Saturday 14th of December 2019 11:48:39 PM
Sunday 21st of July 2019 01:54:28 AM

রিফাত হত্যা মামলায় মিন্নিসহ ১৩ আসামীর স্বীকারোক্তি

অপরাধ জগত ডেস্ক
আমার সিলেট ২৪.কম
রিফাত হত্যা মামলায় মিন্নিসহ ১৩ আসামীর স্বীকারোক্তি

বাংলাদেশের বরগুনার চাঞ্চল্যকর রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি পাঁচ দিনের রিমান্ড শেষ হওয়ার আগেই ১৬৪ ধারায় ‘স্বীকারোক্তিমূলক’ জবানবন্দি দিয়েছেন। এ নিয়ে হত্যার দায় স্বীকার করে এখন পর্যন্ত ১৩ আসামি স্বীকারোক্তি দিলেন।

আজ (শুক্রবার) বিকেল ৩টার দিকে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মোহাম্মাদ সিরাজুল ইসলাম গাজীর কাছে মিন্নি এই স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন বলে জানান বরগুনা সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হুমায়ুন কবির।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বলেন, ‘এই হত্যাকাণ্ডে মিন্নির সংশ্লিষ্টতা পাওয়ায় তাকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। রিমান্ডের দ্বিতীয় দিনে তিনি হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিতে চায়। আমি তাকে শুক্রবার বিকাল ৩টায় বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে নিয়ে আসি। সেখানে তিনি বিচারকের কাছে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।’

তবে জবানবন্দি চলাকালে মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন সংবাদকর্মীদের বলেন, ‘মিন্নিকে ভয়ভীতি দেখিয়ে জবানবন্দি দেয়ার জন্য বাধ্য করা হচ্ছে।’ তিনি দাবি করেন, মামলাটিকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য একটি মহল ষড়যন্ত্র করে মিন্নিকে গ্রেপ্তার করে নানামুখী হয়রানি করছে। দুই নেতা ও হত্যাকারীদের বাঁচাতে পুলিশ তার মেয়েকে ফাঁসানোর চেষ্টায় নাটক করছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

জিজ্ঞাসাবাদ ও জবানবন্দি গ্রহণের পর সন্ধ্যা ৭টা ১০ মিনিটে মিন্নিকে আবারো জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

১৬ জুলাই মিন্নিকে গ্রেফতার দেখায় পুলিশ। এর আগে ১৩ জুলাই রিফাতের বাবা ও হত্যা মামলাটির বাদী আবদুল হালিম দুলাল শরীফ বরগুনা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে অভিযোগ করেন, তার ছেলে হত্যার ঘটনায় পুত্রবধূ মিন্নিও জড়িত বলে সন্দেহ করছেন তিনি। সেদিন মিন্নি হত্যাকাণ্ডে জড়িত এমন সন্দেহের পেছনে ১০টি কারণও বলেন তিনি। এরপর তার সন্দেহের বিষয়টি আমলে নেয় পুলিশ।

রিফাত হত্যা মামলায় এ পর্যন্ত মিন্নিসহ ১৫ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ২ জুলাই মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়। এখন পর্যন্ত ১৩ আসামি আদালতে ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

প্রসঙ্গত, ২৬ জুন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে রামদা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে রিফাত শরীফকে। তখন তার স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি হামলাকারীদের থামানোর চেষ্টা করেও সফল হননি। গুরুতর আহত রিফাতকে ওইদিন বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বিকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এ ঘটনায় রিফাতের বাবা দুলাল শরীফ বাদী হয়ে ১২ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৫ থেকে ৬ জনকে আসামি করে বরগুনা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।


সম্পাদনা: News Desk, নিউজরুম এডিটর

আমারসিলেট২৪.কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Place for advertisement
Place for advertisement

সর্বশেষ সংবাদ


সর্বাধিক পঠিত

এডিটর: আনিছুল ইসলাম আশরাফী, এনিমেটরস্ বাংলা মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক প্রকাশিত
সম্পাদকীয় কার্যালয়: কলেজ রোড, শ্রীমঙ্গল, মৌলভীবাজার।
Email: news.amarsylhet24@gmail.com Mobile: 01772 968 710

Developed By : i-Tech Sreemangal
Email : itech.official@hotmail.com
Facebook : http://facebook.com/itech.ctc