মেয়াদ শেষে দায়িত্ব আঁকড়ে থাকতে পারবেননা জনপ্রতিনিধিরা

    0
    12

    “মেয়াদ শেষ হলে আর কোন জনপ্রতিনিধি ক্ষমতা আঁকড়ে থাকতে পারবেন না। এজন্য আইন সংশোধন করা হচ্ছে। যাতে করে মেয়াদ শেষে জন প্রতিনিধিরা প্রশাসকের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করতে পারেন,শ্রীমঙ্গল পৌরসভার নির্বাচন প্রসঙ্গে সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ,স্থানীয় সরকার বিভাগ, স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়”

    নুর মোহাম্মদ সাগর,শ্রীমঙ্গলঃ  শ্রীমঙ্গলে উপজেলার সামগ্রিক উন্নয়নে সরকারি কর্মকর্তা জনপ্রতিনিধি,রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও সুধী সমাজের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে আজ শনিবার (৯ জানুয়ারি) সকাল ১১ টায় শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে শ্রীমঙ্গলের জেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে।সিলেট বিভাগের কমিশনার (অতিরিক্ত সচিব) এনডিসি মোঃ মশিউর রহমানের সভাপতিত্বে শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম এর উপস্থাপনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অনুমিত হিসাব সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটি ও বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সাবেক চিফ হুইপ বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব উপাধ্যক্ষ ড. মোঃ আব্দুস শহীদ এমপি।

    প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সিনিয়র সচিব, স্থানীয় সরকার বিভাগ, স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের হেলালুদ্দীন আহমেদ।

    বক্তব্য রাখছেন, সিনিয়র সচিব, স্থানীয় সরকার বিভাগ, স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের হেলালুদ্দীন আহমেদ।

    স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দিন আহমদ বলেছেন, “শ্রীমঙ্গল পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠান নিয়ে সরকার কাজ করছে। নতুন করে কোন আইনি জটিলতা সৃষ্টি না হলে খুব শিঘ্রই শ্রীমঙ্গল পৌরসভা নির্বাচন করা সম্ভব। তিনি বলেন, পৌরসভা এলাকা সম্প্রসারণ নিয়ে হাইকোর্টে একের পর এক রিট দায়েরের কারণে মেয়াদ উত্তীর্ণের ৭ বছর পেরিয়ে গেলেও এখানে নির্বাচন করা যায়নি। তিনি বলেন, দেশের যে সব পৌরসভায় বিরোধীদলের মেয়ররা দায়িত্বে রয়েছেন- দেখা গেছে সেসব পৌরসভার (প্রায় ১৬ টিতে) মেয়ররা ক্ষমতায় থাকার জন্য জটিলতা সৃষ্টি করছেন। মেয়াদ শেষ হলে আর কোন জনপ্রতিনিধি ক্ষমতা আঁকড়ে থাকতে পারবেন না। এজন্য আইন সংশোধন করা হচ্ছে। যাতে করে মেয়াদ শেষে জন প্রতিনিধিরা প্রশাসকের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করতে পারেন। সচিব শ্রীমঙ্গল পৌরসভা নিয়ে জেলা প্রশাসকদের গাফিলতিকে দায়ী করে বলেন, জেলা প্রশাসকরা মন্ত্রনালয়ে সঠিক রিপোর্ট না পাঠানোর কারনে আমরা মন্ত্রনালয় থেকে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারিনা।

    সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা ড আব্দুস শহীদ এর হাত থেকে উপহার গ্রহণ করছেন সচিব হেলালুদ্দিন আহমদ।

    তিনি বলেন, পৌরসভার পরিধি সম্প্রসারণ একটি দীর্ঘ প্রক্রিয়া। এর মধ্যে শ্রীমঙ্গল পৌরসভা নিয়ে উচ্চ আদালতের স্থগিতাদেশ থাকায় সম্প্রসারণ ও নির্বাচন দুটোই বিলম্ব হচ্ছে। তিনি আরও বলেন আপনারা আর কোন দরখাস্ত করবেননা তাহলে নির্বাচনের কাজ দ্রুত সম্পন্ন করা সম্ভব হবে।
    বিশেষ অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান, মৌলভীবাজার জেলার পুলিশ সুপার মোঃ জাকারিয়া, মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মৌলভীবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিছবাউর রহমান, মৌলভীবাজার জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খোদেজা খাতুন, শ্রীমঙ্গল পৌরসভার মেয়র মহসিন মিয়া, শ্রীমঙ্গল উপজেলা কমিশনার (ভূমি) নেছার উদ্দিন শ্রীমঙ্গল ও কমলগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার আশরাফুজ্জামান আশিক, শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুছ ছালেক, শ্রীমঙ্গল উপজেলা (ভারপ্রাপ্ত) চেয়ারম্যান প্রেম সাগর হাজরা, শ্রীমঙ্গল উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অর্ধেন্দু কুমার দেব ভেবুল, শ্রীমঙ্গল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সহিদ হোসেন ইকবাল।

    উপস্থিত অথিতিবৃন্দ ও  অন্যান্য ব্যক্তিবর্গ।

    এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন শ্রীমঙ্গল উপজেলা কমিশনার (ভূমি) নেছার উদ্দিন শ্রীমঙ্গল ও কমলগঞ্জের সহকারী পুলিশ সুপার আশরাফুজ্জামান আশিক, শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুছ ছালেক, শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবের সভাপতি বিশ্বজ্যোতি চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক ইমাম হোসেন সুহেল,শ্রীমঙ্গল অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি আনিসুল ইসলাম আশরাফীসহ শ্রীমঙ্গল উপজেলা প্রশাসন, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিক ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে শ্রীমঙ্গলের নৃতাত্তিক বিভিন্ন জনগোষ্ঠির শিল্পীরা নৃত্য ও সঙ্গীত পরিবেশন করেন।

    ছবির জন্য লিঙ্ক দেখুন-

    শ্রীমঙ্গলে সচিব হেলালুদ্দিন এর সাথে মতবিনিময় গ্যালারী