সিলেটে নিরাপদ অভিবাসন ও দক্ষতা উন্নয়ন শীর্ষক সেমিনার

    0
    8

    “দক্ষতা নিজের সম্পদ দক্ষ জনশক্তি দেশের সম্পদ” মীর খায়রুল আলম অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি)

    আবুল কাশেম রুমন,সিলেট : দক্ষতা নিজের সম্পদ, দক্ষ জনশক্তি দেশের সম্পদ। বাংলাদেশের মূল সম্পদই হলো জনশক্তি। দক্ষতা উন্নয়ন ও কারিগরি প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে দেশের বিপুল জনগোষ্ঠী জন সম্পদে পরিণত করে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কর্মীদের দেশে ও বিদেশে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা কার লক্ষ্যে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো অত্যন্ত দক্ষতার সাথে কাজ করে যাচ্ছে। তার পাশাপাশি দক্ষ জনশক্তি তৈরীর লক্ষ্যে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রগুলো গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে।
    ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ ইং দুপুরে সিলেট টিটিসির অডিটোলিয়ামে,সিলেট সরকারি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র আলমপুর কর্তৃক আয়োজিত নিরাপদ অভিবাসন ও দক্ষতা উন্নয়ন শীর্ষক সেমিনারে সিলেট জেলা অথিতি রিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) আ.ন.ম বদরুদ্দোজা প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা গুলো বলেন।
    ইন্সট্রাক্টর জাকির হোসেন এর সঞ্চালনায় সিলেট টিটিসির অধ্যক্ষ ওয়ালি উল্লা মোল্লা সভাপতিত্বে নিরাপদ অভিবাসন ও দক্ষতা উন্নয়ন শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।
    এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশেষ অতিথি হিসেবে সিলেট ডিআইজি রেঞ্জ এসপি নুরুল ইসলাম, মির কামরুল হাসান সহকারী পরিচালক জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি সিলেট অফিস, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল হক, সিলেট টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ ইঞ্জিনিয়ার সন্তুস চন্দ্র দেবনাথ,সিলেট চেম্বার অব কর্মাস এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি আবু তাহের সোয়েব, সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকবাল সিদ্দিকি, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আল আজাদ, সিলেট সিটির ২৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আজম খান, ২৭ ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ছয়েফ খান, অন টিভি নিউজ এর বাংলাদেশ প্রতিনিধি ও সাপ্তাহিক বৈচিত্র্যময় সিলেট পত্রিকার সম্পাদক আবুল কাশেম রুমন প্রমুখ।
    নিরাপদ অভিবাসন শীর্ষ সেমিনার জানা যায়, দেশের ৬৪ টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টারে ও ৬ টি ইন্সটিটিউট অব মেরিন টেকনোলজির মাধ্যমে বিদেশ গমনেচ্ছুক কর্মীদের ৫৫ টি ট্রেডে দক্ষতা প্রশিক্ষণ প্রদান চলছে। এছাড়া আরও ৪০ টি নতুন কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র নির্মাণের কাজ চলমান আছে। প্রতিটি উপজেলায় কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (টিটিসি) নির্মাণের পরিকল্পনা করছে বর্তমান সরকারের। সিলেট বিভাগে মোট ৪টি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র রয়েছে। এর মধ্যে ১টি মহিলা কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র রয়েছে। ইতোমধ্যে সিলেট জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস বিদেশগামী কর্মীদের নাম রেজিষ্ট্রেশন ও ফিঙ্গারপ্রিন্ট সহ নানাবিধ কার্যক্রম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে বলে উল্লেখ করা হয়।