রায়হান হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার না করলে বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক

    0
    40

    সিলেটে প্রতিনিধিঃ  সিলেটে নগরীর বন্দর বাজার ফাঁড়িতে ‘পুলিশের নির্যাতনে’ মারা যাওয়া রায়হান আহমদ হত্যায় জড়িতদের ৭২ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেপ্তার করা না হলে হরতাল সড়ক অবরোধসহ বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক দেয়া হয়েছে।

    দুপরে নিহত রায়হান আহমদের পরিবার ও বৃহত্তর আখালিয়া এলাকাবাসীর উদ্যোগে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে একথা জানানো হয়। একইসঙ্গে এই সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ছয় দফা দাবিও জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে নিহত রায়হানের মা সালমা বেগমের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন রায়হানের মামাতো ভাই শওকত।

    দাবিগুলি হলো রায়হান হত্যাকাণ্ডে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন, রায়হান হত্যায় জড়িত পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আকবর ভূঁইয়াসহ দোষীদের দ্রুত গ্রেপ্তার, পলাতক এসআই আকবর ভূঁইয়াকে গ্রেপ্তারে আইজিপির নির্দেশ কামনা, পুলিশ কমিশনারের পক্ষ থেকে পূর্ণাঙ্গ বক্তব্য, নিহতের পরিবারকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ প্রদানে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন এবং ৭২ ঘণ্টার মধ্যে জড়িতদের গ্রেপ্তার না করলে হরতাল-সড়ক অবরোধসহ বৃহত্তর আন্দোলন।

    পুলিশের দাবি ছিনতাইকালে রায়হানকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রায়হানের বিরুদ্ধে মামলা আছে কিনা এ বিষয়ে প্রশ্ন করলে উত্তরে পরিবার জানায় রায়হানের বিরুদ্ধে কোনও মামলা নেই সে ভালো ছেলে।
    প্রসঙ্গত, গত ১১ অক্টোবর ভোরে নগরীর আখালিয়ার নেহারিপাড়ার যুবক রায়হান আহমদকে পুলিশ ফাঁড়িতে ধরে এনে নির্যাতন করা হয়।
    এরপর ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে ১২ অক্টোবর কোতোয়ালি থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। এরপর আকবরসহ চার পুলিশকে বরখাস্ত ও তিনজনকে প্রত্যাহার করা হয়। ১৩ অক্টোবর বিকেল থেকে আকবর পলাতক রয়েছেন। গত বৃহস্পতিবার রায়হানের মরদেহ কবর থেকে তুলে দ্বিতীবার ময়নাতদন্ত করে পিবিআই। ওই দিনই শেষে বিকেলে আখালিয়া নবাবী মসজিদ সংলগ্ন কবরস্থানে রায়হানের মরদেহ আবারও দাফন করা হয়।