Tuesday 20th of November 2018 07:14:35 PM
Saturday 8th of September 2018 04:31:37 PM

শ্রীমঙ্গলে প্রেমিকের হাতে খুন,আসামী স্বামীঃরহস্য উন্মোচন

অপরাধ জগত, বিশেষ খবর, বৃহত্তর সিলেট ডেস্ক
আমার সিলেট ২৪.কম
শ্রীমঙ্গলে প্রেমিকের হাতে খুন,আসামী স্বামীঃরহস্য উন্মোচন

হৃদয় দাশ শুভঃ শ্রীমঙ্গলের বহুল আলোচিত “স্বপ্না হত্যাকান্ডের” রহস্য উন্মোচনের দাবী করেছে পুলিশ ৷মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই সোহেল রানা দীর্ঘ এক বছর এর অধিক সময় মামলার তদন্ত কার্য পরিচালনা করে মামলার প্রকৃত রহস্য উদঘাটন করে মূল আসামী কে সনাক্ত করতে সক্ষম হন, এবং পরকিয়ায় জড়িত নিহত স্বপ্না বেগমের পরকিয়া প্রেমিক মৃত হাবিব মিয়ার ছেলে আজাদ মিয়া (২৮) গ্রাম-সাইটুলা থানা শ্রীমঙ্গল কে দীর্ঘদীন পলাতক থাকার পর গতকাল (শুক্রবার) পুলিশের একটি দল গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় ৷
পরে থানায় এনে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে ধৃত আজাদ স্বীকার করেন যে,একই গ্রামের সাইটুলার বস্তির তার খালাতো ভাই গফুর মিয়ার বাড়ীকে যাওয়া আসার এক পর্যায়ে নিহত স্বপ্না বেগমের সাথে তার পরকিয়া সম্পর্ক গড়ে ওঠে ৷
প্রায় প্রতিদিনই তাদের পারিবারিক কাজে সাহায্য সহযোগীতা করতেন যার ফলে পরিবারের কেউ তাকে সন্দেহের চোখে দেখতো না৷বছর তিনেক পূর্বে স্বপ্না বেগম ও তার স্বামীর মধ্যে পারিবারিক ঝগড়ার এক পর্যায়ে স্বপ্না তার প্রেমিক আজাদকে জানালে আজাদ স্বপ্নার ছেলে মেয়েসহ স্বপ্নাকে তার বাবার বাড়ী রাজনগর পাঠিয়ে দেয় ৷পারিবারিক কলহে আজাদ মিয়ার এরকম কর্মকান্ডে স্বপ্নার স্বামী গফুর মিয়ার মনে সন্দেহের সৃষ্টি হয় ৷
এসময় স্বপ্না বেগম প্রায় পাঁচ মাস বাবার বাড়ীতে অবস্থান করে নারায়নগঞ্জে একটি গার্মেন্টেসে চাকরি নেয়,এর কিছুদিন পর আজাদ মিয়াও সেখানে চলে যায় এবংং স্বামী স্ত্রী পরিচয়ে বসবাস শুরু করে ৷
এদিকে দেড় বছর অতিবাহিত হওয়ার পর স্বপ্না ও গফুর মিয়ার আত্নীয় স্বজনদের মধ্যস্থতায় পুণ সংসার করার সিদ্ধান্ত হয় ৷এরপর স্বপ্না গফুর মিয়ারে সংসারে ফিরে আসে ৷অন্যদিকে স্বপ্না আসার ১৫-২০ দিন পর আজাদ মিয়াও ফিরে আসে ৷এক পর্যায়ে আজাদ স্বপ্না বেগমের সাথে সাক্ষাৎ করে পরে গতবছরের ৩১ জুলাই রাত ১০টার দিকে স্বপ্নার স্বামীর বাড়িতে গিয়ে টিনের বেড়ায় টোকা দিলে স্বপ্না প্রথমে জানালা খুললে আজাদ তার সাথে বাইরে দেখা করতে চায় ৷ স্বপ্না দরজা খুলে বাইরে আসলে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আজাদ স্বপ্নার গলা টিপে ধরলে কিছুক্ষন পর স্বপ্না নিস্তেজ হয়ে যায় ৷ স্বপ্নার নড়াচড়া না দেখে সে স্বপ্নার লাশ টেনে তার স্বামীর ঘরে নিয়ে যায় তারপর লাশটি ভিতরে রেখে দরজা লাগিয়ে পালিয়ে যায় ৷
উল্লেখ্য,স্বপ্না বেগমের বোন নিহত স্বপ্নার স্বামীসহ অজ্ঞাতনামা আরও ৩-৪ জনকে আসামী করে শ্রীমঙ্গল থানায় একটি হত্যা মামলা করেন যার নং ২/০২০৮২০১৭

সম্পাদনা: News Desk, নিউজরুম এডিটর

আমারসিলেট২৪.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Place for advertisement
Place for advertisement

সর্বশেষ সংবাদ


সর্বাধিক পঠিত

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc