শ্রীমঙ্গলে ড্রাইভার/ব্যবসায়ীদের দাওয়া পাল্টা দাওয়াঃভাংচুর লুটপাট

    5
    13

    “শ্রীমঙ্গল শহরে ১৪৪ ধারা চলছে। ইতিমধ্যে ব্যবসায়ী সমিতির ডাকে শ্রীমঙ্গল শহর ও শহর তলির সকল দোকান মালিকদের অনির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত দোকানপাট বন্ধের সিদ্ধান্ত”

    আমারসিলেট24ডটকম, ১৪জুনঃ আজ বিকাল ৬টার দিকে শ্রীমঙ্গল শহরে ড্রাইভার বনাম ব্যবসায়ীদের দাওয়া পাল্টা দাওয়া হয়।জানা যায়,এক ড্রাইভার একটি চায়ের দোকানে চা পান করে বিল দিতে গিয়ে দোকানদারের দ্বারা লাঞ্ছিত হলে ড্রাইভার সমিতির লোক জন লাঠীসোটা নিয়ে শহরের ভানুগাছ রোড, ষ্টেশন রোড,পোস্ট অফিসরোড, সেন্ট্রাল রোড কলেজ রোড, হবিগঞ্জ রোড,চৌমুহনাসহ বিভিন্ন রোডে হামলা চালিয়ে দোকানপাট বন্ধ করতে বাধ্য করে। সর্ব শেষ সন্ধ্যা ৮ টা পর্যন্ত ব্যবসায়ীদের বেশকিছু দোকানে হামলা ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে। প্রথম দিকে পুলিশ নমনীয় ভূমিকাপালন করে এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ধীর ভূমিকা পালন করে।
    এক পর্যায়ে পুলিশের প্রতিরোধে তারা পালাতে থাকে। ততক্ষনে ব্যবসায়ীরা রাস্তায় নেমে আসে চৌমুহনাতে অবস্থান করে প্রতিবাদ করতে দেখা যায়। পুলিশের একটি সূত্রে জানা যায়, ড্রাইভার সমিতির নেতা কাওন্সিলর জিনু মিয়া ড্রাইভারদেরই ছোড়া ঢিলে মাথায় জখম প্রাপ্ত হন। ২য়  দফায় আবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে  বিভিন্ন রোডে হামলা চালাতে থাকলে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বাধ্য হয়ে ৪/৫ রাউন্ড ট্রিয়ার সেলও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে তাদেরকে পালাতে বাধ্য করে এতে অনেক পথচারী আহত হয়েছে বলে জানা গেছে।আরও কয়েকটি সুত্র থেকে জানা যায়, বেশ কয়েকটি কাপড়ের দোকান,মুদি দোকানের নগদ অর্থসহ কয়েক লক্ষাধিক টাকার মালামাল  লুটপাট হয়েছে এবং দোকানপাঠ ভাংচুর করা হয়েছে।প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়,ড্রাইভার সমিতির বেশ কিছু  অসৃঙ্খল সদস্যরা এই ঘটনা ঘটিয়েছে।

    আরও জানা গেছে,এ ঘটনায় ২৫/৩০ জনের মত  আহত হয়েছেন। শহরের অবস্থা এখনো থমথমে।এ খবর লিখা পর্যন্ত শ্রীমঙ্গল শহরে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। ইতিমধ্যে ব্যবসায়ী সমিতির ডাকে শ্রীমঙ্গল শহর ও শহর তলির সকল দোকান মালিকদের অনির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত দোকানপাট বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানা গেছে।এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আশফাকুল হক চৌধুরী বলেন, আমি ব্যবসায়ী সমিতি এবং ড্রাইভার সমিতির নেতাদের নিয়ে আলোচনা  করেছি আশা করি আলোচনার মাধ্যমে এর সমাধান হবে।

     

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here