Saturday 21st of September 2019 11:23:45 AM
Monday 18th of May 2015 04:55:58 PM

সরকারি মূল্যে সরাসরি ধান ক্রয়ের দাবিতে মৌলভীবাজারে স্মারক

বৃহত্তর সিলেট, ব্যাংক-বীমা ডেস্ক
আমার সিলেট ২৪.কম
সরকারি মূল্যে সরাসরি ধান ক্রয়ের দাবিতে মৌলভীবাজারে স্মারক

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৮মেঃ বাংলাদেশ কৃষক সংগ্রাম সমিতির কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সরকারি মূল্যে ধান ক্রয়ের দাবিতে বাংলাদেশ কৃষক সংগ্রাম সমিতি মৌলভীবাজার জেলা কমিটি ১৮ মে দুপুরে মৌলভীবাজার  জেলা প্রশাসক বরাবর এক স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। কৃষক সংগ্রাম সমিতি মৌলভীবাজার জেলা কমিটির আহবায়ক ডা. অবনী শর্ম্মা নেতৃত্বে উপস্থিত প্রতিনিধি দলের কাছ থেকে স্মারকলিপি গ্রহণ করেন জেলা প্রশাসকের পক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক) জহিরুল ইসলাম। তিনি এ প্রেক্ষিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার আশ্বাস প্রদান করেন। এ সময়  আরও উপস্থিত ছিলেন ধ্রুবতারা সাংস্কৃতিক সংসদ মৌলভীবাজার জেলা কমিটির সভাপতি কবি শহীদ সাগ্নিক ও সম্পাদক অমলেশ শর্ম্মা, এনডিএফ জেলা সাধারণ সম্পাদক রজত বিশ্বাস, কৃষকনেতা তাহির মিয়া ও হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের সহ-সাধারণ সম্পাদক শাহিন মিয়া। স্মারকলিপির অনুলিপি জেলার সকল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর প্রেরণ করা হয়।

স্মারকলিপিতে উল্লেখ করা হয় বাংলাদেশ একটি কৃষি প্রধান দেশ, জাতীয় আয়ের বৃহত্তর অংশ এই কৃষি থেকেই আসে। প্রতিবছর কৃষক ফসল ফলায় অথচ সেই ফসলের ন্যায্য মূল্য পায় না। মধ্যস্বত্ব ভোগীরা নিজেদের ইচ্ছামত কৃষকের ফসলের মূল্য নির্ধারণ করে। এতে কৃষক প্রতিনিয়ত কৃষিতে লোকসান গুনে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক ক্ষতিপূরণে করে ঋণ। এই ঋণ আর পরিশোধ হয় না দিনে দিনে দেনা বাড়ে। দেনার দায়ে কৃষক জমি হারায়। এমনিভাবে জমিয়ে ধনী কৃষক মাঝারী কৃষকে, মাঝারী কৃষক প্রান্তিক দরিদ্র কৃষকে পরিণত হয়ে এক সময় ভূমিহীন কৃষকে পরবতীতে ভিটে মাটি হারিয়ে বাস্তুহারায় পরিণত হয়।

এই হলো বাংলাদেশের কৃষকের বাস্তব চিত্র। এ অবস্থা থেকে কৃষকের পরিত্রাণ মিলছে না। তার ওপর বিগত সময়ে কৃষক জনগণের উপর বিদ্যমান শোষণ-লুণ্ঠন, সমস্যা-সংকটের মধ্যে ‘মরার উপর খাঁড়ার ঘা’র মত চেপে বসেছে চলমান সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যে সৃষ্ট উৎপাদিত কৃষিপণ্য বাজারজাত করতে না পারার পরিস্থিতি। আজ তাই আন্তঃসা¤্রাজ্যবাদী দ্বন্দ্বে ক্ষমতা ও গদি নিয়ে শাসক-শোষক গোষ্ঠী’র সৃষ্ট সংঘাত, সন্ত্রাস ও নৈরাজ্য থেকে ‘কৃষক ও দেশকে বাঁচানো’র বিষয়টি জরুরী হয়ে দাঁড়িয়েছে।

বাংলাদেশে ইরি, বোরো ফসল সব চেয়ে বড় ধরনের উৎপাদিত ফসল, এ ফসল ফলাতে খরচও অনেক বেশী। মৌসুমে সব সময় ফসলের মূল্য কম থাকে। প্রয়োজনের তাগিদে কৃষক কম মূল্যেই তার ফসল বিক্রি করতে বাধ্য হয়। বর্তমান বাজারে প্রতি মন ধানের মূল্য ৬০০/- টাকা  নি¤েœ বিক্রয় হচ্ছে অথচ সরকারের নির্ধারিত মূল্য ৮৮০/- টাকা। অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় এই যে, সরকারের নির্ধারিত মূল্যে কৃষক তার ফসল বিক্রি করতে পারে না। আড়তদার-মহাজোন-ফড়িয়াদের নির্ধারিত মূল্যেই তারা তাদের ফসল বিক্রি করতে বাধ্য হয়। বর্তমান বাজার মূল্যে কৃষক তার ফসল বিক্রি করলে কৃষকের আরো ক্ষতি হবে। এ মৌসুমে এক মণ ধান উৎপাদনে খরচ কমপক্ষে ১,০০০/- (এক হাজার) টাকা খরচ হলেও সরকার মূল্য নির্ধারণ করেছে ৮৮০/- টাকা। তার ওপর এ সময়ে বিদেশ থেকে চাল আমদানী করায় ধান-চালের মূল্য পরিকল্পিতভাবে নামানো হচ্ছে। বিষয়টি অনুধাবনে আপনার সমীপে বাংলাদেশ কৃষক সংগ্রাম সমিতির পক্ষ থেকে আহ্বান কৃষকদের নিকট থেকে সরাসরি সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ধান ক্রয় করে সেই ব্যবস্থা গ্রহনে দাবী জানাচ্ছি।


সম্পাদনা: News Desk, নিউজরুম এডিটর

আমারসিলেট২৪.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Place for advertisement
Place for advertisement

সর্বশেষ সংবাদ


সর্বাধিক পঠিত

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc