১৯জুন এসএসসি ও ২২ আগস্টে এইচএসসি পরীক্ষার পরিকল্পনা

0
87
১৯জুন এসএসসি ও ২২ আগস্টে এইচএসসি পরীক্ষার পরিকল্পনা
১৯জুন এসএসসি ও ২২ আগস্টে এইচএসসি পরীক্ষা

করোনা মহামারীর কারণে এবার চার মাস পিছিয়ে ১৯ জুন থেকে এসএসসি এবং ২২ আগস্ট থেকে এইচএসসি পরীক্ষা শুরুর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

সাধারণত বছরের ফেব্রুয়ারিতে মাধ্যমিক এবং এপ্রিলে উচ্চ মাধ্যমিকের পরীক্ষা হয়ে এলেও করোনাভাইরাস মহামারী সেই সূচি পাল্টে দিয়েছে। শিক্ষার্থীদের প্রস্তুতিতে ঘাটতি থাকায় গতবছর সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে এসএসসি পরীক্ষা নেওয়া হয় তিন বিষয়ে। আর এইচএসসি পরীক্ষা হয় তিন বিষয়ের ছয়টি পত্রে।

এবার এসএসসিতে তিনটি এবং এইচএসসিতে একটি বিষয়ে পরীক্ষা না নিয়ে সাবজেক্ট ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে মূল্যায়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

মঙ্গলবার ১ মার্চ ২০২২ ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে এই পরিকল্পনা জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২০২২ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা হবে পুনর্বিন্যস্ত পাঠ্যসূচি অনুযায়ী। এসএসসিতে ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি, বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় এবং বিজ্ঞান- এই তিন বিষয়ের পরীক্ষা নেওয়া হবে না। এ বিষয়গুলোর নম্বর সাবজেক্ট ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে মূল্যায়ন করা হবে। আর এইচএসসিতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি পরীক্ষা না নিয়ে তা সবজেক্ট ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে নম্বর দেওয়া হবে।

বাংলা, ইংরেজি, গণিত, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, উচ্চতর গণিত, জীববিজ্ঞান, হিসাববিজ্ঞান, ব্যবসায় উদ্যোগ, ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং, বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্ব সভ্যতা, ভূগোল ও পরিবেশ, পৌরনীতি ও নাগরিকতা, অর্থনীতি, গার্হস্থ্য বিজ্ঞান এবং কৃষি শিক্ষা- এই বিষয়গুলোতে এবার এসএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

আর এইচএসসি পরীক্ষা হবে বাংলা, ইংরেজি ও গ্রুপভিত্তিক নৈর্বচনিক তিনটি বিষয় এবং একটি ঐচ্ছিক বিষয়ে পুনর্বিন্যস্ত পাঠ্যসূচি অনুযায়ী।

এসএসসি ও এইচএসসিতে ২ ঘণ্টার পরীক্ষায় প্রতিটি বিষয়ে নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নের জন্য ২০ মিনিট এবং রচনামূলক প্রশ্নের জন্য ১ ঘণ্টা ৪০ মিনিট সময় থাকবে।

বাংলা দ্বিতীয় পত্র, ইংরেজি প্রথম পত্র ও দ্বিতীয় পত্র- এই বিষয়গুলোতে ৫০ নম্বরের পরীক্ষা হবে।

অন্য বিষয়গুলোর মধ্যে যেসব বিষয়ে ব্যবহারিক আছে, সেগুলোতে ৪৫ নম্বরের (রচনামূলক ৩০ ও নৈর্ব্যক্তিক ১৫ নম্বর) এবং ব্যবহারিক না থাকলে ৫৫ নম্বরের (রচনামূলক ৪০ ও নৈর্ব্যক্তিক ১৫) পরীক্ষা দিতে হবে শিক্ষার্থীদের।

এসএসসি পরীক্ষার্থীদের ফরম পূরণ শুরুর জন্য ১৩ এপ্রিল এবং এইচএসসিতে ৮ জুন সম্ভাব্য তারিখের কথা জানিয়েছে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড।

একাদশ শ্রেণির ক্লাস শুরু আগামীকাল ২ মার্চ থেকে।

এদিকে, সারাদেশের কলেজগুলোতে একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ক্লাস শুরু হচ্ছে আগামীকাল ২ মার্চ থেকে।

সাধারণত এইচএসসি ও সমমানের কোর্সের জন্য একটি নতুন শিক্ষাবর্ষ শুরু হয় বছরের ১ জুলাই থেকে। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে এবার নির্ধারিত সময়ের আট মাস পর ক্লাসে ফিরছেন শিক্ষার্থীরা।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) মহাপরিচালক অধ্যাপক নেহাল আহমেদ জানিয়েছেন, কলেজগুলোতে ২ মার্চ থেকে ক্লাস শুরু হবে এবং শিক্ষার্থীরা সশরীরে ক্লাস আসবে। নেহাল আহমেদ বলেন, যেসব শিক্ষার্থীদের করোনার দুই ডোজ টিকা নেওয়া আছে তাদের শ্রেণিকক্ষে বসার অনুমতি দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, আমি যতদূর জানি প্রায় সব শিক্ষার্থীই কোভিড-১৯ টিকা পেয়েছে।

তিনি বলেন, নতুন ভর্তি হওয়াদের ক্লাস রুটিন এখনো ঠিক করা হয়নি তবে তারা চেষ্টা করবে দিনে অন্তত চারটি ক্লাস করার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here