শ্রীমঙ্গল রেলওয়ে থানা কর্তৃক ফেন্সিডিলসহ আটক-১ 

0
29
সোলেমান আহমেদ মানিক, শ্রীমঙ্গল:  মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল রেলওয়ে থানা পুলিশ কর্তৃক ১০ বোতল ফেন্সিডিলসহ সিলেটগামী আন্তনগর কালনী এক্সপ্রেস ট্রেনের ‘ছ’ বগির পশ্চিম পাশের দরজার মুখ থেকে তাকে আটক করা হয়।
আটককৃত যুবকের নাম মোঃ রুবেল। সে বর্তমানে আখাউড়া রেলওয়ে কলোনির, বাগান বাড়ীতে থাকে বলে জানায়। তার পিতার নাম জাহাঙ্গীর মিয়া। সে হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার ছালামত পুর গ্রামের বাসীন্দা।
৩০ মার্চ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় সিলেটগামী কালনী এক্সপ্রেস ট্রেনটি শ্রীমঙ্গল রেলওয়ে স্টেশনে যাত্রা বিরতিকালে আটককৃত রুবেলের আচরণে সন্দেহ হলে ট্রেনে কর্তব্যরত পি.এ ম্যান মাহতাব হোসেন ও রাজু মল্লিক তার পেশা ও গন্তব্য স্থান সম্পর্কে জানতে চাইলে সে কোন সঠিক উত্তর না দিয়ে পালানোর চেষ্টা করলে সংশ্লিষ্ট থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আলমগীর হোসেন এর দিক নির্দেশনায় ও প্লাটফর্ম ডিউটিতে নিয়োজিত উপ-পুলিশ পরিদর্শক মোঃ সালাউদ্দীন খান তাৎক্ষণিক তার শরীর তল্লাশি করে পরিহিত কালো রঙের জিন্স প্যান্টের কোমরের পিছনে সংবাদপত্রের কাগজে খাকি কসটেপ দ্বারা মোড়ানো অবস্থায় ১০ বোতল ফেন্সিডিলসহ তাকে আটক করা হয়।
শ্রীমঙ্গল রেলওয়ে থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক সারেজাহান বাদী হয়ে ১৯৭৪ সনের বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২৫ এর বি ধারায় মামলা করে জব্দকৃত মালামালসহ বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়।
রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আলমগীর হোসেন জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামী রুবেল মিয়া আখাউড়া থানার আজমপুর রেলস্টেশনের উত্তর পাশে কবরস্থান সংলগ্ন জনৈক মিজান মিয়ার মাল বিক্রয় করে আসতেছে। এটাই তার একমাত্র পেশা। আসামী মিজানকে ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।