Tuesday 19th of November 2019 08:18:38 AM
Monday 14th of March 2016 08:59:06 PM

হারিয়ে গেল নর নাপিতে’র খুরের ব্যবসা

শিল্প-সাহিত্য ডেস্ক
আমার সিলেট ২৪.কম
হারিয়ে গেল নর নাপিতে’র খুরের ব্যবসা

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৪মার্চ,রেজওয়ান করিম সাব্বির, জৈন্তাপুর প্রতিনিধিঃ সময়ের বির্বতনে আমাদের সমাজ হতে হারিয়ে গেলে চিরচেনা নরপতি’র খুরের ব্যবসা। খুরের পরিবর্তন হয়ে আসল আধুনিক হেয়ার কার্টার।

সর্বকালে মানুষ নিজেকে যত বেশি আর্কষনীয় করে তুলতে দেশীয় ভাবে খুর কেচি ব্যবহারের মাধ্যমে নিজেকে আর্কষনীয় করে তুলত। এজন্য নরপতি বা নাপিতের ভূমিকা ছিল অতুলনীয়। সন্তান জন্ম গ্রহন হতে শুরু করে অবাল বনিতা সকলেই নরপতি বা নরসুন্দরের দারস্থ হতেন। কোন সন্তান জন্ম গ্রহন করলে সন্তানের প্রথম নয়াই বা চুল কাটা হতে একজন নরপতি, নাপিত বা নর সুন্দর দিয়ে। তাই আগে হতে সন্তানের নিকত্মীয়রা দিন ক্ষন টিক করে মহা ধুমধামের সহিত নয়াই করতেন সন্তানদের। এনিয়ে পারিবারিক ভাবে একটি অনুষ্ঠান করা হত। অপরদিকে সনাতন (হিন্দু) ধর্মালম্বীরা সন্তান ভুমিষ্ট কিংবা কারো মৃত্যুতে একই ভাবে অনুষ্ঠান করতেন। সময়ের বির্বতনে আজ এই অনুষ্ঠানটি সহ নরপতির খুরের ব্যবসাটি বিলুপ্ত। গত ৪ মার্চ শুক্রবার দুপরে লালাখাল চা-বাগানে তথ্য চিত্র সংগ্রহ করার কাজে গেলে বিলুপ্ত হওয়া খুরের কাজ চোঁখের সামনে পড়ে।

স্থানীয় লালাখাল চা-বাগানের এক ব্যাক্তি মৃত্যু হয়। আর সেই জন্য মৃত ব্যক্তির সাদ্যনুষ্ঠানের জন্য পরিবারের সকল সদস্যদের চুল, দাড়ী, নোখ কেটে পরিচ্ছন্ন হতে হবে। মৃত ব্যক্তির আত্মার শান্তি লাভের জন্য পরিবারের পক্ষে পূজা অর্চনা করা হবে। সেই জন্য এই আয়োজন। লালাখাল বাগানের সারী নদী সংলগ্ন কুলি বস্তির স্নানের ঘাটের উপরে একটি তেতুল গাছের নিচে বসে একজন নরপতি ৫০উর্দ্ব ব্যক্তির গোফ কাটছেন। অপরদিকে আরেকজন নরপতি একটি শিশুর চুল কাটছেন, সেই সাথে প্রায় ৫০উর্দ্ব আরেক ব্যক্তি এবং একজন শিশু অপেক্ষায় রয়েছেন পরিচ্ছনের কাজ সারার জন্য। তাদের সাথে প্রতিবেদকের আলাপ আলোচনা করে জানা যায় আদের এক নিকত্মীয় মারা গেছেন। তাই স্বল্প পরিসরে তারা এই সাদ্যনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন। মৃত ব্যক্তির আত্মার শান্তি লাভের জন্য তারা পরিচ্ছন্ন হচ্ছেন।

আসলে নরপতির সাথে আলাপ করে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এই নরপতি বলেন- একসময় আমাদের এই পেশাটি ছিল সম্মানের। এখন আর আমাদের খুরের পেশা চলে গেছে আভিযাত্যের পর্দার অন্তরালে। তাই এখন খুরের প্রচলন নেই। নিজেরা একান্ত বাধ্য হয়ে ২/১টা ছোট খাট অনুষ্ঠানে আসি। এখন আমাদের আর দাম নেই, আর আধুনিক নরসুন্দর সেন্টারের কাছে আমাদের ঐতিয্যের এই পেশা বিলুপ্ত হয়েছে বলে তিনি জানান।

 

 


সম্পাদনা: News Desk, নিউজরুম এডিটর

আমারসিলেট২৪.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Place for advertisement
Place for advertisement

সর্বশেষ সংবাদ


সর্বাধিক পঠিত

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc