যুদ্ধাপরাধীরা প্রার্থী হতে পারবে নাঃসংসদে বিল

    0
    33

    আমার সিলেট  24 ডটকম,অক্টোবরআন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল আইনের অধীনে সংঘটিত অপরাধে দন্ডিত যে কোন ব্যক্তিকে  সংসদ নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণা, জামানতের টাকা বৃদ্ধি নির্বাচনী ব্যয়ের সীমা বৃদ্ধিসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে বিধান করে সংসদে গণপ্রতিনিধিত্ব (সংশোধন) বিল-২০১৩ পাস করা হয়েছে। আজ সোমবার বিকেলে আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী ব্যারিষ্টার শফিক আহমেদ বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন। বিলে সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী জামানত ১০ হাজার টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ২০ হাজার টাকায় উন্নীত করে নগদ অথবা ব্যাংক ড্রাপট, পে-অর্ডার বা ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে জমা দেয়ার বিধান হয়েছে।

    এছাড়া বিলে যে কোন নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলের একাধিক প্রার্থী মনোনয়ন দেয়া হলে সে ক্ষেত্রে আগে মনোনয়ন পত্র জমাদানকারী বৈধ একটি মনোনয়ন পত্র গ্রহণ করার বিধান করা হয়েছে। পাশাপাশি প্রার্থীর নির্বাচনী ব্যয় ১৫ লাখ টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ২৫ লাখ টাকায় উন্নীত করা, দলীয় প্রধানের দেশের বিভিন্ন স্থানে ভ্রমণ ব্যয় নির্বাচনী খরচের আওতা বহির্ভূত রাখার বিধান করা হয়েছে।
    বিলে রাজনৈতিক দলের তহবিলে কোন ব্যক্তির দেয়া অনুদানের পরিমাণ ১০ লাখ টাকার পরিবর্তে ২৫ লাখ টাকা পর্যন্ত এবং কোন কোম্পানি বা সংস্থার ক্ষেত্রে তা ২৫ লাখ টাকার পরিবর্তে ৫০ লাখ টাকায় উন্নীত করার বিধান করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশনের চেয়ারম্যানকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও অন্যান্য সদস্যকে নির্বাচন কমিশনার হিসেবে বিলে উল্লেখ করার বিধান করা হয়েছে।
    বিলে নির্বাচন কমিশন প্রয়োজন মাফিক সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বদলি কার্যকর করার বিধান করা হয়েছে এবং নির্বাচনী মামলা দায়ের করার জন্য ২ হাজার টাকা ফি থেকে বৃদ্ধি করে ৫ হাজার টাকা করার বিধান করা হয়েছে।
    এছাড়া আজকের  সংসদে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, শিক্ষা মন্ত্রণালয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ৪টি পৃথক রিপোর্ট উপস্থাপন করা হয়। রিপোর্ট ৪টি উপস্থাপন করেন কমিটিগুলোর সভাপতি যথাক্রমে আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, রাশেদ খান মেনন, নিলুফার জাফর উল্লাহ এবং এ বি এম আনোয়ারুল ইসলাম ।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here