শ্রীমঙ্গলে ক্যান্সার আক্রান্ত শিশু নুসরাত জাহান বাঁচতে চাই

    0
    27

    নিজস্ব প্রতিনিধিঃ  মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার সিন্দুরখান রোডস্থ খাসগাঁও এলাকার জীপ চালক মোহাম্মদ মঙ্গল মিয়ার শিশু কন্যা চোখে ক্যান্সার আক্রান্ত নুসরাত জাহান বাঁচতে চাই।
    গরিব বাবার দুটি সন্তান একটি ছেলে ও একটি মেয়ে। ছেলের নাম মোঃ ফাহিম মিয়া (১১) মেয়ে নুসরাত জাহান বয়স সাড়ে তিন বছর। জন্মের পর থেকে ফুটফুটে এই বাচ্চাটি মা-বাবার ঘরকে আলোকিত করে রাখে কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাস গত করোনা মৌসুমে অর্থাৎ আজ থেকে প্রায় সাড়ে 8 মাস পূর্বে তার চোখের অবস্থা ধীরে ধীরে অস্বাভাবিক ভাবে বড় হতে থাকে।
    প্রথমত একটি চোখ বাঁকা থাকলেও আস্তে আস্তে তা সাদা হয়ে যায় এবং বড় হতে থাকে মা-বাবার চিন্তা বেড়ে যায়। নুসরাতের বাবা মঙ্গল মিয়া স্ত্রীকে নিয়ে সন্তানের চিকিৎসার জন্য করোনা সিজনে দিগ্বিদিক ঘুরাফেরা করে। একদিকে করোনার আতংকে চিকিৎসক সমস্যা অন্যদিকে আর্থিক সমস্যায় করোনা মৌসুমের দুর্যোগ মুহূর্তে চতুর্দিক ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করার শেষ পর্যায়ে চট্টগ্রামের পাহাড়তলী চক্ষু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানকার ডাক্তার এবং বিশেষজ্ঞদের পরামর্শক্রমেই পরীক্ষা-নিরীক্ষার একপর্যায়ে তার একটি চোখ তুলে নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য বিদেশে প্রেরণ করা হয়। সেখান থেকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা হয়ে আবার দেশে নিয়ে আসা হয়েছে চোখটি আবারও বিদেশে প্রেরণের সম্ভাবনা রয়েছে। অত্যন্ত ব্যয়বহুল এ চিকিৎসায় একজন চালক বাবার পক্ষে অত্যন্ত কষ্ট করে সর্বস্ব বিলিয়ে দিয়েছে কলিজার টুকরা শিশু নুসরাতকে বাঁচাতে।নুসরাতকে বাঁচাতে হলে প্রচুর অর্থের প্রয়োজন। যা তাদের সাধ্যের বাইরে চলে গেছে।
    অপারগ হয়ে নুসরাতের বাবা মঙ্গল মিয়া ও তার স্ত্রী ফারজানার আকুল আবেদন আপনাদের কাছে এই কঠিন মুহূর্তে শিশুটিকে বাঁচাতে হলে বিত্তশালী মানবদরদী মানুষের সাহায্যের খুবই প্রয়োজন। হৃদয়বানদের সহযোগিতাই কেবল পারে নুসরাতের বাবা মার পাশে দাঁড়িয়ে সাহস যোগাতে । সবার ইচ্ছা হলে নুসরাতের বাবা মার ব্যাথা ভাগ করে নেওয়া সম্ভব।

    আসুন আমরা তাদের পাশে দাঁড়ায়।যে কোন সহযোগিতার জন্য তার মায়ের অ্যাকাউন্ট নাম্বার ও নাম-ঠিকানা।

    ফারজানা বেগম হিসাব নাম্বার- ৭০১৭৪১৮৭৭৫৮০৯ এজেন্ট ব্যাংকিং বিভাগ, ডাচ বাংলা ব্যাংক শ্রীমঙ্গল শাখা। ফারজানা বেগম (মাতা) বিকাশ নাম্বার +৮৮ ০১৩১২৫৩৪৭৬৫,