Saturday 23rd of September 2017 04:25:11 AM

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৩০জুনঃ  আইজিপি  এ কে এম শহীদুল হক মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে ব্যক্তিগত সফরে এসেছেন বলে পুলিশের একটি সুত্রে জানা গেছে। বিস্তারিত আসছে…।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৩০জুন,চুনারুঘাট প্রতিনিধিঃ চুনারুঘাট পৌরসভার উত্তর বড়াইল গ্রামের মৃত জিতেন্দ্র দেবের পুত্র সুজিব দেব (৩২) কে ৩২ পিস উত্তেজনাকর ইয়াবা ট্যাবলেট সহ হাতেনাতে গ্রেফতার করেছে চুনারুঘাট থানা পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়,বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চুনারুঘাট পৌর এলাকার কলেজ গেইটের সামন থেকে আটক করে তার দেহ তল্লাশী করে ৩২ পিস উত্তেজনাকর ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করে থানা পুলিশ।

চুনারুঘাট থানার এ.এস.আই মোস্তফা ও এ.এস.আই আলমাস এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ বিশেষ অভিযান চালিয়ে সুজিত দেবকে ৩২ পিস ইয়াবাসহ হাতেনাতে আটক করে চুনারুঘাট থানায় নিয়ে আসে। এ ব্যাপারে চুনারুঘাট থানার ওসি (তদন্ত) নূরুল ইসলাম বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেন।

এ বিষয়ে সুজিব দেবের বিরুদ্ধে চুনারুঘাট থানায় মাদক দ্রব্য আইনে একটি মামলা হয়েছে। যার মামলা নং- ৪১(৬)/১৭ (চুনা:)। পরে শুক্রবার দুপুরের দিকে সুজিত দেবকে হবিগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৩০জুন,নিজস্ব প্রতিবেদকঃ হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলায় বিদ্যুতের তাঁরে জড়িয়ে আব্দুর রাজ্জাক (৪৫) নামে এক যুবকের করুণ মৃত্যু হয়েছে। সে চুনারুঘাট পৌর শহরের ধলাইরপাড় এলাকার মৃত আব্দুল জলিলের ছেলে।

আজ শুক্রবার সকাল ১১টায় আব্দুর রাজ্জাক তার বাড়ির পাশে একটি বাঁশ ঝারে বাঁশ কাঁটতে গেলে তাৎক্ষণিক বিদ্যুতের তাঁরের সাথে জড়িয়ে পড়ে।

আশ পাশের লোকজন দেখতে চুনারুঘাট পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে খবর দিলে দ্রুত পল্লী বিদ্যুতের লোকজন এসে বিদ্যুতের লাইন বন্ধ করে দিলে আব্দুর রাজ্জাক বাঁশ থেকে ছিটকে পড়ে যায় এবং ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। স্থানীয় সূত্রে পাওয়া, বিদ্যুতের তাঁরটি গত রাতে কোন একসময় ছিড়ে বাঁশের উপর পড়ে যায় এবং আব্দুর রাজ্জাক সকালে বাঁশ কাঁটতে গেলে এতে জড়িয়ে পড়ে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৩০জুন,নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ঈদ মানে আনন্দ সেই আনন্দ উপভোগ করতে চট্টগ্রাম বেড়ানো জন্য গিয়ে লাশ হয়ে ফিরে এলো হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার যুবক শিপন মিয়া(২০)। পাওয়া তথ্য মতে, সোমবার ঈদ এর দিন কাটানোর পর (২৭ জুন) মঙ্গলবার নবীগঞ্জ উপজেলার কুর্শি ইউনিয়নের মুতাজ্জিলপুর গ্রামের মোঃ কবির মিয়ার ছেলে শিপন মিয়া ঈদ আনন্দকে উপভোগ করার জন্য বাড়িতে চট্টগ্রাম বেড়ানোর কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়।

চট্টগ্রাম রেলওয়ে পুলিশ সূত্রে জানা যায়,সিলেট থেকে ছেড়ে যাওয়া উদয়ন পরিবহণের ট্রেন চট্টগ্রাম স্টেশনে দাড়ানোর পর ট্রেন এর উপর থেকে (২৯ জুন) বৃহস্পতিবার (২৯ জুন) রাত ৮.৪৫ মিনিট সময়ে  শিপন আহমেদ রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ ।

এদিকে বাড়ি থেকে বার বার শিপনের মোবাইল ফোনে কল করলে এক সময় রেলওয়ে পুলিশের একজন কর্মকর্তা কল রিছিব করলে শিপনের মৃত্যুর খবরটি বাড়ির লোকজন জানতে পারে। এরপর ময়না তদন্ত শেষে শুক্রবার (৩০জুন) চট্টগ্রাম রেলওয়ে থানা পুলিশ নিহত শিপন মিয়ার
লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেন ।

এদিকে হত্যা না দূর্ঘটনা এনিয়ে দেখা দিয়েছে নানা প্রশ্ন । পরিবারিক সূত্রে জানা যায়, ঈদের পূর্বে প্রায় ৬মাস শিপন চট্টগ্রাম কাজ করেছে ঈদ এর সময় বাড়িতে কাটানোর জন্য বাড়িতে আসে। এদিকে পরিবারের সদস্যরা দাবী করে জানিয়েছেন, শিপন কে হত্যা করা হয়েছে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৩০জুনঃ   আজ শুক্রবার “৩০ জুন মহান সাঁওতাল বিদ্রোহের ১৬২তম” বার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় আদিবাসী পরিষদ রাজশাহী জেলা ও মহানগর কমিটির উদ্যোগে আজ ৩০ জুন ২০১৭ সকাল ১১টায় রাজশাহী সাধারণ গ্রন্থাগারে (মিয়াপাড়া) আলোচনা সভা অনুষ্ঠীত হয়।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদ রাজশাহী জেলা কমিটির সভাপতি বিমল চন্দ্র রাজোয়াড়।

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য প্রদান করেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদের প্রধান উপদেষ্ঠা ও আদিবাসী বিষয়ক সংসদীয় ককাসের আহ্বায়ক ফজলে হোসেন বাদশা এম.পি। বক্তব্য প্রদান করেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রবীন্দ্রনাথ সরেন, বিশিষ্ঠ সমাজ সেবক সূর্য হেমব্রম, বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ রাজশাহী জেলা শাখার সভাপতি কল্পনা রায়, ব্লাস্ট রাজশাহী জেলা সমন্বয়কারী এ্যাড আব্দুস সামাদ, বিশিষ্ট লেখক ও গবেষক প্রশান্ত কুমার সাহা, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি  রাজশাহী জেলার সভাপতি রফিকুল ইসলাম পিয়ারুল, ন্যাপ রাজশাহী জেলার সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. মুস্তাফিজুর রহমান খান আলম, জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক সূভাষ চন্দ্র হেমব্রম, কেন্দ্রীয় কমিটি সদস্য রাজকুমার শাও, আদিবাসী যুব পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি নবদ্বীপ লাকড়া, রাজশাহী জেলার সাধারণ সম্পাদক সুসেন কুমার শ্যামদুয়ার, আদিবাসী ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক তরুন কুমার মুন্ডা, আদিবাসী ছাত্র পরিষদ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি হেমন্ত মাহাতো প্রমুখ। আলোচনা সভা পরিচালনা করেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদ রাজশাহী মহানগর সাধারণ সম্পাদক আন্দ্রিয়াস বিশ্বাস।
আলোচনা সভায় আদিবাসী বিষয়ক সংসদীয় ককাশের আহ্বায়ক ফজলে হোসেন বাদশা এমপি বলেন, “সাঁওতাল বিদ্রোহ ছিল তৎকালীন সময়ে ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনের প্রথম পদক্ষেপ, যা ইতিহাসে চিরস্মরনীয় হয়ে থাকবে।

তৎকালীন সাঁওতাল আদিবাসীরা যে নির্যাতনের বিরুদ্ধে আন্দোলন করেছিলেন তা এখনো পূরন হয়নি, এখনো আদিবাসীরা নির্যাতন নিপীড়নের শিকার হচ্ছে।তাই আদিবাসীদের সার্বিক উন্নয়নের জন্য সকল আদিবাসীদের দলমত নির্বিশেষে এক হয়ে কাজ করতে হবে। একই সাথে আদিবাসীদের ভাষা ও সংস্কৃতি রক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।”
উল্লেখ্য যে, সাঁওতাল বিদ্রোহের মহানায়ক সিধু-কানু-চাঁদ-ভৈরব-ফুলমনি মুরমু এর নেতৃত্বে জমিদার, মহাজন, পুলিশ, ঠিকাদার ও ব্রিটিশ সরকারের জুলুম অত্যাচার, হত্যা, ধর্ষন, লুটপাট ও গ্রামকে গ্রাম অগ্নিসংযোগ এর প্রতিবাদে ১৮৫৫ সালের ৩০ জুন আদিবাসী সাঁওতালসহ সকল শ্রেনীর সংগ্রামী গরীব মানুষ সমবেত হয়ে কৃষকদের অধিকারের দাবীতে গণসংগ্রাম গড়ে তোলে এবং ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে অবতীর্ন হন।

ব্রিটিশের সাথে লড়াই করে প্রায় ১০ হাজার সাঁওতাল জীবন দিয়েছিলেন। জাতীয় আদিবাসী পরিষদের উদ্যোগে উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকায় এই দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হচ্ছে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৩০জুন,শিমুল তরফদারঃ ঈদ আনন্দ যেন শেষ হতে চাইছেনা ভ্রমনপিপাসুদের জীবন থেকে।ঈদের চার দিন অতিবাহিত হলেও  শেষ হয়ে গেছে ঈদের ছুটি, তবে চায়ের রাজধানী সবুজের রাজ্য শ্রীমঙ্গলে এখনো রেশ কাটেনি ঈদ আনন্দের। এখনো এখানে বিরাজ করছে ঈদের আমেজ। বৈরি আবহাওয়া, টানা বর্ষণ কিছুই ঠেকাতে পারছেনা পর্যটকদের স্রোত। ঈর্দে ছুটি শেষে বরং ভীড় আরো বাড়তে শুরু করেছে। নৈস্বর্গিক সুন্দর অঞ্চলটিতে দেশী-বিদেশী পর্যটকদের এখন উপচে পড়া ভীড় এখনো লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

সরোজমিনে ঘুরে দেখা গেছে থেমে থেমে বৃষ্টি, পিচ্ছিল পথঘাট- দিনভর আবহাওয়ার এমন বৈরী আচরণের মাঝেও পরিবার পরিজন আর বন্ধু বান্ধবদের নিয়ে অনেকে যে যার মত করে ঘুরে বেড়াচ্ছেন আকাঁবাকা পাহাড়ী পথ ধরে। সারি সারি চা বাগান, উচু টিলা পাহার, গভীর অরন্যে জানা অজানা হাজারও বৃক্ষের সমাহার। একবার নয় যেন বারবার ফিরে আসতে ইচ্ছে করে প্রকৃতির এমন শীতল ছায়ায়। তাইতো প্রাণ ভরে এমন শীতল প্রকৃতির স্পর্শ নিতে হাজার হাজার পর্যটকের সমাগমে মুখরিত শ্রীমঙ্গলের সব গুলো পর্যটন এলাকা।

অনেকে ঈদের আগেই পরিবার পরিজন নিয়ে পর্যটন এলাকার পাশে গড়ে উঠা রেষ্ট হাউস ও রির্সোটগুলোতে করেছেন রাত্রিযাপন। ছুটিতে নির্মল সবুজের স্বাদ নিতে চায়ের রাজধানী শ্রীমঙ্গলের বিটিআরআই, লাউয়াছড়া, বধ্যভুমি ৭১, বণ্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন, বাইক্কাবিল, খাসিয়া পুঞ্জি, নীলকন্ঠ দশ কালার চায়ের দোকান গুলোতে পর্যটকদের উপচে পরা ভীড় লক্ষ করা গেছে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৩০জুন,ডেস্ক নিউজঃ     যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডি.সি তে মঙ্গলবার ‘নারী রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী’ শীর্ষক একটি গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। গ্রন্থটিতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিশেষ ভাবে মূল্যায়ন করা হয়েছে বলে ওয়াশিংটনে বাংলাদেশ দূতাবাসের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

গ্রন্থটির লেখক বিশিষ্ট মানবাধিকার কর্মী ও শিক্ষাবিদ রিচার্ড ও’ব্রাইয়েন। তিনি বর্তমান বিশ্বের ১৮ জন নারী জাতীয় নেতার তালিকায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিশেষভাবে উপস্থাপন করেছেন। বইয়ের প্রচ্ছদে বিশ্বের আরও ছয়জন শীর্ষ নেতৃবৃন্দর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবিও স্থান করে নিয়েছে।

লেখক গ্রন্থটিতে গণতন্ত্র ও ভোটাধিকার পুনঃপ্রতিষ্ঠায় একনিষ্ঠতা ও কঠোর পরিশ্রম, তাঁর জীবননাশের চেষ্টা এবং বাংলাদেশের ৩ বারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনার ঐতিহাসিক অর্জন লিপিবদ্ধে ৩ পৃষ্ঠা উৎসর্গ করেন। এ প্রসঙ্গে লেখক শেখ হাসিনার এই উক্তি উদ্ধৃত করেন যে, ‘বাংলাদেশকে যখন দারিদ্রমুক্ত, ক্ষুধা মুক্ত দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে সক্ষম হব তখন হয়ত আমি বলতে পারব যে আমি এখন গর্বিত।’

 ওয়াশিংটন ডি. সি.র ওমেন্স ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক ক্লাবে বইটির মোড়ক উন্মোচিত হয় । এসময় বিদেশি কূটনীতিক, নারী নেতৃবৃন্দসহ সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
‘অধিকতরও স্থিতিশীল, অধিকতরও গণতান্ত্রিক ও কম সহিংসতাপূর্ণ’ বাংলাদেশ গড়ে তুলতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আত্মত্যাগের ভূয়সী প্রশংসা করেন গ্রন্থাকার রিচার্ড ও’ব্রাইয়েন। বইয়ে প্রধানমন্ত্রীর পারিবারিক পটভূমির কথা উল্লেখ করে বলা হয়, তাঁর পিতা শেখ মুজিবুর রহমান আধুনিক বাংলাদেশ রাষ্ট্রের জনক ও দেশটির প্রথম রাষ্ট্রপতি ছিলেন। ১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্ট নৃশংস হত্যাকাণ্ডে জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তারা পরিবারের অন্যান্যরা নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার হলেও শেখ হাসিনা ও তার বোন শেখ রেহেনা ভাগ্যক্রমে বেঁচে গিয়েছিলেন।
রিচার্ড বলেন, শেখ হাসিনা নির্বাচনী জালিয়াতি ও নিপীড়নের বিরুদ্ধে শক্ত হাতে রুখে দাঁড়াতে ১৯৮১ সালে নির্বাসন থেকে দেশে ফিরে এসেছিলেন। সেসময় তিনি আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হন। এজন্য ৮০’র দশকে তাকে অনেক নির্যাতন, জুলুম সহ্য করা সহ গৃহবন্দী হয়ে থাকতে হয়েছিল।
লেখক আরও বলেন, তখনকার শাসন ব্যবস্থায় নিপীড়িত হওয়া সত্ত্বেও শেখ হাসিনা এত শক্তিশালী ছিলেন যে তাঁর দৃঢ়তায় ১৯৯০ সালে একটি অভ্যুত্থানে তখনকার শাসককে (জেনারেল এরশাদ) পদ ত্যাগে বাধ্য হয়েছিল। ২০০৪ সালে ঢাকায় শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে নিয়ে ভয়ঙ্কর হামলা করা হয়। যে হামলায় বহু লোক হতাহত হয়েছিল। সেই সঙ্গে ২০০৭ সালে তাকে আবারো গ্রেপ্তার করা হয়। কিন্তু ২০০৮ সালের নির্বাচনের আগেই তাকে মুক্তি দিতে বাধ্য হয়েছিল তৎকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকার।
রিচার্ড আরও বলেন, বর্তমানসহ শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন তিন বারের সরকারের সময়ে দেশকে অস্থিতিশীল ও সংহিংসতাপূর্ণ হিসেবে উপস্থাপন করার চেষ্টা বারবার করা হয়ে হয়েছে। তবে এত প্রতিকূলতা সত্ত্বেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার নেতৃত্বাধীন প্রশাসন বেশকিছু যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহণ করতে সক্ষম হয়েছে। তারমধ্যে ১৯৯৭ সালে ‘পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তি’, স্থলমাইনের ব্যবহার নিষিদ্ধকরণ ও ক্ষুদ্র ঋণ সম্মেলনে সভাপতিকে সহায়তা ও নারী কল্যাণ গুরুত্বপূর্ণ অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রাসহ অনেক কর্মকাণ্ড।
রিচার্ড লেখেন, বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠা ও গণতন্ত্র প্রচারণার জন্য শেখ হাসিনাকে তাঁর অসামান্য কর্মকাণ্ডের পুরষ্কার স্বরূপ ‘মাদার তেরে-সা অ্যাওয়ার্ড, ‘গান্ধী অ্যাওয়ার্ড’ এ ভূষিত করা হয়েছে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৩০জুনঃ    টানা কয়েকদিনের ভারি বর্ষণ ও ভারতের ত্রীপুরার উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলের কারণে জুড়ী নদীর পানি বেড়ে যাওয়ার ফলে মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি ঘটেছে। বন্যার কবলে উপজেলার প্রায় লক্ষাধিক মানুষ পানি বন্দি। উপজেলার সরকারি ভবন সব কয়টির ভিতরে পানি ঢুকে গেছে।

বন্যার পানি দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।অত্রাঞ্চলের বেশিরভাগ বাড়ি-ঘর, রাস্ত-ঘাট, হাট-বাজার, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদ-মন্দিরসহ বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্ঠান পানিতে তলিয়ে গেছে।অত্রাঞ্চলের বন্যার পানি দিন দিন বৃদ্ধি পাওয়ায় পরিস্থিতি এখন ভয়াবহতার রূপ ধারন করেছে। বর্তমানে উপজেলার প্রায় ৯০ভাগ মানুষ অসহায় ও দূর্ভোগের সাথে যুদ্ধ করে কোনো রকমে বেঁচে আছেন।এখন পযন্ত জুড়ীতে পানি বাড়ছে।

সরেজমিনে উপজেলাতে দেখা যায়, উপজেলার রাস্তায় হাটু পানি বা কোথাও  কোমর পানি,তার পরো বন্দ হয়নি সরকারি অপিস,সববির্ভাগে রয়েছেন সরকারি লোকজন।আরো দেখা মিলে, জুড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান গুলশান আরা মিলি, নৌকাতে করে উপজেলাতে আসেন।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৩০জুন,নাজমুল হক নাহিদ,আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ  নওগাঁর আত্রাইয়ে সাংবাদিকের ভাইয়ের বাড়িতে দুর্ঘর্ষ চুরি সংঘটিত হয়েছে। চোরেরা নগদ টাকা স্বর্ণালংকারসহ প্রায় লক্ষাধিক টাকার মালামাল নিয়ে গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার মধুগুড়নই গ্রামে।

জানা যায়, দৈনিক করতোয়ার আত্রাই প্রতিনিধি মুজাহিদ খানের ভাই মৃত আব্দুল ওয়াজেদ খানের স্ত্রী ও সন্তানরা গত বুধবার বিকেলে বাড়িরে তালা দিয়ে একই গ্রামে আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে যান। এ সময় কে বা কারা বাড়ির প্রাচীর টপকিয়ে ঘরের তালা ভেঙ্গে ঘরে রক্ষিত প্রায় ৪০ হাজার টাকা ও স্বর্ণালংকারসহ প্রায় লক্ষাধিক টাকার মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়।

সংবাদ পেয়ে বুধবার সন্ধ্যায় আত্রাই থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। আত্রাই থানার ওসি বদরুদ্দোজা বলেন, আমরা বিষয়টি খুব গুরুত্বের সাথে খতিয়ে দেখছি এবং খোয়া যাওয়া মালামাল উদ্ধারে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৩০জুন,নাজমুল হক নাহিদ,আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর আত্রাইয়ে যে সূতিজালের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ এবাদুর রহমান ছুরিকাহত হয়েছিলেন সে সূতিজালটি ভষ্মীভূত করা হয়েছে। গত বুধবার আত্রাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মোখলেছুর রহমান ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে উপজেলার শুটকিগাছা স্লুইসগেটে সূতিজালটি আটক করে সেখানেই আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেন।
স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা যায়, সূতিজালের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শুটকিগাছা বাজারে দু’টি গ্রুপের সৃষ্টি হয়। সেখানে গত রোববার দিবাগত রাত ১০ টার দিকে আত্রাই উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ এবাদুর রহমান গেলে লোকজনের সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায় উপজেলা চেয়ারম্যানকে ছুরিকাঘাত করা হয়। এ ঘটনায় উপজেলা চেয়ারম্যানের ভাই শহিদুল ইসলাম বাদি হয়ে গত সোমবার রাতে ১০জনকে আসামি করে আত্রাই থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ উপজেলার কাশবপাড়া গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলে জিল্লুর রহমানকে আটক করে নওগাঁ জেল হাজতে প্রেরণ করেছে।
এদিকে এ ঘটনার পর গত বুধবার আত্রাই উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মোখলেছুর রহমান ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে সেই সূতিজালটি আটক করে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছেন। বর্তমানে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছেন। এ ব্যাপারে আত্রাই থানার ওসি বদরুদ্দোজা বলেন, মামলার পর আসামিরা গা ঢাকা দিয়েছে। একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্যদেরও গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৩০জুন,শাব্বির এলাহী,কমলগঞ্জঃ জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে টানা ভারী বৃষ্টিতে ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের পানিতে ধলাই নদীতে পানি বৃদ্ধি পেয়ে আদমপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ তিলকপুর গ্রাম এলাকায় ধলাই প্রতিরক্ষা বাঁধ ভেঙ্গে চারটি গ্রামের বসত বাড়ি ও ফসলি জমি নিমজ্জিত করেছিল। পরবর্তীতে একে একে তিন দফা নদীতে পানি বৃদ্ধি পেলে এ ভাঙ্গন এলাকা দিয়ে ঢলের পানি প্রবেশ করলে ফসলি জমির সাথে সবগুলো বাড়িতে ২ থেকে ৩ ফুট পরিমাণ পানিতে নিমজ্জিত ছিল।

সরকারীভাবে দক্ষিণ তিলকপুর গ্রামের ধলাই প্রতিরক্ষা বাঁধ উন্নয়নে কাজ করার কোন উদ্যোগ না নেওয়ায় গ্রামবাসীরা স্বেচ্ছা শ্রমে কাজ করে ভেঙ্গে যাওয়া ধলাই প্রতিরক্ষা বাঁধ মেরামত শুরু করেন। ঈদের ছুটি আসা গ্রামের চাকুরীজীবিরা, কলেজ পড়ুয়া ছাত্র সবাই মিলে ২৮ জুন থেকে প্রায় ২০০ লোক মিলে বস্তায় বালু ভরে ধলাই প্রতিরক্ষা বাঁধ মেরামত করতে শুরু করেন।
বৃহস্পতিবার (২৯ জুন) বেলা দুইটায় দক্ষিণ তিলকপুর গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, গ্রামের কৃষক, শ্রমিক, চাকুরীজীবি, কলেজ ছাত্র সবাই মিলে প্রতিরক্ষা বাঁধ মেরামতরে কাজ করছেন। আর এ কাজে এগিয়ে আসেন কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক, আদমপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবদাল হোসেন প্যানেল চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্য হেলাল উদ্দীন।

জানা যায়, ইউপি চেয়ারম্যান আবদাল হোসেন সম্প্রতি বিতরণকৃত ভিজিএফ চালের খালি ২০০ বস্তা, প্যানেল চেয়ারম্যান হেলাল উদ্দীন তার মৎস খামারে মাছের খাবারের খালি আরও ৩০০ বস্তা দিয়ে সহায়তা করেন। নির্বাহী কর্মকর্তার মুঠোফোনে আলাপে পানি উন্নয়ন বোর্ড মৌলভীবাজারের নির্বাহী প্রকৌশলী ইন্দু বিজয় শঙ্কর চক্রবর্তী আরও ১০০০ খালি বস্তা দিয়ে সহায়তা করেন। তাছাড়া গ্রামবাসীরা নিজেরাও ২ টা থেকে শুরু করে ৫টি করে বস্তা নিয়ে আসেন।
বাঁধ এলাকায় দেখা যায় কেউ কেউ খালি বস্তা বালু ভর্তি করছেন। আর যুবক ও ছাত্ররা এসব বালু ভর্তি বস্তা নিয়ে বাঁধের কাছে স্থাপন করছেন। কাজের সুবিধার্থে আদমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদাল হোসেন বৃহস্পতিবার দুপুরের সবার খাবারের ব্যবস্থা করেন।
ইউপি সদস্য মো: হেলাল উদ্দীনও স্বেচ্ছাশ্রমে কর্মরত গ্রামবাসীরা জানান, এ বাঁধ ভেঙ্গে গত মে মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে তিনবার দক্ষিণ তিলকপুর গ্রামের ১৩০ বাড়ি, উত্তল তিলকপুর গ্রামের ৮৫টি বাড়ি, ঘোড়ামারা গ্রামের ১৫০টি বাড়ি ও হুমেরজান গ্রামের ১০০টি সব মিলিয়ে ৪৬৫ টি বাড়িসহ চারটি গ্রামের ফসলি জমি পানিতে নিমজ্জিত হয়েছিল। আবহাওয়ার অবস্থায় বোছা যায় আরও টানা বৃষ্টিপাত হতে পারে। তখন আবারও এ ভাঙ্গন এলাকা দিয়ে ঢলের পানি প্রবেশ করে চারটি গ্রাম ক্ষতিগ্রস্ত করবে। এ চিন্তা ভাবনায় গ্রামবাসীরা মিলে স্বেচ্ছাশ্রমে ধলাই প্রতিরক্ষা বাঁধ মেরামত কাজ শুরু করেন।
স্বেচ্ছঅশ্রমে কাজে যোগ দেওয়া ঈদের ছুটিতে আসা পুলিশ সদস্য সাইফুর রহমান, সেনা বাহিনীর সদস্য জসিম উদ্দীন, ঢাকা সুপ্রীম কোর্টের অপিস সহকারী জাহাঙ্গীর হোসেন, সেনা সদস্য আব্দুস শহীদ, প্রাথমিক শিক্ষক আরিশ উদ্দীন, কলেজ ছাত্র আবুল হোসেন ও সাব্বির আহমদ বলেন, নিজেদের বাড়ি ঘর, ফসল রক্ষার তাগিদে তারা স্বেচ্ছাশ্রমে প্রতিরক্ষা বাঁধ রক্ষার কাজে যোগ দিয়েছেন। এখানে সবাই খুবই আন্তরিকভাবে গত দুই দিন ধরে কাজ করছে। উপজেলঅ নির্বাহী কর্মকর্তা, ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যসহ যারাই তাদের এ কাজে সহায়তা করছেন তাদের সবাইকে গ্রামবাসীরা ধন্যবাদ জানান।
আদমপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদাল হোসেন বলেন, দক্ষিণ তিলকপুর গ্রামের ৬০০ ফুট ভাঙ্গন এলাকা সরকারীভাবে মেরামত করা সময় সাপেক্ষ ব্যাপার। তার আগে আরও কয়েক দফা ধলাই নদীতে পানি বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। এ ভাবনায় গ্রামবাসীদের সিদ্ধান্তের প্রতি তিনি সম্মান জানিয়ে তাদের সাথে কাজে সহায়তা করতে এসেছেন।
কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক বলেন, গ্রামবাসীরা নিজেদের রক্ষায় নিজেরাই স্বেচ্ছাশ্রমে এত বড় কাজ শুরু করেছে তা শুনে তিনিও বৃহস্পতিবার দুপুরে ঘটনাস্থলে এসে তাদের কাজে সহায়তা করেছেন। তিনি আরও বলেন, ঘটনাস্থল থেকে পানি উন্নয়ন বোর্ডের মৌলভীবাজারের নির্বাহী প্রকৌশলীর সাথে কথা বলায় তিনি ১০০০ খালি বস্তা পাঠিয়েছেন। তাছাড়া আগামী প্রতিরক্ষা বাঁধ রক্ষায় স্থায়ীভাবে কি কাজ করা যায় তা নিয়ে তিনি পানি উন্নয়ন বোর্ড নির্বাহী প্রকৌশলীর সাথে কথা বলেছেন।
পানি উন্নয়ন বোর্ড মৌলভীবাজারের নির্বাহী প্রকৌশলী ইন্দু বিজয় শঙ্কর চক্রবর্তী এ প্রতিনিধিকে মুঠোফোনে বলেন, এটি একটি ভাল কাজ। এজন্য কাজে অংশগ্রহনকারী গ্রামবাসীদের ধন্যবাদ জানাতে হয়। তিনিও খালি বস্তা দিয়ে সহায়তা করেছেন। আগামী শুষ্ক মৌসুম ছাড়া পানি উন্নয়ন বোর্ড ধলাই প্রতিরক্ষা বাঁধ রক্ষা বা উন্নয়নে কোন কাজ করতে পারবে না। ইতিমধই দুটি প্রস্তাবনা উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ বরাবরে প্রেরণ করা হয়েছে। তা অনুমোদন হলে পরবর্তীতে কাজ শুরু হবে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,২৯জুন,রেজওয়ান করিম সাব্বির,গোয়াইনঘাট থেকে ফিরেঃ   সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার সারী-গোয়াইন রাস্তার হতে লক্ষাধীক টাকার মূল্যের গাছ কর্তন কালে পুলিশের হাতে ১জন অাটক৷
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায় ৩০ জুন দুপুর ১টায় গোয়াইনঘাট উপজেলার অাব্দুল মহল গ্রামের মৃত অাব্দুল মজিদ এর ছেলে সিরাজ উদ্দিন (৫০) দীর্ঘ দিন হতে প্রভাব খাটিয়ে সারী গোয়াইনঘাট রাস্তা হতে লক্ষ লক্ষ টাকা মূল্যের বিভিন্ন প্রজাতীর গাছ কর্তন করে নিয়ে যায়৷ গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে গতকাল দুপুর ১ঘটিকার সময় সারী-গোয়াইনঘাট রাস্তার অাব্দুল মহল এলাকা হতে প্রায় ৫লক্ষ টাকা মূল্যের কয়েকটি গাছ কর্তন কালে গোয়াইনঘাট থানা পুলিশ গাছ পাচারকারী সিরাজকে হাতে নাতে অাটক করে থানায় নিয়ে যায়৷ বর্তমানে ধৃতগাছ কর্তনকারী থানা হেফাজতে রয়েছে৷
এবিষয়ে গোয়াইনঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ দেলোয়ার হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে প্রতিবেদককে জানান গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অামরা সরকারী গাছ কর্তন কারীকে হাতে নাতে অাটক করি৷ এবিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে৷
এবিষয়ে গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার সালাহউদ্দিন অাহমেদ জানান-বিষয়টি জানার পর পর সংশ্লিষ্ট ভূমি অফিসের সার্ভেয়ারকে গাছ কর্তনকারীর বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় অাইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷ তিনি ধৃত ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছে৷

