Saturday 17th of November 2018 05:00:40 PM

মুহাম্মদ এমদাদুলহক জাবেরঃ মহান অাল্লাহ তা’য়ালা যুগে যুগে নবি-রাসুল আলাইহিমুসসালামগণকে পৃথিবীতে প্রেরণ করেছেন এর অন্যতম উদ্দেশ্য ছিল মানবজাতিকে উত্তম চরিত্র শিক্ষা দেয়া। চরিত্র মানুষের অমূল্য সম্পদ। চরিত্র ঠিক রেখে জীবনতরী পরিচালনা করবে এবং চরিত্র বিধ্বংশী যে কোন অাচার-অাচরণ থেকে নিজেকে এবং অন্যকে রক্ষা করবে এটাই প্রত্যাশা করে ইসলাম।

চরিত্রবান প্রশংসিত হয়। চরিত্রহীন লোক হয় সকলের কাছে ঘৃণিত। মহৎ চরিত্রের অধিকারী নবি মুহাম্মাদুর রসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু অালাইহি ওয়া সাল্লামের প্রশংসায় অাল্লাহ তা’য়ালার কুদরতি কন্ঠে ধ্বনিত হয়েছে, অাপনি অবশ্যই মহান চরিত্রের অধিকারী। [অাল কুরঅান,সুরা অাল-কলম,অায়াত-৪]

শুধু তা নয়, চরিত্রবান এ মহান সত্বার জীবনকে করেছেন অামাদের যাপিত জীবনের মডেল। পবিত্র কুরঅানে অাল্লাহ তা’য়ালা ইরশাদ করেন,নিশ্চই তোমাদের জন্য রাসুলুল্লাহর মধ্যে উত্তম অনুপম অাদর্শ রয়েছে। অতএব অাল্লাহ-রাসুল নির্দেশিত পথ ও পন্থায় নিহিত রয়েছে ইহকালীন শান্তি ও পরকালীন মুক্তি। অাল্লাহ-রাসুলের নীতি অনুসরণ ও অনুকরণ করেই চলতে হবে সকলকে,যেমনি করে অামাদের পূর্বসূরী হয়েছেন স্বরণীয়-বরণীয় ও অাদর্শ মানুষ। তারা ছিলেন নীতি-নৈতিকতার শক্তভূমিতে অবিচল। কিন্তু সময়ের পরিবর্তন এত প্রকট যে,অনেকেই অাচার-অাচরণ সম্পর্কীয় ভুলেই যাচ্ছে। চরিত্রের লেবাস খসে পড়ছে তাদের জীবন থেকে। নৈতিক অবক্ষয় ঘটছে।

এর প্রধান কারণ হচ্ছে অামরা ইসলামি শিক্ষা থেকে দূরে থাকা। ইসলামে দ্বীনি জ্ঞান অর্জন ফরজ করা হয়ছে। প্রত্যেক মুসলমানকে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু অালাইহি ওয়া সাল্লাম এর অাদর্শকে বাস্তবায়ন করতে হবে।

একদা জনৈক ব্যক্তি রসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু অালাইহি ওয়া সাল্লাম এর দরবারে উপস্থিত হয়ে তাকে জিজ্ঞেসা করলেন,”ইয়া রসুলুল্লাহ! ধর্ম কী? জবাবে রাসুল সাল্লাল্লাহু অালাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, সৎস্বভাবই ধর্ম।” প্রত্যেক মানুষের শ্রেষ্ঠত্ব হচ্ছে উত্তম চরিত্র থাকা। নিজে সৎচরিত্রবান হতে হবে এবং অন্যকেও সৎচরিত্রবান হওয়ার জন্য উৎসাহিত করতে হবে।

একটি পরিবার সুন্দর হবে যদি পরিবারের সদস্যরা উত্তম চরিত্রবান হয়। সমাজ সুন্দর হবে যদি সমাজের মানুষ উত্তম চরিত্রবান হয়। একটি দেশ উন্নত রাষ্ট্র হবে যদি ঐ রাষ্ট্রের মানুষ সৎ হয়। লেখকঃশিক্ষার্থী,জামেয়া অাহমদিয়া সুন্নিয়া অালিয়া কামিল মাদ্রাসা, চট্টগ্রাম।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া হতে জিএম ছাইফুল ইসলামঃ দেশে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আতের আকিদা প্রচার ও বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ৭ জুলাই ২০১৮ইং তারিখে শনিবার বিকাল ৪ ঘটিকায় সরাইল গুনারা আজহারিয়া মশগুলিয়া দরবার শরীফে ওলামায়ে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত বাংলাদেশ এর সরাইল উপজেলা কমিটি গঠন করার লক্ষ্যে সরাইল উপজেলা আহবায়ক মাওলানা সাদ্দাম হোসাইন আল ক্বাদরীর সভাপতিত্বে কাউন্সিল অধিবেশন-১৮ অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত কাউন্সিল অধিবেশনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিল ওলামায়ে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত বাংলাদেশ এর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সভাপতি পীরে তরিকত অধ্যাপক মুফতি নাজিম উদ্দিন আল ক্বাদরী। কাউন্সিলে আগত উলামাদের লক্ষ্যে এ সময় প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, ইসলাম বিদ্বেষী কিছু ব্যক্তির মাধ্যমে ইসলামে অপব্যাখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। আর ইসলামের এ অপব্যাখ্যার ফলে আজ সমাজের প্রতিটি স্তর থেকে ইসলামের অমিয় শান্তির বাণী বিনষ্ট হচ্ছে। যার ফলে সমাজে অপসংস্কৃতি বৃদ্ধি পাচ্ছে ও ইসলামের শান্তির পথ ভুলে মনগড়া মতে মুসলিমরা চলাফেরা করছে।

তিনি আরও বলেন বাংলাদেশসহ বিশ্বের মুসলমানের কাছে ইসলামের শান্তির দাওয়াত পৌছে দেওয়ার লক্ষ্যে ওলামায়ে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত বাংলাদেশ নামের সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। সংগঠনটির লক্ষ্য ও উদ্দ্যেশ্য হল সুন্নী ওলামায়ে কেরামকে ঐক্যবদ্ধ করে কিতাবুল্লাহ, সুন্নতে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহে ওয়া সাল্লাম, ইজমা ও কিয়াসের আলোকে সুন্নী মতাদর্শের জ্ঞান দ্বারা তাদেরকে আলেমেদ্বীন হিসেবে গড়ে তোলা। বাতিল পন্থীদের ভ্রান্ত মতবাদ ও অপতৎপরতাকে শান্তিপূর্ণ ভাবে প্রতিহত করা। দলিল আদিল্লার আলোকে জনগনের নিকট সুন্নী মতাদর্শ তুলে ধরে তাদেরকে আল্লাহ তায়ালা ও তার প্রিয় হাবিব (দরুদ)’র সন্তুষ্টি অর্জন করা পথ ও মতকে চিনিয়ে দেওয়া।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিল ওলামায়ে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত বাংলাদেশ এর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সাধারণ সম্পাদক মুফতি সায়েদুর রহমান রেজভী, সাংগঠনিক সম্পাদক ছাত্রনেতা মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, অর্থ সম্পাদক মাওলানা জসিম উদ্দিন, পীরজাদা মাওলানা আতিকুর রহমান, পীরজাদা মাওলানা নূরুল মোস্তফা ও কাজী মাওলানা মনিরুজ্জামান।

ওলামায়ে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামা’আত বাংলাদেশ এর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সদস্য মাও. কাউসার আহমেদ জালালির সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন হাফেজ মাও. হেলাল উদ্দিন, হাফেজ মাও. আমিনুল ইসলাম, হাফেজ মাও. হামিদুর রহমান, মাও. আবু নাঈম রেজবী, মাও. নোয়াব হোসাইন, মাও. মোজাহিদুল ইসলাম, মাও. আবুল হোসাইন, হাফেজ মাও. আতিকুর রহমান, মাও. মুখলেছুর রহমান, মাও. সাইফুল ইসলাম, মাও. ইব্রহীম আহমেদ বাবুল, হাফেজ মাও. আতিকুর রহমান, মাও. আনোয়ার হোসাইন, মাও. আমিনুল হক। উক্ত কাউন্সিল অধিবেশন শেষে সর্বসম্মতিক্রমে পীরজাদা মাওলানা আতিকুর রহমানকে সভাপতি, মাও. সাদ্দাম হেসাইনকে সাধারণ সম্পাদক ও মাও. কাউছার আহমেদকে সাংগঠনিক সম্পাদক নিযোক্ত করে ৩৯ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি ঘোষনা করা হয়।

