সিরিয়া নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের তথ্যপ্রমাণ ২০০৩ সালের ইরাক অভিযোগের মতোই ভুয়া

    0
    3

    আমারসিলেটটোয়েন্টিফোর.কম ০৪ সেপ্টেম্বর  : যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেছেন, জাতিসংঘের অনুমোদন ছাড়া সিরিয়ায় একপাক্ষিক অভিযানের সিদ্ধান্তের ফল ভালো হবে না। জাতিসংঘের অনুমোদন ছাড়া এ হামলাকে আগ্রাসন বলে অভিহিত করেন তিনি। বুধবার আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম এবং রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় টিভি চ্যানেল ১ কে দেয়া সাক্ষাতকারে তিনি এ কথা বলেন। জাতিসংঘের তদন্তে আসাদ সরকারের রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার প্রমাণিত হলে, নিরাপত্তা পরিষদের সামরিক অভিযানে রাশিয়া সমর্থন দিতেও পারে বলছেন প্রেসিডেন্ট পুতিন। তবে তদন্তের ফলাফল নিরপেক্ষ ও সত্য হওয়ার ওপর জোর দেন তিনি।
    রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেন, আমি অভিযানের ব্যপারটি বাদ দিচ্ছি না। কিন্তু আন্তর্জাতিক নিয়ম অনুযায়ী একটি সার্বভৌম রাষ্ট্রে সেনা অভিযানের অনুমতি একমাত্র জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ দিতে পারে। অন্য যে কোন উপায় অগ্রহণযোগ্য ও স্বাধীন দেশের ওপর আক্রমণ হিসেবে ধরা হবে। তিনি অভিযোগ করেন সিরিয়া নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের তথ্যপ্রমাণ ২০০৩ সালের ইরাক অভিযোগের মতোই ভুয়া। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক হামলা চালানো হবে ভুল সিদ্ধান্ত।
    প্রেসিডেন্ট ওবামার তার সাথে সাক্ষাৎ বাতিল করার ব্যপারেও হতাশা প্রকাশ করেন পুতিন। জি২০ সম্মেলনে যোগ দিতে তিনদিনের সফরে সুইডেন ও রাশিয়া সফরে গেছেন প্রেসিডেন্ট ওবামা। যুক্তরাষ্ট্রের তথ্য ফাঁসকারি এডওয়ার্ড স্নোডেনকে রাশিয়া আশ্রয় দেয়ায় বৈঠক বাতিল করেন ওবামা।
    জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুনও নিরাপত্তা পরিষদের অনুমোদন ছাড়া কোন অভিযান বৈধ হবে না বলেছেন। ইতমধ্যেই সিরিয়ায় এক লাখের বেশি মানুষ মারা গেছে। সামরিক অভিযানে নিহতের সংখ্যা আরো বাড়বে বলে সতর্ক করে দেন বান কি মুন। তিনি বললেন, সিরিয়ার জনগণের দুর্দশা বন্ধ করার লক্ষ্যে আমাদের কাজ করা উচিত। সামরিক অভিযানের বদলে রাজনৈতিক সমধানের ওপর আমাদের জোর দিতে হবে। তবে ভবিষ্যতে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার না হওয়ার ব্যপারটিও আমাদের মাথায় রাখতে হবে। সিরিয়া থেকে জাতিসংঘের তদন্ত কর্মকর্তাদের সংগ্রহ করা সব নমুনা বুধবারের মধ্যে গবেষণাগারে চলে আসার কথা জানিয়েছেন বান কি মুন। যত দ্রুত সম্ভব ফলাফল জানানো হবে বলেও জানান তিনি।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here