সাম্প্রদায়িক জঙ্গীবাদী শক্তির অপতৎপরতা আন্তুর্জাতিক সন্ত্রাসীর সাথে

    0
    2

    আমারসিলেট24ডটকম,ফেব্রুয়ারীঃ ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরো এক বিবৃতিতে বলেন যে, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি ২০০৪ সাল থেকে অভিযোগ করে আসছে বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক জঙ্গীবাদী শক্তির অপতৎপরতা শুরু হয়েছে যা আন্তুর্জাতিক সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর সাথে সম্পর্কীত। যে গোষ্ঠিকে লালন পালন করছে বিগত দিনের জামাত-বিএনপি জোট সরকার। সাম্প্রদায়িক জঙ্গীবাদী শক্তির আসল লক্ষ্য বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামকে হটিয়ে বাংলাদেশকে ধর্ম ভিত্তিক চরম সাম্প্রদায়িক রাষ্ট্রে পরিণত করা, ‘বাংলাদেশ: ম্যাসাকার বিহাইন্ড এ ওয়ার অব সাইলেন্স’ শীর্ষক ২৯ মিনিট ভিডিও বার্তার শুরুতে ২০১৩ সালে ৫ মে শাপলা চত্ত্বরে হেফাজত ইসলামের সমাবেশের উপর হামলায় স্থিরচিত্র দেখানো হয়। আল কায়দার নেতা আল-জাওয়াহিরি তার বক্তব্যে সরাসরি হেফাজতে ইসলাম বা জামাতে ইসলামের নাম উচ্চারণ করেননি তবে বার্তাটি শুরুতে হেফাজতের সমাবেশে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অভিযানের স্থির দেখানো হয়। একই সাথে তার বক্তিৃতায় একটি অংশে মানবতা বিরোধী যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ট্রাইব্যুনাল নিয়ে তার ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন তিনি। আল কায়দার নেতা বাংলাদেশকে একটি জেলখানা অভিহিত করে বাংলাদেশ সরকারকে ইসলাম বিরোধী হিসাবে চিহ্নিত করেছেন। এতেই প্রমাণিত হয় আলকায়দা সমর্থন পুষ্ট আন্তর্জাতিক জঙ্গীবাদী শক্তি জামাত, হেফাজত ও বিএনপি এক হয়ে আজ বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছে। নতুন সরকার যখন দেশের শান্তি, স্থিতিশীলতা, গণতন্ত্রকে এগিয়ে নিচ্ছে, সন্ত্রাসী-জঙ্গিবাদী গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে দৃঢ় পদক্ষেপ নিচ্ছে ঠিক সেই মুহূর্তে এই ভিডিও প্রকাশ ও ধর্মের নামে উস্কানী দেশীয় ও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রেরই অংশ। পলিটব্যুরো মনে করে সরকারের পক্ষ থেকে অতিদ্রুত এই ষড়যন্ত্রের উৎস খুঁজে বের করা এবং জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত সহ ঐ অপশক্তির বিরুদ্ধে জাতীয় ঐক্য গড়ে তোলার উদ্যোগ নিতে হবে। পলিটব্যুরো পাশাপাশি অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।প্রেসবিজ্ঞপ্তি।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here