Sunday 21st of October 2018 01:45:43 PM

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০১মার্চ,ডেস্ক নিউজঃ কোনো প্রকার ঘোষণা ছাড়াই সীমান্তে সেনা মোতায়েন করেছে মিয়ানমার। এ নিয়ে মিয়ানমার-বাংলাদেশ সীমান্তে উত্তেজনা বিরাজ করছে। মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে তলব করে এ ঘটনার কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

বৃহস্পতিবার বিকেলে সীমান্ত উত্তেজনা নিয়ে মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত লুইন উ কে তলব করা হয়। এরপর বাংলাদেশের পক্ষ থেকে একটি আনুষ্ঠানিক পত্র (নোট ভারবাল) তাকে দেয়া হয়েছে।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে বেশ কয়েকবার সেনা বাড়ালেও এবার রেকর্ড পরিমাণ সেনা মোতায়েন করেছে মিয়ানমার। বাংলাদেশের ওপারে এতো পরিমাণ সৈন্য মোতায়েনকে বিশেষ উদ্দেশ্য হিসেবে দেখছে ঢাকা।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানায়, সীমান্তে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর অতিরিক্ত সেনা মোতায়েনের বিষয়ে মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতের কাছে জানতে চাওয়া হয় এবং বলা হয়, এটি দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের জন্য ভালো নয়।

সূত্র জানায়, তাকে একটি নোট ভারবাল বা আনুষ্ঠানিক পত্র দেয়া হয়। এতে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে বিষয়টিকে ভালো চোখে দেখা হচ্ছে না বলে জানানো হয়েছে। গত ফেব্রুয়ারি মাসে দুই দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন প্রসঙ্গে আলোচনা হয় এবং বাংলাদেশের পক্ষ থেকে এ ধরনের কার্যক্রম গ্রহণ না করার জন্য আহবান জানানো হয়।

অন্য একটি সূত্র জানায়, রাখাইনে সামরিক শক্তি বাড়ালে নো-ম্যানস ল্যান্ডে যে ছয় হাজার রোহিঙ্গা আছে তারা মিয়ানমারে ফেরত যেতে আগ্রহী হবে না এবং রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর পুরো প্রক্রিয়াটি অনিশ্চিত হয়ে যেতে পারে।

উল্লেখ্য, গত বছরের ২৫ আগস্ট থেকে মিয়ানমারের রাখাইন অঙ্গরাজ্যে সে দেশের সেনাবাহিনী অব্যাহত নিপীড়ন ও গণহত্যা চালানো শুরু করলে দেশটি থেকে প্রায় সাত লাখ রোহিঙ্গা আশ্রয়ের জন্য বাংলাদেশে প্রবেশ করে। তাদের অস্থায়ীভাবে আশ্রয় ও মানবিক সহায়তা দিলেও নিজেদের দেশে ফেরত পাঠাতে আন্তর্জাতিক সহযোগিতা আহ্বানসহ দ্বিপক্ষীয় কূটনৈতিক তৎপরতা চালাচ্ছে সরকার।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০১মার্চ,নাজমুল হক নাহিদ,আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাই উপজেলার শাহাগোলা ইউনিয়নের রসুলপুর বটতলা বাজারে আগুনে পুড়ে গেছে ১টি দোকান। মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। ফলে প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি।
এলাকাবাসী ও ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে হঠাৎ করে এলাকাবাসী রসুলপুর বটতলা বাজারে আগুনের শিখা দেখতে পেয়ে আত্রাই ফায়ার সার্ভিস স্টেশনে খবর দেয়। পরে ফায়ার সার্ভিসের ১টি ইউনিট প্রায় এক ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।
এ সময়ের মধ্যে শ্রী: সবিত মহন্তের চা ষ্টল এর দোকানের সকল মালামাল পুড়ে যায়। এতে প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীর।
এ ব্যাপারে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী শ্রী: সবিত মহন্ত জানান, প্রতিদিনের ন্যায় আমি দোকান বন্ধ করে বাড়িতে চলে যায় হঠাৎ রাত সাড়ে ১০টার দিকে আগুন লাগার খবর আমি জানতে পারি এবং নিমিশের মদ্ধ্যেই দোকানে রাখা টিভি, বক্সসহ অন্যান্য আসবাবপত্র পুড়ে ছাই হয়ে যায়। তিনি আরো বলেন, সমিতি থেকে ঋণ নিয়ে ব্যবসা শুরু করেছিলাম। আগুনে আমার যে পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে যা কাটিয়ে ওঠা অসম্ভব।
আত্রাই উপজেলা ফায়ার সার্ভিসের ভারপ্রাপ্ত স্টেশন মাষ্টার নিতাই চন্দ্র বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে চা ষ্টলের চুলার আগুন থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০১মার্চ,নড়াইল প্রতিনিধিঃ নড়াইল বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহম্মদ ষ্টেডিয়ামে শেষ হল ২দিন ব্যাপী জেলা ক্রীড়া সংস্থার বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতা-২০১৮ । বৃহস্পতিবার বিকালে নড়াইল জেলা ক্রিড়া সংস্থার এ্যাথলেটিক্স কমিটির আয়োজনে প্রতিযোগীতা শেষে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক মোঃ এমদাদুল হক চৌধুরী।

জেলা ক্রীড়া সংস্থার এ্যাথলেটিক্স কমিটির সভাপতি কর্নেল (অবঃ) সৈয়দ ইকবালের সভাপতিত্বে সমাপনী ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডঃ সোহরাব হোসেন বিশ^াস, ক্রীড়া সংস্থার সাধারন সম্পাদক আশিকুর রহমান মিকু, সহ- সভাপতি মোঃ হাসানুজ্জামান, আইয়ুব খান বুলূ, রওশন আরা কবির লিলি, জেলা ক্রীড়া সংস্থার এ্যাথলেটিক্স কমিটির সম্পাদক কৃষ্ণপদ দাসসহ ক্রীড়া সংস্থার কর্মকর্তা, সাংবাদিক, প্রতিযোগীসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন। এ প্রতিযোগীতায় ৩০ টি ইভেন্টে জেলার ২ শতাধিক প্রতিযোগী অংশ গ্রহন করছে।

সুন্নী জামাত ও তাবলীগ জামাতের সমর্থকদের পৃথক পৃথক বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০১মার্চ,চুনারুঘাট প্রতিনিধিঃ  চুনারুঘাটে দুর্বৃত্তদের হামলায় সুন্নী জামাত চুনারুঘাট উপজেলা শাখার সভাপতি , ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আলহাজ আবুল হোসেন ওরফে আকল মিয়া (৬০) নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার ভোরে মসজিদে নামাজে যাওয়ার পথে একদল দুর্বৃত্ত তার উপর আক্রমন চালায় এবং এলোপাথারি কুপাতে থাকে। এতে তিনি মারাত্মক আহত হন। সকাল সাড়ে ৮টার দিকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আকল মিয়ার মৃত্যুতে উপজেলার সুন্নী জামাত ও তাবলীগ জামাতের সমর্থকরা পৃথক বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করেছেন। বিক্ষোভকারীরা দ্রুত খুনীদের আটক করার দাবী জানিয়েছেন। চুনারুঘাট পৌর শহরে অতিরিক্ত পুলিশ, র‌্যাব মোতায়ন করা হয়েছে। পুলিশ ও এলাকাবাসিরা জানান, প্রতিদিনের ন্যায় সুন্নী জামাতের এই নেতা পৌর শহরের একটি মসজিদে নামাজ পড়তে যান। মসজিদে নামাজে যাওয়ার পথে একদল অস্ত্রধারী তার গতিরোধ করে এবং এলোপাথারি কুপাতে থাকে।

এতে তিনি মারাত্মক আহত হন। তার শোর চিৎকারে অন্যান্য মুসল্লী এগিয়ে আসলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে নিয়ে গেলে সকাল সাড়ে ৮টায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ও আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের সভাপতি আকল মিয়ার মৃত্যুর খবর ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে শত শত লোক চুনারুঘাট পৌর শহরে জমা হতে থাকেন। সকাল ১০টায় সুন্নী জামাতের অনুসারীরা প্রথমে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মিছিলটি পৌর শহর প্রদক্ষিন শেষে মধ্য বাজারে এসে পথ সভায় মিলিত হয়। এ সভায় সুন্নী নেতা হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় আনার দাবী জানানো হয়।

এরপর তাবলীগ জামাত পৌর শহরে আরো একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আকল মিয়া হত্যার বিচার দাবী করেন!

চুনারুঘাটে যে কোন অনাকাংখিত ঘটনা এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ ও র‌্যাব মোতায়েন করা হয়েছে। কি কারনে গ্রাম্য ওই সু বিচারককে হত্যা করা হলো এ বিষয়ে পুলিশ বা স্থানীয় সুত্র গুলো কিছুই জানাতে পারেনি তবে জমি কেনা বেচা,গ্রাম্য বিচারের উনার কোন প্রতিপক্ষ সৃষ্টি হয়েছিলো কিনা বা ধর্মীয় কোন কারন আছে কিনা এ তিনটি বিষয়কে সামনে এনে তদন্তকাজ পরিচালনা করছে পুলিশ।আপডেট

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০১মার্চ,এস কে দাশ সুমন: কমলগঞ্জ  উপজেলার  মুন্সিবাজারের  ঠিকাদারি  প্রতিষ্ঠান  মেসার্স  আলী  টেডার্সের  সুপারভাইজার  মোঃ  সাইদুল  ইসলাম  সরকারি  কাজের  বকেয়া  বাবদ  নিজ  প্রতিষ্ঠানে  নামে  শ্রীমঙ্গল  উপজেলা  পরিষদের  ইউ এন ও  মোঃ  মোবাশশেরুল  ইসলামের  নিকট  হইতে  সরকারি  কাজের   পাওনা  বাবদ  ৮  লক্ষ  টাকার  চেক  নিয়ে  শ্রীমঙ্গলের হবিগঞ্জ রোডস্থ  সোনালী  ব্যাংক  হতে  ক্যাশ  উত্তোলন  করে  সিএনজি  যোগে  উপজেলা  পরিষদে  যাবার  প্রাক্কালে শহরের কোট  রোডস্থ  জাতীয়  যুব  উন্নয়ন  কম্পিউটার  প্রশিক্ষণ  কেন্দ্রের  সামনে  আসলে  দুই  টি  মোটর  সাইকেলে  ৫  জন  সংঘবদ্ধ  ছিনতাইকারী  দল  তার সিএনজির   গতি  রোধ  করে  সাইদুল  ইসলামকে  ডান  পায়ে  চাপাতি  দিয়ে  আঘাত  করে  টাকার  ব্যাগ  ছিনিয়ে  নিয়ে  পালিয়ে  যায়।

চাপাতির আঘাতে ভেঙ্গে যাওয়া মোবাইল সেট।

শ্রীমঙ্গল  থানা  প্রশাসন  খবর  পেয়ে  ঘটনাস্থল  পরিদর্শনে  আসে। এ  ব্যাপারে  শ্রীমঙ্গল  উপজেলা  নির্বাহী  কর্মকর্তা মোবাশশেরুল  ইসলাম  বলেন  ছিনতাইকারী  দলটি  সংঘবদ্ধ  ছিল  প্রশাসন  বিষয়টি  তদন্ত  করে  দেখছে।

শ্রীমঙ্গল  উপজেলা  মহিলা  ভাইস  চেয়ারম্যান  মোছাম্মত  হেলেনা  চৌধুরী  বলেন  আইন  শৃঙ্খলা  পরিস্থিতি  কিছুটা   অবনতি  হয়েছে  নচেৎ  দিনে   দুপুরে  উপজেলা  পরিষদের  সামনেই  ছিনতাই  একটি  হতাশাজনক  ঘটনা  আশা  করি  প্রশাসন  ঘটনার  সুষ্ঠু  তদন্ত  করে  দোষীদের  আইনের   আওতায়  আনবে।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০১মার্চ,আলী হোসেন রাজন,মৌলভীবাজার প্রতিনিধি: বিএনপি’র চেয়ারপার্সন, দেশনেন্ত্রী সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবীতে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসাবে মৌলভীবাজার জেলা বিএনপির সভাপতি এম নাসের রহমানের পক্ষে সহ-সভাপতি আলহাজ্ব এম.এ.মুকিতের নেতৃত্বে ১ মার্চ বৃহস্পতিবার দুপুরে মৌলভীবাজার পশ্চিম বাজার এলাকায় থেকে শুরু করে শহরের বিভিন্ন স্থানে লীফলেট বিতরন করা হয়।

এসময় উপস্তিত ছিলেন জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আশিক মোশারফ, সাংগঠনিক সম্পাদক বকসী মিসবাউর রহমান, সদর থানা বিএনপির সভাপতি হেলু মিয়া, সাধারণ সম্পাদক ফকরুল ইসলাম, পৌর বিএনপির সদস্য সচিব মনোয়ার আহমেদ রহমান, যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান মজনু, যুবদলের সিনিয়র নেতা শফিউল রহমান, জেলা শ্রমিক দলের নেতা আজিমুল হক সেলিম ও তুফায়েল আহমদ সহ অঙ্গ , ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এদিকে জেলা বিএনপি’র সাধারন সম্পাদক ভিপি মিজানুর রহমানের নেতৃতে শহরের বিভিন্ন স্থানে লীফলেট বিতরন করা হয়।

মৌলভীবাজার শহরের চৌমুহনা থেকে শুরু করে সমশের নগর রোড শাহ মোস্তফা কলেজ এলাকায় এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সদস্য, মোশারফ হোসেন বাদশা, জেলা তাঁতী দলের আহবায়ক আব্দুর রকিব সাবু, জেলা যুবদলের সাবেক সভাপতি আনকার আলী সুলেমান, জেলা বিএনপির সাবেক সহ সাংগঠনিক সম্পাদক শামিম আহমদ, জেলা বিএনপি নেতা সামছুল হক সামা, জেলা যুবদলের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক মুহিতুর রহমান হেলাল, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক স্বাগত কিশোর দাশ চৌধুরী সহ সকল অংগসংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

একই দাবীতে মৌলভীবাজার জেলা বিএনপির সহ সভাপতি , সাবেক পৌর মেয়র ফয়জুল করিম ময়ুন এর নেতৃত্বে লীফলেট বিতরন করা হয় । জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল আলম নোমানসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতা কর্মীরা সাখে ছিলেন ।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০১মার্চ,নিজস্ব প্রতিনিধিঃ  হবিগন্জ জেলার চুনারুঘাট উপজেলা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের সভাপতি চুনারঘাট বাজার ও আল মদিনা মসজিদের সভাপতি,এলাকার প্রবীণ মুরুব্বী আলহাজ্ব আবুল হোসেন আকল মিয়াকে (সত্তরোর্ধ) কুপিয়ে হত্যা করেছে অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায় আজ বৃহস্পতিবার ভোর রাতে চুনারঘাট আল মদিনা মসজিদে ফযরের নামাযে যাওয়ার পথে ওৎপেতে থাকা ৪/৫ জন মুখোশ পড়া সন্ত্রাসী এলোপাথাড়ি ভাবে দেশিয় অস্র রামদা দিয়ে মাথা ও শরীরে বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে জখম করে মারাত্মক ভাবে আহত করে।পরে  সিলেট উসমানী মেডিকেল নেওয়ার সাথে সাথে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।
আজকের এ মুহুর্তে সংবাদ লেখাকালিন সময়ে
চুনারঘাট বাজারে  বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সভা চলছে৷

উল্লেখ্য আলহাজ্ব আবুল হোসেন আকল মিয়া সিরাজনগর দরবার শরীফের একজন সুন্নি খাদেম ছিলেন। বিস্তারিত জানতে পরের সংবাদে নজর রাখুন।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০১মার্চ, ডেস্ক নিউজঃ     মালিতে মাইন বিস্ফোরণে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা বাহিনীতে নিয়োজিত চার বাংলাদেশি সেনা সদস্য নিহত হয়েছেন। গুরুতর আহত হয়েছেন আরও চার বাংলাদেশি।
বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, বুধবার মালির কেন্দ্রের একটি রাস্তায় সেনাদের একটি গাড়ি মাইনে আঘাত করলে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে।
মোপ্তি এলাকার বনি ও দোয়েন্তজা শহরের সংযোগ সড়ক দিয়ে শান্তিরক্ষীরা গাড়িতে করে যাওয়ার পথে বিস্ফোরণে হতাহতের ঘটনা ঘটে বলে দেশটিতে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশন মিনুসমা জানিয়েছে।
আফ্রিকান দেশটিতে দায়িত্বরত জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশন জানিয়েছে, একদিন আগে একই ধরনের ঘটনায় মালির ছয় সেনা নিহত হয়। ইসলামি জঙ্গিদের কারণে সহিংসতা বাড়ছে।
মিশনের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, শান্তিরক্ষী সেনাদের মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে।
নিহতরা হলেন সেনাবাহিনীর ওয়ারেন্ট অফিসার আবুল কালাম, পিরোজপুর (৩৭ এডি রেজি. আর্টি.); ল্যান্স কর্পোরাল আকতার, ময়মনসিংহ (৯ ফিল্ড রেজি. আর্টি.); সৈনিক রায়হান, পাবনা (৩২ ইবি) এবং সৈনিক (পাচক) জামাল, চাপাইনবাবগঞ্জ (৩২ ইবি)।
আহত হয়েছেন কর্পোরাল রাসেল, নঁওগা (৩২ ইবি); সৈনিক আকরাম, রাজবাড়ি (৩২ ইবি); সৈনিক নিউটন, যশোর (১৭ বীর) এবং সৈনিক রাশেদ, কুড়িগ্রাম (৩২ ইবি)। আহতদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে আইএসপিআর জানিয়েছে।
উল্লেখ্য, এর আগে গত সেপ্টেম্বরে দেশটিতে বিদ্রোহীদের হামলায় তিন বাংলাদেশি শান্তিরক্ষী নিহত এবং চারজন আহত হন।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০১মার্চ, ডেস্ক নিউজঃ      বাংলাদেশী শ্রমিকদের জন্য সংযুক্ত আরব আমিরাত ধাপে ধাপে শ্রমবাজার উন্মুক্ত করবে। এ বিষয়ে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশকে একটি চিঠিও দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম। বুধবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে ‘বিশ্ব পরিম-লে নিরাপদ সুশৃঙ্খল ও নিরাপদ অভিবাসন’ বিষয়ক আন্তঃসরকার আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করছিলেন প্রতিমন্ত্রী। পার্লামেন্টারিয়ানস ককাস অন মাইগ্রেশন এ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট এই আলোচনা সভার আয়োজন করে। এতে সভাপতিত্ব করেন সংস্থাটির সভাপতি ইসরাফিল আলম। আলোচনায় বক্তব্য রাখেন অভিবাসন বিশেষজ্ঞ সৈয়দ সাইফুল হক, সংসদ সদস্য হুসনে আরা লুৎফা ডালিয়া, রোকসানা ইয়াসমিন ছুটি, জেবুন্নেসা আফরোজ প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শাহরিয়ার আলম বলেন, বিশ্বে বাংলাদেশের এক কোটি অভিবাসী রয়েছেন। তারা বৈদেশিক মুদ্রা পাঠিয়ে দেশের অর্থনীতি শক্তিশালী করে চলেছেন। এ অভিবাসীদের স্বার্থ সংরক্ষণে সরকার কাজ করে যাচ্ছে। জাতিসংঘে বাংলাদেশ এ বিষয়ে নীতিমালা তৈরি করতে সবচেয়ে সোচ্চার।

সৌদি আরব, মালয়েশিয়া ও ওমানে অভিবাসীদের বিষয়ে যে সঙ্কট ছিল তার সমাধান হয়েছে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, অনিয়মিত অভিবাসন বলে কিছু নেই, ফ্রি-ভিসা বলে কিছু নেই। দালালচক্র মিথ্যা বলে এমন ভিসা দিয়ে সঙ্কট সৃষ্টি করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাতে।

তবে সংযুক্ত আরব আমিরাতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী চিঠি দিয়ে জানিয়েছেন, ধাপে ধাপে তারা বাংলাদেশ থেকে কিছু নারী ও পুরুষ গৃহকর্মী নেবেন। কিছু চিকিৎসক ও প্রকৌশলীও নেবেন। আর যারা আছে, তারা কাজের অনুমতিপত্র বা আকামা পরিবর্তন করতে পারবে।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, অভিবাসনের সঙ্গে উন্নয়নের একটি নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে। বিশ্ব অভিবাসনকে একটি সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা কাঠামোর মধ্যে নিয়ে আসতে পারলে এই উন্নয়নের সুফল আরও বহুগুণ বৃদ্ধি পাবে। অন্যদিকে, অনিয়মিত ও অনিয়ন্ত্রিত অভিবাসন অভিবাসীদের অধিকার সুরক্ষায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে তাদের শোষণের শিকার হওয়ার আশঙ্কা তৈরি করে। সাম্প্রতিক সময়ে ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চল, আন্দামান সাগর কিংবা আফ্রিকায় অভিবাসন প্রত্যাশী মানুষের যে মানবিক বিপর্যয় পরিলক্ষিত হয়েছে সেটি বিশ্বব্যাপী সুষ্ঠু, নিরাপদ ও নিয়মিত অভিবাসন ব্যবস্থার প্রয়োজনীয়তাকেই স্মরণ করিয়ে দেয়। এই প্রেক্ষাপটে আমাদের সরকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী ও গতিশীল নেতৃত্বে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অভিবাসন বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। নিরাপদ অভিবাসন নিশ্চিতকরণ ও সঠিক অভিবাসন ব্যবস্থাপনা প্রণয়নে একটি বৈশ্বিক নীতিমালা ঘোষণার লক্ষ্যে বাংলাদেশ দীর্ঘদিন ধরে সক্রিয়ভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

অভিবাসীর জন্য একটি নিরাপদ পৃথিবী গঠন এখন সময়ের দাবি বলে উল্লেখ করে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, সুষ্ঠু অভিবাসন ব্যবস্থা নিশ্চিতকরণের মাধ্যমে শুধুমাত্র উৎস দেশই লাভবান হয় তা নয়, বরং তা গন্তব্য দেশসমূহের সামাজিক ও অর্থনৈতিক টেকসই উন্নয়নেও গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে। এ বিষয়ে বিশ্বে আজ সুস্পষ্ট ধারণাগত ঐক্যমত তৈরি হয়েছে, যেখানে বাংলাদেশ কার্যকর ও নেতৃত্বস্থানীয় ভূমিকা রাখছে। আমি আশা করি আজকের এই আলোচনার মাধ্যমে গ্লোবাল কমপ্যাক্টের চলমান নেগোসিয়েশনে বাংলাদেশের স্বার্থ রক্ষার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান ও সুপারিশমালা উঠে আসবে। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, আমাদের সকলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বিশ্বব্যাপী সুষ্ঠু, নিরাপদ ও নিয়মিত অভিবাসন ব্যবস্থা নিশ্চিতকরণের অব্যাহত প্রচেষ্টায় আমরা অবশ্যই সফল হব।

অনুষ্ঠানে অভিবাসন বিশেষজ্ঞ সৈয়দ সাইফুল হক বলেন, বিশ্বে বর্তমানে ২৬ কোটি অভিবাসী রয়েছে। এই সংখ্যা প্রতিনিয়ত বাড়ছে। অভিবাসী বৃদ্ধির হার বিশ্ব জন্মহারের চেয়ে অনেক বেশি। গত দশ বছরে ১০ কোটি মানুষ অভিবাসী হয়েছে। তার মধ্যে এশিয়ায় সবচেয়ে বেশি, প্রায় আট কোটি। অধিকাংশ অভিবাসী গরিব দেশ থেকে গরিব দেশে গেছেন।জনকণ্ঠ

কুলাউড়া-শাহ্বাজপুর রেললাইনে আবারো হুইসেল বাজবে লাতুর ট্রেনে

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০১মার্চ,এম এম সামছুল ইসলাম,জুড়ীঃ  দীর্ঘ ১৬ বছর পর বন্ধ থাকার পর পরিত্যক্ত কুলাউড়া-–শাহ্বাজপুর রেল লাইনের সংস্কার কাজ শুরু হয়েছে । ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ভারতের কলকাতা কালিন্দী রেল নির্মাণ কোম্পানী রেল লাইনের কাজ শুরু করেছে । সম্প্রতি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশ রেলওয়ের নিকট থেকে কাজের সাইট বুঝে নেয় । দীর্ঘ দিন বন্ধ থাকার পর পরিত্যক্ত এ রেল লাইনের নির্মাণ কাজ শুরু হওয়ায় এবং পূনরায় ট্রেন চালুর খবরে জুড়ী, কুলাউড়া,বড়লেখা ও বিয়ানীবাজার উপজেলার লাখ লাখ মানুষের মধ্যে আনন্দের বন্যা বইছে ।

২০১৫ সালে ভারতের প্রধান মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও বাংলাদেশের প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যৌথভাবে কুলাউড়া- শাহ্বাজপুর পরিত্যক্ত রেল লাইনের সংস্কার কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন । কিন্তু প্রায় ৩বছর দুই দেশের প্রধান মন্ত্রীর ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের মধ্যেই সীমাবদ্ধ হয়ে পড়ে উক্ত রেল লাইনের সংস্কার কাজ । অবশেষে বাস্তবে রেল লাইনের কাজ শুরু হল ।

রেলওয়ে সূত্রে জানা গেছে, ১৮৯৬সলের ৪ডিসেম্বর আসাম-বেঙ্গল রেলওয়ের সাথে কুলাউড়া-শাহ্বাজপুর সেকশনটি যুক্ত হয় । ১৯৫৮-৬০ সালে এ রেল লাইনটি পূনর্বাসন করা হয় । পরবর্তীতে অব্যবস্থাপনা ও সংস্কার অভাবে এ রেল লাইনে ঘন ঘন ট্রেন দূর্ঘটনা ঘটতে থাকে । বিধ্বস্ত রেল লাইনটি ট্রেন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে উঠলে ২০০২ সালের ৭ জুলাই পূর্ব ঘোষনা ছাড়াই ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়। এর ফলে, মৌলভীবাজারের কুলাউড়া, জুড়ী ,বড়লেখা ও বিয়ানীবাজার উপজেলার কয়েক লাখ মানুষ পড়েন যোগাযোগ সংকটে । তাতে বেদখল হয়ে পড়ে ৬টি রেল স্টেশনসহ কোটি কোটি টাকার সরকারি ভূমি ।

পুনরায় এ রেল লাইন চালু হলে জনসাধারণের যাতায়াত সুবিধা ছাড়াও স্থানীয় ব্যবসা বাণিজ্যের উন্নয়নের পাশা পাশি গূরুত্বহীন হয়ে পরা কুলাউড়া রেলওয়ে জংশন প্রাণ ফিরে পাবে । পরিকল্পনা কমিশনের মতে, এ লাইন ভারতীয় সীমান্তে দ্বৈত গেজে রূপান্তরিত করলে বাংলাদেশ ভবিষ্যতে আ লিক রেলওয়ে নেটওয়ার্ক এবং ট্রান্স এশিয়ান রেলওয়ে নেটওয়ার্কের সঙ্গে যুক্ত হতে পারবে। ফলে,আ লিক বাণিজ্য ও পর্যটনের প্রসার ঘটবে। রেল লাইনটি পূনরায় চালুর খবর শুনে এলাকাবাসীর মধ্যে প্রাণ চাঁ ল্য ফিরে এসেছে। রেলওয়ে পূর্বা লীয় জোনের জেনারেল ম্যানেজার আব্দুল হাই জানান,পূর্ব প্রতিশ্র“তি অনুযাযী ফেব্র“য়ারীর শুরুতেই কুলাউড়া-শাহ্বাজপুর রেল লাইনের নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে। সম্প্রতি ভারতীয় নির্মাণ প্রতিষ্ঠান কলকাতার কালিন্দী রেল নির্মাণ কোম্পানীকে সাইট হস্তান্তর করা হয়। ব্রড গেজ এ রেল লাইনটি চালু হলে কুলাউড়া থেকে শাহ্বাজপুর পর্যন্ত ৫টি ট্রেন চলাচল করবে । লোকাল ট্রেন ছাড়াও আন্তঃনগর ট্রেনের সাথে ভারতীয় ট্রেনও চলবে । বন্ধ থাকাকালীন সময়ে রেলওয়ের জমি জবর দখল করে গড়ে ওঠে অবৈধ স্থাপনা।এগুলো উচ্ছেদের লক্ষে রেলওয়ের পক্ষ থেকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের মাধ্যমে নোটিশ দেয়া হলে অনেকেই নিজ উদ্যোগে অবৈধ স্থাপনা সরানো শুরু করে। সরেজমিনে এ সেকশনের দক্ষিণভাগ ও শাহ্বাজপুর রেল স্টেশন এলাকা ঘুরে ভারতীয় কোম্পানীর লোকজনকে সংস্কার কাজ করতে দেখা গেছে। শ্রমিকরা জানায়,প্রথমে তাদেরকে স্টেশনের ইয়ার্ড প্রস্তুতের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।এ জন্য তারা প্ল্যাটফর্মের পুরাতন ইট তুলে মাটি ড্রেসিং করছে।

অন্তত ঃ ১-২ মাস এ কাজ চলবে।এরপর শুরু হবে মূল লাইনের ড্রেসিং কাজ।ব্রীজ,স্টেশন ভবন নির্মাণসহ পর্যায়ক্রমে রেল স্ট্রেক স্থাপনের কাজ করা হবে । লাইনের সংস্কার কাজ শুরু হওয়ায় অবৈধ দখলদাররা তড়িগড়ি করে পাকা,আধাপাকা অবৈধ স্থাপনা ভেঙ্গে ফেলছে । রেলওয়ে বিভাগীয় প্রকৌশলী আহসান জাবির জানান,আ লিক বাণিজ্য বাড়াতে ভারতীয় ঋনে ৫২ দশমিক ৫৪ কিলোমিটার রেলপথ পূনর্বাসন করা হবে।তন্মধ্যে ৪৪ দশমিক ৭৭ কিলোমিটার মেইন লাইন ও ৭ দশমিক ৭৭কিলোমিটার লুপ লাইন ।এ প্রকল্পটি বাস্তাবায়নের জন্য ২০১৫ সালের ২৬মে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (একনেকে) সভায় ৬৭৮ কোটি ৫০ লাখ ৭৯ হাজার টাকার প্রকল্প অনুমোদিত হয় ।মোট ব্যয়ের ১২২ কোটি টাকা দেশীয় অর্থায়নে এবং বাকি ৫৫৬ কোটি টাকা ভারত সরকার বাংলাদেশকে ঋন হিসেবে প্রদান করবে ।

  

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc