:18 AM

মুহাম্মদ এমদাদুল হক জাবেরঃ ইসলাম একটি পরিপূর্ণ জীবন বিধান। ইসলামে এমন কোন দিক নেই যে অালোচনা করা হয়নি। মহান আল্লাহ’তায়ালার অপুরন্ত কল্যাণ ইসলামী ধর্মিয় বিধানের মাধ্যমে মানবতার কল্যাণ এবং আত্মিক পরিশুদ্ধির নির্দেশের পাশাপাশি মানবদেহ ও পোশাকের পবিত্রতারও শিক্ষা দিয়েছেন।ফলে মুসলিমদের নামাজের পূর্বে মিসওয়াক ও অজুর নির্দেশ প্রদান করে;তাতে আত্মিক ও শারীরিক দুটোর পবিত্রতাই অর্জিতের সুযোগ করে দিয়েছেন।

এজন্য মিসওয়াককে আত্মিক ইবাদত হিসেবে গণ্য করা হয়। মহান অাল্লাহ তা’য়ালা ইরশাদ করেন, নিশ্চয়ই অাল্লাহ তায়ালা তাওবাকারী ও অত্যধিক পবিত্রতা অবলম্বনকারীদেরকে ভালবাসেন। [সুরা বাকারা ] একজন মুসলমান পাঁচ ওয়াক্ত নামাজে পনেরবার মুখ পরিস্কার করে। মুসলিম নামাজি ব্যক্তির মুখগহ্বর সর্বদা পরিস্কার থাকে। মিসওয়াকের মাধ্যমে উত্তমরূপে মুখ পরিস্কার করা হয়, এতে করে মুখে এমন রশ্মি তৈরি হয় যার দ্বারা কুরঅান তিলাওয়াত ও ইবাদতের মধ্যে স্বাদ এবং অানন্দ সৃষ্টি হয়। মিসওয়াকের মাধ্যমে দাঁত মজবুত হয় এবং তা দাঁতের নানা রকম রোগ প্রতিরোধ করে।

মাহবুবে খোদা প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু অালাইহি ওয়া সাল্লাম মিসওয়াকের অনেক গুরুত্ব দিয়েছেন। প্রত্যেক নামাজের পূর্বে অজুতে মিসওয়াক করা সুন্নত। অন্য সময় মিসওয়াক করা মুস্তাহাব। তিতা গাছের ডালের মিসওয়াকই উত্তম। মিসওয়াকের ডাল প্রস্থে শাহাদাত অাঙ্গুলের মত আর দৈর্ঘ্যে এক বিঘত হওয়া বাঞ্চনীয়।

হাদিস শরিফে রয়েছে, হযরত অাবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু তা’য়ালা অানহু হতে বর্ণিত তিনি বলেন,রাসুল সাল্লাল্লাহু অালাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করছেন, অামার উম্মতের উপর মাত্রাতিরিক্ত কষ্ট চাপিয়ে দেয়ার নিয়ত যদি অামার না হতো, তাহলে অামি তাদেরকে নির্দেশ দিতাম এশার নামাজ বিলম্ব করে পড়ার এবং প্রতি ওয়াক্ত নামাজে মেসওয়াক করার। [বুখারী ও মুসলিম শরিফ] উপরোক্ত হাদিস থেকে অামরা উপলব্ধি করতে পারি যে,শরিয়তকে উম্মতে মুহাম্মদির জন্য সহজ করে দেওয়া হয়েছে এবং রাসুল সাল্লাল্লাহু তা’য়ালা অালাইহি ওয়া সাল্লাম অামাদের উপর এহসান করেছেন।

অপর এক হাদিস শরিফে রয়েছে, হযরত শুরাই বিন হানি রাদিয়াল্লাহ তা’য়ালা অানহু হতে বর্ণিত,তিনি বলেন, অামি হযরত অায়েশা সিদ্দিকা রাদিয়াল্লাহ তায়ালা অানহাকে জিজ্ঞেস করলাম, রাসুল সাল্লাল্লাহু অালাইহি ওয়া সাল্লাম ঘরে ঢুকে প্রথম কোন কাজটি করতেন? হযরত অায়েশা সিদ্দিকা রাদিয়াল্লাহু তায়ালা অানহা উত্তর দিলেন যে,তিনি প্রথমে মিসওয়াক করতেন। [সহিহ মুসলিম] মিসওয়াক সকল নবীগণের সুন্নত।

বর্তমান বিজ্ঞান নির্ভর যুগ। চিকিৎসা বিজ্ঞানের দৃষ্টিতেও মিসওয়াকের গুরত্ব ও উপকারিতা প্রণিধানযোগ্য। অভিজ্ঞ ডাক্তারগণের রিসার্সে প্রমাণিত হয়েছে পাকস্থলীর অনেক রোগ দন্ত রোগের কারণে হয়ে থাকে। অার এ রোগ নিরাময়ের সর্বোত্তম পন্থা হলো মিসওয়াক করা। মিসওয়াক জীবাণুকে হত্যা করে, মুখ হতে দুর্গন্ধ দূর করে।

গবেষণা অনুযায়ী-মুখে এমন জীবাণুও সৃষ্টি হয় যা প্রচলিত ব্রাশ এবং পেষ্ট দ্বারা দূর করা সম্ভব হয় না বরং সেগুলোকে শুধু মিসওয়াকই রোধ করতে পারে। অারও প্রমাণিত হয়েছে,মিসওয়াক দ্বারা মস্তিষ্কের শক্তির পরিধি বাড়ে,কার্যকারিতা বাড়ে। চক্ষুসংক্রান্ত রোগের কারণসমূহের মধ্যে দাঁতের অপরিচ্ছন্নতা অন্যতম কারণ।

দাঁতের ফাকে ঢুকে থাকা খাবারের কণার কারণে দুর্গন্ধ সৃষ্টি হয়, এবং চোখে নানারকম রোগ দেখা দেয়।কাজেই চোখের সুস্থতায়ও মিসওয়াকের উপকারিতা উল্লেখযোগ্য। মিসওয়াকের অারও কিছু উপকারিতা: মিসওয়াক করলে মহান অাল্লাহ খুশি হন, মেসওয়াককারীকে ফেরেশতারা ভালবাসেন,শয়তান অসন্তুষ্টি হয়, মুখ সুগন্ধিময় হয়,গরমের কষ্ট দূর হয়ে যায়,দারিদ্র এবং সংকীর্ণতা দূর হয়,মাথাব্যথা দূর হয়।

মহান অাল্লাহ তা’য়ালা এই সুন্নতে মুবারাকাকে অামাদের অামল করার তাওফিক দান করুন। অামিন। লেখক:শিক্ষার্থী,জামেয়া অাহমদিয়া সুন্নিয়া অালিয়া কামিল মাদ্রাসা অনার্স অাল-হাদিস এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ।

দিয়েছিলেন লাল সবুজের পতাকা:শেখ আফিল উদ্দিন

এম ওসমান,বেনাপোল প্রতিনিধিঃ ৮৫ যশোর-১ (শার্শা)’র সাংসদ আলহাজ্ব শেখ আফিল উদ্দিন বলেন, জাতীর জনকের স্বপ্ন ছিল এ দেশের উন্নয়ন। তাই তিনি নিজ জীবনের বিনিময়ে হলেও এদেশকে পরাধীনতার শিকল থেকে মুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছিলেন। কথাও রেখেছিলেন। ৭১-এ বঙ্গবন্ধু বাঙ্গালী জাতিকে পরাধীনতা থেকে মুক্ত করে এনে দিয়েছিলেন লাল সবুজের পতাকা। বুধবার দিনব্যাপী শার্শা উপজেলার গোড়পাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নব নির্মিত ভবনের উদ্বোধন, একঝালা-বসন্তপুর পাকা রাস্তা উদ্বোধন, বেতনা নদীর ব্রীজ উদ্বোধন, ডিহি ইউনিয়নের গোকর্ণ-পন্ডিতপুর পাকা রাস্তা উদ্বোধন, নারিকেল বাড়িয়া-শালকোনা পাকা রাস্তা উদ্বোধন’র মাঝে বিভিন্ন এলাকার আলোচনায় সভায় প্রধাণ অতিথি হিসেবে একথা বলেন তিনি।
গোড়পাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানিজিং কমিটির সভাপতি ও শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক খবির উদ্দিন খান’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কয়েক আলোচনা সভায় প্রধাণ অতিথি শেখ আফিল উদ্দিন এমপি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু তার জীবদ্দশায় শতভাগ কথা রক্ষা করে এদেশের মানুষকে স্বাধীনভাবে বঁচে থাকার অধিকার এনে দিয়েছিলেন। স্বপ্ন ছিল এদেশের মানুষ কেউ না খেয়ে মারা যাবে।
বিশ্বের বুকে বাংলাদেশ হবে এক উন্নত জাতির দেশ। কিন্তু দেশের মধ্যে নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে ৭১’র সেই পরাজিত শক্তিরা এদেশের পিছু ছাড়েনি। শেখ মুজিবুর রহমান যাতে এদেশের উন্নয়ন করতে না পারে সেজন্য তারা বঙ্গবন্ধুসহ তার সস্বপরিবারে হত্যার মিশন নেয়। হত্যা করে বাঙালী জাতীর প্রতিষ্ঠাতা পিতা বঙ্গবন্ধুসহ তার সহধর্মিণী, সন্তান, পরিজনদের। মহান আল্লাহর অশেষ কৃপায় সেদিন নরঘাতকদের হাত থেকে রক্ষা পেয়েছিলেন আজকের ডিজিটাল বাংলাদেশের রুপকার উন্নয়নের মডেল প্রধাণ মন্ত্রী শেখ হাসিনা।
এ সময় সাংসদ শেখ আফিল উদ্দিন আরো বলেন, মনে রাখতে হবে ৭১’র সেই হায়েনার দল আজো সক্রিয় হয়ে এদেশে অবস্থান করছে। তারা বিভিন্ন ছদ্মরুপ ধারণ করে এদেশের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্থ্য করতে জাতীর জনকের কণ্যা প্রধাণ মন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার মিশনসহ বঙ্গবন্ধুর আদশের্র দল আওয়ামীলীগকে ধ্বংস করতে মরিয়া হয়ে উঠেপড়ে লেগেছে। সাবধান! ইতিমধ্যে তারা আওয়ামীলীগের সাথে মিশে গিয়ে নানা ধরণের বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছে।
উক্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানগুলোতে প্রধাণ অতিথি শেখ আফিল উদ্দিনের সফর সঙ্গী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান সিরাজুল হক মঞ্জু, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব নুরুজ্জামান, যুগ্ম সম্পাদক আলহাজ্ব সালেহ আহমেদ মিন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক ও যশোর জেলা পরিষদের সদস্য অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিল, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোজাফফর হোসেন, যুবলীগের সভপতি ও জেলা পরিষদের সদস্য অহিদুজ্জামান অহিদ,  সাধারণ সম্পাদক ও শার্শা সদর ইউপি চেয়ারম্যান সোয়ারাব হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান, নিজামপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আযাদ, ডিহি ইউপি চেয়ারম্যান হোসেন আলী, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরদার, যুবলীগ নেতা জাহাঙ্গীর হোসেন, ডিহি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল জলিলসহ উপজেলা ও স্থানীয় আওয়ামীলীগের সকল অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
গোড়পাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালযয় ও একঝালা বাজারে বিশাল উদ্বাধনী সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন গোড়পাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধাণ শিক্ষক কামরুজ্জামান, আলিমুর রহমান, গোড়পাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আযাদ, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল ওহাব, সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন তরফদার, সাংগঠনিক নজরুল ইসলাম, কৃষকলীগের সভাপতি নাসির উদ্দিন,  যুবলীগ সভাপতি আলাউদ্দিন খান, নিজামপুর ২নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি ফইম উদ্দিন খান, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম প্রমুখ।

স্টাফ রিপোর্টার,সাদিক অাহমেদ ইমনঃ জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদ এর ৪৬ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে শ্রীমঙ্গল উপজেলা শাখা কতৃক ৩০ অক্টোবর রোজ মঙ্গলবার বিকাল ৩ টা থেকে ৫ টা পর্যন্ত শ্রীমঙ্গল চৌমুহনা চত্বরে এক পথসভা ও র‍্যালীর অায়োজন করা হয়।

পথসভার শুরুতেই শ্রীমঙ্গল শহরে এক বর্ণাঢ্য র‍্যালী বের করে জাসদ শ্রীমঙ্গল শাখা।র‍্যালীটি শ্রীমঙ্গল কলেজ রোড থেকে বের হয়ে মৌলভীবাজার রোড,হবিগঞ্জ রোড ও স্টেশন রোড ঘুরে এসে চৌমুহনা চত্বরে জড়ো হয়।
পরে শ্রীমঙ্গল চৌমুহনা শুরু হয় পথসভা ও অালোচনা।

উক্ত পথসভায় বক্তব্য রাখেন জাসদ শ্রীমঙ্গল শাখার সভাপতি হাজী এলেমান কবীর,সিমিয়র সহ সভাপতি অানকার খান,সহ সভাপতি মুজিবুর রহমান,সাধারণ সম্পাদক দেওয়ান মাছুম অাহমদ চৌধুরী, সদস্য শিপু পাল,সন্জব অালী,কালা মিয়া,সালাউদ্দিন,সৈয়দ অামিরুজ্জামান প্রমুখ।

বিক্রির অপরাধে ৪ জনকে জরিমানা 

এস এম সুলতান খান,চুনারুঘাট থেকেঃ  হবিগঞ্জের চুনারুঘাটের বিভিন্ন বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে চুনারুঘাট ঢাকনাবিহীন খাবার ও ফিজিসিয়ান সেম্পল ঔষুধ বিক্রির অপরাধে বিভিন্ন ৪ ব্যবসায়ীকে ৫ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।
বুধবার বিকালে পরিচালিত এ অভিযানে উত্তর বাজার এলাকায় ফিজিসিয়ান সেম্পল ঔষুধ বিক্রি ও পেকেটের গায়ে মূল্য লেখা না থাকায় খাদিজা মেডিকেল ফার্মেসিকে ২ হাজার টাকা জরিমানা, দক্ষিন বাজার এলাকার অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ, ঢাকনাবিহীন খাবার ও মূল্য তালিকা না থাকায় নুরে মদিনা রেস্টুরেন্টকে ৩ হাজার টাকা, মাছ বাজারের কাউছার মিয়া এবং শাকিল মিয়াকে ওজনে কম দেওয়ার অপরাধের ৩০০ ও ২০০ টাকা জরিমানা করা হয়।
অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. আমিরুল ইসলাম মাসুদের নেতৃত্বে পরিচালিত এ অভিযানে চুনারুঘাটের বিভিন্ন পোল্ট্রির দোকান, মুদির দোকান ও কাছাবাজারে ব্যাপক তল্লাশি কার্যক্রম পরিচালিত হয়। এসময় বিভিন্ন ব্যবসায়ীদের ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন, ২০০৯ যথাযথভাবে মেনে চলার জন্য সতর্ক করে দেয়া হয়।
অভিযানে সার্বিক সহয়তায় ছিলেন এস আই আল আমিন এএসআই কমল কান্তর নেতৃত্বে চুনারুঘাট থানা পুলিশের একটি টিম। অভিযান চলাকালে অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে ভোক্তা অধিকার আইন বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিতে উপস্থিত জনসাধারণের মাঝে লিফলেট ও পাম্পলেট বিতরণ করা হয়। জনস্বার্থে এ অভিযান অব্যহত থাকবে।

 বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন 

সাইফুর রহমান চৌধুরী: মৌলভীবাজারে শ্রমিক ধর্মঘটে অরাজকতা সৃষ্টিকারী ও নবজাতক শিশুদের মৃত্যুর জন্য দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন পালন করেছে ইয়ুথ সোস্যাল অর্গানাইজেশন।

শ্রমিক ধর্মঘটে অরাজকতা ও নবজাতক শিশুদের মৃত্যু, সাধারণ মানুষকে হয়রানি করার প্রতিবাদ জানিয়ে মানববন্ধন পালন করেছে ইয়ুথ সোস্যাল অর্গানাইজেশন।

আজ বুধবার (৩১ অক্টোবর) সকাল ১০। ঘটিকায় মৌলভীবাজার প্রেসক্লাব চত্বরে এ মানববন্ধন পালিত হয়। মানববন্ধনে ইয়ুথ সদস্যরা হাতে প্লে-কার্ড নিয়ে প্রতিবাদ জানান।
শ্রমিকদের আন্দোলনে নারী নির্যাতন, শিশুহত্যা এবং সাধারণ মানুষদের ভোগান্তির কথা তুলে ধরা হয়। এসময় তিনটি দাবির কথা জানিয়েছেন ইয়ুথ সদস্যরা । দাবিগুলো হলো- শিক্ষার্থীদের অবাধ চলাচল নিশ্চিত করতে হবে, আন্দোলনের নামে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি সৃষ্টি করা যাবে না এবং অ্যাম্বুলেন্সসহ অন্যান্য রোগী বহনকারী গাড়ি চলাচল করতে দিতে হবে।

এসময় ইয়ুথ সেক্রেটারি শেখ হাবিবুর রহমান হাবিবের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন ইয়ুথ সভাপতি ওয়াসিম আহমেদ নিশান, বিআইএস এর সভাপতি এম. মুহিবুর রহমান মুহিব, সনাফ সেক্রেটারি শরীফ খালেদ সাইফুল্লাহ, শাহ মোস্তফা রক্তসেবা’ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সাইফুর রহমান চৌধুরী, ইয়ুথ এর এক্সিকিউটিভ মেম্বার জাবেদুর রহমান সৌরভ, ডাঃ অংকন, এস.এম. বশির, ইশতিয়াক আহমেদ চৌধুরী, হাসান জুবেল, এস এ ফাহিম, এনায়েত হাবিব, সাগর কর, ফয়েজ আহমেদ, বাবলু দাস, মাহবুবুর রহমান অপু, মনজুর আলম, তানভীর, সামীত, সাদিকুল ইসলাম অপু, সালমান আহমেদ, জুয়েল আহমেদ, মোহাম্মদ সাকিব, ফারহাম এ বকর, মাহরিয়ার আলম, মাহদি হাসান, হাসান আহমেদ, কনক পাল সহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং মৃত শিশুর চাচা হাজী আকবর আলী ফুলু মিয়া।

ইয়ুথ সভাপতি ওয়াসিম আহমেদ নিশান বলেন, সংবিধান যেকোনও রাষ্ট্রের নাগরিকদের আন্দোলন করার অধিকার দিয়েছে। এটা তাদের সাংবিধানিক অধিকার। তবে আন্দোলনের নামে কোনও নাগরিকের চলাফেরা করার অধিকার এবং তাদের পথ অবরোধ করার অধিকার তাদের দেওয়া হয়নি। শ্রমিক ধর্মঘটে অরাজকতার কারনে যে শিশুটি মারা গেছে, এটাকে আমরা মৃত্যু বলতে পারি না। এটা একটি স্পষ্ট হত্যাকাণ্ড। আমরা শ্রমিকদের আন্দোলনের বিপক্ষে না। কিন্ত এধরনের অরাজকতা কোনও শ্রমিক করতে পারে না। আমরা এই স্বাধীন বাংলার নাগরীক হিসেবে এসব অরাজকতা মেনে নিতে পারি না। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই।
ইয়ুথ সোস্যাল অর্গানাইজেশন সদস্যরা বলেন, দাবি আদায়ের পরিপ্রেক্ষিতে শ্রমিকরা চাইলে একজন নারীকে লাঞ্ছনা করতে পারেন না। শ্রমিক ধর্মঘটে আমরা যেধরনের দৃশ্য দেখতে পেয়েছি, তা খুবই নৃশংস। আমরা মনে করি রাষ্ট্রের একজন নাগরিক হিসেবে তারা আন্দোলন করতে পারে। কিন্তু তারা বিশৃঙ্খলা তৈরি করতে পারে না। এধরনের নির্যাতনের বিরুদ্ধে ইয়ুথ সোস্যাল অর্গানাইজেশনের সদস্য হিসেবে আমরা নিন্দা জানাই।

স্টাফ রিপোর্টার,সাদিক অাহমেদঃ কানাডিয়ান চ্যারিটি Sleeping Children Around The Word এবং রোটারি ক্লাব-ঢাকা’র অায়োজনে শ্রীমঙ্গল বিটিঅারঅাই উচ্চ বিদ্যালয়ে শিশু উন্নয়নমুলক প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সকাল ১১ টা থেকে শুরু হয় মুল অনুষ্ঠানের।অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনা করেন রোটারি ক্লাবের সদস্যবৃন্দ।
Sleeping children around the world এর ভলিন্টেয়ার মাসুদুল অালমের তথ্যমতে, “গত ২৪ অক্টোবর থেকে শুরু করে অাগামী ২নভেম্বর পর্যন্ত চলবে কার্যক্রম।গত ২৪ অক্টোবর গাজীপুরের মাওনাতে প্রথম প্রোগ্রাম করে সংগঠনটি।তারই ধারাবাহিকতায় অাজ শ্রীমঙ্গলের বিটিঅারঅাই উচ্চ বিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে প্রোগ্রামটি।

এসময় বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষার্থীদের কাছে স্কুল সামগ্রী,পোশাক ও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়।
এসময় শিক্ষার্থীদের হাতে পুরষ্কার তুলে দেন কানাডিয়ান নাগরিক ও Sleeping Children Around The Word এর ভলেন্টেয়ার গেইল হিল ও ক্রিস হিল।

শিক্ষার্থীদের হাতে পুরষ্কার তুলে দিচ্ছেন কানাডিয়ান নাগরিক ও Sleeping Children arround the world এর ভোলেন্টেয়ার গেইল হিল।

এদিকে বিদেশী নাগরিকের হাত থেকে এসব সামগ্রী গ্রহন করে বেশ উচ্ছ্বাসিত ছিলো শিক্ষার্থীরা।
কয়েককন শিক্ষার্থী অামাদের জানান “অামরা বিদেশী ম্যামের হাত থেকে খাবার নিয়েছি।অামাদের খুব ভালো লাগছে”।

জুড়ী (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধিঃ  মৌলভীবাজারের জুড়ীতে ৯টি মামলার সাজাপ্রাপ্ত আসামীকে সিলেট থেকে গ্রেফতার করেছে জুড়ী থানা পুলিশ।

জানা যায়, মঙ্গলবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সিলেট বন্দর এলাকা থেকে মহিউদ্দিন রাসেল (৩৮) কে আটক করেন জুড়ী থানার ওসি জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার ও তার সঙ্গীয় ফোর্স।একই দিনে জমি সংক্রান্ত অপর মামলায় আরেকজনকে গ্রেপ্তার করেছে তার নাম শিব্বির আহমদ (লুঙ্গি পরিহিত) (২৮) পিতা আপ্তাব আলী গ্রাম দুর্গাপুর, জুড়ী।

আটক রাসেল জুড়ী উপজেলার উত্তর সাগরনালের মোহাম্মদ আলীর ছেলে। সে দীর্ঘদিন থেকে মানুষের সাথে প্রতারনা করে (টাকা দ্বিগুন বানিয়ে দিবে বলে) আসছিল। এ নিয়ে থানা ও  আদালতে বেশ কয়েকটি মামলা হয়।

তার বিরুদ্ধে সিআর- ৩৬/১৫ এক বছর সাজা ও ২২ লক্ষ টাকা জরিমানা, ৫১/১৬, ১১৬৬/১৪, ১ বছর সাজা ও ১০ লক্ষ টাকা জরিমানা, সিআর ৮৮৬/১৪, ৪০৫/১৫, ১ বছর সাজা ও ৪ লক্ষ ২০ হাজার টাকা জরিমানা, সিআর ১৩০৯/১৪, ২০১৫/১৬, ১ বছরের সাজা ও ১০ লক্ষ টাকা জরিমানা, ৫৭/১৪, ৫৯৭/১৬, ২ মাসের সাজা ও ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন মৌলভীবাজার দায়রা জজ আদালত।

জুড়ী (মৌলভীবাজার) সংবাদদাতাঃ মৌলভীবাজারের জুড়ীতে মটর বাস মালিক সমিতির আয়োজনে জুড়ী উপজেলা চত্ত্বরে জুড়ী থেকে মৌলভীবাজার ও সিলেট বাস চলাচলের দাবীতে এক মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

বুধবার (৩১ অক্টোবর) অনুষ্ঠিত মানব বন্ধনে বক্তব্য রাখেন জুড়ী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান গুলশান আরা মিলি, ভাইস চেয়ারম্যান কিশোর রায় চৌধুরী মণি, জায়ফর ইউপি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মিলাদ চৌধুরী, আ’লীগ নেতা আব্দুল লতিফ, সাবেক মেম্বার আব্দুস ছালাম, জুড়ী উপজেলা প্রেসক্লাব সভাপতি সিরাজুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক তাজুল ইসলাম, হাকালুকি নিউজ সম্পাদক এমএম সামছুুল ইসলাম, সাংবাদিক এম রাজু আহমদ, শ্রমিকদল নেতা মুস্তাকিম আহমদ প্রমুখ।

ডেস্ক নিউজঃ প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সংলাপে অংশ নিতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ১৬ সদস্যের তালিকা চূড়ান্ত করেছে। সংলাপে ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন ও বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্ব দেবেন।

মঙ্গলবার (৩০ অক্টোবর) সন্ধ্যায় মতিঝিলে ড. কামাল হোসেনের চেম্বারে ঐক্যফ্রন্টের বৈঠক শেষে জেএসডি সভাপতি আ স ম আব্দুর রব প্রতিনিধিদলের তালিকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে প্রতিনিধিদলের সবার নাম জানাতে কৌশলগত কারণে অপারগতা প্রকাশ করে তিনি।

আ স ম আব্দুর রব বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমন্ত্রণপত্র আমরা গ্রহণ করেছি। আমরা সব বিষয়েই কথা বলব। সংবিধান তো জনগণের জন্য। তাই জনগণের ভোটাধিকার যাতে নিশ্চিত হয়, সেটাই আমাদের দাবি।

বিকেল সোয়া ৪টায় ড. কামাল হোসেনের মতিঝিলের চেম্বারে শুরু হওয়া বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন ড. কামাল হোসেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, গণফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্য জগলুল হায়দার আফ্রিক, জেএসডি সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, সহ-সভাপতি তানিয়া রব, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক রতন, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, সাবেক ছাত্রনেতা সুলতান মুহাম্মদ মনসুর, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী প্রমুখ।

গত ২৭ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরকে সাত দফা দাবি এবং ১১ দফা লক্ষ্য সংবলিত চিঠি দেয় ঐক্যফ্রন্ট। চিঠিটি গ্রহণ করেন আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ।

এরপর সংলাপে সাড়া দিয়ে মঙ্গলবার সকাল ৭টা ৫০ মিনিটে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে চিঠি দেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। চিঠিটি নিয়ে ড. কামাল হোসেনের বেইলি রোডের বাসায় যান আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান গোলাপ।

চিঠিতে সংলাপের জন্য জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে আগামী কাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় গণভবনে দাওয়াত দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট ৪ আসেন নৌকার টিকেট পেতে চান সিলেট জেলা দায়রা জজ আদালতের সহকারী পিপি কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এডভোকেট শাহজাহান চৌধুরী। তিনি মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান দীর্ঘদিন ধরে সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। দলীয় মনোনয়ন পেতে তার পক্ষে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে দিনরাত প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

এডভোকেট শাহজাহান চৌধুরী বলেন, কোম্পানিগঞ্জ,গোয়াইনঘাট আর জৈন্তাপুরের মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা রয়েছে তার। তিনি উপজেলার জনগণের জন্য কর্মমূখী শিক্ষা, উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা, শোষণমুক্ত ও বৈষম্যহীন সমাজ নির্মাণ, সম্প্রতির রাজনীতি, সবুজ বনায়ন, পর্যটন শিল্পসহ সকল ক্ষেত্রে দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য আসন্ন নির্বাচনে সকলের সহযোগিতার আহবান করেন।শাহজাহান সংসদ নির্বাচনে মনোনয়নের মাঠে নবীন হলেও দীর্ঘদিন ধরে সামাজিক ও ছাত্রলীগের সাখে সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত থাকায় তিনি জনগণের পছেন্দর প্রার্থী হিসেবে রয়েছেন।

সিলেট ৪ আসন কে আধুনিক গড়ার প্রত্যয়ে একাদশ সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চাইবেন সে প্রত্যাশায় গণসংযোগে ব্যস্ত রয়েছেন । এছাড়া তিনি আওয়ামীলীগের উন্নয়ন কার্যক্রম সাধারণ মানুষের কাছে তুলে ধরার লক্ষ্যে কোম্পানিগঞ্জ, গোয়াইনঘাট আর জৈন্তাপুরের বেশ এলাকাজোড়ে বর্তমান সরকারের উন্নয়নের মহাসড়কে সাড়ে নয় বছরের সফলতা তুলে ধরার লক্ষ্য গ্রামের সাধারন মানুষের মাঝে মতবিনিময়, উঠান বৈঠক ও গনসংযোগে ব্যস্তসময় পার করছেন,গণসংযোগে।

কমলগঞ্জ প্রতিনিধিঃ মঙ্গলবার (৩০ অক্টোবর) দুপুর দেড়টায় সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার মাধ্যমে কমলগঞ্জে সৃজনে উন্নয়নে বাংলাদেশ শীর্ষক দিনব্যাপী সাংস্কৃতিক উৎসব ও মেলার উদ্বোধন করেন জাতীয় সংসদের সাবেক চীফ হুইপ উপাধ্যক্ষ ড. মোঃ আব্দুস শহীদ এমপি।

শোভাযাত্রা শেষে জেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হকের সভাপতিত্বে ‘সৃজনে উন্নয়নে বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি এম, মোসাদ্দেক আহমেদ মানিক, কমলগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মো: জুয়েল আহমেদ, সদর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান,বিআরডিবি চেয়ারম্যান ইমতিয়াজ আহমেদ বুলবুল, কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আরিফুর রহমান, কৃষি কর্মকর্তা রঘুনাথ নাহা প্রমুখ।

বক্তব্য রাখেন অধ্যক্ষ মোঃ হেলাল উদ্দীন, ইমতিয়াজ আহমেদ বুলবুল,কমলগঞ্জ প্রেসক্লাব সম্পাদক মোঃ মোস্তাফিজুর রহমানপ্রমুখ।
অনুষ্টানে উৎসবে সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের তথ্যচিত্র প্রদর্শন, দেশাত্মবোধক গান, রবীন্দ্র সংগীত, নজরুল সংগীত, আধুনিক গান, নৃত্য, আবৃত্তি ও অভিনয় পরিবেশন করা হয়।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

স্টাফ রিপোর্টার,সাদিক অাহমেদঃ প্রবাদ আছে বাঙালির ১২ মাসে ১৩ পার্বন৷ কোন মাসে বেশি হয় কোন মাসে কম সেটা এভাবে বলা যাবে না৷ তবে শীতের সময় একটু বেশি মেলা হয়৷ আবার চৈত্র বা বৈশাখ মাসেও মেলাটা বাড়ে৷ জৈষ্ঠ্য, শ্রাবণ বা ভাদ্র মাসে তেমন কোন মেলা হয় না৷বাংলাদেশের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ গ্রামীণ মেলা৷ বিভিন্ন পালা পার্বণকে কেন্দ্র করে বছরজুড়ে প্রায় দশ হাজারেরও বেশি ছোট-বড় গ্রামীণ লোকজ মেলা বসে বাংলাদেশের আনাচে কানাচে৷
ইদানিংকালে আমাদের সংস্কৃতিতে নতুন যোগ হয়েছে বিভিন্ন উন্নয়ন ও ডিজিটাল সেক্টরের নানা আকর্ষনীয় মেলা।এরই প্রেক্ষিতে আজ শ্রীমঙ্গলে চলছে লোকজ মেলা ও সাংস্কৃতিক উৎসব।

লোকজ মেলা ও সাংস্কৃতিক উৎসবে উপস্থিতদের একাংশ,ছবি-সাদিক আহমেদ।

স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন কতৃক অায়োজিত লোকজ মেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের শুরু হয়েছে।অাজ ৩০ অক্টোবর মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় বর্ণাঢ্য র্যালির মাধ্যমে শুরু হয় মুল অনুষ্ঠানিকতা।
র্যালিতে উপস্থিত ছিলেন শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম,উপজেলা চেয়ারম্যান রণধীর কুমার দেব,সিলেট বিভাগীয় সাবেক স্বাস্থ্য পরিচালক ড.হরিপদ রায়,শ্রীমঙ্গল সার্কেলের পুলিশ সুপার মোঃ অাশরাফুজ্জামান অাশিক,উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রেম সাগর হাজরা,যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা অসীম দে,চন্দ্রনাথ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জহর তরফদার,শ্রীমঙ্গল সদর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ভানু লাল রায় প্রমুখ।

লোকজ মেলা ও সাংস্কৃতিক উৎসবে উপস্থিতদের একাংশের ছবি-সাদিক আহমেদ।

সকাল ১১ টায় উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে শ্রীমঙ্গল শহরের প্রধান প্রধান সড়ক ঘুরে বেলা ১২ টায় র্যালিটি উপজেলা চত্বরে এসে শেষ হয়।তারপর উপস্থিত জনতা,শিক্ষার্থী ও সকলকে মাল্টিমিডিয়া প্রজেক্টরের মাধ্যমে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিভিন্ন উন্নয়নমুলক পদক্ষেপ,অর্জন,সাফল্য নিয়ে ডকুমেন্টারি প্রদর্শন করা হয়।তারপর দুপুর ২ টা সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত চলবে পিঠা উৎসব।

একই সময়ে স্থানীয় শিল্পিগোষ্টী নিয়ে জাতীয় সংগীত,দলীয় সংগীত,লোকজ সংগীত,মনিপুরী নৃত্য,পল্লীগীতি,লালন গীতি,অাঞ্চলিক গান,জারি সারি,মুর্শীদি গান পরিবেশন করা হবে।

সন্ধ্যা ৬ টা থেকে ৮ টা পর্যন্ত সংগীত পরিবেশন করবেন প্রখ্যাত শিল্পী সুমিত,মৌ,বাউল শিল্পী শাহ অাব্দুল করিমের দৌহিত্র শাহ ফয়সাল ও শিষ্য অাশিক।এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মেলা চলছিলো।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কারাদণ্ডের রায় হাইকোর্টে ১০ বছর বাড়িয়ে দিল বিজ্ঞ আদালত। এ মামলার আপিলের ওপর যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে সোমবার বিকালে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ রায়ের জন্য আজকের দিন ঠিক করে দেন।

খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা আপিল আবেদনে তার খালাস চেয়েছেন। অন্যদিকে দুদকের আইনজীবী খালেদা জিয়ার সাজা বাড়িয়ে যাবজ্জীবন চেয়েছেন। কিন্তু আদালত রায়ে অন্যান্য আসামিদের সাথে একই সমান সাজার রায় দিলেন।

এর আগে এদিন দুপুরে এ মামলায় হাইকোর্টে খালেদা জিয়ার আপিল নিষ্পত্তিতে সময় বাড়ানোর আবেদন খারিজ করে দেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন সাত সদস্যের আপিল বিভাগের বেঞ্চ। ফলে আগে নির্ধারণ করে দেয়া ৩১ অক্টোবর সময়ের মধ্যেই আপিল শুনানি শেষ করতে হচ্ছে। এছাড়া এ মামলায় অর্থের উৎস স্পষ্ট করতে অতিরিক্ত সাক্ষ্য গ্রহণের বিষয়ে খালেদা জিয়ার যে আবেদনটি হাইকোর্টে নথিভুক্ত রাখা হয়েছে, সেটিও একদিনের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে বলা হয় আদেশে।

কিন্তু আপিল বিভাগের এ আদেশের পর বিকালে শুনানি শেষ করে রায়ের জন্য আজ (মঙ্গলবার) দিন ধার্য করেন হাইকোর্টের ওই বেঞ্চ। সোমবার আপিল বিভাগে খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এজে মোহাম্মদ আলী ও জয়নুল আবেদীন। উপস্থিত ছিলেন ব্যারিস্টার এম মাহবুব উদ্দিন খোকন, অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বাদল, ব্যারিস্টার নওশাদ জমির, ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, অ্যাডভোকেট ফারুক হোসেন ও ব্যারিস্টার এহসানুর রহমান। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

বিকালে খুরশীদ আলম খান যুগান্তরকে বলেন, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার পাঁচ বছর কারাদণ্ডের বিরুদ্ধে এবং দণ্ড বাড়ানোর বিষয়ে আমাদের করা রিভিশন আবেদনের রায় ঘোষণা হবে মঙ্গলবার (আজ)। বিকালে এ বিষয়ে শুনানি শেষে আদালত এ দিন ধার্য করেন। এ সময় খালেদা জিয়ার পক্ষে কোনো আইনজীবী উপস্থিত ছিলেন না।

ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মো. আখতারুজ্জামান গত ৮ ফেব্রুয়ারি এ মামলার রায়ে খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন। এছাড়া বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমান, মাগুরার সাবেক এমপি কাজী সালিমুল হক কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও মমিনুর রহমানকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেয়া হয়। এরপর খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় ২০ ফেব্রুয়ারি আপিল করেন। ২২ ফেব্রুয়ারি আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ করে খালেদা জিয়ার অর্থদণ্ড স্থগিত করেন হাইকোর্ট। এরপর ৭ মার্চ অপর আসামি কাজী সালিমুল হক কামালের আপিলও শুনানির জন্য গ্রহণ করা হয়। ২৮ মার্চ খালেদা জিয়ার সাজা বাড়াতে দুদকের করা আবেদনে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। চার সপ্তাহের মধ্যে রাষ্ট্রপক্ষ ও খালেদা জিয়াকে ওই রুলের জবাব দিতে বলা হয়। তবে আদালত বলে দেন, রুলের ওপর শুনানি হবে খালেদা জিয়ার আপিলের সঙ্গে। আদালত আদেশে বলেন, দুদক আইনে সাজার রায়ের বিরুদ্ধে সংক্ষুব্ধ হয়ে এ ধরনের রিভিশন বা আপিল দুদক করতে পারে কি না, সে বিষয়টি আলোচনা ও ব্যাখ্যার দাবি রাখে। ১০ মে আরেক আসামি শরফুদ্দিনের আপিলও শুনানির জন্য গ্রহণ করেন আদালত। ১২ জুলাই আপিল ও রুল শুনানি শুরু হয়।

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ জয়ী হয়ে সরকার গঠন করবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার বিকেলে স্বাস্থ্য খাতের কয়েকটি প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিস্থাপন অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘আগামী নির্বাচনে ইনশাআল্লাহ বাংলাদেশের জনগণ নিশ্চয়ই নৌকায় ভোট দেবে। আবার এসে এই ভিত্তিপ্রস্তর যেগুলো স্থাপন করেছি; ইনশাআল্লাহ সেগুলো উদ্বোধন করে দিয়ে যাব।’

নৌকা প্রতীকে ভোট চেয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আল্লাহর কাছে দোয়া করবেন আর মানুষের কাছে নৌকা মার্কায় ভোট চাই। যেন ভোট দিয়ে আমাদের নির্বাচিত করে।’

১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগের শাসনামলে শুরু হওয়া কমিউনিটি প্রকল্প বিএনপি-জামায়াত নেতৃত্বাধীন চারদলীয় জোট সরকারের সময় বন্ধ করে দেয়ার কথা মনে করিয়ে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যে কাজগুলো শুরু করেছি, সেগুলো যেন সমাপ্ত করতে পারি। নইলে ওই কমিউনিটি ক্লিনিকের মতো বন্ধ করে রেখে দেবে।’

‘সরকারের ধারাবাহিকতা থাকলে উন্নয়নের গতি অব্যাহত থাকবে, দেশের মানুষ সেবা পাবে, মানুষের কল্যাণ হবে।’

শেরে বাংলা নগরে জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠান প্রাঙ্গণে এই অনুষ্ঠান থেকে প্রধানমন্ত্রী ‘জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠান (নিটোর) সম্প্রসারণ’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় নির্মিত হাসপাতাল ভবন, মিরপুরে ঢাকা ডেন্টাল কলেজের ২৪৮ আসনের ছাত্রী হোস্টেল, মহাখালীতে ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজির সম্প্রসারিত ভবন উদ্বোধন করেন।

এছাড়া প্রধানমন্ত্রী এক্সপানশন অব ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস এ্যান্ড হসপিটাল, মহাখালীতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রধান কার্যালয় এবং জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের উত্তর-দক্ষিণ ব্লকের উর্ধমুখী সম্প্রসারণ কার্যক্রমের ভিত্তিপ্রস্তর উন্মোচন করেন।

জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানের সেবার প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের দেশের মানুষ এখানে এলেই চমৎকার চিকিৎসা পায় এবং এখানকার চিকিৎসকরা এত যতœ নিয়ে চিকিৎসা দেন, আমি অনেককে বলি, এখানে-ওখানে দৌড়াদৌড়ি না করে আমাদের নিটোরে গেলে.. সেখানে এত ভাল চিকিৎসা। যখনই রোগী আসে আমরা দেখি অনেক উন্নতমানের চিকিৎসা দেয়া হয়।’

‘তাদের সময়ের সঙ্গে চলতে পারে- এ ধরনের ইকুইপমেন্টসের অভাব, নানা ধরনের অসুবিধা, অতিরিক্ত রোগী.. এত সমস্যার মধ্যেও এই যে মাথা ঠাণ্ডা করে চিকিৎসা দেয়া।’

চিকিৎসক ও নার্সদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমি সত্যিই আমার চিকিৎসকদের ধন্যবাদ জানাই। নার্স যারা, তারা সেবা করে যান। অতিরিক্ত রোগীর চাপ নিয়ে তারা যে সেবাটা দেন পৃথিবীর কোন দেশে কোন ডাক্তার, কোন নার্স এইভাবে চিকিৎসা দেবে না- আমি বলতে পারি।’ স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক এবং নিটোরের পরিচালক আবদুল গণি মোল্লা বক্তব্য রাখেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য সচিব মোঃ সিরাজুল হক খান।বিডিনিউজ

ডেস্ক নিউজঃ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপে বসতে সম্মত হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গতকাল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বৈঠক শেষে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ তথ্য জানান।

এরপর রাতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে সংলাপের আমন্ত্রণ জানিয়ে তিনি টেলিফোন করেছেন। রাত ৮টার পর জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির সদস্য ও গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টুকে তিনি ফোন করেন।সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের একটি অনুষ্ঠানে ঐক্যফ্রন্ট এর সাথে  সংলাপের ব্যাপারে বলেন “রাজনীতিতে সুবাতাস বইছে”।

এ বিষয়ে মোস্তফা মহসিন মন্টু সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ফোনে সংলাপের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। সংলাপে ঐক্যফ্রন্টের কতজনের প্রতিনিধি দল অংশ নেবে তিনি জানতে চেয়েছেন। আমি ১৫/২০ জনের প্রতিনিধি দলের কথা বলেছি। সংলাপ কখন হবে তা নির্ভর করবে দু দিকের আলোচনার উপর।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc