২৫ বছর পর ধর্ষণ মামলায় এক প্রবাসীকে ৭ বছরের কারাদন্ড

    0
    12

    নুরুজ্জামান ফারুকী, নবীগঞ্জ: নবীগঞ্জে ধর্ষণ মামলায় ইউসুফ আলী নামের এক প্রবাসীকে কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। হবিগঞ্জের বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক জেলা জজ মুহাম্মদ হালিম উল্লাহ চৌধুরী আসামিকে ৭ বছরের কারাদন্ড ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও দুই মাসের কারাদন্ড দেন। রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন স্পেশাল পিপি মো. মোস্তফা মিয়া।

    পেশকার মো. ফজলু মিয়া জানান, ১৯৯৮ সালের ২০ আগষ্ট নবীগঞ্জ উপজেলার বহরপুর গ্রামের এক নববধূকে লন্ডন প্রবাসী ইউসুফ আলী ধর্ষণ করেন। এ ঘটনায় ওই নারী বাদি হয়ে নবীগঞ্জ থানায় ধর্ষণের অভিযোগে একটি মামলা করেন। ঘটনার এক সপ্তাহ পর পুলিশ ওই আসামিকে আটক করে কোর্টে প্রেরণ করলে সে জামিনে মুক্তি পায়। এরপর থেকে তিনি পলাতক ছিলেন। দীর্ঘ ২৫ বছর পর মামলাটি ঝুলে থাকে। এক কোর্ট থেকে অন্য কোর্ট পেরিয়ে বাদি বিচারের আশা প্রায় ছেড়ে দেন। অবশেষে বিজ্ঞ বিচারক ২০১৯ সালে মামলাটি দায়িত্ব পান এবং ১৪ ফেব্রুয়ারি এ রায় প্রদান করেন।

    এ সময় আসামি পলাতক ছিল। এরপর সাক্ষী প্রমাণ শেষে আসামিকে এ দন্ডাদেশ দেন। এতে বাদি পক্ষ খুশি হয়েছে। এতোদিন পর এসে বিচার পেয়েছে। পলাতক আসামি ইউসুফ আলী বহরপুর গ্রামের সফাত উল্লার ছেলে।