সিলেট বিসিসিতে নারী উদ্যোক্তাদের প্রশিক্ষণ সম্পন্ন

    0
    11

    আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,০১ডিসেম্বর,ডেস্ক নিউজঃ বাংলাদেশ কস্পিউটার কাউন্সিল এর বিভাগীয় প্রধান প্রোগামার তথ্যপ্রযুক্তবিদ মধু সূদন চন্দ বলেছেন আধুনিক ও ডিজিটাল যুগের সাথে তাল মেলাতে বিশ্বের সকল দেশই আজ সখ্যতা গড়ছে আইসিটির সঙ্গে দেশের উন্নয়ন অগ্রগতির জন্য তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ে জ্ঞান লাভের বিকল্প নেই। তিনি বর্তমান যুগকে তথ্য-প্রযুক্তির যুগ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, ছেলে- মেয়ে সকলকেই প্রযুক্তি শিক্ষা অর্জনের মাধ্যমে আত্মনির্ভশীল হতে হবে।

    উন্নত বিশ্ব তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে দ্রত অগ্রসর হচ্ছে। তাদের সাথে তাল মিলিয়ে আমাদের উন্নয়ন কর্মকান্ড ত্বরান্বিত করতে হবে।তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়ের অধীনে বাংলাদেশ কস্পিউটার কাউন্সিলে সিলেট’র আয়োজনে ও উইমেন আইসিটি ফ্রন্টিয়ার ইনিশিয়েটিভ (ওয়াইফাই)এর সহযোগিতায় গতকাল শুক্রবার সকাল দশটায় নগরীর উপশহরস্থ বিসিসি মিলনায়তনে ‘‘নারী উদ্যোক্তাদের ফ্রি আইসিটি উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় নারী উদ্যোক্তাদের প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। বিসিসি সিলেটে’র সহকারী প্রোগামার অলি উল্লাহ আহমেদ’র সভাপত্বিতে ও সিলেটের সময়ের সিনিয়র রিপোর্টার প্রভাষক মবরুর আহমদ সাজুর পরিচালনায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লিডিং ইউনিভার্সিটির বিবিএ ডিপার্টমেন্টের সিনিয়র প্রভাষক আনোয়ার আহমেদ আরিফ প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিসিসির তরুণ প্রযুক্তিবিদ মধূ সুদন চন্দ আরো বলেন – ‘আগামীর জন্য প্রস্তুত’ স্লোগানে আগামী ৬ ডিসেম্বর শুরু হচ্ছে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে দেশের সবচেয়ে বড় প্রদর্শনী ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৭’।

    রাজধানীর বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স সেন্টারে (বিআইসিসি) চারদিনের এ সম্মেলনের আয়োজক আইসিটি বিভাগ। সম্মেলনে আয়োজন সহযোগী হিসেবে থাকছে বিসিসি, বেসিস ও এটুআই। আইসিটি এদিকে আইসিটি বিভাগের অধীনে পোস্ট, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়ের (এমপিটিআইটি) এরই উদ্যেশ্যে ঢাকার মধ্যে দুটি ওয়াইফাই প্রোগ্রামের পর এই প্রথম ঢাকার বাইরে সিলেট এ ওয়াইফাই এর প্রথম প্রোগ্রামটি বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল, সিলেট আ লিক কার্যালেয় দুই দিন ব্যাপী শুরু হয়। উইমেন আইসিটি ফ্রন্টিয়ার ইনিশিয়েটিভ (ওয়াইফাই) ফ্ল্যাশশিপ প্রোগ্রামটি নারী উদ্যোক্তাদের দক্ষতা বৃদ্ধির মাধ্যমে এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীযয় অ লের আইসিটিতে নারী উদ্যোক্তা এবং উদ্যোক্তা উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করে যাতে তারা এবং তাদের উদ্যোগ আরো উৎপাদনশীল হতে পারে, এবং আশা করা যায় টেকসই হতে পারে যাতে তারা তাদের সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি স্থানীয় ও জাতীয় অর্থনীতিতেও অবদান রাখতে পারে। একটি আ লিক ফোরামে কোরিয়াতে ৯-১০ জুন, ২০১৩ তারিখে ওয়াইফাই প্রোগ্রাম আনুষ্ঠানিকভাবে চালু করা হয়েছিল যা এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অ লের আইসিটিডি-র-ক্ষমতাশীল আধুনিক শিল্প-সংস্কৃতির পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য উপযুক্ত আ লিক ও জাতীয় ক্ষমতা বিকাশের জন্য স্থায়ী উন্নয়নের এজেন্ডা ২০৩০।

    ওয়াইফাই প্রোগ্রাম এর সামগ্রিক লক্ষ্য হল আইসিটি-সক্ষম উদ্যোক্তার মাধ্যমে সামাজিক এবং অর্থনৈতিকভাবে ক্ষমতাশীল মহিলা উদ্যোক্তা তৈরি করা। ওয়াইফাই নিম্নলিখিত মূল উদ্দেশ্য অর্জনে আশাবাদী নারী উদ্যোক্তাদের তাদের ব্যবসা সমর্থনের জন্য তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ব্যবহারে দক্ষতা বৃদ্ধি; আইসিটি-কর্তৃত্বপ্রাপ্ত নারী উদ্যোক্তাদের জন্য একটি সক্রিয় পরিবেশ তৈরি করতে সরকার ও নীতিনির্ধারকদের ক্ষমতায়ন শক্তিশালী করন। বাংলাদেশ সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ নামে একটি জাতীয় আইসিটি কৌশল হিসেবে ওয়াইফাই প্রোগ্রামটি গ্রহণ করছে, যার লক্ষ্য হচ্ছে ২০২১ সালের মধ্যে দেশকে একটি আধুনিক ও সমন্বিত জ্ঞানভিত্তিক সমাজে পরিণত করা, কেবলমাত্র দেশের আইসিটি অবকাঠামো উন্নয়নের মাধ্যমে নয় আইসিটি মানুষের সম্পদ উন্নয়নের মাধ্যমে। ওয়াইফাই এর অধীনে, আইসিটি বিভাগ ২০১৮ মধ্যে দেশের ৩০,০০০ নারী উদ্যোক্তাদের আইসিটি এবং উদ্যোক্তা প্রশিক্ষণ প্রদানের লক্ষ্যে কাজ করছে। এই উদ্যোগ বাস্তবায়নে কাজ করছে এশিয়া ও প্যাসিফিক ট্রেনিং সেন্টার ফর ইনফরমেশন এন্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজি ফর ডেভেলপমেন্ট (এপিসিআইসিটি / এসক্যাপ)।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here