শ্রীমঙ্গলে আবাসিক বোডিং-এ এক নারী খুন!

0
144
শ্রীমঙ্গলে আবাসিক বোডিং-এ এক নারী খুন!

জহিরুল ইসলাম,নিজস্ব প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল শহরের নতুন বাজারের  টু-স্টার আবাসিক  বোডিং এ এক নারীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করেছে অজ্ঞাত দুবৃত্তরা।খবর পেয়ে নিহত মহিলার মৃত দেহ বোর্ডিং এর ৩য় তলার একটি রুম থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রোববার ৩১ অক্টোবর দুপুরের পর কোন এক সময় এ ঘটনাটি ঘটেছে বলে অনুমান করা হচ্ছে। নিহত মনোয়ারা বেগম (চল্লিশোর্ধ) নতুন বাজারের লেবু ব্যবসায়ী একই সময়ে তিনি আবাসিক  বোডিং এ খণ্ড কালীন পরিষ্কারের কাজ করতেন। এ ছাড়াও গোপন সুত্রে জানা গেছে নিহত ওই নারী একটি রুমে নিয়মিত বসবাস করতেন।যেখানে বহিরাগতদের আনাগোনা ছিল বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েক জন জানিয়েছেন।তবে হত্যার ঘটনার সাথে পরকীয়া বা আর্থিক বিষয় জড়িত কি না তা কেহই নিশ্চিত করতে পারছে না।অপর একটি সুত্র জানিয়েছে অভাবের ফলে কাঁচা মালের ব্যবসা করেও জীবিকা নির্বাহের চেষ্টা ছিল তার যে কারণে বাজারে লেবু ব্যবসা করে ও রোজগারে ব্যাস্ত থাকতো অনেক সময়।ঘটনার দিন দুপুরে ও ওই নারীকে বাজারে ঘুরতে দেখা গেছে।  

শ্রীমঙ্গলে আবাসিক বোডিং-এ এক নারী খুন!
এই সেই টুঁ স্টার আবাসিক বোডিং,সাইন বোর্ড বিহীন।

এঘটনায়  বোডিং ম্যানেজার ও নিহতের ভাইসহ কয়েকজনকে  জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে এসেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়,নিহত মনোয়ারা শ্রীমঙ্গল  শাহীবাগ এলাকার নুর মিয়ার স্ত্রী।তার মূল বাড়ি একই উপজেলার আশিদ্রোন ইউনিয়নে। তিনি শাহীবাগে ভাড়া থাকতেন।তার এক মেয়ে রয়েছে বলে ও জানা গেছে।

সিনিয়র এএসপি  শহিদুল হক মুন্সি (শ্রীমঙ্গল সার্কেল) আমার সিলেটকে বলেন,   “টু ষ্টার বোডিংএর একটি কক্ষ থেকে লাশ উদ্ধার করেছি।  ওনার শরীরে বেশ কটা আঘাতের (কুপের) চিহৃ পেয়েছি।  তদন্তের ব্যাপারে আমরা এখনো প্রাথমিক স্তরে আছি৷ঘটনার তদন্ত চলছে। যে কোন আপডেট পেলে আমরা পরবর্তীতে আপনাদের জানাবো।“

এ সময় শ্রীমঙ্গল থানার ওসি শামিম উর রশিদ তালুকদার,পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) হুমায়ুন কবির,পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) নয়ন কারকুন,এস আই আসাদূর রহমান,এস আই আনোয়ার পাঠান,এস আই জাকির,এস আই কামরুল হাসানসহ থানার অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে বোডিং ম্যানেজার আব্দুল কাইয়ূম জানায়, এই নারী আমাদের বোডিংএর  নিচে বাজারে রাস্তায় লেবু মরিচ ইত্যাদি কেনা-বেচা করতো তিনি মাঝে মধ্যে বোডিংএ ধোয়া  মুছার কাজ করতো লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেই। 

এঘটনায়  বোডিং ম্যানেজার ও নিহতের ভাইসহ কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে এসেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়,নিহত মনোয়ারা শ্রীমঙ্গল  শাহীবাগ এলাকার নুর মিয়ার স্ত্রী।তার মূল বাড়ি একই উপজেলার আশিদ্রোন ইউনিয়নে। তিনি শাহীবাগে ভাড়া থাকতেন।তার এক মেয়ে রয়েছে বলে ও জানা গেছে।

শ্রীমঙ্গলে আবাসিক বোডিং-এ এক নারী খুন!
উপস্থিত জনতার একাংশ

সিনিয়র এএসপি শহিদুল হক মুন্সি (শ্রীমঙ্গল সার্কেল) আমার সিলেটকে বলেন,   টু ষ্টার বোডিংএর একটি কক্ষ থেকে লাশ উদ্ধার করেছি।ওনার শরীরে বেশ কটা আঘাতের (কুপের) চিহৃ পেয়েছি।তদন্তের ব্যাপারে আমরা এখনো প্রাথমিক স্তরে আছি৷ঘটনার তদন্ত চলছে। যে কোন আপডেট পেলে আমরা পরবর্তীতে আপনাদের জানাবো।

এ সময় শ্রীমঙ্গল থানার ওসি শামিম উর রশিদ তালুকদার,পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) হুমায়ুন কবির,পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) নয়ন কারকুন,এস আই আসাদূর রহমান,এস আই আনোয়ার পাঠান,এস আই জাকির,এস আই কামরুল হাসানসহ থানার অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে বোডিং ম্যানেজার আব্দুল কাইয়ূম জানায়, এই নারী আমাদের বোডিংএর  নিচে বাজারে রাস্তায় লেবু মরিচ ইত্যাদি কেনা-বেচা করতো তিনি মাঝে মধ্যে বোডিংএ ধোয়া  মুছার কাজ করতো লাশ দেখতে পেয়ে  পুলিশকে খবর দেই। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here