সন্তানদের বায়না মিঠানো হলোনা লন্ডনে সিলেটী যুবক হিরণের

    0
    13

    নিজস্ব প্রতিনিধিঃ সন্তানদের বায়না মিঠাতে বাইরে খাবার নিয়ে ফিরে এসে ঘরে প্রবেশ করার মুহূর্তে যুক্তরাজ্যের পূর্ব লন্ডনে সন্ত্রাসীদের গুলিতে হিরন আলী (৪২) নামে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এক সিলেটী যুবক নিহত হয়েছেন। গত মঙ্গলবার স্থানীয় সময় রাতে নেলসন স্ট্রিটে নিজ বাড়ির সামনে হিরনের মাথায় গুলি করে পালিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা।

    বৃহস্পতিবার লন্ডনের রয়্যাল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। নিহত হিরন সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার বৈদ্যকাপন (উজান-মসলা) গ্রামের মৃত ইরফান আলী ও হারুনা বিবি দম্পতির বড় ছেলে। লন্ডনেই তার জন্ম। সেখানেই একটি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতেন তিনি। মঙ্গলবার রাতে স্থানীয় একটি ফাস্টফুডে সন্তানদের বায়না মিঠাতে এবং পরিবারের জন্য খাবার কিনতে যান হিরন। খাবার নিয়ে ফিরে এসে বাসায় ঢোকার সময় অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা তার মাথায় গুলি করে পালিয়ে যায়। পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দারা দ্রুত তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে দু’দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর বৃহস্পতিবার হিরনের মৃত্যু হয়। তবে কে বা কারা কী কারণে হিরনকে হত্যা করেছে সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানা যায়নি।

    হিরণ মিয়ার চাচাতো ভাই ও বিশ্বনাথ প্রবাসী এডুকেশন ট্রাস্ট ইউকের সাধারণ সম্পাদক মো. মিছবাহ উদ্দিন মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টায় (যুক্তরাজ্য সময়) পরিবারের সদস্যদের জন্য বাইরে থেকে খাবার কিনে র ঘরে ঢোকার সময় সন্ত্রাসীরা তার মাথায় গুলি করে। মারাত্মক আহত অবস্থায় হিরণকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

    মাথায় গুলি লাগায় তখনই হিরণ মিয়ার ব্রেইন ড্যামেজড হয়ে যায় বলে জানিয়েছিল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ডাক্তাররা লাইফ সার্পোট দিয়ে তাকে বাঁচিয়ে রাখার চেষ্টা করেন। অবশেষে বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে তার লাইফ সার্পোট খুলে ফেলা হয়, জানান মিছবাহ উদ্দিন।

    অপর দিকে লন্ডনে অবস্থানরত বিশ্বনাথের সুরিরখালের বাসিন্দা ও হিরনের শ্যালক কাওসার আহমদ জানান, স্ত্রী রোহেনা, ১৫ বছরের মেয়ে জাহিনা ও ৮ বছরের ছেলে তানজিমকে নিয়ে নেলসন স্ট্রিটের একটি বাড়িতে বসবাস করতেন তার দুলাভাই।এই রকম ঘটনা  ঘটবে আমরা কল্পনাও করতে পারছিনা।