Saturday 22nd of September 2018 05:59:25 PM

শতভাগ পাশসহ ৫৯ টি জিপিএ-৫ পেয়েছে শমশেরনগর বিএএফ শাহীন কলেজ

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬মে,কমলগঞ্জ প্রতিনিধিঃ  সিলেট শিক্ষাবোর্ডের অধীনে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলায় চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে ১২৩টি। এ উপজেলায় ৩৮২০ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ২৫৫১ জন পরীক্ষার্থী পাস করেছে।

উপজেলায় গড় পাসের হার ৬৬.৭৮ ভাগ। এর মধ্যে সাফল্যের ধারাবাহিকতায় শমশেরনগর বিএএফ শাহীন কলেজে শতভাগ পাশসহ ৫৯টি জিপিএ-৫ লাভ করেছে। এছাড়া মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে কমলগঞ্জ উপজেলায় পাসের হার ৬৩.৫৭ ভাগ।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, কমলগঞ্জ উপজেলায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে শমশেরনগর বিএএফ শাহীন কলেজে ৫৯টি, কমলগঞ্জ বহুমুখী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৭ টি, কালীপ্রসাদ উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৫ টি, তেতইগাঁও রসিদ উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ে ১০ টি, কমলগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ৫ টি, পতনঊষার উচ্চ বিদ্যালয়ে ৫ টি, মাধবপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে ৩ টি, চিৎলিয়া জনকল্যাণ উচ্চ বিদ্যালয়ে ৩ টি, পদ্মা মেমোরিয়াল পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ে ২ টি, এ এ টি এম উচ্চ বিদ্যালয়ে ১ টি, হাজী মো: উস্তওয়ার বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে ১ টি, এম, এ, ওহাব উচ্চ বিদ্যালয়ে ১টি ও  কালেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ে ১ টি জিপিএ-৫ পেয়েছে।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬মে,রেজওয়ান করিম সাব্বির,জৈন্তাপুর প্রতিনিধিঃ জৈন্তাপুরে এস.এস.সি সমমান পরীক্ষায় ২১টি জিপিএ-৫ সহ এস.এস.সিতে পাশের হার ৭৭.৭১%, দাখিলে পাশের হার ৭৯.২৩% ও এসএসসি ভোকেশনালে পাশের হার ৬৫.৩১%। উপজেলায় ২১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের গড় পাশের হার ৭৬.৪৬%।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানাযায়- সারাদেশের ন্যায় ২০১৮সনের এস.এস.সি পরীক্ষায় জৈন্তাপুর উপজেলা হতে ১৪টি বিদ্যালয় হতে ১হাজার ৩শত ৪৬জন শিক্ষার্থী অংশ গ্রহন করে ১৩টি জিপিএ-৫ সহ পাশ করেছে ১হাজার ৪৬জন শিক্ষার্থী।

তার মধ্যে জৈন্তাপুর সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় ৫টি জিপিএ-৫ সহ পাশ করেছে ৭৭জন, পাশের হার ৮৪.৬১%।

জৈন্তিয়াপুর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ১টি জিপিএ-৫ সহ পাশ করেছে ৬৮জন, পাশের হার ৮৫%। রাংপানি ক্যাপ্টেন রশিদ উচ্চ বিদ্যালয় ৩টি জিপিএ-৫ সহ পাশ করেছে ১৭৮জন, পাশের হার ৭৪.৭৮%।

বাউরভাগ উচ্চ বিদ্যালয় ২টি জিপিএ-৫ সহ পাশ করেছে ৬০জন, পাশের হার ৮৩.৩৪%। বিগ্রেডিয়ার মজুমদার বিদ্যানিকেতন উচ্চ বিদ্যালয় হতে পাশ করেছে ৩০জন, পাশের হার ৬১.২২%।

সারীঘাট উচ্চ বিদ্যালয় হতে পাশ করেছে ৭১জন, পাশের হার ৮০.৬৮%। সেন্ট্রাল জৈন্তা উচ্চ বিদ্যালয় ২টি জিপিএ-৫ সহ পাশ করেছে ১১১জন, পাশের হার ৮৪.০৯%।

মাওলানা আব্দুল লতিফ জুলেখা গালর্স উচ্চ বিদ্যালয় হতে পাশ করেছে ২৫জন, পাশের হার ৫৯.৫২%। খাজার মোকাম উচ্চ বিদ্যালয় হতে পাশ করেছে ৪৮জন, পাশের হার ৭৭.৪২%।

হরিপুর বহুমুখি উচ্চ বিদ্যালয় হতে পাশ করেছে ১৪১জন, পাশের হার ৮০.৫৭%। চিকনাগুল আর্দশ উচ্চ বিদ্যালয় হতে পাশ করেছে ১০২জন, পাশের হার ৮১.৬০%।

রমজার রূপজান বাগোর খাল একাডেমী হতে পাশ করেছে ৩৮জন, পাশের হার ৬৪.৪২%। চারিকাটা উচ্চ বিদ্যালয় হতে পাশ করেছে ৫৪জন, পাশের হার ১০০%।

এম.আহমদ পাবলিক নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় হতে পাশ করেছে ৪৩জন, পাশের হার ৫৪.৪৩%।

উপজেলা মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধিনে ৪টি দাখিল মাদ্রাসা হতে ১শত ৮৩জন শিক্ষার্থী অংশ গ্রহন করে পাশ করেছে ১শত ৪৫জন শিক্ষার্থী। দাখিলে পাশের হার ৭৯.২৩%।

খরিল নেজামুল উলুম আলিম মাদ্রাসা হতে পাশ করেছে ৩৮জন, পাশের হার ৭৯.১৫%। জৈন্তা ডিএস মাদ্রাসা হতে পাশ করেছে ৬৩জন, পাশের হার ৯২.৬৫%।

সেনগ্রাম মোহাম্মদীয়া সালাফিয়া দাখিল মাদ্রাসা হতে পাশ করেছে ২০জন, পাশের হার ৫৪.০৫% এবং চারিকাটা দারুল ইসলাম মাদ্রাসা হতে পাশ করেছে ২৪জন, পাশের হার ৮০%।

অপরদিকে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধিনে উপজেলার ৩টি বিদ্যালয় হতে এস.এস.সি(ভোকেশনাল) পরীক্ষায় ১শত ৯৬জন শিক্ষার্থী অংশ গ্রহন করে পাশ করেছে ১শত ২৮জন শিক্ষার্থী।

কারিগরিতে পাশের হার ৬৫.৩১%। জৈন্তাপুর তৈয়ব আলী কারিগরি কলেজ হতে ৭টি জিপিএ-৫ সহ পাশ করেছে ৪২জন, পাশের হার ৬৭.৭৪%।

বিগ্রেডিয়ার মজুমদার বিদ্যানিকেন উচ্চ বিদ্যালয় হতে পাশ করেছে ৫৮জন, পাশের হার ৭৭.০০%।

আমিনা হেলালী টেকনিকেল কলেজ হতে ১টি জিপিএ-৫ সহ পাশ করেছে ২৮জন, পাশের হার ৪৬%।

এদিকে এস.এস.সি ও সমমান পরীক্ষায় উপজেলার ২১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শতভাগ পাশের গৌরভ অর্জন করেছে চারিকাটা উচ্চ বিদ্যালয়।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬মে,ডেস্ক নিউজঃ    নির্বাচনী হাওয়া যখন তুঙ্গে, ঠিক তখনই গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ভোট তিন মাসের জন্য স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে সাভারের শিমুলিয়া এলাকার ছয়টি মৌজাকে নির্বাচনী এলাকার অন্তর্ভুক্ত করা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়েছে।

বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি জাফর আহমেদ সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের একটি ডিভিশন বেঞ্চ রোববার এ আদেশ দেন।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. মোখলেছুর রহমান সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ছয় মাসের জন্য স্থগিত করে রুল জারি করেছে আদালত।

আদালতে নির্বাচন স্থগিতের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী বিএম ইলিয়াস কচি। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোখলেসুর রহমান।

সাভারের শিমুলিয়া ইউনিয়নের ছয়টি মৌজাকে অন্তর্ভুক্ত করার বৈধতা নিয়ে করা রিটের ওপর প্রাথমিক শুনানি নিয়ে আজ এ আদেশ দেয় আদালত। আদালতে রিট আবেদনটি দায়ের করেন সাভার উপজেলার আশুলিয়া থানার শিমুলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এবিএম আজহারুল ইসলাম সুরুজ।

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র, সাধারণ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে নির্বাচন হবে ১৫ মে। ৫৭টি সাধারণ ও ১৯টি সংরক্ষিত ওয়ার্ড নিয়ে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন গঠিত। এখানে ভোটার সংখ্যা ১১ লাখ ৬৪ হাজার ৪২৫ জন। গত ৪ মার্চ সিটি কর্পোরেশনের সীমানা নিয়ে গেজেট জারি হয়। যেখানে শিমুলিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ বড়বাড়ী, ডোমনা, শিবরামপুর, পশ্চিম পানিশাইল, পানিশাইল ও ডোমনাগকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।

রিটের পক্ষে আইনজীবী জানান, ২০১৩ সালে এ ছয়টি মৌজাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। তখন বিষয়টি নিয়ে এবিএম আজহারুল ইসলাম সুরুজ আবেদন করেন। কিন্তু সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ গ্রাহ্য না করায় হাইকোর্টে রিট করার পর আদালত আবেদনটি পুনর্বিবেচনা করতে নির্দেশ দেয়।

এর মধ্যে ২০১৬ সালে শিমুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে এ ছয়টি মৌজা শিমুলিয়ার মধ্যেই ছিল। নির্বাচনে আজহারুল ইসলাম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

এখন আবার এ ছয় মৌজাকে সিটিতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। যেহেতু তিনি ছয়টি মৌজার ভোটেও নির্বাচিত হয়েছিলেন। তাই এ ছয়টি মৌজাকে সিটিতে অন্তর্ভুক্ত করার বৈধতা রিটে চ্যালেঞ্জ করা হয়েছে।

      শহরের থেকে গ্রামের স্কুলের ফলাফল ভালো

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬মে,নড়াইল প্রতিনিধিঃ নড়াইল সরকারি বালক বিদ্যালয় এসএসসি পরীক্ষায় জেলার মধ্যে এবার সেরা ফলাফল অর্জন করেছে। এ স্কুল থেকে এবার সর্বোচ্চ ৬৫জন জিপিএ-৫ পেয়েছে। এর পরেই রয়েছে লোহাগড়া উপজেলার লোহাগড়া পাইলট স্কুল। এ স্কুল থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬২ জন।

এছাড়া নড়াইল সরকারি বালিকা বিদ্যালয় থেকে ৪৪জন, সদর উপজেলার গোবরা পার্ব্বতী বিদ্যাপিঠ থেকে ৩৫জন, কালিয়া উপজেলার চাঁচুড়ী-পুরুলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ১৪জন, সদর উপজেলার তুলারামপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ১১জন, সদর উপজেলার গোয়াখোলা মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৬জন, সদর উপজেলার মাইজপাড়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৫জন, কালিয়া উপজেলার কালিয়া পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৫জন এবং সদরের মুলিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ৩জন জিপিএ-৫ পেয়েছে।
উল্লেখ্য, এবার শহরের স্কুল থেকে উপজেলা এবং গ্রামের স্কুলগুলো থেকে বেশী জিপিএ-৫ পেয়েছে।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬মে,নড়াইল প্রতিনিধিঃনড়াইলে কাল বৈশাখী ঝড় ও বৃষ্টিতে গাছ পালা, ঘরবাড়ি, মৌসুমী ফল এবং ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ঝড়ে কয়েক হাজার গাছের ডাল পালা ভেঙ্গে গেছে ও উপড়ে গেছে গাছ, কাঁচা ও আধা পাকা ঘর পড়ে গেছে, উঠতি বোরো ফসল এবং আম-লিচুর ব্যাপক ক্ষতি সাধন হয়েছে।

জানা গেছে, শনিবার (৫ মে) সন্ধ্যায় ও রাত ২টার দিকে জেলার ওপর দিয়ে প্রায় আধা ঘন্টাব্যাপি কাল বৈশাখী ঝড় এবং বৃষ্টিপাত হয়।

এ ঝড়ে জেলার প্রায় প্রত্যেক গ্রামে হাজার হাজার গাছের গাল ভেঙ্গে যায় এবং গাছ উপড়ে পড়ে। কয়েক’শ কাঁচা ও আধা পাকা ঘরের টিন ও বেড়া পড়ে গেছে। এছাড়া উঠতি বোরো ধানের গাছ মাটির সাথে মিশে গেছে এবং জমিতে কাটা ধানের ওপর বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়া ঝড়ে আম ও লিছু ঝরে গেছে।

নড়াইল কৃষি সম্প্রসরণ অদিদপ্তরের প্রশিক্ষণ কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম বলেছেন, প্রায় ৭০ ভাগ ফসল কৃষক ঘরে তুলতে সক্ষম হয়েছে। যদি আর কোনো দূর্যোগ না হয় এবং পানি টেনে যায় তাহলে বোরো ফসলের কোনো ক্ষতি হবে না ।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬মে,শিমুল তরফদার,নিজস্ব প্রতিনিধিঃ দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে আগামী ১৪ মে শুরু হতে যাচ্ছে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে অবস্থিত দেশের দ্বিতীয় চা নিলাম কেন্দ্রের কার্যক্রম। সংবাদ সম্মেলন করে এই তথ্য নিশ্চিত করেছে টি প্লান্টার্স এন্ড ট্রেডার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ।
রোববার (৬মে) দুপুর ১২টায় মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে টি প্লান্টার্স এন্ড ট্রেডার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ এর নেতৃবৃন্দ নিলাম শুরুর বিষয়টি সাংবাদিকদের জানান।
সংবাদ সম্মেলনে এসোসিয়েশনের সদস্য সচিব জহর তরফদার জানান, আগামী ১৪ মে আনুষ্ঠানিক ভাবে শ্রীমঙ্গলে দেশের দ্বিতীয় চা নিলাম কেন্দ্রের প্রথম নিলাম অনুষ্ঠিত হবে। ইতিমধ্যে আমাদের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। দেশের প্রায় সকল ‘টি বায়ার’রা এতে অংশগ্রণ করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।
তিনি জানান, ১৪ মে প্রথম নিলামের পর আগামী ২৬ জুন ও ১৭ জুলাই আরো দুটি নিলাম অনুষ্ঠিত হবে। টি প্লান্টার্স এন্ড ট্রেডার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশর এর পরিচালনায় এ কেন্দ্রে পর পর তিনটি আন্তর্জাতিক নিলাম অনুষ্ঠিত হবে। এ সময় চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত চায়ের আন্তর্জাতিক নিলাম বন্ধ রাখা হবে। এই তিন নিলামের পর পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে দেশের দ্বিতীয় নিলাম কেন্দ্রের পরবর্তী কার্যক্রম সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নেবে চা বোর্ড।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের যুগ্ন আহবায়ক, সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী, সদস্য সচিব জহর তরফদার, চা নিলাম কেন্দ্র বাস্তবায়ন পরিষদের সদস্য শেখ লুৎফুর রহমান, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নেছার আহমদ, সাধারণ সম্পাদক মিছবাউর রহমান, দি মৌলভীবাজার চেম্বার অব কমার্স ইন্ডাস্ট্রির সাবেক সভাপতি ডা. এম এ আহাদ প্রমুখ।
এসোসিয়েশনের যুগ্ন আহবায়ক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, এই নিলাম কেন্দ্র হওয়াতে আমাদের অনেক সময় ও অর্থ সাশ্রয় হবে। আগে শ্রীমঙ্গল থেকে চা নিয়ে চট্টগ্রামে নিলাম করতে পায় ১৫ থেকে ২০ দিন সময় চলে যেত। কিন্তু এ নিলাম কেন্দ্র চালু হওয়াতে ফ্যাক্টরি থেকে চা নিলামে যেতে মাত্র ১ সপ্তাহ সময় লাগবে। এছাড়া ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের তুলনায় শ্রীমঙ্গলের দূরত্ব কম থাকায় ও যোগাযোগ ব্যবস্থা ভাল হওয়াতে বায়ার’রা দিনে এসে নিলামে অংশগ্রহণ করে রাতেই ঢাকা ফিরতে পারবেন এবং কি ফাইভস্টার থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরণের উন্নত হোটেল-রিসোর্ট রয়েছে শ্রীমঙ্গলে যার ফলে বিদেশীরাও এসে এখানে নিলামে অংশগ্রহণ করতে পারবে।

এই নিলাম কেন্দ্র দেশের চা শিল্পের ভাগ্য বদল করে দিতে পারবে বলে আমরা আশা করছি।

জানা যায়, গত বছরের ৮ ডিসেম্বর শ্রীমঙ্গলে দেশের দ্বিতীয় চা নিলাম কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিলেটের একাধিক জনসভায় এই চা নিলাম কেন্দ্র চালুর ঘোষণা দেন। তার প্রেক্ষিতে নিলাম কেন্দ্রের উদ্বোধন হলেও দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও কার্যক্রম চালু করতে পারেনি। অবশেষে এই নিলাম কেন্দ্র চালুর উদ্যোগ নিয়েছে চা বোর্ড।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬মে,সাইফুর তালুকদারঃ  বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য ও সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রথম মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেছেন, দেশ আজ সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে। এই অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখতে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার বিকল্প নেই। গাজিপুর নগরীকে আধুনিক ও পরিকল্পিত করে গড়ে তোলার লক্ষে জননেত্রী শেখ হাসিনা জাহাঙ্গির আলমের হাতে নৌকা তুলে দিয়েছেন। তাই গাজিপুরকে পরিকল্পতি ও সমৃদ্ধ নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে নৌকা মার্কায় ভোট দিন।

রবিবার দিনভর গাজিপুর সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন ওয়ার্ডে নৌকা মার্কার সমর্থনে গণসংযোগ ও পথ সভায় এসব কথা বলেন।

সিলেটের ইতিহাসের এই প্রথম মেয়র আরো বলেন, একটি নতুন নগর গড়ে তোলার জন্য প্রয়োজন মাস্টারপ্ল্যান। কিন্তু বর্তমান মেয়র তা করেন নি। জাহাঙ্গির আলম একটি সুন্দর ও দীর্ঘ মেয়াদী মাস্টারপ্ল্যান নিয়ে কাজ শুরু করেছেন। আপনারা নৌকা মার্কাকে বিজয়ী করলে এই প্ল্যান বাস্তবায়ন করা সম্ভব।

এসময় গাজিপুর জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ তার সাথে ছিলেন।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬মে,ডেস্ক নিউজঃ  এসএসসি ও সমমানের এবারের পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ হবে আজ রোববার। দুপুর ২টা থেকে শিক্ষা বোর্ড গুলোর ওয়েবসাইটে ফল পাওয়া যাবে। পাশাপাশি যেকোনো মুঠোফোন নম্বর থেকে এসএমএস (খুদেবার্তা) পাঠিয়ে পরীক্ষার্থীরা ফল জানতে পারবে।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ আজ সকাল ১০টায় গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে এসএসসির ফলাফলের সারসংক্ষেপ হস্তান্তর করবেন। এর পর দুপুর ১টায় সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে পরীক্ষার ফল ঘোষণা করবেন শিক্ষামন্ত্রী। তার পরই মুঠোফোনো এসএমএস-এর মাধ্যমে ফল জানা যাবে।

এসএমএস-এ যেভাবে পাওয়া পাবে ফলাফল যেকোনো মুঠোফোন অপারেটর থেকে SSC/DAKHIL লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে ২০১৮ লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠিয়ে ফল জানা যাবে। এ ছাড়া শিক্ষা বোর্ডগুলোর ওয়েবসাইট http://www.educationboardresults.gov.bd থেকেও পরীক্ষার্থীরা ফল জানতে পারবে।

ফল পুনঃনিরীক্ষা রাষ্ট্রায়ত্ত্ব মুঠোফোন অপারেটর টেলিটক থেকে আগামী ৭ থেকে ১৩ মে পর্যন্ত এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন করা যাবে। ফল পুনঃনিরীক্ষণের আবেদন করতে RSC লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে বিষয় কোড লিখে ১৬২২২ নম্বরে পাঠাতে হবে। ফিরতি এসএমএসে ফি বাবদ কত টাকা কেটে নেওয়া হবে—তা জানিয়ে একটি পিন নম্বর (পার্সোনাল আইডেন্টিফিকেশন নম্বর) দেওয়া হবে।

আবেদনে সম্মত থাকলে RSC লিখে স্পেস দিয়ে YES লিখে স্পেস দিয়ে পিন নম্বর লিখে স্পেস দিয়ে যোগাযোগের জন্য একটি মোবাইল নম্বর লিখে ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। প্রতিটি বিষয় ও প্রতি পত্রের জন্য ১২৫ টাকা হারে চার্জ কাটা হবে। যেসব বিষয়ের দুটি পত্র (প্রথম ও দ্বিতীয় পত্র) রয়েছে, সেসব বিষয়ের ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন করলে দুটি পত্রের জন্য মোট ২৫০ টাকা ফি কাটা হবে। একই এসএমএসে একাধিক বিষয়ের আবেদন করা যাবে, এ ক্ষেত্রে বিষয় কোড পর্যায়ক্রমে ‘কমা’ দিয়ে লিখতে হবে।

গত ১ থেকে ২৫ ফেব্রুয়ারি এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার তত্ত্বীয় এবং ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ৪ মার্চ ব্যবহারিক পরীক্ষা হয়। এবারের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল ২০ লাখ ৩১ হাজার ৮৮৯।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc