মৌলভীবাজারের শাহ হেলাল উচ্চ বিদ্যালয়ের দুটি কক্ষের দেয়ালে ফাটল : ক্লাস বন্ধ

    0
    8

    মৌলভীবাজারের শাহ হেলাল উচ্চ বিদ্যালয়ের দুটি কক্ষের দেয়ালে ফাটল : ক্লাস বন্ধ  

    মৌলভীবাজারের শাহ হেলাল উচ্চ বিদ্যালয়ের দুটি কক্ষের দেয়ালে ফাটল : ক্লাস বন্ধ
    মৌলভীবাজারের শাহ হেলাল উচ্চ বিদ্যালয়ের দুটি কক্ষের দেয়ালে ফাটল : ক্লাস বন্ধ

    মৌলভীবাজার, ২৯ এপ্রিল : মৌলভীবাজারের শাহ হেলাল উচ্চ বিদ্যালয়ের পুরনো ভবনের দ্বিতলার দুটি কক্ষের দেয়ালে প্রায় ১০টি স্থানে ফাটল দেখা দিয়েছে। এ কারণে সপ্তাহ ধরে ওই দুইটি কক্ষে ক্লাস নেয়া বন্ধ রয়েছে। স্কুল কতৃপক্ষ বলছেন, ইঞ্জিনিয়ারের পরামর্শ অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তবে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাকে বিষয়টি জানানো হয়নি। শাহ হেলাল উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৯টি ক্লাসরুমে ষষ্ঠ শ্রেণি থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত ১২০০ ছাত্রছাত্রী লেখাপড়া করে। সম্প্রতি ভূমিকম্পের সময় স্কুলের পূর্বদিকের পুরনো দ্বিতলা ভবনের দুটি কক্ষে ফাটল দেখা দেয়। ফাটল দেয়া ভবনটি ৮০ সালের দিকে নির্মাণ করা হয় কোন প্ল্যান ছাড়াই। এই দুইটি কক্ষে ষষ্ঠ শ্রেণির চারটি শাখার ক্লাস চলতো। স্কুল  কতৃপক্ষ ফাটলের বিষয়টি প্রথমে আমলে না নিলেও সপ্তাহ খানেক পূর্বে কয়েকটি স্থানে আরও ফাটল দেখা দিলে তারা ক্লাস নেয়া বন্ধ করে দেয়।
    খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এ স্কুলের আরও পাঁচটি ভবন পরিত্যক্ত রয়েছে। বর্তমানে এগুলি স্টোর রুমসহ অন্যকাজে ব্যবহৃত হচ্ছে। কিন্তু স্কুলের সান্মাষিক ও বার্ষিক পরীক্ষা চলাকালীন ঝুঁকি নিয়ে এসব কক্ষেও ক্লাস নেয়া হয়। 
    বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মতিন খাঁন জানান, ফাটলের কারণে সপ্তাহ খানেক আগে থেকে ওই দুইটি কক্ষে ক্লাস নেয়া বন্ধ রাখা হয়। বর্তমানে শিক্ষার্থীদেরকে অন্যত্র ক্লাস নেয়া হচ্ছে। বিদ্যালয়ের ম্যানিজিং কমিটির সদস্য আব্দুল আজিজ জানান, তারা এবিষয়ে ইঞ্জিনিয়ারের সঙ্গে কথা বলেছেন। এখন তার পরামর্শ অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে। 
    শাহ হেলাল উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানিজিং কমিটির সভাপতি সৈয়দ আবু শাহজাহান জানান, ফাটলের খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে ক্লাস নেয়া বন্ধ রাখার জন্য প্রধান শিক্ষককে বলেছি।
    মৌলভীবাজার জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আব্দুল মজিদ জানান, ফাটলের বিষয়টি তাকে বিদ্যালয় কতৃপক্ষ জানায়নি। তবে এখন তিনি সরেজমিন পরিদর্শন শেষে ইঞ্জিনিয়ারের সঙ্গে পরামর্শ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানান শিক্ষা কর্মকর্তা।

    কমলগঞ্জে তক্ষকসহ একই পরিবারের ৩ জন আটক

    কমলগঞ্জে তক্ষকসহ একই পরিবারের ৩ জন আটক
    কমলগঞ্জে তক্ষকসহ একই পরিবারের ৩ জন আটক

     কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার), ২৯ এপ্রিল : মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে বন্যপ্রাণী তক্ষকসহ একই পরিবারের তিনজনকে আটক করা হয়েছে। বন্যপ্রাণী আটকের অপরাধে আটককৃতদের ৫ হাজার টাকার অর্থদন্ডে দন্ডিত করেন কমলগঞ্জের ইউএনও।
    পুলিশ জানায়, আজ সোমবার সকাল ১০টার দিকে কমলগঞ্জ পৌর এলাকার নছরতপুর গ্রামের সিএনজি চালক জালাল মিয়ার বাড়িতে বন্যপ্রাণী তক্ষক বিকিকিনি করছিল একটি চক্র। তক্ষক বিক্রির গোপন সংবাদ পেয়ে কমলগঞ্জ থানার উপ পুলিশ পরিদর্শক চম্পক ধাম-এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে একটি তক্ষক উদ্ধার করেন। এ সময় পুলিশ বাড়ির মালিক জালাল মিয়া, তার স্ত্রী রোজিনা বেগম ও পুত্র সেলিম মিয়াকে আটক করেন। পরে কমলগঞ্জ থানার ওসি নিহার রঞ্জন নাথ আটককৃতদের কমলগঞ্জের ইউএনও জাহিদুল ইসলাম মিঞার নিকট হাজির করলে ভবিষ্যতে এ ধরনের কাজ করবে না মর্মে তারা অঙ্গিকার করলে ইউএনও তাদের পাঁচ হাজার টাকা অর্থ দন্ড করেন। পরে উদ্ধার হওয়া তক্ষক দুপুরে কমলগঞ্জের লাউয়াছড়া উদ্যানে অবমুক্ত করা হয়।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here