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের মনুরমুখ এলাকার নাদামপুরে প্রাইভেটকার ও অটোরিক্সার মুখোমুখি সংর্ঘষে ঘটনা স্থলে একই পরিবারের ৪ জনসহ ৬ জন নিহত হয়েছেন এবং ২ জন শিশু ও একজন মহিলাসহ ৪ জনকে আশংকাজনক অবস্হায় প্রথমে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পরে ২ জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজনে প্রেরণ করা হয়েছে বলে সদর হাসপাতাল সুত্রে জানা গেছে।

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে সদর উপজেলার গাঁও শেরপুর গ্রামের আবদুল গনির ছেলে একই পরিবারের চার জনের দুই ভাই জাহাঙ্গীর আহমদ (৩৮),নাহিদ আহমদ (২৬),শাজনা বেগম (২৮) ও তার ছেলে সাইফ আহমদ (১২), তাজপুর গ্রামের লায়েছ মিয়া (৩০) ও করিমপুর গ্রামের প্রাইভেটকার চালক শাহাদাৎ তালুকদার (২৪) ইন্তেকাল করেন।আহতরা হলেন- ইয়াছমিন বেগম, নুরুন নাহার, নুরজাহান ও মোস্তাক আহমদ।

মৌলভীবাজার সদর মডেল থানার এসআই গিয়াস উদ্দিন জানান, দুর্ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে চারজনের মরদেহ উদ্ধার করে  এবং গুরুতর আহত অবস্থায় ছয়জনকে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে আসার পর আরও দুইজন মারা যান।

এদিকে আহত চারজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদের সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে তিনি জানান।

কমলগঞ্জ প্রতিনিধিঃ চলমান বিশ্বকাপ ফুটবলের কোয়ার্টার ফাইনালের ব্রাজিল বনাম বেলজিয়ামের খেলার সময় শুক্রবার (৬ জুলাই) দিবাগত রাত ১টায় কমলগঞ্জের আদমপুর ইউনিয়নের আধকানী নতুন বাজার এলাকায় একটি চায়ের দোকানে টিভি দেখতে খালি চেয়ারে বসা নিয়ে বিরোধে হামলায়  মনসুর আহমদ(২০) নামের এক যুবক গুরুতর আহত হয়ে শুক্রবার(৬জুলাই) রাত থেকে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আছেন।

আহত মনসুর আহমদের বাড়ি আদমপুর ইউনয়িনের আধকানি গ্রামে। ঘটনার খবর শুনে গতকাল শনিবার(৭ জুলাই) বিকাল সাড়ে ৩টায় কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গেলে আহত হয়ে চিকিৎসাধীন মনসুর আহমদ বলেন, শুক্রবার রাতের দ্বিতীয় খেলা ব্রাজিল বনাম বেলজিয়ামের খেলার অর্ধেকের সময় দর্শক  নাঈম মিয়া(২০) চেয়ার ছেড়ে বাইরে চলে গেলে কুদ্দুছ মিয়া(৭০) নামের এক বৃদ্ধ দর্শক চেয়ার খালি পেয়ে বসে যান।

নাঈম মিয়া ফিরে এসে এ বৃদ্ধকে চেয়ার ছেড়ে দিতে বলে। এতে তিনি (মনসুর) বৃদ্ধকে চেয়ার থেকে না তুলে নিজে দাঁড়িয়ে খেলা দেখতে বললে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে নাঈম মিয়া ক্ষিপ্ত হয়ে সঙ্গীয় সরফ উদ্দীন(২৪), সিরাজ মিয়া(২৫) ও আছিম মিয়া(২৩) মিলে তার উপর(মনসুরের) লাঠিসোটা নিয়ে হামলা চালায়।হামলায় মনসুর আহমদের মাথা ফেটে যাওয়াসহ দেহের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়। উপস্থিত গ্রামবাসীরা মনসুর আহমদকে উদ্দার করে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। শনিবার বিকালে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে কর্তব্যরত মেডিক্যাল সহকারী জাহিদ হাসান জানান, লাঠির আঘাতে মনসুর আহমদের মাথা ফেটে গেছে। তার মাথায় ৬টি সেলাই লেগেছে।

তাছাড়া তার দেহের বিভিন্ন স্থানে জখম আছে। অভিযুক্ত নাঈম মিয়া, সরফ উদ্দীন, সিরাজ মিয়া ও আসিম মিয়ার সাথে কথা বলার চেষ্টা করে তাদের পাওয়া যায়নি। তবে সরফ উদ্দীনের বাবা গরজন মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তিনি আহত মনসুরের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করেছেন। কমলগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক চম্পক ধাম বলেন, ফুটবল খেলা দেখার সময় হামলায় এক যুবক আহত হওয়ার কথা শুনেছেন। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে আহতকে দেখবেন। এখন আহত ব্যক্তি অভিযোগ দিলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

চুনারুঘাট প্রতিনিধিঃ চুনারুঘাট উপজেলার মিরাশী ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর গ্রামের মৃত আজম আলীর পুত্র ক্বারী আলী আকবর ইমাম এর বাড়ির চলাচলের রাস্তা বেড়া দিয়ে জোর পূর্বক বন্ধ করে দিয়েছে প্রতিপক্ষের লোকজন।

এ ঘটনায় ক্বারী আলী আকবর (৬৫)শনিবার চুনারুঘাট থানায় বাদী হয়ে ৫ জনকে আসামী করে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগের বিবরণে জানা যায় যে, উপজেলার মিরাশী ইউনিয়নের কৃষ্ণপুর গ্রামের ক্বারী আলী আকবর ০৩ শতক জমি ক্রয় করে টিনসেড দিয়ে বসতবাড়ি তৈরি করে দীর্ঘদিন যাবত ০৩ হাত প্রস্থ রাস্তা দিয়ে চলাচল সহ বসবাস করে আসছেন। নিশ্চিন্তপুর গ্রামের মৃত এবারত উল্লার পুত্র ছিদ্দিক মিয়া (৪০) সে কৃষ্ণপুর গ্রামের লবজ উল্লার মেয়ের জামাতা হিসেবে উক্ত ০৭ শতক জমি তার নিজের নামে ক্রয় করে।

উক্ত জমি হতে ক্বারী আলী আকবরের নিকট ০৩ শতক জমি বিক্রি করে। আলী আকবর উক্ত জমিতে বসতবাড়ি তৈরি করে বসবাস করে আসছেন। একপর্যায়ে ছিদ্দিক আলীর সাথে ক্বারী আলী আকবরের তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে বিরোধ দেখা দিলে ছিদ্দিক আলী নিশ্চিন্তপুর থেকে এসে তার দলবল নিয়ে আলী আকবরের বাড়ির চলাচলের রাস্তাটি জোর পূর্বক বেড়া দিয়ে বন্ধ করে দিয়েছে। যার কারণে আলী আকবরের পরিবারের লোকজনরা বাড়ি থেকে বের হতে পারছেন না।

এতে এলাকাবাসীরাও উক্ত রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। উক্ত ঘটনায় ক্বারী আলী আকবর রাস্তাটি ছিদ্দিক আলী গংদের হাত থেকে দখলমুক্ত করার জন্য বাদী হয়ে চুনারুঘাট থানায় মোঃ ছিদ্দিক আলী (৪০), আরজু মিয়া (৫০), মোঃ কলমদর মিয়া (৪৫) সহ ০৫ জনকে আসামী করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এ ঘটনায় চুনারুঘাট থানার ওসি কে.এম আজমিরুজ্জামান অভিযোগটি আমলে নিয়ে চুনারুঘাট থানার এস.আই নাজমুল হক শনিবার দুপুরের দিকে সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এর সত্যতা পেয়ে অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিবেন বলে আশ্বাস দেন।

ঘটনার পর থেকে রাস্তা দখলকারীরা আত্মগোপন করে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। এ নিয়ে ইমাম ক্বারী আলী আকবর নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: এ মধুমাসে নওগাঁ জেলার আত্রাই উপজেলার গাছে গাছে ও হাট-বাজারে শোভা পাচ্ছে রসালো ফল কাঁঠাল। কাঁঠাল পাকতে শুরু করায় এখন উপজেলার হাট-বাজারে উঠতে শুরু  করেছে সুমিষ্ট রসালো ঘ্রাণ সমৃদ্ধ ফল কাঁঠাল। পাকা কাঁঠালের সুগন্ধে মুখরিত হয়ে উঠেছে উপজেলার বিভিন্ন বাড়ি ও বিভিন্ন কাঁঠাল বাগান। মৌমাছিরাও কাঁঠালের ঘ্রাণ নিতে বাগানে ভোঁ ভোঁ শব্দ করে এ ডাল থেকে ও ডালে উড়ে বেড়াচ্ছে। এ যেন মনমুগ্ধোকর এক দৃশ্য।

উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামে গ্রামে দেখা গেছে কাঁঠালের বাম্পার ফলন। এসব এলাকার বাড়িতে, রাস্তার ধারে, শহরে ও জঙ্গলের ভেতরে থাকা গাছে ধরেছে প্রচুর পরিমাণ কাঁঠাল। গাছের গোঁড়া থেকে আগা পর্যন্ত শোভা পাচ্ছে সর্বোচ্চ পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ এই ফল।

আত্রাই উপজেলার মানুষের অতি প্রিয় ফল ও তরকারি হিসেবে কাঁঠাল যুগ যুগ ধরে কদর পেয়ে আসছে। কাঁঠালের বিচি এখানকার মানুষের একটি ঐতিহ্যপূর্ণ তরকারি। পাটশাক ও কাঁঠালের বিচির সমন্বয়ে রান্না করা শোলকা দিয়ে এখানকার মানুষ তৃপ্তির সঙ্গে ভাত খেতে পারেন। গবাদিপশুর জন্যও কাঁঠালের ছাল উন্নতমানের গো-খাদ্য হিসেবে ব্যবহৃত হয়।

উপজেলার মির্জাপুর-ভবানীপুর বাজারের ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম বলেন, কাঁঠাল আমার একটি প্রিয় ফল। অত্যধিক পুষ্টিগুণ সমৃদ্ধ এ ফল আমি প্রতি মৌসুমে বেশি করে খাই। কাঁঠালের কোনো অংশই পরিত্যক্ত থাকে না। এর বিচি তরকারি হিসেবে ও ছাল গো-খাদ্য হিসেবে ব্যবহার হওয়ায় কাঁঠালের কদর বেড়েছে।

কাঁঠালের কদর ও বহুগুণের এমন কথা জানালেন শাহাগোলা গ্রামের মো: আজাদ সরদার, বহুগুণ সমৃদ্ধ এ কাঁঠাল এখানকার হাট-বাজারে এখনও তেমন উঠতে শুরু করেছে। জ্যৈষ্ঠের শেষ ও আষাঢ় মাসের শুরু থেকে এখানকার হাট-বাজারে কাঁঠাল কেনাবেচা পুরোদমে শুরু হবে এমনটি সকলের ধারণা। উৎপাদনে খরচ নেই ও বাজারে চাহিদা থাকায় এ জনপদে কাঁঠালের গাছ রোপণ করে অনেকে কাঁঠাল বিক্রিতে বাড়তি আয় করেন। এখানকার হাট-বাজারে একটি কাঁঠাল সর্বনিম্ন ১০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ১০০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে।

উপজেলার মধুগুড়নই গ্রামের মো: জিল্লুর রহমান জানান, এ বছর অতিমাত্রায় ঝড় বৃষ্টিপাতের কারণে বহু বাগানে কাঁঠালের মুচি ঝরে যাওয়ার পরও বাম্পার ফলন হবে বলে আমি আশা করছি।

এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কে এম কাউছার হোসেন জানান, আত্রাই উপজেলায় তেমন একটা কাঁঠালের বাগান নেই তবে দিন দিন বাড়ছে। তিনি আরো বলেন, গত বছরের তুলনায় এবারও বাম্পার ফলন হয়েছে। ফলন ভালো হওয়ায় দিন দিন উপজেলার বিভিন্ন এলাকার জনগণ কাঁঠাল গাছ রোপন করছে।

হাবিবুর রহমান খানঃ  জননেত্রী শেখ হাসিনার লক্ষ ও উদ্দোশ্য  বাংলাদেশের সবকটি উপজেলার স্থানীয় ভিক্ষুকদের পুর্নবাসন প্রক্রিয়া এর ধারাবাহিতায় বাংলাদেশের প্রথম জুড়ী উপজেলা ভিক্ষুকমুক্ত ঘোষনা করা হয়েছে।

আজ (৭জুলাই) শনিবার দুপুরে মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলা অডিটোরিয়ামে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অসিম চন্দ্র বনিক এর সভাপতিত্বে, প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্তিত ছিলেন, জাতীয় সংসদের মাননীয় হুইপ আলহাজ্ব শাহাব উদ্দিন এমপি।বিশেষ অতিথি হিসাবে ছিলেন মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক জনাব তোফায়েল আহমদ।

আর উপস্তিত ছিলেন, জুড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্বা জনাব বদরুল হোসেন, জুড়ী উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান কিশোর রায় চৌধুরী মনি,উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মানুনুর রশিদ সাজু।

এতে আর স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ও গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।ভিক্ষুকদের পুর্ণবাসন সত্যিকার অর্থেই গণপ্রজাতন্ত্রী সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার স্বীয় উদ্দোগ সমুহের মধ্য অনন্য একটি উদ্যোগ।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc