মৌলভীবাজারে কিশোরী ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার

0
18

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ ৮ মার্চ সোমবার আন্তর্জাতিক নারী দিবসের আসন্ন লগ্নের আগের  দিন বিকেলে বাড়িতে একা থাকা তের বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা গেছে বাড়িতে একা রয়েছে এমন খবর জানতে পেরে তাদের পূর্বপরিচিত পার্শ্ববর্তী  বাজারের ব্যবসায়ী বাবুল মিয়া (২৮) নামের এক যুবক মেয়েটিকে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ উঠলে পুলিশ অভিযুক্ত যুবককে অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করে আদালতে প্রেরণ করেছে বলে পুলিশ সুত্রে যানা গেছে।

ধর্ষণে গুরুতর আহত ওই কিশোরী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মৌলভীবাজার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) পরিমল দেব।

স্থানীয় ও পুলিশ সুত্রে জানা যায়, রক্তাক্ত অবস্থায় আহত কিশোরীকে উদ্ধার করে প্রথমে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যান স্থানীয়রা। পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

মৌলভীবাজার-২৫০ শয্যা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ আহমদ ফয়সল জামান বলেন, রোববার ৭ মার্চ সন্ধ্যার পর ধর্ষণের শিকার মেয়েটি গুরুতর অবস্থায় হাসপাতালে আসে। তখন তার প্রচণ্ড রক্তকরণ হচ্ছিলো। আমাদের চিকিৎসকেরা রক্তক্ষরণ বন্ধ করার চেষ্টা করছিলেন। ঘণ্টা খানেক চেষ্টার পর রক্তক্ষরণ বন্ধ হয়। তবে তখন একটা জটিল অপারেশনের প্রয়োজন রয়েছে আমাদের পর্যাপ্ত সুযোগ না থাকায় সেটা এখানে সম্ভব ছিলো না। পরে রাত ১০টার মধ্যে তাকে হাসপাতালের অ্যাম্বুলেন্সে করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে তার অস্ত্রোপাচার হয়। তিনি আরও বলেন, ২৪ ঘণ্টা না গেলে আশঙ্কামুক্ত বলা যাবে না। আমরা খুঁজ নিয়েছি। সে এখন পর্যবেক্ষণে রয়েছে।

মৌলভীবাজার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়াছিনুল হক জানান, আসামী বাবুল মিয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছে। বুধবার তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।