Saturday 25th of November 2017 04:18:15 AM

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৯নভেম্বর,সাজন আহমেদ (রানা) বিশেষ প্রতিনিধি:মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রেসক্লাবের সিনিয়র সাংবাদিক একুশে টেলিভিশন, দৈনিক ভোরের কাগজ ও বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম এর প্রতিনিধি বিকুল চক্রবর্তীকে নিয়ে স্থানীয় এক সাংবাদিক ঈর্ষাপরায়ণ হয়ে মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদ পরিবেশন এর প্রেক্ষিত ফেসবুকে আপত্তিকর মন্তব্য করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ বিষয়ে শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রেসক্লাবের পক্ষে ৮ নভেম্বর রাতে  প্রেসক্লাবের আহবায়ক এডভোকেট, এস,এম, আজাদুর রহমানের স্বাক্ষরিত এক লিখিত বিবৃতিতে বিষয়টির তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন-বিষয়টি আমাদের দৃষ্টি গোচর হয়েছে উল্লেখ করেন তিনি বলেন, সাংবাদিক বিকুল চক্রবর্তী একজন মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লালনকারী, তিনি দীর্ঘদিন ধরে মৌলভীবাজার জেলায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ও মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস সংগ্রহ করে নতুন প্রজন্মের মধ্যে বিভিন্নভাবে তুলে ধরছেন যা অত্র এলাকাসহ বিভিন্ন  এলাকার সচেতন মহলের জানা। তার এই কর্মকান্ডকে বাধাগ্রস্থ এবং প্রশ্নবিদ্ধ করতে নানাভাবে ষড়যন্ত্র করে চলেছেন একটি চক্র।

তাছাড়া, বিকুল চক্রবর্তী সম্পাদিত “আপন আলোয় বিশ্বভুবন” নামে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে একটি সংকলনের বিষয়বস্তুকে অসত্য ও ভুলভাবে ব্যাখ্যা করে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করেছেন। আমরা “শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রেসক্লাবের” পক্ষ থেকে তার এহেন কার্যকলাপের তীব্রনিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৯নভেম্বরঃ    গৌরব, ঐতিহ্য, সংগ্রাম বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের ৪৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে সিলেট মহানগর যুবলীগ কর্মসূচী ঘোষনা করেছেন।

১১ নভেম্বর রোজ শনিবার সকাল ১১ ঘটিকার সময় রেজিষ্টারী মাঠ থেকে এক আনন্দ র‌্যালী বের হবে। উক্ত র‌্যালীতে মহানগর যুবলীগের কার্যকরী কমিটির সকল সদস্য ও ২৭টি ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ সকল নেতাকর্মীকে যথাসময়ে প্রত্যেকটি ওয়ার্ডের ব্যানার সহকারে মিছিল নিয়ে র‌্যালীতে অংশ গ্রহন করার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন সিলেট মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক আলম খান মুক্তি, যুগ্ম আহ্বায়ক মুশফিক জায়গীরদার ও সেলিম আহমদ সেলিম।

ঐদিন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শেখ ফজলুল হক মনির রুহের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বাদ আছর দরগাহ হযরত শাহ্জালাল (রহঃ) মাজার প্রাঙ্গণে দোয়া ও মিলাদ মাহ্ফিল অনুষ্ঠিত হবে।প্রেস বার্তা

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৯নভেম্বরঃ  তিনবারের অপ্রতিরোধ্য সিলেট সিক্সার্স অবশেষে হেরে গেল খুলনা টাইটানসের কাছে।খুলনা ৬ উইকেটে সিলেটকে পরাজিত করে খুলনা। খুলনার সংগ্রহ ৪ উইকেটে ১৩৮। সিলেটের সংগ্রহ ছিল ৫ উইকেটে ১৩৫ রান।

জয় দিয়ে যাত্রা শুরু করেছিল সিলেট সিক্সার্স। অবশেষে সিলেট ভেন্যুতে শেষ খেলায় তাদের জয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে পারলো না।
খুলনা টসে জিতে সিলেট সিক্সার্সকে ব্যাট করার আমন্ত্রন জানিয়েছিল। সিলেট ৫ উইকেটে ১৩৫ করে খুলনাকে ১৩৬ রানের টার্গেট দিয়েছিল।

সিলেট সিক্সার্স:
স্বদেশি: সাব্বির রহমান, নাসির হোসেন, তাইজুল ইসলাম, নুরুল হাসান, আবুল হাসান, শুভাগত হোম, কামরুল ইসলাম, নাবিল সামাদ, মোহাম্মদ শরীফ, ইমতিয়াজ হোসেন, শরীফউল্লাহ।

বিদেশি:রস হুইটলি, লিয়াম প্লাঙ্কেট, দাসুন শানাকা, ওয়ানিডু হাসারাঙ্গা, বাবর আজম, আন্দ্রে ম্যাকার্থি, আন্দ্রে ফ্লেচার, ক্রিশমার সান্টোকি, চতুরাঙ্গা ডি সিলভা, গুলাম মুদাসসর খান, দানুস্কা গুনাতিলকা, উপুল থারাঙ্গা, উসমান খান, রিচার্ড লেভি।

খুলনা টাইটানস:
স্বদেশি:মাহমুদউল্লাহ,মশাররফ হোসেন,শফিউল ইসলাম,আরিফুল হক,নাজমুল হোসেন (শান্ত), আবু জায়েদ, আফিফ হোসেন, ইয়াসির আলী,ইমরান আলী, মুক্তার আলী,ধীমান ঘোষ,সাইফ হাসান।

বিদেশি:জুনাঈদ খান,সরফরাজ আহমেদ,সাদাব খান,বেনি হাওয়েল, কার্লোস ব্রাফেট,চ্যাডউইক ওয়ালটন, ক্রিস লিন,কাইল অ্যাবট,রাইলি রুশো,সিকুগে প্রসন্ন,শিহান জয়াসুরিয়া,জফরা আর্চার, মাইকেল ক্লিঙ্গার।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৯নভেম্বরঃ    এন.ই.ইউ.বি. স্পোর্টস ক্লাবের  উদ্যোগে নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ-এ এক ইনডোর গেমস এর আয়োজন করা হয়। ইউনিভার্সিটি ক্যাম্পাসে সাপ্তাহ ব্যাপী অনুষ্ঠিত এই ইনডোর গেমস গত ০১/১১/২০১৭ তারিখে উদ্ভোধন করেন নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড.আতফুল হাই শিবলী । গেমসে বিভিন্ন আইটেমের মধ্যে ছিল ডার্ট নিক্ষেপ, দাবা, লুডু ও ক্যারাম বোর্ড প্রতিযোগীতা। নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ এর শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তাগন গেমস এর বিভিন্ন আইটেমে অংশগ্রহন করেন।

এতে শিক্ষক/কর্মকর্তা ক্যাটাগরিতে ডার্ট নিক্ষেপ প্রতিযোগীতায় প্রথম হন ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের প্রভাষক আমির হোসেন, রানার আপ- সি.এস.ই. বিভাগের প্রভাষক, এস এম সাইদুর রহমান। দাবায় প্রথম হন এপ্ল্যাইড সোসিওলোজী এন্ড সোস্যাল ওয়ার্ক বিভাগের প্রভাষক, মাইদুল ইসলাম চৌধুরী এবং রানার আপ -ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের প্রভাষক, মিজানুর রহমান । লুডুতে প্রথম হন জাইমিন নাহার এবং রানার আপ-ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের প্রভাষক, নুরজাহান শিমু।

ক্যারাম বোর্ড (ডাবল) প্রতিযোগীতায় প্রথম হন উপ-পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক, শামস এলাহী রাসেল ও উপ-রেজিস্ট্রার, শাহজাদা আল সাদিক জুটি এবং রানার অপ হন ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের প্রভাষক, আরিফুল হক চৌধুরী ও আইন ও বিচার বিভাগের প্রভাষক, জাকির হোসেন জুটি। শিক্ষার্থীদের মধ্যে লুডু প্রতিযোগীতায় প্রথম হয় আইন ও বিচার বিভাগের ছাত্র শফিউদ্দিন জুয়েল, রানার আপ- ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের ছাত্রী সুলতানা আক্তার সম্পা।

দাবায় প্রথম ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের ছাত্র রেজোয়ান চৌধুরী, রানার আপ- আইন ও বিচার বিভাগের মাজহার বিন আজহার। কেরাম (ডাবল) প্রতিযোগীতায় প্রথম হয় ব্যবসায় প্রশাস বিভাগের তাজিুজুল হক ও মিয়াদ ইবনে ইসলাম জুটি এবং রানার আপ হয় একই বিভাগের মনিরুজ্জামান ও আহসান হাবিব লিয়ন জুটি।০৬/১১/২০১৭ তারিখে প্রতিযোগীতার ফাইনাল অনুষ্ঠিত হয়।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৯নভেম্বর,সদেরা সুজন, সিবিএনএ কানাডা থেকে:  সেদিন ৫ই নভেম্বর রোববার, ঘড়ির কাঁটায় সময় এক ঘন্টা পিছিয়েছে। দিন ভর বৃষ্টি। মন্ট্রিয়লের তীব্র শীত কনকন করে গায়ে লাগছে। তার উপর সেদিন মন্ট্রিয়লে মিউনিসিপ্যাল নির্বাচন দিন।

মন্ট্রিয়ল বায়োস্কোপের আয়োজকদের টেনশন বাড়ছিল বৃষ্টির সাথে পাল্লা দিয়ে। কনকর্ডিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের জন মলসন বিজনেস স্কুল অডিটরিয়ামে প্রবেশ করতেই অন্য রকম আবহে মন ভালো হয়ে গেল। চমৎকার এই মিলনায়তনটি প্রায় পরিপূর্ণ।

কে যেন ছিমছাম একটা ফ্লায়ার হাতে ধরিয়ে দিল,বেশ গোছানো ঝকঝকে। বাংলা,ইংরেজী ও ফরাসি ভাষায় সব বিবরণ।

মন্ট্রিয়ল শহরে এই প্রথমবারের মতো একটা ফিল্ম সোসাইটি বা চলচ্চিত্র সংসদ এই মন্ট্রিয়ল বায়োস্কোপ আর তারই শুভ উদ্বোধন আজ ৫ই নভেম্বর রবিবার। গুনী চলচ্চিত্রকার সাইফুল ওয়াদুদ হেলাল ও তার টিম ‘ঝলমলিয়া’ রাজধানী অটোয়া থেকে এসেছে। ঘড়ির কাটায় ঠিক ৫:৩০ মিনিটে আয়োজকরা দাঁড়িয়ে গেলেন মঞ্চে। এই বিষয়টা উল্লেখ না করলেই নয় যে প্রবাসে আমাদের সব অনুষ্ঠানই বিলম্বে শুরু হয়। মন্ট্রিয়ল বায়োস্কোপ ঠিক সময়ে অনুষ্ঠান শুরু করে আমাদের সামনে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন।

আয়োজকদের পক্ষ থেকে আবু হোসেন জয় সবাইকে শুভেচ্ছা জানিয়ে অনুষ্ঠান শুরু করলেন। কনকর্ডিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টুডেন্টস এসোসিয়েশনের সভাপতি শ্রীনিবাস শুভেচ্ছা জানালেন। দক্ষিণ ভারতীয় শ্রীনিবাস কয়েক লাইন বাংলা বলে সবার মন যোগালেন। তারপর বাংলাদেশ গ্রাজুয়েট স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন,কনকর্ডিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে প্রাক্তন সভাপতি রাফি মোহাম্মদ আজাদ ও বর্তমান সভাপতি রিজওয়ানুল হক আলভিন শুভেচ্ছা জানালেন। বায়োস্কোপের পক্ষ থেকে অপরাহ্ণ সুসমিতো চলচ্চিত্রকার সাইফুল ওয়াদুদ হেলালকে ডেকে নিলেন মঞ্চে। প্রামান্য চলচ্চিত্র ঝলমলিয়া নিয়ে ছোট্ট ও সারগর্ভ বক্তব্যের পরই শুরু হলো বড় পর্দায় ঝলমলিয়ার প্রদর্শনী।

৫৪ মিনিট দৈর্ঘের ডকু ফিল্ম এই ঝলমলিয়া। বৃষ্টিভেজা বিকেলে বিপুল সংখ্যক প্রবাসীও মূলধারার উপস্থিতি ও ঝলমলিয়া ডকুমেন্টারি একটি অনবধ্য সৃষ্টি বলে দর্শকদের অভিমত আমাকে জানিয়ে দিলো এটা কোন বানানো কল্প কাহিনী ভিত্তিক বিস্ফোরন কিংবা  এ্যাটাকের সিনেমা নয়, এটা আসলেই প্রকৃতি জল ও জীবনের কাদামাখা বায়োস্কোপ।

ঝলমলিয়া নিয়ে লিখেছিলেন, দেশের খ্যাতিমান চলচ্চিত্র গবেষক ও লেখক চলচ্চিত্র সংসদ আন্দোলন কর্মী ও সংগঠক মাহমুদুল হোসেন `অথচ ঝলমলিয়া এক প্রামাণ্যগল্প—গল্পই যেন, প্রাচ্য যাদুর রসে ডোবানো উৎকৃষ্ট এক কাহিনি–মদিরতা, যা এলোমেলো করে দেয় প্রামাণ্য সব প্রকল্প; এজেন্ডা, ইস্যু, টার্গেট। কিন্তু এসব সার্থকতা কি সে চায় নি? বলব, সম্ভাব্য আপত্তির মুখে, সে উৎকর্ষ তার অর্জিত হয় নি। ঝলমলিয়া প্রামাণ্যকরণ করে ঠিকই, কিন্তু সেটি ঘটে এক শরণার্থী বোধের, সংবেদের। যে ঠিকানা নেই, যে মাটির শুধু কিংবদন্তি আছে, যে অস্তিত্ত্ব নাগরিক বিচ্ছিন্নতায় ট্র্যাজিক, যেসব মানবিক স্বাদু স্বপ্ন নির্মমভাবে দলিত ঝলমলিয়া তাদের অনুসন্ধান, ক্রমাগত বেহিসাবি বিবেচনা; এক অলৌকিক অমর্ত্যের আকাঙ্ক্ষা।‘

ঝলমলিয়া প্রসঙ্গে ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ের শিক্ষক, লেখক শিশির ভট্টাচার্য্যর লেখার একটি অংশে লিখেছেন

`২০১৬ সালে হেলাল শেষবার হুড়কা গ্রামে এসেছিল রাস উৎসবে। ঝলমলিয়া দীঘির পাশেই এক মন্দিরে অনুষ্ঠিত হয় এই উৎসব। নারীপুরুষ রাধা-কৃষ্ণ সেজে ঘুরে ঘুরে নাচে নাম-সংকীর্তন করতে করতে। একটি দৃশ্যে দেখা যায়,রাসপূর্ণিমার সন্ধ্যায় নারীভক্তরা ঝলমলিয়ায় পূণ্যস্নান করছে। লাল শাপলা হাতে সিক্তবসনা এক নারী যখন ঝলমলিয়ার ডুব দিয়ে উঠতে থাকে তখন ক্যামেরা তার মুখের উপর স্থির হয়। আমরা অবাক হয়ে দেখি, মুখটি সাফিয়ার। ব্যাকগ্রাউন্ডের আকাশে তখন জ্বলজ্বল করছে রাসপূর্ণিমার চাঁদ।‘

কন্ঠ শিল্পী কবি মণিকা মুনা’র কলমে ‘আমি গ্রামে বড় হয়েছি এমন বাংলাদেশ দেখেই এবং সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ক্রমাগত বিভ্রান্ত হয়েছি সেই সরল, অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের অস্তিত্ব বিলোপের প্রচারণায়। পরিচালক সাইফুল ওয়াদুদ হেলালকে আমায় ধন্যবাদ জানাতেই হবে আমার স্মৃতির বাংলাদেশ যে বিলুপ্ত হয়নি সেই বিশ্বাস তাঁর ডকুমেন্টারী ফিল্ম ‘ঝলমলিয়ার’ মাধ্যমে ফিরিয়ে দেবার জন্যে।’

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৯নভেম্বর,চুনারুঘাট প্রতিনিধি:  বুধবার (৮ নভেম্বর) সকাল ১০ ঘটিকার সময় চুনারুঘাট উপজেলা কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশন এর সাধারন সভা স্থানীয় দিদার কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়। এসোসিয়েশনের সভাপতি উপাধ্যক্ষ মোজাম্মেল হক তালুকদারের সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক মুনশী শফিকুর রহমান জামালের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এসোসিয়েশনের পৃষ্ঠপোষক বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী দানবীর লন্ডন প্রবাসী গাজীউর রহমান গাজী।

বিশেষ অতিথি ছিলেন আস্কর আলী লন্ডনী শিক্ষা ট্রাষ্টের মহাসচিব ডা: মুসলিম উদ্দিন। প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়নে আরও কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহনের সিদ্ধাš গৃহীত হয়। এ লক্ষে আগামী শিক্ষাবর্ষ হতে সমন্বিত সিলেবাস প্রনয়ন, অভিন্ন প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা গ্রহন, ৫ম শ্রেণীর বিশেষ মডেল টেষ্ট পরীক্ষা গ্রহন, শিক্ষক প্রশিক্ষন ব্যবস্থা চালুকরনসহ শিক্ষা মানোন্নয়নে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

১ম হতে ৪র্থ শ্রেণী পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের বার্ষিক পরীক্ষা আগামী ৩ ডিসেম্বর হতে এবং বৃত্তি পরীক্ষা ১৭ ডিসেম্বর হতে গ্রহনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সভায় প্রধান অতিথি গাজীউর রহমান গাজী এসোসিয়েশন এর প্রতিষ্ঠার এক যুগ পুর্তিতে ২দিন ব্যাপী ব্যাপক অনুষ্ঠান আয়োজনের ঘোষনা দেন।

শিশু শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষক মন্ডলীদের অংশ গ্রহনে আয়োজিত যুগপূর্তি অনুষ্ঠানে তিনি ১লক্ষ টাকার পুরুস্কার প্রদানের ঘোষনা সহ অনুষ্ঠানের সামগ্রিক ব্যয় বহনের ঘোষনা প্রদান করেন। উল্লেখ্য যে ২০০৮ সালে চুনারুঘাট উপজেলা কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশন প্রতিষ্টিত হয়।