শ্রীমঙ্গলে ব্যাংকের ভুলে আসা ৫০হাজার টাকা গ্রাহকের ফেরত

    0
    9

    মিনহাজ তানভীরঃ  শ্রীমঙ্গল শহরের একটি বেসরকারি ব্যাংক থেকে ক্যাশ কর্মকর্তার ভুলক্রমে গ্রাহককে ৫০ হাজার টাকা বেশি দেওয়া হয় পরবর্তিতে ওই ব্যাংকে ৫০ হাজার টাকা ফিরিয়ে দিলেন ইসবপুর গ্রামের গ্রাহক নাদিম মাহমুদ আহাদ।
    ঘটনা সংক্রান্ত জানা যায়, গ্রাহক নাদিম মাহমুদ আহাদ শ্রীমঙ্গল উপজেলার ইসবপুর গ্রামের বাসিন্দা। তার বাবার নাম আলহাজ্ব মোঃ ছনু মিয়া। তিনি দির্ঘদিন ধরে দুবাই প্রবাসী ছিলেন। গত ২২ফেব্রুয়ারি সোমবার দুপুরে নিজের বিশেষ প্রয়োজনে শহরের একটি বেসরকারি ব্যাংক থেকে আড়াই লক্ষ টাকা উত্তোলন করেন। উত্তোলনের পর শুধুমাত্র নোটগুলি চেক করে ব্যাগে করে বাসায় নিয়ে যান।বাসায় যাওয়ার পর এক আত্মিয়ের মৃত্যুর সংবাদ শুনে তিনি জানাযায় অংশ গ্রহণ করতে চলে যান। পরবর্তীতে যাকে টাকা দেওয়ার কথা ছিল তিনি না আসায় ওই টাকা তিনি গণনা করেও দেখেননি। আজ মঙ্গলবার সকাল এগারোটায় ওই ব্যাংক থেকে তাকে ফোন করে জিজ্ঞাসা করেন যে আপনার টাকা কম গেছে নাকি বেশি গেছে ? একটু চেক করে জানাবেন প্লীজ। তিনি তাৎক্ষণিক আলমিরা খুলে টাকা চেক করে দেখেন যে তার আড়াই লক্ষ টাকা থাকার কথা; কিন্তু রয়েছে তিন লক্ষ টাকা (৫০ হাজার করে ৬ বাণ্ডিল)। তিনি আবার ফোন করে ওই কর্মকর্তাকে জানালেন যে,আমাকে তো আপনি ৫০ হাজার টাকা বেশি দিছেন। আমিতো তা চেক করিনি,করার সুযোগ ও হয়নি। তারপর ওই দিন  ৫০ হাজার টাকার এক বাণ্ডিল ওই ব্যাংকে জমা দেন। এ সময় শ্রীমঙ্গল অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি আনিছুল ইসলাম আশরাফী উপস্থিত ছিলেন। এতে করে ব্যাংক কর্মকর্তারা অত্যন্ত খুশি হয়েছেন এবং তারা তার প্রশংসা করেছেন,তবে সংবাদ করলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষের অনুরোধে ব্যাংকের নাম গোপন রাখার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করেছেন।

    উল্লেখ্য নাদিম মাহমুদ আহাদ প্রবাসে থাকা কালিন ২০১৬ সালে প্রায় সাড়ে  ৬ হাজার ডলার পেয়ে একজনকে ফেরত দিয়ে প্রবাসী অঙ্গনে বাঙালিদের বিশ্বস্ততার সম্মানকে সবার কাছে তুলে ধরেছিলেন।