Tuesday 18th of September 2018 08:07:08 PM

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৪এপ্রিল,নড়াইল প্রতিনিধি:নড়াইলে ভূমি সেবা সপ্তাহ উপলক্ষে সেমিনারে অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (৪ এপ্রিল) সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক মো: এমদাদুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে সেমিনারে পাওয়ার পয়েন্টে ভূমি সেবা বিষয়ের উপর প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) কাজী মাহাবুবুর রশীদ (উপ-সচিব) ।
সেমিনারে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো: সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, ডিডিএলজি মো: সিদ্দিকুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো: কামরুল আরিফ, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ ইয়ারুল ইসলাম, সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু হেনা মোস্তফা কামাল, সদও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সালমা সেলিম ,সদর উপজেলার সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো: আজিম উদ্দিন রুবেল, অ্যাডঃ হেমায়েতউল্লাহ হিরু, চেম্বর অব কমার্সের সভাপতি মো: হাসানুজ্জামানসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।
সেমিনারে জেলা প্রশাসক মো: এমদাদুল হক চৌধুরী জানান, নড়াইলে মোট খাস জমির পরিমান রয়েছে ৯ হাজার ১০২ একর। এরমধ্যে কৃষি খাস ২ হাজার ৩১১ একর এবং অকৃষি খাস রয়েছে ৬ হাজার ৭৯১ একর। এ বছর ভূমি কর শতভাগ আদায় করা হয়েছে। শুধূ বন্ধবস্ত জমির লীজ মানি আদায় হয়েছে ২০ ভাগ।
সেমিনার শেষে জেলায় ভূমি সেবায় বিশেষ অবদান রাখার জন্য ভূমি সহকারি কর্মকর্তা, অফিস সহকারিদের পুরস্কৃত করা হয়।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৪এপ্রিল,হাবিবুর রহমান খান,জুড়ী প্রতিনিধি:  সীমান্তবর্তী উপজেলা জুড়ীতে ৩গরু চুর ও বহুল আলোচিত বিষয় হলো “লালবাবু কালু” হত্যাকারীকে আটক করার খবর পাওয়া গেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ৪/৫ মাস থেকে উপজেলার বিভিন্ন গ্রাম থেকে গরু চুরির হিড়িক পড়েছে।জুড়ীতে বিভিন্ন গ্রাম থেকে প্রায় শতাধিক গরু চুরি হয়েছে তা জানিয়েছে বিভিন্ন গ্রামের ভোক্তভোগী কৃষক-জনসাধারণ।

জানা যায়, জুড়ী উপজেলার পূর্ব জুড়ী ইউপি’র আমেরিকা প্রবাসী সালেক সানীর একটি গরু গত বৃহস্পতিবার রাতে তাদের বাড়ী থেকে চুরি হয়ে যায়।চুরি হওয়ার ১০ ঘন্টার মাথায় গরুর মালিকপক্ষে সালেক সানী ফেইসবুক আইডিতে “চুর ধরিয়ে দিলে ৫ লাখ টাকা পুরস্কার” ঘোষনার দিনের মাথায় প্রকৃত চুর অাটক করতে সক্ষম হন স্থানীয় এলাকাবাসী।
এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার (৩/৪) উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রঞ্জিতা শর্ম্মার বসতবাড়ী ছোটধামাই থেকে কামরুল ইসলাম নামে এক চুর গরু নিয়ে যাওয়ার সময়ে পথিমধ্যে এলাকাবাসী হাতেন আটক করে সন্দেহজনক মনে করে গণধোলাই দেয়।প্রথমে একজনকে আটক করে জনতা গনধোলাই দিলে তার স্বিকারোক্তি অনুযায়ী চুরের সাথে জড়িত আরো ২ জনকে আট করা হয়।

আটককৃতরা হলো উপজেলার পূর্ব ইউনিয়নের দূর্গাপুর গ্রামের রব মিয়ার ছেলে কামরুল ইসলাম (২ গোয়ালবাড়ী ইউনিয়নের কচুরগুল গ্রামের আব্দুল হান্নানের ছেল জসিম উদ্দিন (৩০) ও বড়লেখা উপজেলার তালিমপুর ইউনিয়নে চরণী বিশ্বাসের ছেলে লক্ষণ বিশ্বাস ওরফে কাওছার (৩০)।মঙ্গলবার রাত ১১ টার দিকে আটককৃতদের জুড়ী থানা পুলিশে হাতে তুলে দেন ভাইস চেয়ারম্য রঞ্জিতা শর্ম্মা। বর্তমানে চুর জুড়ী থানা পুলিশের হেফাজত আছেন।

জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জালাল উদ্দিন জানান, আটককৃতরা থানা পুলিশের হেফাজতে আছে। এ এব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।
এদিকে আটককৃত চুরদের তথ্য প্রদানকারী কে সেই ৫ লাখ টা পুরস্কার বিজয়ী সেটা জানতে কৌতুহল সৃষ্টি হয়েছে এলাকায়।
কৌতুহলী জনতা পুরস্কার ঘোষি আটক ৩ চুরকে একনজরে দেখতে রাত পর্যন্ত ভীড় জমান ছোটধামাই গ্রামে মহিলা ভাইস চেয়ারম্য রঞ্জিতা শর্মার বাড়ীতে।
ভাইস চেয়ারম্যান রঞ্জিতা শর্ম্মা জানান, ও খুব দুর্ধর্ষ চুর। সম্প্রতি আমার বাড়ীতে আমার পোষা “লালবাবু কালু ” কে বিষ পান করিয়ে হত্য করেছে।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৪এপ্রিল,ডেস্ক নিউজঃ     দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন, কারো সমালোচনায় বিচলিত নই, অনুসন্ধানে প্রকৃত সত্য বেরিয়ে আসবে। মঙ্গলবার বিকেলে দুদকের প্রধান কার্যালয়ের সামনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

দুদক চেয়ারম্যান, ‘কারো সমালোচনায় বিচলিত নই। অনুসন্ধানে প্রকৃত সত্য বেরিয়ে আসবে। দুদকের কাছে রাজনৈতিক পরিচয় বিবেচ্য বিষয়। আমাদের কাছে সব অভিযোগই সমান। নির্বাচনী বছর বলতে কিছু নেই। অন্য বছরের মতো স্বাভাবিকভাবে অভিযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

বিএনপির শীর্ষ ৮ নেতাসহ ১০ জনের বিভিন্ন ব‌্যাংক হিসাবে ১২৫ কোটি টাকার সন্দেহজনক লেনদেন ও অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দুদক।

দশ জন হলেন-বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস‌্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, নজরুল ইসলাম খান, সহসভাপতি আবদুল আউয়াল মিন্টু, এম মোর্শেদ খান, যুগ্মমহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, নির্বাহী সদস‌্য তাবিথ আউয়াল, এম মোর্শেদ খানের ছেলে ফয়সাল মোর্শেদ খান ও ঢাকা ব‌্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সৈয়দ মাহবুবুর রহমান। তাদের বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এসব কথা বলেন।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৪এপ্রিল,ডেস্ক নিউজঃ   গত ছয়দিন ধরে নিখোঁজ থাকা রংপুরের অ্যাডভোকেট রথীশ চন্দ্র ভৌমিকের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে র‌্যাব। রাত ১টায় রংপুর শহরের তাজহাট মোল্লাপাড়ার একটি নির্মাণাধীন ভবনে স্তুপ করে রাখা বালির নিচ থেকে রথীশ চন্দ্রের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

অ্যাডভোকেট রথীশ চন্দ্র ভৌমিকের স্ত্রীর দেওয়া তথ্য মতে একটি মৃত দেহের অবস্থান শনাক্ত করে র‌্যাব। স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য র‌্যাব কার্যালয়ে নেওয়া হয়েছে। মরদেহ শনাক্তের জন্য নিকটতম আত্মীয়দের খরব দেওয়া হয়েছে। প্রাথমিকভাবে র‌্যাবের ধারণা, এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে রথীশ চন্দ্র ভৌমিকের স্ত্রী জড়িত থাকতে পারে।

রংপুরের বিশেষ আদালতের পিপি, আওয়ামী লীগ নেতা ও বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা রথীশ চন্দ্র ভৌমিক বাবু সোনা ৬দিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন। তার নিখোঁজের ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিভাগীয় শহর রংপুরের সর্বত্র নানা আলোচনা চলছে। তার নিখোঁজ নিয়ে জনমনে নানা প্রশ্ন- কেউ বলছে বাবু সোনা আত্মগোপন করেছেন। কারো কারো মতে তার প্রতিপক্ষ ডেকে নিয়ে গেছে। কারো ধারণা তাকে জেএমবি তুলে নিয়ে হত্যা করেছে। নানা মুখে নানা কথা।

এ দিকে পুলিশ র‌্যাবসহ আইন শৃংখলা বাহিনীর সকল ইউনিট সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তাকে উদ্ধারের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছিল। তাকে ফিরে পাওয়ার দাবিতে সোমবার ৫ম দিনের মতো নগরীর বিভিন্ন স্থানে একাধিক সংগঠন কর্মবিরতি, মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে। পুলিশ ৫ জামায়াত শিবিরের নেতাকর্মীসহ ৯ জনকে গ্রেফতার করেছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকাল ৪টায় বাবু সোনার শহরের আলম নগর বাবু পাড়ার বাসার পেছনে রংপুর ডিবি পুলিশ ডোবার কাদা মাটি অপসারণ ও বাড়ির সেপটিক ট্যাংক খোঁড়াখুঁড়ি করে নিখোঁজ আইনজীবী সন্ধান চালিয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে নগরীর প্রেসক্লাবের সামনে বাবু সোনার নিখোঁজের প্রতিবাদে অনশন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোটসহ অন্যান্য সংগঠন। সমাবেশ থেকে বক্তারা বাবু সোনার সন্ধানের বিষয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করা হয়।

এদিকে রংপুর আইনজীবী সমিতিসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ বাবু সোনাকে খুঁজে না পাওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাবার ঘোষণা দেন।

জেলা যুবলীগের নেতৃবৃন্দ ৭২ ঘণ্টার মধ্যে বাবু সোনাকে খুঁজে পেতে ব্যর্থ হলে রংপুর নগরী অচল করে দেওয়ার হুমকি দেন। সেই সাথে পুলিশের ভুমিকা নিয়ে তারা প্রশ্ন তোলেন এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ব্যর্থতা তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার সকাল থেকে আইনজীবী বাবু সোনা নিখোঁজ ছিলেন। তিনি জাপানি নাগরিক কুনিও হোশি ও মাজারের খাদেম হত্যা মামলার বিশেষ পিপি ছিলেন। বাবুসোনা জেলা আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ছাড়াও হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের রংপুর বিভাগের ট্রাস্টি, পূজা উদযাপন পরিষদ ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের সঙ্গেও তিনি জড়িত ছিলেন।

ইত্তেফাক/

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc