সুপ্রিম কোর্ট বহাল রাখলে ট্রাইব্যুনালের দণ্ডপ্রাপ্তরা ভোটার হতে পারবে না

    0
    4

     

    সুপ্রিম কোর্ট বহাল রাখলে ট্রাইব্যুনালের দণ্ডপ্রাপ্তরা ভোটার হতে পারবে না
    সুপ্রিম কোর্ট বহাল রাখলে ট্রাইব্যুনালের দণ্ডপ্রাপ্তরা ভোটার হতে পারবে না

    আমারসিলেটটোয়েন্টিফোর.কম ০২ সেপ্টেম্বর  : আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে দণ্ডপ্রাপ্ত ছয়জন- গোলাম আযম, দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী, আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ, কাদের মোল্লা, মো. কামারুজ্জামান ও আবুল কালাম আযাদ ওরফে বাচ্চু । এদের মধ্যে আবুল কালাম আযাদ ওরফে বাচ্চু ছাড়া বাকি পাঁচজন রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেছে। তবে সুপ্রিম কোর্ট আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের রায় বহাল রাখলে তারা ভোটার হতে পারবেন না।

    ফলে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে দণ্ডিত যুদ্ধাপরাধীরা ভোটার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত করতে পারবে না।সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়।বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া সাংবাদিকদের জানান, এই সংশোধনীর ফলে ট্রাইব্যুনালে দণ্ডিতরা ভোটার তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত করতে পারবেন না।এছাড়া ইতিমধ্যে ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত কেউ আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে দণ্ডিত হলে তাদের নাম কাটা যাবে বলেও জানান তিনি।

    একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল এখন পর্যন্ত জামায়াতে ইসলামের সাবেক আমিরসহ ছয় নেতাতে দণ্ড দিয়েছেন।তারা হলেন- আবুল কালাম আযাদ ওরফে বাচ্চু রাজাকার, কাদের মোল্লা, দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী, মো. কামারুজ্জামান, গোলাম আযম ও আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ।এদের মধ্যে কাদের মোল্লা ও গোলাম আযম ছাড়া বাকি চারজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল। আর কাদের মোল্লাকে যাবজ্জীবন এবং গোলাম আযমকে ৯০ বছর কারাদণ্ড দিয়েছেন ট্রাইব্যুনাল।

    নিয়ম অনুযায়ী, পলাতক আবুল কালাম আযাদ ওরফে বাচ্চু রায় ঘোষণার এক মাসের মধ্যে আদালতে হাজির হয়ে আপিল না করায় তিনি আর আপিল করার সুযোগ পাবেন না। ফলে তার বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের দেয়া রায় বহাল থাকবে।দণ্ডপ্রাপ্ত বাকি পাঁচজন ইতিমধ্যে ট্রাইব্যুনালের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেছেন। তবে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ তাদের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের দেয়া রায় বহাল রাখলে তারা ভোটার হতে পারবেন না।

     

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here