Saturday 25th of November 2017 04:21:06 AM

সুনামগঞ্জে সংবাদ সংগ্রহকালে দুই সাংবাদিক লাঞ্চিত

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬নভেম্বর,সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ    জালিয়াতির মাধ্যমে সুনামগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের হিসাব শাখা থেকে জমি অগ্রক্রয় মামলার ছয় বিচারপ্রার্থীর জমা ১৭ লাখ ৭৭ হাজার ৫৭৫ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনায় আটক দুই আইনজীবীসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর জেলহাজতে পাঠিয়ে আদালত। সুনামগঞ্জ জেলা জজ ও দায়রা জজ আদালতের নায়েব নাজির শিফাত শাহরিয়ার সোমবার বিকাল ৩টায় সুনামগঞ্জ সদর থানায় চারজনকে আসামি করে মামলাটি দায়ের করেন। এ সময় সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে আদালত এলাকায় সন্ত্রসীদের  হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন দুই সাংবাদিক। এঘটানায় সাংবাদিক লা নাকারীদের গ্রেফতারের দাবি জানান সুনামগঞ্জ বিপোর্টার্স ইউনিটি।

রোবাবার বিকাল ৪টায় আদালতে বিচার প্রার্থীর জামি অগ্রক্রয় মামলার জমা টাকা আত্মসাতের অভিযোগে সুনামগঞ্জ জজ কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মাজহারুল ইসলাম(এপিপি), অ্যাডভোকেট রেজাউল করিম এবং আদালতের হিসাবরক্ষক ঘেনু চন্দ্র রায়কে আদালত এলাকা থেকে আটক করে পুলিশ। ঘটনায় জড়িত মামলার অপর আসামি সুনামগঞ্জ জেলা ও দায়ারা জজ আদালতের অবরসপ্রাপ্ত কর্মচারি আব্দুস সোবহানকে পুলিশ গত রাতে ফেনী থেকে আটক করে সুনামগঞ্জে নিয়ে আসে।

সোমবার বিকাল বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে ঘটনার সংবাদ সংগ্রহ করতে গিয়ে আদালত এলাকায় দুই আইনজীবীর সহকরর্মী ও উৎপেথে থাকা সন্ত্রাসীরা হমলা চালায়। এসময় সন্ত্রসীদের  হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন সাংবাদিক শহীদনূর আহমদ ও জাহাঙ্গীর আলম। তারা আসামিদের জেলহাজতে নিয়ে যাওয়ার দৃশ্য ধারণ করতে গেলে কয়েকজন জুনিয়র আইনজীবী তাদের শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন এবং ক্যামেরা কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। এই ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন সুনামগঞ্জ রিপোর্টার্স ইউনিটির নেতারা। এদিকে, আদালতে অভিনব জালিয়াতির এই ঘটনাটি প্রকাশের পর সেটি ধামাচাঁপা দিতে উঠে পড়ে লাগে একটি মহল। সাংবাদিক লাঞ্ছনার ঘটনায় এই মহল জড়িত থাকতে পারে বলে মনে করছেন সাংবাদিকরা।

সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, দুই আইনজীবীসহ আটক চার জানের বিরুদ্ধে আদালতের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে দায়ের করা মামলা এফআইআরভুক্ত করা হয়েছে। তদন্তপূর্বক জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, সুনামগঞ্জ জজ আদলতে বিচরাধীন একটি অগ্রক্রয় মামলা নিস্পত্তির পর আইনজীবী আলী আহমদ মোয়াক্কেলের আমানতকৃত টাকা উত্তোলনের জন্য আদলতে আবেদন করেন। দাপ্তরিক আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হবার পর অর্থ পরিশোধের জন্য আবেদনটি হিসাব শাখায় পাঠানোর পর দেখা যায় অগ্রক্রয়ের মামলাটি বিচারাধীন থাকা অবস্থায় আইনজীবী  ও মাজাহারুল ইসলাম হিসাব শাখায় পেমেন্ট অর্ডার দাখিল করে অগ্রক্রয়ের  ৪ লাখ ২০ হাজার টাকা উত্তোলন করে নিয়ে গেছেন। বিষয়টি জানাজানির পর এমন জালিয়াতির আরও ৫টি ঘটনা ধরা পড়ে। ছয় ঘটনার পাঁচটিতে মাজহারুল ইসলাম ও একটিতে রেজাউল করিম সংশ্লিষ্ট রয়েছেন।

