শত্রুতার এ কোন নমুনা !

    0
    11

    “চুনারুঘাটে ব্যবসায়ীর লক্ষাধিক টাকার পার্সের মালসহ দোখান ঘরে গভীর রাতে আগুন লাগিয়েছে দর্বৃত্তরা”

    আমারসিলেট টুয়েন্টিফোর ডটকম,১৮ফেব্রুয়ারী,নিজস্ব প্রতিনিধিঃ  চুনারুঘাট উপজেলার আহম্মদাবাদ ইউপির দক্ষিণ কালিশীরি নতুন প্রাইমারী স্কুলের সামনের দিকে চৌ-রাস্তার মূরে ভিটার মালিক মনিরা খাতুনের ভাড়াটিয়া আ: মতিনের পার্সের দোখান ঘরে আগুন লাগিয়েছে দুরদর্শ লম্পট মরম আলী ও ২ভাই সহ তার দলবল।

    ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল মঙ্গলবার রাত্রী ২ঘাটিকার সময়। দোখানদার মতিন জানান, বিভিন্ন ধরনের পার্সের মালসহ অধিক সংখক মালামাল ক্ষতি স্বাধিত হয়েছে।

    দোকান ঘরের ভিটার মালিক জানান, আমার স্বামী আ: লতিফ ও এলাকার নিড়ীও মানুষের উপর বিভিন্ন ধরনের পায়তারী করে ২বছর যাবত জমি নিয়ে মিথ্যা চদাবাজী মামলা করে আসছিল অর্থকরি ও ভূমি দখল করে পায়দা লুঠার জন্য। ২০০৮ সালে ১টি দোখান ঘরে চুরি করে পলাতক ছিল সৌদিতে। মনিরা খাতুন বলেন সৌদিতে থাকা অবস্থায় তার ভাই দেরকে দিয়ে মামলা করায় ১টি ও বর্তমানে দেশে এসে জমি নিয়ে ১টি মামলাসহ সর্বমোট ৩টি মামলা করে আমার স্বামী আ: লতিফের উপর।

    এ ব্যপারে ইউপি চেয়ারম্যান সনজু চৌধুরী সহ এলাকার ঘন্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে মধ্যে কালিশীরি জামে মসজিদের চাদের উপর বৈঠক করা হয়। সে বৈঠকে সিন্ধান্ত হয় আদালতে যার নামে রায় হবে সে পাবে। বিজ্ঞ আদালতের এটি এম কৌডে রায় হয়। রায়ে জমি পান আ: লতিফ।

    মামলার প্রতিপক্ষ দুরদর্শ ভূমি দখলবাজ মরম আলীর স্ত্রী মমিনা খাতুন(জুসনা আক্তার) এটি কে কেন্দ্র করে নিড়ীও আ: লতিফের স্ত্রী মনিরা খাতুনের উপর যুর জুলুম ও প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। এ বিষয়ে স্বাক্ষী দেন, অশপাশের দোখান ঘরের মালিক ও স্থানীয় জনতা ..(১) সায়েরা খাতুন (২) রজব আলী (৩) আব্দুল হক (৪) জাহিমা খাতুন ও স্থানীয় বেশ কয়েকজন লোক, দুরদর্শ লম্পট ও ভূমি দখলবাজ মরম আলীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দেন।

    আবারও গতকাল একই গ্রামের আবুল মিয়ার পুত্র লম্পট মরম আলী, তার ২ভাই শাহ্ আলম, শফিক মিয়া ও কিছু সংখক দলবলসহ দাড়ালো অস্ত্র-সস্ত্র , রামদা, বল্লম ও লাঠিশোঠা নিয়ে এসে আ: মতিনের দোখানঘর আগুন দিয়ে পুরে পালিয়ে যাবার সময় স্থানীয় জনতা ও উপরের স্বক্ষীগণ সারাশব্দ শুনে বের হলে তাদের ৩ জনকে দেখতে পেয়ে দাওয়া করলে তারা পালিয়ে যায়।

    এ বিষয়ে তারা প্রশাষনের প্রতি শ্রদ্ধার সাথে আশ্বাস রেখে, ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য কামনা করেন স্থানীয় অনেকেই।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here