হরতালে তিনটি গাড়িতে আগুন, ভাঙচুর ও ককটেল বিস্ফোরণ

    0
    3

    বিএনপি জোটের ৪৮ ঘণ্টার হরতালের প্রথম দিন আজ। রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় তিনটি গাড়িতে আগুন দেওয়া, ভাঙচুর, ককটেল বিস্ফোরণ ও বিক্ষিপ্ত পিকেটিংয়ের মধ্য দিয়ে হরতাল পালিত হচ্ছে। মিরপুরে একটি বাসে, খিলগাঁওয়ে একটি লেগুনায় ও শ্যামপুরে একটি ট্রাকে আগুন দিয়েছে হরতালের সমর্থকেরা। শ্যামলী, পল্লবী, যাত্রাবাড়ী ও গাবতলীতে কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরিত হয়। কমলাপুরে টিটিপাড়া রেলক্রসিংয়ে হাতবোমা বিস্ফোরণের সময় তিনজনকে ও ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে শ্যামলী, পল্লবী ও যাত্রাবাড়ী থেকে পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ।
    সকাল সোয়া আটটার দিকে মিরপুরের কালসী সড়কে আল্লাহু গার্মেন্টস ভবনের সামনে ইটিসি পরিবহনের একটি বাসে আগুন দেওয়া হয়। বাসটির জানালার কাচ ভাঙচুর করা হয়। এর আগে মিরপুরে ১০ নম্বর সেকশন আইডিয়াল কলেজের সামনে ও ১ নম্বর মুক্তিযোদ্ধা মার্কেটের সামনে বেশ কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরিত হয়।
    সকাল নয়টার দিকে খিলগাঁওয়ের তিলপাপাড়া ৭ নম্বর সড়কে থেমে থাকা একটি লেগুনায় আগুন দেয় হরতাল পালনকারীরা।

    শ্যামপুর বাজারের কাছে আজ সকাল নয়টার দিকে একটি ট্রাকে আগুন দেওয়া হয়। স্থানীয় লোকজন কিছুক্ষণের মধ্যে আগুন নিভিয়ে ফেলে।

    মতিঝিলের এজিবি কলোনির মসজিদ মার্কেটের সামনে আজ সকাল পৌনে নয়টার দিকে দুটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটে।

    শ্যামলী সিনেমা হলের সামনে একটি লেগুনা ভাঙচুর করেছে পিকেটাররা। এ সময় বেশ কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরিত হয়। এ ছাড়া নাবিস্কো মোড়ে দুটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটে। এ ঘটনায় দুজনকে আটক করা হয়।
    তেজগাঁও অঞ্চলের পুলিশের উপকমিশনার চৌধুরী মঞ্জুরুল কবির বলেন, ককটেল বিস্ফোরিত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দুই যুবককে আটক করা হয়। এদের কাছে কয়েকটি ককটেলও পাওয়া গেছে।

    পল্লবী-দুয়ারীপাড়া সড়কেও হরতালের সমর্থকেরা ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। পল্লবী থানার ভ্রাম্যমাণ পরিদর্শক সালাউদ্দিন আহমেদ জানান, বিস্ফোরণে জড়িত থাকার অভিযোগে দুই যুবককে আটক করা হয়েছে। মিরপুর অঞ্চলের পুলিশের জ্যেষ্ঠ সহকারী কমিশনার মোহাম্মদ শাখাওয়াত হোসেন জানান, পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে।
    গাবতলীর পর্বতা সিনেমা হলের সামনের সড়কে সকাল ছয়টার দিকে ছাত্রদলের ব্যানার নিয়ে হরতাল-সমর্থকেরা টায়ার জ্বালিয়ে দেয়। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যাওয়ার আগেই তারা পালিয়ে যায়।
    সকাল সাতটার দিকে যাত্রাবাড়ী মোড় এলাকায় যুবদল মিছিল বের করে। তারা মিছিল থেকে দুটি গাড়ির কাচ ভাঙচুর করে। পুলিশ ধাওয়া দিলে হরতালের সমর্থকেরা পালিয়ে যায়। সকাল ছয়টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের রায়েরবাগ এলাকায় টায়ারে আগুন দেয় হরতালের সমর্থকেরা। যাত্রাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান জানান, ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একজনকে আটক করেছে।
    কমলাপুর টিটিপাড়া রেলক্রসিংয়ে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটানোর সময় পুলিশ তিনজনকে আটক করেছে। তাঁরা হলেন: শিশু মিয়া, হালিম খান ও লিটন। শাজাহানপুরের পুলিশের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মাহবুব হোসেন জানান, হাতবোমার বস্ফািরণ ঘটানোর সময় হাতেনাতে তাদের আটক করা হয়। তাঁদের শাজাহানপুর থানায় সোপর্দ করা হয়েছে বলে তিনি জানান। প্রায় একই সময় দক্ষিণ কমলাপুরে সাদেক হোসেন খোকা কমিউনিটি সেন্টারের পেছনে হরতালের সমর্থকেরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছোড়ে। পরে পুলিশও রাবার বুলেট ছোড়ে। 

    Fire at Strike

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here