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,২৯জুন,ডেস্ক নিউজঃ   সৌদি সরকারের একজন শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তা বলেছেন, সাবেক যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন নায়েফকে গৃহবন্দি করা হয়নি। নায়েফকে গৃহবন্দি করা হয়েছে বলে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে খবর বের হওয়ার পর নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই কর্মকর্তা তা অস্বীকার করলেন।

কয়েকদিন আগে নায়েফকে যুবরাজ পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছেন রাজা সালমান বিন আবদুল আজিজ। আল-কায়েদা-বিরোধী লড়াইয়ে নায়েফ ২০০৩ থেকে ২০০৬ সালের মধ্যে আমেরিকার প্রশংসা অর্জন করেছিলেন।

নায়েফকে সরিয়ে দেয়ার বিষয়ে সবার আগে খবর দিয়েছে নিউ ইয়র্ক টাইমস। পত্রিকাটি চার সাবেক মার্কিন কর্মকর্তা ও সৌদি রাজপরিবারের ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে যে, নায়েফকে সৌদি আরব ত্যাগে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে এবং তাকে রাজপ্রাসাদের ভেতরে থাকতে বলা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স নায়েফের মন্তব্য জানার চেষ্টা করলেও তার কোনো মন্তব্য নিতে পারে নি।

এ খবরের বিষয়ে ওই সৌদি কর্মকর্তা দুঃখ প্রকাশ করে বলছেন, নায়েফ পরিবারের সঙ্গে আছেন এবং স্বাধীনভাবে চলাফেরা করছেন;তিনি  মেহমানদারিও করছেন।পার্সটুডে

পাহাড়ী ঢলে ঢাকা-সিলেট সড়কের ব্রীজ ভেঙ্গে গেলেও বাঁধাভাঙ্গা জোয়ার

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,২৯জুন,চুনারুঘাট প্রতিনিধিঃ ঈদের ছুটিতে চুনারুঘাট উপজেলার পর্যটন এলাকা সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান, রেমা কালেঙ্গা অভয়ারন্য, গ্রীনল্যান্ড পার্ক ও চা বাগানসহ বিভিন্ন এলাকায় ভ্রমনপিপাসুদের বাধঁভাঙ্গা জোয়ার নেমেছে। ঈদের দিন দুপুরর পর থেকেই দলে দলে পর্যটকরা ভীড় করতে থাকেন এসব এলাকায়। ঈদের পুর্বের দিন থেকে গত ৪ দিন বৃষ্টি না থাকায় ভ্রমনপিপাসুরা মনের ইচছামতো ঘুরে বেড়িয়েছেন তাদের পছন্দের বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে।

