শ্রীমঙ্গলে এক তরুনীর আত্মহত্যা নিয়ে জল্পনা কল্পনা

    0
    6

    নিজস্ব প্রতিনিধিঃ শ্রীমঙ্গল উপজেলার আশিদ্রোন ইউনিয়নের পাড়ের টং এলাকায় এক যুবতীর ফাঁসিতে ঝুলন্ত অবস্থায় মৃত্যু ঘটেছে,স্থানীয়রা এ মৃত্যু নিয়ে সন্দেহ মূলক জল্পনা কল্পনা করছে।

    ঘটনার বিবরণে নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, সোমবার (২৫ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় পলি আক্তার (১৯) নামে ওই গ্রামের মফিজুল্লাহ’র মেয়েকে বসতবাড়ির ঘরে ফাঁসি লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পরে ঘরের দরজা বন্ধ দেখে সন্দেহ হলে দরজা খুলে ঝুলন্ত থেকে মৃতদেহ উদ্ধার করে, পরিবারের দাবি নিহত পলি মানসিক রোগী ছিল কিন্তু এলাকাবাসী বলছে ভিন্ন কথা।

    নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক এলাকাবাসী বলেন ফাঁসিতে ঝুলে মৃত্যুর ঘটনাটি রহস্যজনক কারণ মেয়েটি মানসিক ভারসাম্যহীন ছিল বলে আমরা শুনিনি। প্রকৃত তদন্ত করলে আসল ঘটনা বেরিয়ে আসবে তাদের দাবী তবে সুনির্দিষ্ট তথ্য দিতে পারেনি সন্দেহ পোষণকারীরা।

    এদিকে ঘটনা স্থল পরিদর্শনকারী শ্রীমঙ্গল থানার এসআই ইউসুফ বলেন, তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন বাড়ির লোকজন নিহত পলিকে মানসিক রোগী হিসেবে জানিয়েছেন। আপনার তদন্তে কি পেয়েছেন এ প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন “আমাদেরকে পরিবারের লোকজন বলেছে মেয়েটি মানসিক অসুস্থ ছিল নিজের ওড়না দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে, লাশ বাড়ীর লোকজনই ফাঁসি থেকে নামিয়েছে।”

    তিনি আরো বলেন ওসি স্যারের সাথে কথা বললে বিস্তারিত জানতে পারবেন এ প্রেক্ষিতে শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুস সালেক দুলালের সাথে কথা হলে তিনি বলেন “ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে মেয়েটিকে চিকিৎসা করা হতো এরকম কাগজপত্র আমরা পেয়েছি তাছাড়া বাড়ির আশপাশের লোকজন ও মানসিক রোগী বলেই সাক্ষ্য প্রমাণ দিয়েছে এতে মানসিক রোগী বলেই অনুমান করা হচ্ছে, আমাদের কাছে কেহ সন্দেহ প্রকাশ করেনি। নিহত মেয়েটির পরিবার এডিএম বরাবরে মেয়েটির চিকিৎসা জনিত কাগজপত্র নিয়ে দরখাস্ত করেছে সেখান থেকে অনুমতি পেলে লাশ দাফন করা হবে।