জেলা হিসাবরক্ষণ অফিস জানায়, অ্যাডভোকেট মাজাহারুল ইসলাম পাঁচটি অগ্রক্রয় মামলায় জালজালিয়াতির মাধ্যমে নিজ ব্যাংক হিসাবের মাধ্যমে প্রায় সাড়ে ১৫ লাখ ৪৬ হাজার ৫৭৫ টাকা উত্তোলন করেন। আরেকটি বিবিধ অগ্রক্রয় মামলা ২ লাখ ৩১ হাজার টাকা একই কায়দায় উত্তোলন করেছেন আইনজীবী মোহাম্মদ রেজাউল করিম।

জালিয়াতির মাধ্যমে টাকা উত্তোলনের বিষয়টি অবগত হবার পর সুনামগঞ্জ সদর আদালতের সিনিয়র সহকারী জজ মোহাম্মদ জালাল উদ্দিন টাকা উত্তোলনকারী দুই আইনজীবীও হিসাবরক্ষক ঘেনু চন্দ্র রায়কে ব্যাখ্যা প্রদানের জন্য বুধবার আদেশ দেন। তাদের কাছ থেকে সন্তোষজনক জবাব না পাওয়ায় রেববার জেলা জজের নির্দেশে রবিবার ৩ জনকে আটক করে পুলিশ।

সুনামগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট সৈয়দ শায়েখ আহমদ জানান, আদলতের হিসাব শাখার কর্মচারীদের সহযোগিতায় বিচারপ্রার্থীর জমি অগ্রক্রয় মামলার জমা অর্থ আত্মসাতের সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হোক, যাতে আদালত ও আইনজীবীদের প্রতি সাধারণ মানুষের আস্থার জায়গটা সুরক্ষিত থাকে। সাংবাদিকদের উপ হামলার ঘটনায় তিন ও আইনজীবি সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হক দুঃখ প্রকাশ করেন এবং তাদের বিরোদ্ধে আইনজীবি সমিতি সাংগঠনিকভাবে ব্যাবস্থা গ্রহন করবে।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬নভেম্বর,চান মিয়া,সুনামগঞ্জঃ ছাতক সিমেন্ট কারখানার দু’ইউনিট বিশিষ্ট একটি পাওয়ার প্ল্যান্ট বিক্রয়ের টেন্ডার নিয়ে অনিয়মের ঘটনা নিয়ে দু’পক্ষে পরস্পর বিরোধি বক্তব্য লক্ষ্য করা যাচ্ছে।  কতিপয় বঞ্চিত ঠিকাদার ও কর্তৃপক্ষের মধ্যে পাল্টা-পাল্টি অভিযোগ চলছে। কর্তৃপক্ষ বলছেন, টেন্ডারে কোন দূর্নীতি হয়নি। কিন্তু বঞ্চিত কতিপয় ঠিকাদার এমডির কাছে অনিয়মের লিখিত অভিযোগ ও থানায় জিডি করে কর্তৃপক্ষের অভিযোগ অস্বীকার করছেন। এদিকে নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, ৬শ’ ৬৭টি কোটি টাকার নতুন সিমেন্ট ফ্যাক্টরির নির্মাণ কাজ শীঘ্রই শুরু হতে যাচ্ছে।

এতে ১৯৬৫সালে স্থাপিত একটি পাওয়ার প্ল্যান্টের দু’টি ইউনিট ২০০৪সাল তথা ১৩বছর থেকে অকেজো পড়ে থাকা ২.৪ ও ৪.৫মেঘাওয়াটের একটি ভবনসহ ইউনিটগুলো এখান থেকে সরিয়ে নেয়ার প্রয়াজনীয়তা দেখা দেয়। এখানে নতুন কারখানার জন্যে ৬মেঘাওয়াটের অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন নতুন পাওয়ার প্ল্যান্ট স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এতে কর্তৃপক্ষ অকেজো প্ল্যান্টকে সরানোর জন্যে টেন্ডার আহবান করেন। জানা গেছে, গত ১৯অক্টোবর ছাতক সিমেন্ট কারখানা কর্তৃক আহবানকৃত দরপত্র (সূত্র নং-সিসিসিএল/এমপিআইসি-৬০/২০১৭-১৮/২১৩, তাং ১৯.১০.২০১৭) স্মারকে কোম্পানীর পাওয়ার প্ল্যান্টের দু’টি অকেজো ইউনিট বিক্রি দরপত্র আহবান করা হয়। গত ১৯অক্টোবর পত্রিকা বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর ৩১অক্টোবর পর্যন্ত সিডিউল বিক্রির সময় শেষ ও ১নভেম্বর দুপুর ১২টার মধ্যে দরপত্র জমাদানের নির্ধারিত সময় ধার্য্য করা হয়।

সিলেট জেলা প্রশাসকের নেজারত শাখা, গণপূর্ত অফিস ও কারখানায় দরপত্র বিক্রি করা হয়। পরে কারখানায় ১১টি ও সিলেটের ২টি বক্সে আরো ৯টিসহ মোট ২০টি জমাকৃত দরপত্র একত্রিত করে ফ্যাক্টরির ভেতরে পুলিশ, বিজিবি, আনসার, সিকিউরিটি ও জনপ্রতিনিধিসহ প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে সুষ্ঠুভাবে বাছাই কাজ সম্পন্ন করা হয়। এসময় উপ-ব্যবস্থাপক (প্রশাসন) ও টেন্ডার নিরীক্ষণ কমিটির প্রধান নার্গিস মোমনা, কমিটির নেতৃবৃন্দ ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। ২০টি দরপত্রের মধ্যে ২কোটি ৫১লাখ ৩০হাজার টাকায় সর্বোচ্চ দরদাতা মনোনীত হয়েছেন চট্টগ্রামের মেসার্স বিছমিল্লাহ এন্টারপ্রাইজ নামের একটি প্রতিষ্ঠান। এছাড়া ২কোটি ২০লাখ টাকায় মেসার্স এম আলী এন্টারপ্রাইজ ২য় ও ২কোটি ১৯লাখ টাকায় ৩য় হয়েছেন আল আমিন আয়রন এন্টারপ্রাইজ নামের অপর একটি প্রতিষ্ঠান। এব্যাপারে বিক্রয় কমিটির প্রধান নার্গিস মোমেনা জানান, অত্যন্ত সুষ্ঠু ও স্বচ্ছতার ভিত্তিতে দরপত্র কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়েছে। এক্ষেত্রে কোন দূর্নীতি ও অনিয়ম করা হয়নি।

কতিপয় ঠিকাদার সময় বাড়িয়ে দেয়ার কথা বলে জোরপূর্বক টেন্ডার বক্স খোলার প্রচেষ্ঠা করলে প্রশাসনের কঠোর হস্তক্ষেপে তাদের সব ষড়যন্ত্র অবশেষে ব্যর্থ করা হয়। ওই দিন সকাল থেকে পুলিশ ও বিজিবিসহ নিরাপত্তা কর্মির মাধ্যেমে কারখানায় সার্বিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা ছিল লক্ষ্যনীয়। এদিকে মেসার্স রুবেল এন্টারপ্রাইজ, রিয়াজ ইলেক্ট্রিক, চিশতি এন্টারপ্রাইজ ও গোবিন্দগঞ্জ ট্রেডিংসহ ১৫টি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান গত ১নভেম্বর যথাযথ সময়ে এসেও কারখানার ভেতরে যেতে বাঁধা দেয়ায় তারা টেন্ডার জমা দিতে পারেননি বলে অভিযোগ করেছেন। এব্যাপারে কারখানার এমডির কাছে লিখিত অভিযোগ ও থানায় পৃথক জিডি করেছেন বলে জানান তারা। কিন্তু কারখানা কর্তৃপক্ষ এ অভিযোগ অস্বীকার করে নির্ধারিত সময়ের অনেক আগেই তারা টেন্ডার বক্সের পাশে উপস্থিত ছিলেন জানিয়ে বলেন, তাদের কাছে সিসি ক্যামেরাসহ অন্যান্যভাবে রেকর্ড প্রমানাদি রয়েছে।

এতে কারখানার সহ-ব্যবস্থাপক (শ্রমকল্যাণ) একেএম হাবিবুর রহমান কারখানার সুনামকে ক্ষুন্ন করার জন্যে একটি মহলে নানা অপ-প্রচারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। এব্যাপারে কারখানার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (চদা) নেপাল কৃষ্ণ হাওলাদার টেন্ডারে কোন ধরনের অনিয়ম দূর্নীতি হয়নি জানিয়ে বলেন, ১৩বছরের অকেজো পাওয়ার প্ল্যান্টসহ একটি বিল্ডিং ভেঙ্গে এখানে নতুন প্ল্যান্ট স্থাপন ও ৮৪বছরের পুরাতন কারখানাকে নতুন কারখানায় রূপান্তরের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এতে অকেজো পাওয়ার প্ল্যান্টকে সরানোর জন্যে টেন্ডার আহবান করা হয়েছে। তিনি বলেন, ড্রপিংয়ের এর দিন বিকেল ৩টায় বাসায় যাবার পথে কয়েকজন কয়েক ব্যক্তি নিজেদেরে ঠিকাদার পরিচয় দিয়ে বলেন, দরপত্র জমা দিতে তাদের বাঁধা দেয়া হয়েছে। অথচ এরআগে আমিসহ কারখানার কোন অফিসারকে বাঁধা দানের কথা জানানো হয়নি। তবে এব্যাপারে কয়েকজন লিখিত অভিযোগ দেয়ায় একটি কমিটির মাধ্যমে তাদের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে বলে জানান তিনি।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬নভেম্বর,হাবিবুর রহমান খানঃ  বিশ্বদরবারে বাঙালির আরো একটি অর্জন পেলো,বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণকে ‘মেমরি অব দ্য ওয়ার্ল্ড’ বা ‘বিশ্বের স্মৃতি’ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে ইউনেস্কো।
প্যারিসের ইউনেস্কোর সদর দফতরে সংস্থাটির মহাপরিচালক ইরিনা বোকোভা এক বিজ্ঞপ্তিতে, ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) দেয়া বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্বালাময়ী ওই ভাষণটিকে ‘ডকুমেন্টারিহেরিটেজ’ (প্রামাণ্য ঐতিহ্য) হিসেবে ঘোষণা করেন।

তাই বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ  সোমবার মৌলভীবাজার জেলার জুড়ীতে সকালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ জুড়ী উপজেলা শাখার আয়োজনে এক আনন্দ র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়।আনন্দ র‌্যালিটি জুড়ী শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে,পরে জুড়ী নিউ মাকর্টের সামনে এসে র‌্যালিটি শেষ হয়।এতে ছাত্রলীগের কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬নভেম্বর,নিজস্ব প্রতিনিধিঃ  জাতিসঙ্ঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি সংস্থা ইউনেস্কো বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণকে বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃতি প্রদানের আনন্দে মিছিল ও র‌্যালি করেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ শ্রীমঙ্গল শাখা।

আজ সোমবার  দুপুরে  র‌্যালিটি বের করেন স্থানীয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গলে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ শ্রীমঙ্গল উপজেলা শাখার আয়োজনে এক আনন্দ র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়।র‌্যালিটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে শেষ হয়।ছাত্রলীগের কর্মীরা উক্ত আনন্দ র‌্যালিতে উপস্থিত চিলেন।

 

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬নভেম্বর,নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাইয়ে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকের মাঝে রবি ২০১৭-১৮ ইং মৌসুমের প্রনোদনা কর্মসূচির আওতায় প্রান্তিক ক্ষুদ্র চাষীদের মাঝে বিনামূল্যে সার ও বীজ বিতরণ করা হয়েছে।
সোমবার সকালে উপজেলা কৃষি অফিস চত্বরে এই বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। আত্রাই উপজেলা প্রশাসন ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এই বিতরণের আয়োজন করে। উপজেলার ২ হাজার কৃষকের মাঝে সরিষা, ভুট্টা বীজসহ রাসায়নিক সার বিনা মূল্যে বিতরণ করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মোখলেছুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এবাদুর রহমান, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান একরামুল বারী রুঞ্জু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ বেগম, উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী গোলাম মোস্তফা বাদল, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ কেএম কাউছার হোসেন, আত্রাই প্রেসক্লাবের সভাপতি আব্দুল মজিদ মল্লিক।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬নভেম্বর,হবিগঞ্জ প্রতিনিধি: হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলায় ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিলে এক ছাত্রলীগ কর্মীকে ছুরিকাঘাত করেছে অপর ছাত্রলীগ কর্মী। এ ঘটনায় আরো এক কর্মী আহত হয়েছে। গুরুতর আহত দুজনকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্ত্তি করা হয়েছে।  ৬ নভেম্বর সোমবার সকাল ১১টায় উপজেলা সদরে এ ঘটনাটি ঘটে।
চুনারুঘাট থানা পুলিশ ঘটনার স্হলে এসে পরিস্থিতি শান্ত করেছেন। স্থানীয় সুত্র পাওয়া, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ৭মার্চের ভাষনকে ইউনেস্কো স্বীকৃতি দেওয়ার কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে সকাল ১১টায় চুনারুঘাট উপজেলা ছাত্রলীগ শহরে একটি আনন্দ মিছিল রের করে। মিছিলেটি দক্ষিন বাজার থেকে শুরু হয়ে উত্তর বাজার আসার পর হঠাৎ ছাত্রলীগ কর্মী সুজনকে উপর্যুপররি ছুরিকাঘাত শুরু করে জাহাঙ্গীর তরফদার নামে অপর এক কর্মী। এসময় তাকে আটকাতে গিয়ে ছুরিকাঘাতে আহত হন আরেক ছাত্রলীগ কর্মী মেসবা। এ
ঘটনার পর পরই উত্তেজিত ছাত্রলীগ কর্মীরা জাহাঙ্গীরকে গনধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। পরে তাকেও আহত অবস্থায় হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে পাঠানো হয়। মেসবাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
এঘটনায় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের নেতাকর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। উপজেলা ছাত্রলীগ যুগ্ন আহবায়ক রুবেল গ্রুপের কর্মী জাহাঙ্গীর এবং সুজন ইফতেখার রিপন গ্রুপের কর্মী হওয়ার উভয় গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। শহরে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। যে কোন সময় পুনরায় সংঘর্ষের আশংকা করছেন শহরবাসী। চুনারুঘাট থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম আজমিরুজ্জামান সত্যতা স্বিকার করেছেন।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬নভেম্বর,মিজানুর রহমান,সৌদি আরব প্রতিনিধিঃ যুবরাজের ক্ষমতার একচ্ছত্রকরণ, রাজপুত্র-মন্ত্রীদের ধরপাকড় আর নিরাপত্তা বাহিনীর মধ্যে বড় ধরনের পরিবর্তনের মধ্যেই যুদ্ধকবলিত ইয়েমেন সীমান্তের কাছে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে সৌদি আরবের এক রাজপুত্র নিহত হয়েছেন। নিহত রাজপুত্র মানসুর বিন মাকরান সৌদি আরবের আসির প্রদেশের ডেপুটি গভর্নরের দায়িত্ব ছিলেন। আজ সোমবার সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের বরাত দিয়ে বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আসির প্রদেশের ইয়েমেন সীমান্তের কাছে রাজপুত্রের হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হয়। এ সময় তাঁর সঙ্গে থাকা আরো সাত আরোহী নিহত হয়েছেন।

হেলিকপ্টারটি মাটিতে পড়ে বিধ্বস্ত হলেও তা যান্ত্রিক গোলযোগে নাকি ইয়েমেনের সৌদিবিরোধী হুতিদের ছোড়া গুলিতে বিধ্বস্ত হয়েছে, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
রাজফরমান জারি করে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের নেতৃত্বে নতুন এই কমিটি গঠিত হওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই দেশটির ১১ রাজপুত্র, চারজন বর্তমান মন্ত্রী এবং আরো প্রায় দুই ডজন সাবেক মন্ত্রীকে গ্রেপ্তার করা হয়। নতুন এই কমিটির মাধ্যমে যুবকরাজ মোহাম্মদকে ব্যাপক ক্ষমতা দেওয়া হয়েছে। তিনি চাইলেই যেকোনো সময় যে কাউকে গ্রেপ্তারের আদেশ জারি করতে পারবেন, পাশাপাশি কাউকে দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞাও দিতে পারবেন। এ নিয়ে মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিতে ব্যাপক উত্তেজনা চলছে।
এর আগে গত শনিবার  সন্ধ্যায় সৌদি আরবের রাজধানী বাদশাহ খালিদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর লক্ষ্য করে একটি ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়। সেই ক্ষেপণাস্ত্র হামলার চেষ্টা রুখে দেওয়া হয় বলে দাবি করে সৌদি আরব। দেশটির আরো দাবি, প্রতিবেশী ইয়েমেন থেকে এই ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়। বিবিসির খবরে বলা হয়, ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা এ হামলার দায় স্বীকার করেছে

আসামীদের বাড়ি ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগ দেড় কোটি টাকার ক্ষতি

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬নভেম্বর,আশরাফ আলী,মৌলভীবাজার: মৌলভীবাজার সদর উপজেলার শিমুলিয়া এলাকায় গাছকাটাকে কেন্দ্র করে মাসাদ মিয়া নিহতের ঘটনায় ৫৯দিন ধরে বাড়ির বাহিরে অবস্থান করছে আসামীরা। এই সুযোগে বাদী পক্ষের লোকজন ইউপি সদস্য মোশাহিদ মিয়ার নেতৃত্বে দুই দফায় আসমীদের ৫টি বাড়ির ৩৫টি পাকার তৈরি ও মাটির ঘর এবং আসবাবপত্র ভাঙচুর করে, স্বর্ণলংকার, নগদ টাকা, মোবাইল ফোন, গরু-ছাগল, হাঁস-মুরগি, চাউল, ফ্রিজ, কম্বল, ফিসারীর মাছ, নৌকা, মাছ ধরার জাল, গোলার ধান ও জমির ফসল কেটে প্রায় দেড় কোটি টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে। ৫ বাড়ির মহিলা, শিশু ও যুবতী মেয়েসহ তাদের গোষ্ঠীর অন্যান্য বাড়ির মহিলারা অন্য গ্রামে আত্মীয়ের বাড়িতে অবস্থান করছেন। এলাকার সাধারণ মানুষের মধ্যে আতংক বিরাজ করছে। যে কোনো সময় ঘটতে পারে আরোও বড় ধরনের দূর্ঘটনা।
ভাঙচুরের সময় মহিলারা বাঁধা দিলে হামলাকারী সংঘবদ্ধ দল তাদের সাথে অশালীন ভাষায় কথা বার্তা বলে ও শারিরিক ভাবে নির্যাতন করে। এসময় মহিলারা মুহিত নামে এক হামলাকারীর পায়ে হাতে ধরে অনুরোধ করলেও হামলা বন্ধ করেনি। স্থানীয় একজন লোক বলেন, শিশুর সামন থেকে খাবারের প্লেটটিও তারা নিয়ে যায়।
রবিবার ( ২৯ অক্টোবর) সকাল ১০টায় ঘটনাটি ঘটে। এঘটনায় করিমা বেগম বাদী হয়ে ৩০ জনকে আসামী করে ১ নভেম্বর মৌলভীবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতে মামলা দায়ের করেন (মামলা নং ৫৯৮/১৭)।
সরেজমিন এলাকায় গেলে দেখা যায়, হামলাকারীরা আবু বক্কর মিয়ার বাড়ির পশ্চিম পাশের ১০টি ঘরের পাকার দেয়াল ভেঙ্গে প্রতিটি রুমের সকল আসবাবপত্র, বাথ রুমের কমেড, রান্না ঘরের চুলা ভাঙচুর করে এবং ঘরের উপরের টিন কেটে ফেলে। যাওয়ার সময় তারা পানির টিউবওয়েলটিও খুলে নিয়ে যায়। ওই বাড়ির গৃহবধূ সুমিনা বলে, দরবেশ, ইউপি সদস্য মোশাহিদ, আনহার, মনসুর, রুপা, লকুছ, মুহিত, জামিল, শামিম, লিমন, সাফি, নবীরুল, আবুল ও কটু’র নেতৃত্বে ৮০/১০০ লোক হামলা করে।
পাশের বাড়ির লুৎফুন নাহারের পাকার তৈরি ঘরের দেয়াল ভেঙে দরজা, জানালা, আসবাবপত্র, বাথরুম ও রান্না ঘরের সকল জিনিষপত্র ভাঙচুর করে ৪ ভরি স্বর্ণ, নগদ ২০ হাজার টাকা ও ২টি ফ্যান নিয়ে যায়। লুৎফুন নাহার বলেন, লকুছ, মুহিত, জামিল ও শামীমের হুকুমে ৫০জন লোক হামলা করে। বাড়িতে হামলার কথা শুনে প্রবাসে থাকা আমার ছেলে অসুস্থ হয়ে পড়েছে। তিনি দুই পুত্র বধূ ও ৩ নাতি নাতনিকে নিয়ে অন্য গ্রামে বসবাস করছেন। এসময় শাপলা, শুভ ও নাবিল নামের ৩ শিক্ষার্থী বলে, ওরা পড়ার বই ও খাতা নিয়ে গেছে। আমরা এখন বই ছাড়া কি দিয়ে লেখাপড়া করব।
সাবেক মহিলা ইউপি সদস্য জেবী বেগম বলেন, মুহিত, লকুছ ও আসাদ এর নেতৃত্বে হঠাৎ আমার বাড়িতে হামলা চালিয়ে ঘরের পাকার দেয়াল ভেঙ্গে আসবাবপত্র ভাঙচুর করে মোবাইল, নগদ টাকা ও স্বর্ণলংকার নিয়ে যায়। একই বাড়ির মৌলদা বেগম, আবিদ মিয়া, আব্দুল করিম, পাকু মিয়া ও চুনু মিয়ার ঘরেও ভাঙচুর করা হয়েছে। হামলাকারীরা মসজিদের পাশ থেকে রুমি মিয়ার ফসলি জমির ধান কেটে নিয়ে গেছে।
হামলার বিষয়ে কাগাবালা বাজারে একাধিক ব্যবসায়ী ও স্থানীয় লোকের সাথে কথা হলে তারা বলেন, শিবলী মিয়া’র লোকেরা নৃশংস এ হামলা করেছে। ইতি পূর্বে আমাদের এলাকায় এরকম ঘর ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেনি।
এবিষয়ে মামলারবাদী শিবলী মিয়া বলেন, আসামীরা বাহির থেকে লোক এনে আমাদেরকে ফাঁসানোর জন্য তাদের ঘর নিজেরাই ভাঙচুর করেছে।
বাদী শিবলী মিয়া’র লোকেরা ভাঙচুর করেছে এ কথা স্বীকার করে ইউপি চেয়ারম্যান আজির উদ্দিন বলেন, হামলাকারীরা অন্য দুটি বাড়ি ভেঙে যখন আবু বক্করের বাড়িতে আসে তখন আমি নিজে গিয়ে তাদেরকে বিদায় করে দিয়েছি। ঘটনার পরে হামলাকারী ০৮/১০ জন লোককে ইউনিয়নে ডেকে আনলে তারা হামলার কথা স্বীকার করে। এসময় তাদেরকে সতর্ক করে দিয়েছি যাতে আগামীতে এধরনের কোন ঘটনা না ঘটায়। বৈঠকে আনহার মিয়া ও ইউপি সদস্য মশাহিদ মিয়াসহ অন্যান্য ইউপি সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
ইউপি সদস্য মোশাহিদ মিয়ার সাথে কথা হলে তিনি বলেন, ২ মিনিট পরে আপনার সাথে কথা বলতেছি।
মৌলভীবাজার মডেল থানার ওসি মো: সোহেল আহাম্মদ শিবলী মিয়া’র লোকেরা হামলা করেছে একথা স্বীকার করে বলেন, বিষয়টি মর্মান্তিক ও হৃদয় বিধাড়ক। আইনী প্রক্রিয়ার মাধ্যমে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০৬নভেম্বর,শংকর শীল,চুনারুঘাট থেকেঃ   হবিগঞ্জের চুনারুঘাট পৌরসভার পূর্ব বড়াইল গ্রামে শ্রী শ্রী মদন মোহন জিউর বিগ্রহ আখড়ায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সর্ব বৃহৎ এই তারকব্রহ্ম হরিনাম সংকীর্তন মহাযজ্ঞ ১০ দিন ব্যাপী প্রতি বছরের ন্যায় এবার ও বিভিন্ন ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যে শুরু হতে যাচ্ছে।
এদিকে আয়োজক কমিটি সকল প্রস্তুতি সম্পূর্ণ করেছেন৷ এবছর নিয়ে ৫ বছর পূর্ণ হবে। এ নামযজ্ঞ অনুষ্ঠানে পুরোহিত করবেন -মদন মোহন জিউর আখড়ার সেবাহেত শ্রী পরমানন্দ বৈষ্ণব। অনুষ্ঠান আয়োজনের মধ্যে – ১১ নভেম্বর শনিবার থেকে ১৭ নভেম্বর শুক্রবার  পর্যন্ত প্রতিদিন বিকাল ৩ টা হতে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত শ্রীমদ্ভাগবতগীতা ও ভাগবত পাঠ। রাত ৮ টায় ধর্মীয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

১৭ নভেম্বর শুক্রবার বিকাল ৩ টায় শ্রীমদ্ভাগবতগীতা ও ভাগবত পাঠ পরিবেশনায় – শ্রীযুক্ত দীপক ভট্টাচার্য্য চান্দঁপুর চা – বাগান, শ্রীযুক্ত সুবীর দেব চুনারুঘাট, রাত ৯.৩০ মিঃ সময়ে কবি গান পরিবেশনায় –  বাউল কবি শ্রী গোরাঙ্গ পাল ও শ্রী খোকমনি দেবনাথ, রাত ১০ টায় ষোরশ প্রহর ব্যাপী হরিনাম মহাযজ্ঞের শুভ অধিবাস পরিবেশনায় – শ্রীযুক্ত বিনয় সূত্রধর চুনারুঘাট, ১৮ নভেম্বর শনিবার ব্রহ্ম মূহুর্তে ষোরশ প্রহর ব্যাপী হরিনাম সংকীর্তন শুভারম্ভ।

হরিনাম সংকীর্তন পরিবেশনায় – জয় জগদানন্দ সম্প্রদায় পিরোজপুর, কমল কৃষ্ণ সম্প্রদায় খুলনা, নব শিব মন্দির সম্প্রদায় মাগুরা, মদন মোহন সম্প্রদায় চট্টগ্রাম, গৌরভক্ত সম্প্রদায় তেলিয়াপাড়া। ১৯ নভেম্বর রবিবার বেলা ১২.৩০ মিঃ সময়ে শ্রীমন্ মহাপ্রভুর ভোগরাগ, দুপুর ২ টায় মহাপ্রসাদ বিতরণ, ২০ নভেম্বর সোমবার উষালগ্নে নগর পরিক্রমা, সকাল ১০ দধিভান্ডভঞ্জন তৎপর উৎসব সমাপন। উৎসব উদযাপন কমিটির পক্ষ থেকে সক্রিয় ভাবে উপস্থিত থাকার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হলো।