৪ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে ওয়েস্ট ইন্ডিজ

    1
    5

     আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৫মার্চঃ সংযুক্ত আরব আমিরাতের দেয়া ১৭৬ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ৩০.৩ বলে ৪ উইকেট হারিয়ে সহজেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আগে ব্যাট করতে নেমে আমিরাত ৪৭.৪ বলে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১৭৫ রান করতে সক্ষম হয়।
    ওয়েস্ট উন্ডিজের পক্ষে ওপেনার জনসন চার্লস ২ ছক্কা ও ৯টি চারের সাহায্যে ৪০ বলে সর্বোচ্চ ৫৫ রান করেন। জোনাথন কার্টার ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ১ম হাফসেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন। ৫টি চারের সাহায্যে ৫৮ বলে ৫০ রান করেন। এছাড়াও দিনেশ রামদিন ৩৩ রান করেন।
    জয়ের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ২ উইকেট হারিয়ে বসল ক্যারিবীয়রা। দলীয় ৩৩ রানের মাথায়ই ডোয়াইন স্মিথের উইকেট হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ফিফটি হাঁকানো জনসন চার্লসের পর আন্দ্রে রাসেলের (৭) উইকেটটিও তুলে নিয়েছেন আমজাদ জাবেদ। ওপেনার ডোয়াইন স্মিথ (১৫) ও ওয়ান ডাউনে নামা মারলন স্যামুয়েলসকে (৯) ফেরান মাঞ্জুলা গুরুজি। ৫৮ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে অপরাজিত থাকেন জোনাথন কার্টার (৫০) ও দিনেশ রামদিন (৩৩)। ক্যারিয়ারের প্রথম ওয়ানডে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন ২৭ বছর বয়সী কার্টার।
    এর আগে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজের অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। বাংলাদেশ সময় ভোর ৪টায় ম্যাচটি শুরু হয়। দলীয় ৪৬ রানে ছয় উইকেট হারালেও আমিরাতের হয়ে সপ্তম উইকেট জুটিতে হাল ধরেন আমজাদ জাবেদ ও নাসির আজিজ। দু’জনের ১০৭ রানের পার্টনারশিপে ভর করে সবকটি উইকেটে হারিয়ে ১৭৫ রান তোলে আমিরাত।
    আমিরাতের হয়ে জাবেদ ও নাসির দু’জনই হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন। দলীয় ১৫৩ রানের ব্যক্তিগত ৫৬ রান করে আন্দ্রে রাসেলের বলে সাজঘরে ফেরেন জাবেদ। ৬০ রান করা আজিজকে ফেরান মারলন স্যামুয়েলস। ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডারের বোলিং তাণ্ডবে রীতিমত বিধ্বস্ত হয় আমিরাত। আমিরাত ওপেনার আন্দরি বিরেঙ্গারকে (৭) ফিরিয়ে উইকেট পতনের সূচনা করেন হোল্ডার। তার দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন কৃষ্ণ চন্দ্রন (০)। আরেক ওপেনার আমজাদ আলীকে (৫) এলবিডব্লির ফাঁদে ফেলে তৃতীয় উইকেটটিও তুলে নেন এই ডানহাতি মিডিয়াম-ফাস্ট বোলার।
    এরপর চতুর্থ পঞ্চম উইকেটে ব্যাটিংয়ে নামা খুররাম খান (৫) ও শায়মান আনোয়ারকে (২) ক্লিন বোল্ড করে দুই উইকেট তুলে নেন জেরম টেইলর। ছয় রান করা স্বপ্নিল পাতিলকে ফিরিয়ে নিজের চতুর্থ উইকেট পূরণ করেন ২৩ বছর বয়সী হোল্ডার।
    বাঁচা-মরার এ ম্যাচে খালি জিতলেই চলবে না। কোয়ার্টার ফাইনালে উঠতে হলে তাকিয়ে থাকতে হবে পাকিস্তান-আয়ারল্যান্ড ম্যাচের ফলাফলের দিকে। আইরিশরা জিতলে টুর্নামেন্টর গ্রুপপর্ব থেকেই বাদ পড়বে ক্যারিবীয়রা। আরব আমিরাতের বিপক্ষে জয়ের পাশাপাশি নেট রান রেটও বাড়াতে হবে হোল্ডার-স্যামিদের। পুল ‘বি’তে পাঁচ ম্যাচ শেষে দুই জয় ও তিন পরাজয়ে পয়েন্ট টেবিলের ৫ নম্বরে ক্যারিবীয়রা। সমান ম্যাচে কোনো জয় নেই আমিরাতের। উল্লেখ্য, দু’বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে কখনো খেলার সৌভাগ্য হয়নি আমিরাতের।
    এখন পর্যন্ত ৫ ম্যাচ শেষে সমান ৩ জয় ও ২ হারে পয়েন্ট টেবিলের তিনে পাকিস্তান ও চারে রয়েছে আয়ারল্যান্ড। নেট রান রেটে অবশ্য পাকিস্তান-ওয়েস্ট ইন্ডিজের তুলনায় পিছিয়ে আছে আইরিশরা।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here