সুনামগঞ্জে হামলায় আহত দু’ভাইয়ের মধ্যে ১জনের মৃত্যু

    0
    31
    সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জে বাড়ির উঠান দিয়ে ঠেলাগাড়িতে করে ধান আনতে গিয়ে প্রতিপক্ষের লোকজনের দেশীয় অস্ত্রের আঘাতে গুরুত্বর আহত মোঃ আলী আমজদ (৬৫) শনিবার বিকেলে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তিনি উপজেলার ভীমখালী ইউনিয়নের জাল্লাবাজ গ্রামের মৃত সরাফত আলীর ছেলে।
    গুরুতর আহত অবস্থায় ওসমানীতে মৃত্যুর সাথে লড়ছেন নিহতের বড়ভাই মোঃ আলী হোসেন (৭০)। এ ঘটনায় হামলাকারী নুর ইসলামের স্ত্রী রেনু মালাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ থানায় নিয়েছেন।
    স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, নিহত আলী আমজদ ও বড়ভাই আলী হোসেন শুক্রবার (২৯ নভেম্বর) বিকেলে একটি ঠেলাগাড়ি নিয়ে প্রতিবেশী মতৃ আব্দুল মজিদের ছেলে নুর ইসলাম ও শের মিয়ার উঠান দিয়ে হাওরে গিয়ে ধান আনতে যাওয়ার পথে প্রতিবেশী প্রতিপক্ষ নুর ইসলাম ও শের মিয়া তাদের উঠান দিয়ে ধান নিয়ে যেতে বাঁধা দেন। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়, পরে সন্ধ্যায় স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ আব্দুল ওয়াকিব মেম্বার উভয় পক্ষকে নিয়ে সালিশ বৈঠকে বিষয়টি নিস্পত্তি করেও দেন।
    কিন্তু রাতে আবারো কথা কাটাকাটি হওয়ার এক পর্যায়ে নুর ইসলাম ও শের আলী দেশীয় অস্ত্র দিয়ে আলী আমজদ ও তার বড়ভাই আলী হোসেনকে আঘাত করলে গুরুতর আহত হন। পরে আশপাশের লোকজন তাদের গুরুতর অবস্থায় গভীর রাতে সুনামগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে তাদের অবস্থার আরো অবনতি দেখে ভোররাতে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
    এ ব্যাপারে জামালগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ সাইফলু আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিহতের লাশ তার গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসার পর মামলা দায়েরের পর পুলিশ দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করবে। পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানা গেছ।