Tuesday 12th of December 2017 12:11:44 PM

“আটক দেলওয়ারকে আসামী করে মামলা দেখিয়ে জেলহাজতে প্রেরণ,শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান”

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৩আগস্ট,শাব্বির এলাহী,কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে রাবিনা বেগম নামে ৯ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে হত্যার পর লাশ ধলাই নদীতে ফেলে দেওয়ার ঘটনায় হত্যাকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও এ ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতারের দাবীতে ভান্ডারীগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক/শিক্ষার্থী ও ইউনিয়নবাসী রবিবার (১৩আগষ্ঠ) সকাল ১১টায় কমলগঞ্জে মানববন্ধন শেষে জেলা প্রশাসক,পুলিশ সুপার ও কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে স্মারকলিপি প্রদান করে। ৯ম শ্রেণির ছাত্রীকে হত্যার পর লাশ নদীতে ফেলে দেওয়ায় ঘটনায় ভান্ডারীগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়সহ পুরো ইসলামপুর এখন বিক্ষোব্দ।
জানা যায়, ইসলামপুর ইউনিয়নের ভান্ডারীগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির এক ছাত্রী রাবিনা বেগমকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে গত ১২ জুলাই সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে আটকিয়ে রেখে হত্যা করে পরে লাশটি ধলাই নদীতে ফেলে দিয়েছিল। নিহত ছাত্রীর বাবা মুসলিম মনিপুরী পাঙ্গাল সম্প্রদায়ের দরিদ্র কৃষক কায়াম উদ্দীন গতকাল শনিবার জানান, শুক্রবার রাত ১টায় তিনি আটক দেলওয়ার হোসেনকে আসামী করে কমলগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। তিনি ঘাতক দেলওয়ারের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

এদিকে ছাত্রী রাবিনা বেগম হত্যা কান্ডের ঘটনায় সন্দেহমূলক আটক দেলওয়ার হোসেনকে আটকের পর তার স্বীকারোক্তি ও শুক্রবার হত্যাকান্ডের স্থান ও কোন স্থানে লাশ ফেলেছিল তা পুলিশকে দেখানোর পর থেকে ভান্ডারীগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের সহ¯্রাধিক ছাত্র-ছাত্রীর সাথে পুরো ইসলামপুর ইউনিয়নবাসী এখন বিক্ষোব্দ। তারা গ্রেফতার হওয়া হত্যাকারী দেলওয়ারের সাথে আরও কেউ জড়িত থাকলে তাকেও গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেন।

ইসলামপুর ইউনিয়নের মখাবিল গ্রামের আব্দুল খালিক প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, এজন্য ইউনিয়নবাসী রবিবার স্মারকলিপি নিয়ে কমলগঞ্জ থানা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে পেশ করার চিন্তা ভাবনা করছেন। ইসলামপুর ইউনিয়নের ভান্ডারীগাঁও উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ খুরশেদ আলীও গ্রেফতার হওয়া হত্যাকারী দেলওয়ারের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করে বলেন, এ ধরনের ঘটনা কমলগঞ্জ উপজেলায় প্রথম। তাই এখন সর্ব মহলের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।
শুক্রবার রাতে স্কুল ছাত্রী রাবিনা বেগম হত্যা মামলা হওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করে ওসি (তদন্ত) মো: নজরুল ইসলাম বলেন, আটক দেলওয়ার হোসেনকে গ্রেফতার দেখিয়ে শনিবার সকালে মৌলভীবাজার আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। আর মামলার তদন্তভার দেওয়া হয়েছে উপ পরিদর্শক মো: আজিজুর রহমানকে। তদন্ত কর্মকর্তা উপ পরিদর্শক আজিজুর রহমান বলেন, খুবই গুরুত্বের সাথে মামলাটি তদন্ত করে দেখা হবে।

 

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৩আগস্ট,নড়াইল প্রতিনিধিঃনড়াইলের কালিয়া উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামে পুকুরে ডুবে আফসানা নামে দেড় বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। রবিবার (১৩ আগস্ট) দুপুরে তার মৃত্যু হয়। আফসানা রঘুনাথপুরের রানা মোল্যার মেয়ে।
পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, রবিবার দুপুরে খেলার ছলে বাড়ির পাশের পুকুরে পড়ে যায় আফসানা। অনেক খোঁজাখুজির পর পুকুর থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় পরিবারসহ প্রতিবেশিদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৩আগস্ট,নিজস্ব প্রতিবেদকঃ হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার পানিউমদা ইউনিয়নের বড়গাও বাজারে রাস্তা পারাপারের সময় ট্রাক চাপায় স্কুল ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে।রবিবার (১৩ আগস্ট) সকাল ৯টার দিকে উপজেলার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের সড়কে পাথর ও বোঝাই ট্রাকের নিচে চাপা পড়ে নাজমুল হোসেন জীবন (৯) নামে ৩য় শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্র ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়েছে।

সে বাহুবল উপজেলার সারংপুর গ্রামের সিরাজ মিয়ার ছেলে।খবর পেয়ে শেরপুর হাইওয়ে থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে নিহতের লাশ উদ্বার করে সুরতহাল রিপোর্টের জন্য লাশ হবিগঞ্জ মর্গে প্রেরন করে। এ সময় মহাসড়কে প্রায় আধাঘন্টা সময় যানচলাচল বন্ধ তাকে।
জানা যায়, গত কয়েক দিন ধরে নিহত জীবন তার মায়ের সাথে তার মামার বাড়ী বড়গাও গ্রামে তাজুল মিয়ার বাড়ীতে বেড়াতে আসে। ঘটনার সময় তার মায়ের সাথে পারিবারিক কাজে বড়গাও বাজারে আসে। এ সময় রাস্তা পারাপার করার সময় সিলেট থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী একটি পাতর বুজাই ট্রাক তাকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই সে মৃত্যু বরণ করে। এ সময় ঘাতক ট্রাক পালিয়ে যায়।
হবিগঞ্জের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সার্কেল) রাশেলুর রহমান বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৩আগস্ট,নিজস্ব প্রতিবেদকঃ হবিগঞ্জের বাহুবলে বালি মহাল ও সিরামিক কোম্পানির কাঁচা মালের ব্যবসা নিয়ে মূল দন্ধ হলেও একপর্যায়ে মসজিদের কমিটি গঠন ও ইমাম নিয়ে বিরোধের জের ধরে সংঘর্ষে নিহতের ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে ৩শ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।শনিবার (১২ আগস্ট) দিবাগত রাত ১টার দিকে এসআই আব্দুর রহিম বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলায় ৭০ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত আড়াইশ জনকে আসামী করা হয়। এ ঘটনার পর থেকে পুরুষ শূন্য হয়ে পড়েছে পুরো মুগকান্দি গ্রামটি।

জানা যায়, বাহুবল উপজেলার সাতকাপন ইউনিয়নের মুগকান্দি জামে মসজিদের কমিটি গঠন ও ইমাম পরিবর্তনকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের বিরোধ চলছিল। একপক্ষ বর্তমান ইমাম ফরিদ আখঞ্জীর পরিবর্তন চায়। অপরপক্ষ ওই ইমামের পক্ষে অবস্থান নেয়। এ অবস্থায় গত শুক্রবার জুমার নামাজে সাতকাপন ইউপি চেয়ারম্যান মুগকান্দি গ্রামের আবদাল মিয়া আখঞ্জি গ্রুপের সোহেল মিয়ার সঙ্গে একই গ্রামের শফিক মাস্টারের বাকবিতন্ডা হয়।

এর জেরে বাদ জুমা উভয়পক্ষ দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। ওই সংঘর্ষে আহত হন অন্তত ৫০ জন। এরই জের ধরে শনিবার (১২ আগস্ট) ফের সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের দুই জন নিহত হয়। সংঘর্ষে আহত হন আরও শতাধিক। নিহতরা হলেন পূর্ব মুগকান্দি গ্রামের লন্ডনি বাড়ির ছাবু মিয়ার ছেলে লন্ডনপ্রবাসী কবির মিয়া এবং আখঞ্জি বাড়ির পক্ষের মৃত মুসলিম মিয়ার ছেলে মতিন মিয়া।

এদিকে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিততি নিয়ন্ত্রনে রাখতে পুলিশ ৭০ জনের নাম উল্লেখ সহ আড়াইশজনকে আসামীকে মামলা দায়ের করেছে। সংঘর্ষের পর থেকে পুরুষ শুন্য হয়ে পড়েছে পুরো গ্রামটি। গ্রামটি ঘুরে দেখা যায় হাড়ি পাতিল গরু ছাগল নিয়ে পুরুষদের পাশাপাশি গ্রাম ছাড়ছে মহিলারাও। উপজেলার মৌরি গ্রাম থেকে আসা বৃদ্ধ ছায়েব আলী জানান, আমার মেয়ের বাড়ী এই গ্রামে (মুগকান্দি) মেয়ের জামাই দেশের বাইরে। মেয়েও আমার বাড়িতে আসে। আমি বেয়াইনের খবর নিয়ে আইয়া দেখি সবাই ঘর তালা দিয়া কৈ জানি চলে গেছে।
অপর একটি সূত্র জানায়, শুধু ইমাম আর মসজিদের কমিটিই নয় সাদা মাঠির ব্যবসার সাথে রয়েছে তাদের দন্ধ।দীর্ঘদিন যাবৎ প্রশাসনকে ম্যানেজ করে লাল ঠিলা থেকে সাদা মাঠির ব্যবসা করে আসছিল। সম্প্রতি উপজেলা প্রশাসনের নতুন কর্মকর্তা আসায় এ ব্যবসায় ভাটা পড়ে। হিসাব নিকাশ নিয়েই এ দ্বন্ধের সৃস্টি।
হবিগঞ্জের সিনিয়র পুলিশ সুপার (সার্কেল) রাশেলুর রহমান মামলার বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে এখনও পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। আমাদের অভিযান চলবে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৩আগস্ট,আশরাফ আলীঃ  মৌলভীবাজার সদর উপজেলায় বাসের ধাক্কায় তালেব আলী নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে।
রোববার দুপুর সাড়ে ১২টায় মৌলভীবাজার-শ্রীমঙ্গল আ লিক মহাসড়কের জগন্নাতপুর এলাকায় এ দূর্ঘটনা ঘটে।
নিহত তালেব আলী রাজনগর উপজেলার মহলাল গ্রামের মৃত আছর আলীর ছেলে।এ ঘটনায় চালক আব্দুল মালেক (৪৮) কে আটক করে পুলিশে দিয়েছেন স্থানীয় লোক।
স্থানীয়রা জানান, সকালে মৌলভীবাজার থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী হানিফ পরিবহনের একটি গাড়ি পথচারী তালেবকে ধাক্কা দিলে তিনি ঘটনাস্থলে গুরুত্বর আহত হন।পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসার্ধীন অবস্থায় বেলা দেড়টায় তার মৃত্যু হয়।
এ বিষয়ে মৌলভীবাজার মডেল থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক মিনারা আক্তার পপি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৩আগস্ট,হবিগঞ্জ প্রতিনিধিঃ  হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জে ভেলের ভাউচারে আগুন লেগে পুরো গাড়িটি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এ ঘটনায় ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে প্রায় ত্রিশ লক্ষ টাকা।রোববার (১৩ আগস্ট) বেলা আড়াইটায় ঢাকা সিলেট মহাসড়কের শায়েস্তাগঞ্জ থানাধীন নুরপুর নামক স্থানে এ ঘটনাটি ঘটে।

জানা যায়, শ্রীমঙ্গল থেকে ছেড়ে আসা (ঢাকা মেট্রো ট ০২-০০০৮) ভাউচারটি তেল নিয়ে মাধবপুর যাওয়ার পথে ঢাকা সিলেট মহাসড়কের নুরপুর নামক স্থানে পৌঁছলে একটি গর্তে চাকা পড়ে গেলে ঝাকুনি খেয়ে ভাউচারটিতে আগুন ধরে যায়। দাউদাউ করে জ্বলতে থাকে তেলের ভাউচারটি।
খবর পেয়ে হবিগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস,শায়েস্তাগঞ্জ ও মাধবপুর ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট এক ঘন্টা চেস্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আসলেও তেলের ভাউচারটি পুড়ে ভস্মিভূত হয়ে যায়।
এ ঘটনায় আহত হয়েছেন শায়েস্তাগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ জামাল উদ্দিন শাহিন ও একজন ফায়ারম্যান।তাদেরকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।
হবিগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ সাজ্জাদুল আলম বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় গাড়ি ও তেলসহ ক্ষয়ক্ষতির পরিমান ৩০ লক্ষ টাকা হবে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৩আগস্ট,জহিরুল ইসলামঃ   শনিবার ১২ আগষ্ট সন্ধ্যায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন-৯, সিপিসি-২,শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের একটি দল মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া থানা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে মো: হান্না মিয়ার হত্যা মামলার ১নং আসামীকে আটক করে র‌্যাব-৯।
র‌্যাব জানায় রুবেল আলীকে জেলার কুলাউড়া থানাধীন রেলওয়ে ষ্টেশন এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়েছে। সে এই হত্যা মামলার প্রধান আসামী।
আটককৃত আসামীর রুবেল আলী (২২), পিতাঃ আক্তার আলী, গ্রাম,নন্দনপুর (আখিলপুর), থানা কুলাউড়া, জেলাঃ মৌলভীবাজার। এজাহারে বর্ণিত আসামীদ্বয় এই বছরের ১৩ জুলাই রাত ১১ টায় মো: হান্না মিয়াকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে।
উল্লেখ্য হত্যা কান্ডের অপর সহযোগী লিয়াকত আলী (৩৮) কে পূর্বেই গ্রেফতার করা হয়েছে। আসামীকে গ্রেফতার করায় এলাকার জনগন স্বস্তি প্রকাশ করেছে। গ্রেফতারকৃত আসামীকে মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া থানায় রুবেল আলীকে হস্তান্তর করা হয়েছে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৩আগস্টঃ শনিবার ১২ আগস্ট বাংলাদেশ ইসলামী ছাএসেনা মৌলভীবাজার জেলার ট্রেনিং ক্যাম্প ডিটিসি প্রোগ্রাম জেলা সভাপতি এম এ এম রাসেল মোস্তফার সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক জুনেদুল ইসলাম চৌধুরী আদনান এর পরিচালনায় শ্রীমঙ্গলে কলেজ রোডস্থ গাউছিয়া সফিকিয়া মাদ্রাসা হলে অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট এর প্রেসিডিয়াম সদস্য, আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী হারুন।প্রধান বক্তা হিসাবে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনার কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ছাত্রনেতা এইচ এম সহিদুল্লাহ।

সকাল ৯টা হতে সন্ধা ৬টা পর্যন্ত নামাজের সময় ছাড়া লাগাতার প্রশিক্ষণ প্রদান করেন, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট, যুবসেনা, ছাএসেনার কেন্দ্রীয় ও জেলা নেতৃবৃন্দ।

এতে প্রশিক্ষণ প্রদান করেন সংগঠনের সাবেক সভাপতি,ইসলামী যুবসেনার কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক যুবনেতা সৈয়দ মোহাম্মদ আবু আজম, প্রশিক্ষণ প্রদান করেন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসেনার কেন্দ্রীয় শিক্ষা প্রশিক্ষন ও গবেষণা সম্পাদক ছাত্রনেতা আবুল কালাম আজাদ, অধ্যক্ষ মুফতি শেখ শিব্বির আহমদ, সহ সভাপতি, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট মৌলভীবাজার জেলা।মাওলানা আব্দুল মুহিত হাসানী,সহ-সভাপতি, বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট মৌলভীবাজার জেলা।

এম মুহিবুর রহমান মুহিব, সভাপতি, বাংলাদেশ ইসলামী যুবসেনা মৌলভীবাজার জেলা শাখা, বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের কেন্দ্রিয় সদস্য জননেতা অধ্যক্ষ মোল্লা শহীদ আহমদ, শ্রীমঙ্গল উপজেলা ফ্রন্ট এর সাধারন সম্পাদক মাও:দেলওয়ার আহমদ আল কাদেরী।

আরও বক্তব্য রাখেন শ্রীমঙ্গল উপজেলা যুবসেনার সভাপতি ডাঃ মামুনুর রসীদ মামুন , জেলা ছাত্রসেনার সাবেক সভাপতি, শেখ কামরুল হাসান,সাবেক সি:সহ সভাপতি, শেখ ময়নুল ইসলাম আফরোজ, মাওলানা আশরাফ আহমদ।

আরও বক্তব্য রাখেন,জেলা ছাত্রসেনার সহ-সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল খান রুহেল, আলমগির হুসাইন ও সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ সাইফুর রহমান মুন্না প্রমুখ।

“বৈরী আবহাওয়া ও অনবরত বৃষ্টির কারনে ১ম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে আজ বড় পরিসরে ওয়াজ মাহফিল স্থগিত করা হয়েছে”

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৩আগস্ট,এম এস জিলানী আখনজীঃ আজ রবিবার রক্তাক্ত ১৩‘ই আগস্ট। অজস্র শোক, বেদনা ও মর্মাহত জড়ানো একটি দিন। যে দিন সুন্নীয়তের নীলাকাশে খসে পড়েছিল একটি উজ্জ্বল নক্ষত্র। আর সে নক্ষত্র হলেন নিউইয়র্কে দূর্বৃত্তের গুলিতে নির্মমভাবে নিহত, কুইন্স ওজনপার্কে অবস্থিত আল-ফুরকান জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব জনপ্রিয় ইসলামী চিন্তাবিদ, পীরজাদা আল্লামা শহীদ শাহ্ আলাউদ্দিন আখঞ্জী (রহ:)। যিনি ২০১৬ সালের ১৩‘ই আগষ্ট সত্যের আদর্শে পরাজিত শক্তি, নরপিশাচ ঘাতক হায়েনাদের হাতে আল ফুরকান জামে মসজিদের সামনে রোজ শনিবার ইউ.এস.এ দুপুরের সময় ১:৫০ মিনিটে আততায়ীদের গুলিতে নির্মমভাবে শাহাদাত বরণ করেন। তিনি জোহরের নামাজ শেষে বাসায় ফিরছিলেন। তিনি ছিলেন একটি বিস্ময়কর হিরন্ময় জ্যোতি। ছিলেন সকলের প্রাণের ব্যক্তিত্ব ও হৃদয়ের স্পন্দন। ইসলামী বিশ্বে তিনি ছিলেন সুন্নীয়তের শান্তির দূত ও নির্ভীক সিপাহশালা।

তিনি আমৃত্যু ইসলামের সঠিকরূপ রেখা তথা আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের আদর্শ প্রচার ও প্রসারে নিয়োজিত ছিলেন। তিনি হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার আহম্মদাবাদ ইউনিয়নের (গোছাপাড়া) গ্রামের শামছুল আরেফীন আল্লামা শাহ্ শামছুদ্দিন আখঞ্জী (রহ:) ঔরশে জন্ম নেয়া এই মহান বীরের জীবন কেটেছে দীর্ঘদিন গাজীপুর রায়হানীয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার হিসেবে, অতপর শায়েস্তাগঞ্জ রেলওয়ে জামে মসজিদ, হবিগঞ্জ চৌধুরী বাজার কেন্দ্রীয় সুন্নি জামে সসজিদ এবং সর্বশেষ নিউইয়র্ক কুইন্স ওজনপার্কে অবস্থিত আল-ফুরকান জামে মসজিদে। জীবনের সর্বাঙ্গে তিনি ছিলেন অবিচল, আস্থাশীল ও সক্রিয়। তিনি সরলমনা মুসলমানদের শিখিয়েছেন আল্লাহ, নবী ও ওলীদের কিভাবে ভালবাসতে হয়।

তিনিই একমাত্র ব্যক্তি যার অক্লান্ত পরিশ্রমের কারণে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন স্থানে ইয়ানবী সালামু আলাইকা’র সাথে মোস্তফা জানে রহমত পেঁ লাখো সালাম এর সুর লহরী প্রতিধ্বনিত হয়েছিল। যা শ্রবণে নবী প্রেমিকদের হৃদয় প্রশান্তিতে ভরে যেত। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি ছিলেন খুবই সাধারণ। জীবন যাপন ছিল অনাড়ম্বর ও অতি সাদামাটা। মূলত সত্য, ন্যায়, ইসলামের সঠিক শিক্ষা ও আদর্শ প্রচারে তিনি ছিলেন সক্রিয় ব্যক্তিত্ব। যার উজ্জ্বল প্রমাণ মানুষকে সত্যের পথিক বানানো। যার কারণে সারা বিশ্বের প্রায় মুসলিম বিশেষ করে প্রবাসী বাঙ্গালীরাও ছিল তাঁর প্রতি ভক্ত ও শ্রদ্ধাশীল। মূলত তাঁর শাহাদাতের পেছনে এটাই আসল কারণ যে, তিনি কেন এ ভাবে মানুষকে সত্যের পথিক বানাচ্ছেন। তাই অন্যায়, অসত্য ও তাগুতীবাদের প্রেতাত্মারা ভারাটিয়া কিলারের মাধ্যমে গুলি করে নির্মমভাবে শহীদ করে দেয়। আল্লামা শাহ্ আলাউদ্দিন আখঞ্জী (রহ:) এমন উচুঁমাপের ইসলামী চিন্তাবিদ ছিলেন, যা তাঁর ইন্তিকালের সময়ে প্রমাণিত হয়েছে। তাঁর জানাযার নামাজ জন সমুদ্রে পরিনত হয়েছিল। প্রিয় ব্যক্তিত্বকে হারানোর শোকে অশ্রু ঝড়াচ্ছিল দু’নয়নে। তিনি শাহাদাতের সুধা পান করেই আজ জান্নাতী।

মূলত শাহাদাত তাঁর একটি কামনা ছিল। তাঁর প্রতিটি দোয়া মোনাজাতে বলতেন, আল্লাহ আমাকে শহীদি মৃত্যু দাও। আর মকবুল বান্দার দোয়া কবুল করেন আল্লাহ তায়ালা। প্রিয় নবী (দ:) বলেছেন, “যে ব্যক্তি আল্লাহর কাছে সত্যিই শাহাদাতের মৃত্যু চায়, সে তার বিছানায় মৃত্যুবরণ করলেও আল্লাহ তায়ালা তাকে শহীদের মর্যাদায় পৌঁছে দেন”। (মুসলিম শরীফ) এভাবে হাজারো গুণে-বৈশিষ্ট্যে আল্লামা আখঞ্জী (রহ:) ছিলেন স্বমহিমায় সমুজ্জ্বল। আজ দীর্ঘ এক বছর পরও মানুষ তাকে শ্রদ্ধাভরে স্বরণ করছে এবং ন্যায় বিচারের দিকে থাকিয়ে আছে। তিনি আজ আমাদের মাঝে নেই। আছে হাজারো স্মৃতি ও কথা। তিনি আজীবন সকল সুন্নী মুসলমানদের প্রাণে চীর স্বরণীয় হয়ে থাকবেন।
উল্লেখ্য যে, শহীদ আল্লামা আলাউদ্দিন আখঞ্জী (রহ:) ফাউন্ডেশন কর্তৃক পূর্ব ঘোষিত ১ম শাহাদাত বার্ষিকী আগামীকালের নির্ধারিত ওয়াজ মাহফিল বড় পরিসরে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল , বৈরী আবহাওয়া ও অনবরত বৃষ্টি পাতের কারনে সম্মিলিত সিদ্ধান্তে মাহফিল সাময়িক ভাবে স্থগিত করা হয়েছে। এ জন্য ফাউন্ডেশন পরিচালনা পরিষদ ও পারিবারিক ভাবে আমরা দুঃখ প্রকাশ করছি । তবে ছোট্র পরিসরে পারিবারিক ও গ্রামবাসীকে নিয়ে খতমে কোরআন ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। পরবর্তীতে মাহফিল এর তারিখ জানানো হবে ।