এদিকে ঢাকা-সিলেট মহাড়কের সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানের সড়কে চন্ডিছড়া ভাঙ্গা ব্রীজও ধমিয়ে রাখতে পারেনি পর্যটকদের। বিকল্প সড়কে এবং পায়ে হেটে ব্রীজ পাড় হয়ে ঈদের দিন থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ভ্রমনপিপাসুদের ঢল নেমেছিল পার্কে। হাজার হাজার মানুষ আর শত শত ছোট বড় গাড়ির কারণে দিনভরই যানজট ছিল সাতছড়িতে। তাদেরতে সামাল দিতে হিমশিম খেয়েছে পুলিশসহ পার্কে নিয়োজিত ভলান্টিয়ারগনও। ভীড় ছিল উপজেলার সবকটি চা বাগানেও। বি-বাড়িয়া, নরসিংদী, কিশোরগঞ্জ, হবিগঞ্জ, নারায়নগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত ভ্রমনপিপাসুরা এক নজর চা বাগান দেখতে ভীড় করেন চান্দপুর, চন্ডিছড়া, সাতছড়ি, দেউন্দি, আমু, লস্করপুর ও নালুয়াসহ বিভিন্ন চা বাগানে।

এতে চা বাগান কর্তৃপক্ষ কিছুটা নাখোশ হলেও পর্যটকরা বেশ আনন্দভোগ করেছেন দিনভর। সাতছড়ি জাতীয় উদ্যানে গত চার দিনে প্রায় দুই লাখ টাকা রাজস্ব আদায় করেছে বলে জানিয়েছে পার্ক কর্তৃপক্ষ। পার্কে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ও সুযোগ সুবিধার কারণে এবারই প্রথম পার্কে কোন প্রকার অপ্রীতিকর কোন ঘটনা ঘটেনি বলে জানিয়েছেন পার্ক ব্যবস্থাপনা কমিটির সহ-সভাপতি আবুল কালাম আজাদ। উদ্যানে ঈদের দিন ২০ হাজার মানুষের সমাগম হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। কিন্তু এদের বেশিরভাগ পর্যটক টিকেট নেননি। ফলে রাজস্ব আদায় অর্ধেক কমে গেছে। যারা উদ্যানের ভেতরে প্রবেশ করেছেন, শুধু তারাই টিকেট নিয়েছেন। বাকীরা সড়কে ও আশপাশেই ঘুরাফেরা করে ফিরে গেছেন।

এদিকে রেমা কালেঙ্গা অভয়ারন্য এবং গ্রীনল্যান্ড পার্কে সারাদিনই ছিল ভ্রমনপিপাসুদের ভীড়। যোগাযোগ ব্যবস্থা কিছুটা খারাপ থাকায় রেমা কালেঙ্গা অভয়ারণ্যে পর্যটক ছিল কম। ফলে বিপুল সংখ্যক পর্যটক ঘূরে বেড়িয়েছেন চা বাগানে।

আগামী শনিবার পর্যন্ত চুনারুঘাটের পর্যটন এলাকায় মানুষের ভীড় থাকবে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

আমার সিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,২৯জুন,চুনারুঘাট প্রতিনিধিঃ চুনারুঘাট উপজেলার সাটিয়াজুরী ইউনিয়নের মঙ্গলেশ্বর গ্রামের দিনমজুর ফিরোজ আলীর স্ত্রী নেহারা খাতুন (২৫) কে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে পিতা-পুত্রের দায়ের কুপে গুরুতর আহত হয়েছে।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে নিজ বসত বাড়ীর দক্ষিণ দিকে রাস্তায় এ ঘটনাটি ঘটে। আহত নেহারা খাতুনের আত্মচিৎকারে স্থানীয় এলাকাবাসীরা এগিয়ে এসে উদ্ধার করে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চুনারুঘাট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত নেহারা খাতুন জানান, পূর্ব বিরোধকে কেন্দ্র করে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে ফিরোজ আলী তার বড় ভাই ফুরুক মিয়ার সাথে এক পর্যায়ে কথা কাটাকাটি হয়। এ সময় নেহারা খাতুন তার স্বামী ফিরোজ আলীকে বাধা দিতে গেলে উত্তেজিত হয়ে বড় ভাসুর মোঃ ফুরুক মিয়া (৪০), মৃত রমিজ আলীর ছেলে সুজন মিয়া (১৮) তাদের হাতে থাকা দা দিয়ে নেহারা খাতুনের মাথায় ও ডান হাতের কবজির উপর ধারালো অস্ত্র দায়ের কুপে গুরুতর আহত করে পালিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে নেহারা খাতুনের ছোট ভাই মোঃ তাজুল আমিন বাদী হয়ে চুনারুঘাট থানায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানা যায়।