সৌদি আরব শ্রম আইন লঙ্ঘনকারীদের বিতাড়িত করবে

    0
    4

    ঢাকা: শ্রম আইন এবং হজ ও ওমরাহের বিধি-বিধান লঙ্ঘনকারী বিদেশিদের বিতাড়িত করবে সৌদি আরব। শুধু তাই নয় পুনর্বার তাদের দেশটিতে ঢুকতে দেবে না কর্তৃপক্ষ। আইন লঙ্ঘনকারীদের নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর ব্যয় বহন করবে না সৌদি কর্তৃপক্ষ। নিয়োগদাতা প্রতিষ্ঠানকে বহন করতে হবে এ ব্যয়।

    তবে বিশেষ কারণে দেশটি ব্যয় বহন করতে পারে । এমন একটি নতুন আইন তৈরি করতে যাচ্ছে দেশটি। ইতোমধ্যে এ সংক্রান্ত আইন খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিপরিষদ।

    নতুন আইনে বলা হয়েছে, যেসব কোম্পানি, প্রতিষ্ঠান বা ব্যক্তি শ্রম আইন লঙ্ঘনের বিষয়টি গোপন রাখবে তারা কর্মী নিয়োগে পাঁচ বছরের নিষিদ্ধের মুখে পড়বে।

    তারা শ্রম আইন লঙ্ঘন করে বিদেশিদের কাজ দেওয়া বা অন্য বা নিজেদের স্বার্থে বিদেশিদের কাজ পেতে সহায়তা করলে এ নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বে। আর এ ধরনের কর্মীদের বিতাড়নের ব্যয় বহন করতে হবে তাদেরকে সহায়তাকারীদেরকে।

    স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় আইন লঙ্ঘনের বিষয়টি দেখভাল করবে বলে আইনের খসড়ায় বলা হয়েছে। হজ বা ওমরাহ শেষ হওয়ার পরও কেউ অতিরিক্ত দিন অবস্থান করছে কিনা বা অনুপ্রবেশ করছে কিনা তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ শাস্তির ব্যবস্থা করার দায়িত্বও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের।

    কোনো শ্রমিক নিখোঁজ হলে নিয়োগ কর্তা শ্রমিক সরবরাহকারী কর্তৃপক্ষকে অবহিত করবে। তাকে খুঁজে পাওয়ার পর বিতাড়নের ব্যয় বহন করতে হবে ওই সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানকে। আর গ্রেফতারের সময় যদি দেখা যায়, তারা নিজেদের ব্যক্তিগত স্বার্থে কাজ করছে তাহলে নিজের খরচায় নিজ দেশে ফেরত আসতে হবে তাদেরকে। হজ বা ওমরাহের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানকে বিতাড়ন ব্যয় বহন করতে হবে।

    খসড়া আইনে বলা হয়েছে, সব সরকারি ও বেসরকারি কোম্পানি-প্রতিষ্ঠানকে নিশ্চিত করতে হবে, তাদের  নিয়োগ দেওয়া বা তাদের অধীনে কাজ করা শ্রমিকরা শ্রম আইন ভঙ্গ করবে না।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here