শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাচনে প্রয়াত চেয়ারম্যান রনধীর কুমারের ছেলে রিটন প্রার্থী হতে চাই

0
400
শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাচনে প্রয়াতঃ চেয়ারম্যান রনধীর কুমারের ছেলে রিটন প্রার্থী হতে চাই

“উপজেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক রাজু দেব রিটন পিতার অসমাপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করতে উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থী হতে চান”

জহিরুল ইসলাম, স্টাফ রিপোর্টার: মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলা পরিষদ উপ-নির্বাচনে প্রার্থী হচ্ছে উপজেলা ছাত্রলীগ’র সাধারণ সম্পাদক, সদ্য প্রয়াত ৩ বারের উপজেলা চেয়ারম্যান প্রয়াত রনধীর কুমার দেব’র পুত্র রাজু দেব রিটন। গত ২১ শে মে ঢাকার এভার কেয়ার হসপিটালে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তার মৃত্যুতে শ্রীমঙ্গল উপজেলা পরিষদের আসনটি খালি থেকে যায় । আগামি ৭ অক্টোবর ২০২১ শ্রীমঙ্গল উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন । মনোনয়ন পত্র দাখিলের শেষ তারিখ- ১৩ সেপ্টেম্বর , মনোনয়ন বাছাই ১৪ সেপ্টেম্বর।আপিল দাখিলের শেষ তারিখ – ১৭ মেপ্টেম্বর।আপিল নিষ্পত্তির শেষ তারিখ- ১৮ সেপ্টেম্বর। (সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত)প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ- ১৯ সেপ্টেম্বর।প্রতীক বরাদ্ধ – ২০ সেপ্টেম্বর , ভোট গ্রহণের তারিখ- ৭ অক্টোবর।

প্রয়াত রনধীর কুমার দেব শ্রীমঙ্গল উপজেলায় টানা তিনবার আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। এর আগে তিনি সাতগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের ৪ বারের সফল চেয়ারম্যান ছিলেন। এছাড়াও তিনি দীর্ঘদিন শ্রীমঙ্গল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে ছিলেন। জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সদস্য ছিলেন। তিনি হিন্দু-বোদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদসহ বিভিন্ন সামাজিক, রাজনৈতিক ও ধর্মীয় সংগঠনের সাথে উতপ্রোতভাবে জড়িত ছিলেন। রাজু দেব রিটনের রাজনীতি ও সামাজিক পরিচিত: বাংলাদেশ ছাত্রলীগের রাজনীতি শুরু ( ২০০৫ ) সাল থেকে, বাংলাদেশ ছাত্রেলীগ, শ্রীমঙ্গল উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক (২০১৭ সাল) চলমান।এছাড়াও তিনি বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ শ্রীমঙ্গল উপজেলা শাখার সাংস্কৃতিক সম্পাদক এবং সদস্য বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ শ্রীমঙ্গল সদর ইউনিয়ন শাখা ।

রাজু দেব রিটনের রাজনীতি কার্য্যক্রম শুরুর কিছু সংক্ষিপ্ত পরিচিতি তুলে ধরা হল : বিভিন্ন সূত্রে জানা যায় রাজু দেব রিটনের রাজনীতিতে প্রথম অভিষেক ঘটে ২০০৫ সালে ।২০০৫ সালে নবম শ্রেনীতে পড়াকালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের শ্রীমঙ্গল উপজেলার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এর নেতত্বে শ্রীমঙ্গল ভিক্টোরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে মাঠে শ্রীমঙ্গল সরকারী কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের উপস্থিতিতে ফরম পূরণ করে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে তার হাতেকড়ি হয়। ওয়ান ইলিভেনের সময় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভানেত্রী বর্তমান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মুক্তির দাবীতে ছাত্রলীগের নেতৃত্বে রাজপথে অবস্থান করে। ২০০৮ সালে সংসদ নির্বাচনে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করার লক্ষ্যে শ্রীমঙ্গল উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে দলিয় কার্যক্রমে অংশ গ্রহণ করেন। ২০১৩ সালে বিএনপি ও জামাতে রাষ্ট্রবিরোধী কার্য্যক্রমে বিরুদ্ধে রাজ দেব রিটন রাজপথে প্রতিবাদ অংশগ্রহণ করেন।এরই প্রেক্ষিতে ২০১৭ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ শ্রীমঙ্গল উপজেলার ছাত্রলীগ শাখার সম্মেলনে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ. জেলা আওয়ামীলীগ ও জেলা ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের উপস্থিতিতে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের শ্রীমঙ্গল উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক পদে রাজু দেব রিটন কে মনোনীত করা হয় ।

বতর্মানে তিনি শ্রীমঙ্গল উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে বহাল আছেন ।

রাজু দেব রিটন জানায় “আমার প্রয়াত পিতা রণধীর কুমার দেব আওয়ামীলীগের সমর্থনে টানা ৪ বার ইউনিয় পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে টানা ৩ বার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন (২০১৯ এর নৌকা প্রতীকে) সে ২০১৪ এবং ২০১৯ এর উপজেলা পরিষদে নির্বাচনে তিনি প্রত্যক্ষ ভাবে দলীয় নেতৃবৃন্দকে সাথে নিয়ে নির্বাচন পরিচালনা করেন । সর্বোপরি তিনি ২০০৮ সাল থেকে নৌকা প্রতিকে উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে তিনি সক্রিয়ভাবে জড়িত থেকে নৌকার বিজয়ে লক্ষ্যে কাজ করেন।

তিনি আরো বলেন,আমার পিতা এই টার্মের অর্থাৎ ৫ বছরের জন্য নির্বাচিত হয়েছিলেন,উনার বাকি সময়ে যেন আমি উনার অসমাপ্ত কাজগুলো করতে পারি সে জন্য আমাকে একটি সু্যোগ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।যেহেতু বাবাকে এই ৫বছরের জন্য নির্বাচিত করেছিলেন,তাই বাকী ২বছর আমাকে সুযোগ দিয়ে,যাচাই করবেন আমি আপনাদের পাশে কতটুকু দাঁড়াতে পারি।আমি অযোগ্য হলে পরের নির্বাচনে আমাকে বয়কট করবেন। রাজু দেব রিটন আরোও বলেন, সে তার পিতার অসমাপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এর মনোনয়ন চায়। সকলের দোয়া, আশীর্বাদ ও সহযোগিতা কামনা করেন ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here