Tuesday 15th of October 2019 07:22:37 AM
Saturday 30th of January 2016 01:14:33 PM

শ্রীমঙ্গলে ৩ কোটি টাকার সুইচ গেট ও ড্রেন সপ্তাহেই শেষ

অর্থনীতি-ব্যবসা, বিশেষ খবর, বৃহত্তর সিলেট ডেস্ক
আমার সিলেট ২৪.কম
শ্রীমঙ্গলে ৩ কোটি টাকার সুইচ গেট ও ড্রেন সপ্তাহেই শেষ

“ঠিকাদারের দূর্ণীতির কারনে আজ কৃষকরা ক্ষতিগস্থ”

আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,৩০জানুয়ারী,স্টাফ রিপোর্টারঃ মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে বুরো ফসলে পানি প্রবাহের জন্য নিম্নমানের ড্রেন ও সুইচ গেট নির্মান এবং তা ভেঙ্গে যাওয়ার প্রতিবাদে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে ইছপপুর এলাকায় হাইল হাওরের উজানে আমন ক্ষেতে বুরো ফসল ফলানোর জন্য সরকার প্রায় ৩ কোটি টাকা খরচ করে সুইচ গেট ও পানির পাকা ড্রেন নির্মান করে দেয়।

এ ড্রেন দিয়ে পানি প্রবাহের এক সাপ্তাহের মাথায় তা ভেঙ্গে যাওয়ার ফলে কৃষকরা বিশাল ক্ষতির সম্মুক্ষিন হয়েছেন। বন্ধ হয়ে গেছে বুরো ক্ষেতের স্বপ্ন। এরই প্রতিবাদে শুক্রবার বিকেলে হাইল হাওরে ভেঙ্গে যাওয়া ড্রেনের উপর দাড়িয়ে মানবন্ধন করেছে স্থানীয় কৃষকরা।

মানববন্ধনে সুইচ গেট প্রকল্পের সভাপতি মো. আছাদ মিয়ার সভাপতিত্বে বক্তব্যদেন স্থানীয় ইউপি সদস্য মনির মিয়া, কৃষক ইউছুপ আলী, প্রহল্লাদ দেব ও মোছাদ্দিক আহমদ প্রমুখ।

সুইচ গেট প্রকল্পের সভাপতি মো. আছাদ মিয়া এ প্রতিবেদক কে জানান, ভেঙ্গে যাওয়া স্থান দ্রুত মেরামত ও সেখানে একটি কালভাট নির্মান করা জরুরী। তা না হলে কৃষকরা বড়  ধরনের ক্ষতির সম্মুখিন হবেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মনির মিয়া জানান, বর্তমান সরকার কৃষি বান্ধব সরকার। কৃষকদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দরদও বেশি। তাই প্রায় ৩ কোটি টাকা ব্যায়ে এখানে ৩ টি সুইচ গেট করে কয়েক হাজার হেক্টর এক ফসলা জমিকে দু ফসলা করার ব্যবস্থা করেছে সরকার। কিন্তু ঠিকাদারের দূর্ণীতির কারনে আজ কৃষকরা ক্ষতিগস্থ।

তবে বেশ কিছু কৃষক এই কমিটিকে দোষারোপ করে বলেন নিয়ম অনুযায়ী এই ড্রেন সড়কের মধ্যখান দিয়ে যাওয়ার কথা এটা পাশ দিয়ে যাওয়ায়- যে পাশে মাটি নেই সে পাশ ভেঙ্গে গেছে।

কৃষক ইউছুপ মিয়া জানান, বুরো ক্ষেতের জন্য অনেকে হালিচারা করেছেন। বুরো ক্ষেত করতে না পারলে সে চারাও নষ্ট হবে। তা ছাড়া যে স্থানে ভেঙ্গেছে সেখানে একটি কালভাট নির্মানও জরুরী।

একই গ্রামের কৃষক প্রহল্লাদ জানান, ড্রেনের পাশাপাশি সুইচ গেটের কাজও হয়েছে নিন্ম মানের। এরই মধ্যে সুইচ গেটের নিচের রড বের হয়ে গেছে। এটিও ভেঙ্গে পড়তে পারে।

এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রকৌশলী আফছার আহমদ জানান, ঠিকাদারকে এটি মেরামত করে দেয়ার জন্য তারা তাগাদা দিয়ে আসছেন। যদি ঠিকাদার এটি না করে তাহলে তার জামানতের টাকা দিয়ে তারা তা করে দিবেন।


সম্পাদনা: News Desk, নিউজরুম এডিটর

আমারসিলেট২৪.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Place for advertisement
Place for advertisement

সর্বশেষ সংবাদ


সর্বাধিক পঠিত

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc